বুধবার , ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং , ১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২১শে শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী
NEWSPOST24
টাকা দিয়ে নেতা বানালে দুঃসময়ে বাতি দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না : কাদের টাকা দিয়ে নেতা বানালে দুঃসময়ে বাতি দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না : কাদের
সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কোনো সিন্ডিকেট দিয়ে ছাত্রলীগ চলবে না। ছাত্রলীগ হবে সিন্ডিকেট মুক্ত। ছাত্রলীগ চলবে বঙ্গবন্ধুর... টাকা দিয়ে নেতা বানালে দুঃসময়ে বাতি দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না : কাদের

সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কোনো সিন্ডিকেট দিয়ে ছাত্রলীগ চলবে না। ছাত্রলীগ হবে সিন্ডিকেট মুক্ত। ছাত্রলীগ চলবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এবং শেখ হাসিনার নির্দেশে। মেধাবী, ত্যাগী ও চরিত্রবান নেতারা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে আসবে। আজ রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবাদুল কাদের এ কথা বলেন।

সম্মেলনে ছাত্রলীগের উদ্দেশে সেতুমন্ত্রী বলেন, টাকা-পয়সা দিয়ে চুক্তি করে অযোগ্যকে নেতা বানাবেন না। দলের দুঃসময়ে ওইসব নেতাদের হাজার পাওয়ারের বাতি দিয়েও খুঁজে পাবেন না। দলের জন্য ত্যাগী, যোগ্যদেরকেই নেতৃত্বে আনবেন। কারোর পকেট কমিটি দিলে চলবে না। আপনি এখন নেতা। যখন আপনি বিদায় নিবেন, তখন নতুনরা আপনাকে কী হিসেবে চিনবেন সেটা নিয়ে একটু ভাববেন।

কাদের বলেন, টাকা-পয়সা দিয়ে নেতা বানালে তারা আপনাদের দিকে চেয়েও তাকাবে না। আপনি বিদায় নিলে আপনার পেছনে শুধু আদর্শের কর্মীরাই থাকবে। ত্যাগী, মেধাবী ও চরিত্রবানরাই ছাত্রলীগের আগামী দিনের নেতৃত্বে আসবে। কোনো ধরণের অনুপ্রবেশকারী ও পরগাছা যেন নেতৃত্বে না আসতে পারে সেদিকে সজাগ থাকতে হবে।

ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে উদ্দেশে আওয়ামলী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তোমরা ছাত্রলীগকে নেতৃত্ব দিয়েছ। তোমাদের বলব, ভালো ও যোগ্য নেতৃত্ব বানিয়ে যাও, তাহলে সবাই তোমাদের মনে রাখবে। আগামী নির্বাচনে ভোটার বাড়াতে হলে যোগ্য, মেধাবী, সাহসী, চরিত্রবান নেতা দরকার।

কাদের বলেন, ‘আমি বর্তমান কমিটির অর্জনকে অস্বীকার করছি না। যারা সাবেক হবে, সব নেতাকে আমরা নেতা বানাব। সবাইকে আমরা উপকমিটিতে স্থান দিব। কেউ তাতে জায়গা না পেলে আমার সাথে কাজ করবে। লেগে থাকলে সফলতা আসবেই। কর্মীর মূল্যায়ন আওয়ামী লীগ করতে জানে।’

এর আগে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ২০ দফা দাবি নিয়ে স্মরণিকা ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। এ সময় ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে সান্ধ্যকালীন কোর্সসহ সব বানিজ্যিক বাতিলের দাবি জানান।

সম্মেলনের উদ্বোধকের বক্তব্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, সারা বাংলাদেশের ছাত্রলীগের কাছে রোল মডেল হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। তাই যারা নতুন নেতৃত্বে আসবে তাদের যোগ্যতার প্রমান দিতে হবে। সামনে নির্বাচনের বছর। এই নির্বাচনকে সামনে রেখে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ঢাবি ছাত্রলীগকে এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন বলেন, ছাত্রলীগকে যদি দেহের সাথে তুলনা করা হয়, তবে ঢাবি ছাত্রলীগ হবে সেই দেহের আত্মা। এই সম্মেলনের মধ্যে দিয়ে যারা নেতৃত্বে আসবেন তাদের উচিৎ হবে যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা-স্বার্বভৌমত্ব নিয়ে ষড়যন্ত্র করে, যারা বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিতে চায়, যারা বাংলাদেশকে নিয়ে আবার ১/১১ এর স্বপ্ন দেখে, তাদের ষড়যন্ত্রকে নস্যাত করে আগামী দিনের বাংলাদেশ গড়তে হবে।

সম্মেলনের শেষে সাইফুর রহমান সোহাগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান কমিটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম।

Comments

comments

Scroll Up

Send this to a friend