এক্সক্লুসিভচট্টগ্রামশীর্ষ সংবাদসারা বাংলা

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নুর আলম (২০), জুবায়ের (২০) ও হামিদ উল্লাহ (২০) নামে তিনজন নিহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে নুর আলম (২০) টেকনাফ মোছনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-ব্লকের আমির হোসেনের ছেলে, জুবায়ের (২০) এইচ ব্লকের ইউনুচের ছেলে ও হামিদ উল্লাহ (২০) ইমাম হোসেনের ছেলে।

শুক্রবার (৫ এপ্রিল) দিনগত রাত দেড়টার দিকে টেকনাফের মোচনী রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন হাবিবের ঘোনা পাহাড়ী এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’র এ ঘটনা ঘটে।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে চারটি দেশীয় তৈরি অস্ত্র ও ৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় টেকনাফ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) স্বপন, কনস্টেবল মেহেদী ও মং আহত হয়েছেন বলে দাবি পুলিশের।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, গোপন খবর পেয়ে শুক্রবার গভীর রাতে মোছনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ ব্লকের হাবিবের ঘোনা পাহাড়ের নিচে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়েই পাহাড়ের ভেতর থেকে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, চারটি এলজি,৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

ওসি আরও জানান, গুলিবিদ্ধ তিনজনকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহতদের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতরা দুর্ধর্ষ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী। তাদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা, অস্ত্রসহ পাঁচটি মামলা রয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

Comments

comments

আরো দেখুন

এমন আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Scroll Up
Close

Send this to a friend