জন দুর্ভোগ

কুড়িগ্রামে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস: জনজীবনে দুর্ভোগ বেড়েছে

সাইফুর রহমান শামীম ,কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে গত ৩দিন ধরে তীব্র ঠান্ডা অব্যাহত থাকায় দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে মানুষের। সন্ধ্যা নামার আগেই ফাকা হয়ে যাচ্ছে বাজারসহ রাস্তাঘাট। জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা উঠানামা করছে ৫ থেকে ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াসে।

রোববার সকাল ৬ টায় জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এ অবস্থা বিরাজ করছে বিকেল ৪ টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত। দিনের বেলা সুর্য্যরে দেখা মিললেও কমছে না ঠান্ডার প্রকোপ। হার কাঁপানো ঠান্ডায় কাজে যেতে পারছে না শ্রমজীবি মানুষেরা। গরম কাপড়ের অভাবে নিন্ম আয়ের মানুষেরা খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছে।

সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকার নছিমন জানান, হামরা বৃদ্ধ মানুষ। খুব ঠান্ডা হাত-পা বের করতে পারিনা। কাপড় নাই, কেমন করে বাঁচি। শিশু ও বৃদ্ধরা আক্রান্ত হচ্ছে শীত জনিত নানা রোগে। হাসপাতাল গুলোতে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা।

কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎস ডাঃ শাহিনুর রহমান জানান, হাসপাতালে প্রতিদিনই শীত জনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৩০ জন শিশু ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। এছাড়াও অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছে আরো ১৮৫ জন রোগী। হাসপাতালে ডাক্তার সংকট থাকায় রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে জানান তিনি।

কুড়িগ্রাম আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম জানায়, আজ এ জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস।কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক খান মোঃ নুরুল আমিন জানান, গত ৩ দিন থেকে এ অঞ্চলে ঠান্ডার প্রকোপ বেড়ে গেছে। আমরা ইতিমধ্যে সরকারীভাবে ৫৩ হাজার ১শ ৮৫টি কম্বল বিতরন করেছি। শীতার্ত মানুষের জন্য আরো ৩০ হাজার কম্বল চাওয়া হয়েছে।

Comments

comments

আরো দেখুন

এমন আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Scroll Up
Close

Send this to a friend