তালাকনামায় স্বাক্ষর না করায় বউয়ের চুল কেটে দিলেন শাশুড়ি

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

তালাকনামায় স্বাক্ষর না করায় বগুড়ায় এক বধূকে (৩২) মারপিট ও নির্যাতনের পর চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে। শনিবার রাতভর নির্যাতনের পর রবিবার ভোরে ওই বধূ পালিয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় এক যুগ আগে বগুড়া সদর উপজেলার উত্তর লাহিড়িপাড়ার বেলাল হোসেনের কন্যার (৩২) সাথে একই এলাকার মধুমাঝিড়ার মৃত আজিজুল ইসলামের পুত্র আব্দুর রহিমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের পারিবারিক বিবাদ লেগে যায়। এর মধ্যে তাদের সংসারে দুটি ছেলে সন্তান জন্মগ্রহণ করে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এই বধূকে তার স্বামী তালাক দেয়ার কথা বলেন। একপর্যায়ে বধূ রাজি না হলে তার ননদ ও শাশুড়ি শনিবার রাতে তাকে ঘরে আটকে রাখেন। এরপর তালাকনামায় স্বাক্ষর নিতে জোর করেন। স্বাক্ষর না করায় তাকে মারপিট নির্যাতনের একপর্যায়ে তার মাথার চুল কটে দেন তারা। রবিবার ভোরে সুযোগ পেয়ে এই বধূ ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানেই তার চিকিৎসা চলছে।

এই বধূর চাচাতো ভাই রুবেল আহম্মেদ জানান, নির্যাতনের পর আমার বোনের মাথার চুল কেটে দিয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের দাগ রয়েছে।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম বদিউজ্জামান জানান, ঘটনা শুনেছি। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বগুড়া সদর উপজেলার লাহিড়িপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাফতুন আহম্মেদ জানান, এক বধূকে মারপিট ও চুল কেটে দেয়ার ঘটনা শুনেছি। তাদের বিয়েটা নিজেদের আত্মীয়ের মাঝে হয়েছিল।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments