শুক্রবার , ২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২১শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
NEWSPOST24

কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর ইন্তেকাল

কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর ইন্তেকাল কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর ইন্তেকাল
দর্পণ ডেস্ক : কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী আর নেই। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার ফোনিক্স এরিনা হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে... কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর ইন্তেকাল
দর্পণ ডেস্ক : কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী আর নেই। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার ফোনিক্স এরিনা হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। মোহাম্মদ আলীর পারিবারিক মুখপাত্র বব গানেল বলেন, বৃহস্পতিবার শ্বাসযন্ত্রের সমস্যার কারণে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। এরপর তিনি কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠছিলেন। কিন্তু এর মধ্যেই শুক্রবার দ্রুততম সময়ে অবস্থার অবনতি হয়ে রাতেই মারা যান তিনি। আলীর নামাজে জানাজা ও দাফন অনুষ্ঠিত হবে তার জন্মস্থান কেনটাকি রাজ্যের লুইভিল শহরে। লুইভিলে ১৯৪২ সালের ১৭ জানুয়ারি খ্রিস্টান দম্পতি রংমিস্ত্রি ক্যাসিয়াস মারকেলাস ক্লে ও গৃহিনী ওডিসা গ্র্যাডি ক্লের ঘরে জন্ম নেন আলী। বাবা নিজের নামে সন্তানের নাম রাখেন ক্যাসিয়াস মারকেলাস ক্লে জুনিয়র। ক্লে জুনিয়র ১৯৬০ সালে মাত্র ১৮ বছর বয়সে রোম অলিম্পিকে লাইট-হেভিওয়েটে সোনা জিতে খ্যাতির তালিকায় উঠে আসেন। এরপর ১৯৬৪ সালে ২২ বছর বয়সে তখনকার বিখ্যাত মুষ্টিযোদ্ধা সনি লিস্টনকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে তোলপাড় সৃষ্টি করেন ক্লে জুনিয়র। এরপর বাকিটা ইতিহাস। তিনিই প্রথম মুষ্টিযোদ্ধা হিসেবে তিনবার বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন হন। এখন পর্যন্ত তার এ রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারেনি। এদিকে প্রথমবার শিরোপা জয়ের পরপরই বোমা ফাটান ক্লে জুনিয়র। খ্রিস্টান এ বক্সার ঘোষণা দেন তিনি 'নেশন অফ মুসলিম' গোত্রের সদস্য। এরপর ক্লে জুনিয়রের নাম রাখা হয় ক্যাসিয়াস এক্স।কিন্তু তিনি মনে করতেন তার পদবি দাসত্বের পরিচায়ক। এ কথা জেনে কিছুদিন পর ক্যাসিয়াসের নাম বদলে দিয়ে তার নতুন নাম মোহাম্মদ আলী বলে ঘোষণা দেন 'নেশন অফ মুসলিম' প্রধান ডব্লিউ ডি মোহাম্মদ। পরে ১৯৭৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসলাম গ্রহণ করেন আলী। ১৯৮১ সালে পেশাদার বক্সিং থেকে অবসর নেয়ার আগে ৬১টি লড়াইয়ের মধ্যে ৫৬টিতে জেতেন আলী। অবসরে যাওয়ার তিন বছর পর ১৯৮৪ সালে তার পারকিনসন রোগ ধরা পড়ে। এরপর আমৃত্যু ৩২ বছর ধরে এ রোগে ভুগছিলেন তিনি। অসুস্থতার কারণে তিনি তেমন একটা জনসমক্ষে আসতেন না। গত এপ্রিলে পারকিনসন্স সেন্টারের সহায়তার জন্য অ্যারিজোনায় আয়োজন করা 'সেলেব্রিটি ফাইট নাইটে' সর্বশেষ জনসমক্ষে আসেন। মৃত্যুর আগের কয়েকটি বছর আলীর শারীরিক অবস্থার বেশ অবনতি হয়ে। ২০১৪ সালে নিউমোনিয়া ধরা পরে। গত বছর মুত্রাশয়ের সমস্যার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার শ্বাসকষ্টে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে আর জীবিত ফিরতে পারলেন না তিনি।

Comments

comments

Scroll Up

Send this to a friend