শুক্রবার , ১৯শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , ৯ই সফর, ১৪৪০ হিজরী
NEWSPOST24
মার্কিন নৌঘাঁটির ৩০মাইল দূরে রুশ গোয়েন্দা জাহাজ মার্কিন নৌঘাঁটির ৩০মাইল দূরে রুশ গোয়েন্দা জাহাজ
সারাবিশ্ব : যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলের কানেকটিকাটে সাবমেরিন ঘাঁটির ৩০ মাইলের মধ্যে রাশিয়ার একটি গোয়েন্দা জাহাজকে অবস্থান করতে দেখা গেছে। রুশ সামরিক বাহিনীর যুদ্ধমান নানা... মার্কিন নৌঘাঁটির ৩০মাইল দূরে রুশ গোয়েন্দা জাহাজ

সারাবিশ্ব : যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলের কানেকটিকাটে সাবমেরিন ঘাঁটির ৩০ মাইলের মধ্যে রাশিয়ার একটি গোয়েন্দা জাহাজকে অবস্থান করতে দেখা গেছে। রুশ সামরিক বাহিনীর যুদ্ধমান নানা তৎপরতার মধ্যে সর্বশেষ এই ঘটনাটির মাধ্যমে মস্কো সদ্য দায়িত্ব নেয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বের সক্ষমতা পরীক্ষা করছে বলে মনে করা হচ্ছে।

এসএসভি-১৭৫ ভিক্টর লেনোভো নামের এ জাহাজকে বুধবার ডেলওয়ার অঙ্গরাজ্যের উপকূল থেকে ৭০ মাইল দূরে দেখা গিয়েছিল। বৃহস্পতিবার জাহাজটি আরও এগিয়ে এসে কানেকটিকাটের গ্রোটনের 'নিউ লন্ডন' নামের সাবমেরিন ঘাঁটি থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করে। নিউ লন্ডনকে মার্কিন সাবমেরিন শক্তির সদর দফতর হিসেবে পরিচিত। তবে আন্তর্জাতিক নৌ-সীমার মধ্যে  থাকা এ রুশ জাহাজের উপস্থিতি নিয়ে খুব বেশি উদ্বিগ্ন নয় বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল ভ্যালেরি হ্যান্ডারসন। তিনি বলেন, আমরা ভ্যাসেলটির উপস্থিতির বিষয়ে সজাগ রয়েছি। এটি বড় উদ্বেগের কারণ নয়, কিন্তু এর উপর আমরা নজর রাখছি। মুখপাত্র বলেন, জাহাজটি যুক্তরাষ্ট্রের নৌ-সীমার মধ্যে প্রবেশ করেনি। আমরা সব দেশের নৌচলাচলের স্বাধীনতার প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তবে সবাইকে আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই উপকূলীয় দেশগুলোর নৌ-সীমা অতিক্রম করতে হবে। এসএসভি-১৭৫ ভিক্টর লেনোভো জাহাজটি দৈর্ঘে তিনশ' ফুট এবং প্রস্থে সাড়ে ৪৭ ফুট লম্বা। এতে দুইশ' ক্রু রয়েছেন। এতে উচ্চ প্রযুক্তির ইলেক্ট্রোনিক গোয়েন্দা যন্ত্রপাতি এবং অস্ত্রসশস্ত্র, অত্যাধুনিক একে-৬৩০ কামান এবং ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। রাশিয়ার সঙ্গে গোপন যোগাযোগ থাকার অভিযোগে গত সোমবার রাতে মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদ থেকে জেনারেল মাইকেল ফ্লিনকে পদত্যাগ করতে বলেন ট্রাম্প। এরপরই মার্কিন উপকূলের কাছে রুশ গোয়েন্দা গোয়েন্দা জাহাজের উপস্থিতির ঘটনা ঘটায় চাঞ্চল্যের তৈরি হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিক রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কোনো মন্তব্য করেনি।

Comments

comments

Send this to a friend