শনিবার , ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , ৬ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী
NEWSPOST24

নৈতিক ধর্মসাম্যই একমাত্র ধর্মহিংসা রোধ করতে পারে

নৈতিক ধর্মসাম্যই একমাত্র ধর্মহিংসা রোধ করতে পারে নৈতিক ধর্মসাম্যই একমাত্র ধর্মহিংসা রোধ করতে পারে
শওকত মুরাদ : সারাবিশ্বে ধর্মের নামে আকচাআকচি চলছে তা যতটা না ধর্মের কারনে তার চেয়েও বেশি গোষ্ঠী স্বার্থ এবং ধন সম্পদ,সাম্রাজ্যবাদ এর কারনে। এই... নৈতিক ধর্মসাম্যই একমাত্র ধর্মহিংসা রোধ করতে পারে

শওকত মুরাদ :

সারাবিশ্বে ধর্মের নামে আকচাআকচি চলছে তা যতটা না ধর্মের কারনে তার চেয়েও বেশি গোষ্ঠী স্বার্থ এবং ধন সম্পদ,সাম্রাজ্যবাদ এর কারনে। এই আকচা -আকচি কখনোই বন্ধ হবেনা,এমনকি সারা পৃথিবীর মানুষ এক ধর্মের ছাতার নিচে চলে আসলেও। তখনো একি ধর্মের ভিতরেও দল,উপদল রুচীর অনুসারী বিভিন্নতার কারনে এবং পরিবেশ ও প্রতিবেশের তারতম্য,সম্পদ বন্টনের ভৌগলিক বিপত্তিকর মধ্যস্তর সঠিক ভারসাম্য না থাকার বাস্তবতায় পরিবেশ এবং প্রতিবেশের শ্রেনী বৈষম্যের কারনে সংঘাত লাগতে বাধ্য।কারন দুর্বলের উপর সবলের আগ্রাসন মানুষের মজ্জাগত অনৈতিক আচরন।

এই ধর্মহিংসা প্রতিকারের একমাত্র উপায় সমগ্র মানবজাতিরর নৈতিক চরিত্রের ধর্ম একই ছাতার নিচে নিয়ে আসা,কারন একই আচার ধর্মের অধিকৃত করা বাস্তবে অসম্ভব হিসেবে প্রমাণিত। একই নৈতিক মানের উচ্চতায় মানব জাতিকে এক করা সম্ভব যদি তাদের সমাজপতিদের আচার ধর্ম ভিন্ন হলেও নৈতিক চরিত্র যদি শুদ্ধ করা যায়।

আমরা মানব ঘরে জন্ম নিয়ে প্রকৃত মানুষ হওয়ার জন্য যে সময়,যে শিক্ষা,যে জ্ঞান,যে বয়স লাগে তার আগেই ধর্মানুসারী হয়ে পরে অন্য ধর্মের প্রতি হিংসা এবং তাচ্ছিল্য শিখে বড় হতে থাকি,এবং সেটাকে স্বাভাবিক মনে করি।নৈতিক চরিত্রের মান শিখার আগে আচার ধর্ম শিক্ষা করি।কিন্তু নৈতিক চরিত্র শুদ্ধ নাহয়ে আচারসর্বস্ব ধর্মাচার কখনোই ফলপ্রসূ হতে পারেনা সেটা সকল ধর্মের মূল প্রাথমিক কথা।ভাল জমী ছাড়া ভাল ফসল আশা করা বোকামী।এবং আমাদের ধর্মশিক্ষার প্রধানতম দুর্বলতা এটাই যা আমরা তলিয়ে দেখিনা।একমাত্র "নৈতিক ধর্মসাম্য"যা কোরআনে "তৌহীদে আদ্য়্যান" বলা হয়েছে,তা দ্বারাই ধর্মহিংসা রহিত করা সম্ভব।কুরআন মতে নৈতিক ধর্মসাম্য হল সর্বধর্মের নৈতিক লক্ষ্যবস্তু এক এবং কোন ধর্ম একটা অপরটার নিকট হেয় নয়।

এই লিখাটার পোষকতায় ইসলাম ধর্মের কোরআন এবং নবী করিম (সাঃ) এর হাদীস এর উক্তি দিয়ে শেষ করলাম।কারন বিষয় টা অনেক বিশদ যা এখানে লিখা কষ্টসাধ্য এবং লম্বা লিখা পড়ার মত সময় এবং ধৈর্য্য এই চাকচিক্য ময় ফেসবুক দুনিয়ার মানুষের নেই।কেউ যদি এই নিবন্ধটি পুরাটা মন দিয়ে পড়ে উপকৃত হয় তাহলেই শ্রম স্বার্থক হবে।

(১)রাসূল করিম(দঃ) বলেনঃ-"আমি একমাত্র মানব জাতিকে চারিত্রিক(নৈতিক) মানের উচ্চ সোপানে অধিষ্ঠিত করার জন্য আদিষ্ট বা প্রেরীত হয়েছি"[ তফসিরে ইবনুল আরবী ৪র্থ পৃষ্ঠা,এহায়ায়ূল উলূম ৩য় খন্ড ৪২ পৃষ্ঠা মূল মিশকাত,মুসলিম,বোখারী ]

(২)"যাহারা খোদা বিশ্বাসী এবং যাহারা ইহুদী নাছারা(খৃষ্টান) বা ছাবেয়ীন,যেই হোক না কেন,যদি তাহারা আল্লাহ ও পরকালে বিশ্বাস করে এবং #সৎকার্য করে তাহার পুরষ্কার আল্লাহর নিকট রক্ষিত আছে।তাহাদের কোন ভয়ভীতি এবং অনুতাপ নাই[ ছুরা বাক্বারাঃ৬২ আয়াত ]

(৩)"তোমরা কি খোদার কোন কিতাব কে বিশ্বাস এবং কোন কিতাব কে অস্বীকার কর?তোমাদের মধ্যে এই রকম যাহারা করছ বা কর তাহারা সংসারে অপদস্থ এবং কেয়ামতের দিন কঠোর আজাবের দিকে প্রত্যাবর্তিত হইবে।আল্লাহ নিশ্চয় তোমরা যাহা করিতেছ তাহার সম্বন্ধে অবগত আছেন"[ছুরা বাক্বারাঃ৮৫ আয়াত]

(৪)যাহারা বলে বেহেস্তে নাছারা ও ইহুদী ছাড়া অন্য কেহ যাইতে পারিবেনা;ইহা তাহাদের মনগড়া কথা।বল হে মুহাম্মদ (দঃ) তোমরা যদি সত্য হও,তোমাদের সামনে প্রমান উপস্থিত কর[ছুরা বাকারাঃ১১১ আয়াত]

★এই আয়াত মতে মুসলমান যারা মনে করে তারাই বেহেস্তে যাবে আর কেউ যাবেনা,তারাও এই আয়াতের অন্তর্গত।

(৫)বরং ইহাই সত্য যে কেহই আল্লাহর দিকে প্রত্যাবর্তিত এবং #সৎকার্যানুরাগী হয়,তাহার জন্য খোদার নিকট পুরস্কার নিহিত"।[ছুরা বাক্বারাঃ১১২ আয়াত]

(৬)আমি(মুহাম্মদ)তোমাদের সংগে কাজকারবারে "আদল" বা বিচার সাম্য রক্ষা করিতে আদিষ্ট হইয়াছি।যেহেতু আল্লাহতালা আমাদের যেইরুপ পালনকর্তা #তদ্রুপ তিনি #তোমাদেরও পালন কর্তা।আমাদের কাজকর্ম,ধর্মাচরন আমাদের জন্য,তোমাদের কাজকর্ম ও ধর্মাচরন তোমাদের জন্য।আমাদের ও তোমাদের মধ্যে( ধর্ম নিয়ে) কোন "হুজ্জত" বা বিরোধ নাই।আল্লাহপাক একদা আমাদিগকে তৌহিদ বা অদ্বৈত সমাবেশ স্তরে একত্রিত করিবেন।যেহেতু সকলেই সেই সৃষ্টির মূলাধার জাতে পাকের দিকে প্রত্যাবর্তনশীল [ ছুরায়ে শুরাঃ১৫ আয়াত মতে নবীজীর কথা ]

(৬)"আমি বিশ্বাস করি খোদা বিদ্যমান আছেন।খোদার ফেরেশতা(কর্মকর্তার সূক্ষশক্তি,মালায়কা,সেইন্ট,দেব)#কিতাবসমূহ সত্য। #সমস্ত নবী বা প্রেরিত পুরুষগনের প্রতি বিশ্বাস রাখি।আমি নবী বা প্রেরিত পুরুষগনের মধ্যে কোন তারতম্য বা ভিন্নমত পোষন করিনা" [পাচ কলেমার এক কলেমা ঈমানে_মোজমাল ]   ।

Comments

comments

Scroll Up

Send this to a friend