মহামারি সামলে দুর্নীতির দিকে নজর দিতে চান স্বাস্থ্যের ডিজি

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

এই মুহূর্তে মহামারি সামাল দেওয়া প্রধান কাজ। মহামারিকে প্রথম গুরুত্ব দেওয়া হবে। এরপর নজর দেওয়া হবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দুর্নীতির ওপর।

সোমবার (২৭ জুলাই) বিকেল পৌনে চারটায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম যোগ দেওয়ার দ্বিতীয় দিন সাংবাদিকদের সঙ্গে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, অতিমারিতে (মহামারিতে) আমরা আছি। এ সময়ে যেকোনো সময় আগের পরিকল্পনা কিংবা চিকিৎসা পদ্ধতি পরিবর্তন হতে পারে। আমাদের আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে বা কমবে এটার ওপর নির্ভর করে আমাদের পরিকল্পনা এগিয়ে নিতে হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমন্বয়হীনতা রয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে মহাপরিচালক বলেন, আমরা চেষ্টা করব স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের সুসম্পর্ক কীভাবে বজায় রেখে একসঙ্গে কাজ করা যায়। সেদিকে আমার নজর রেখেই কাজ করব।

অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ বলেন, আজ সকালে সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শাজাহান খানের মেয়ে ঐশী খান সশরীরে উপস্থিত থেকে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) টেস্টের রিপোর্ট সম্পর্কে অভিযোগ দায়ের করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে। আমরা সঙ্গে সঙ্গেই তিন সদস্যের কমিটি করেছি। অল্পদিনের মধ্যেই রিপোর্ট জমা দেবে। এতে যদি দেখা যায়, এর সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কেউ জড়িত থাকে তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন মহাপরিচালক নিজের পরিকল্পনা সম্পর্কে বলেন, এই মুহূর্তে দেশের অনেক জেলা বন্যায় ভেসে গেছে। সমস্ত বানভাসি মানুষদের কী করে স্বাস্থ্য বিষয়ে সাহায্য করা যায় সে বিষয়েও সকালে আলোচনা করেছি। বর্তমান সময়ে মহামারি ও বন্যা মোকাবিলা প্রধান কাজ। এ দুটো বিষয়কেই প্রাধান্য দিয়ে কাজ করব। পরে পর্যায়ক্রমে অন্যান্য বিষয় নিয়ে কাজ করা হবে।

এসময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক (উন্নয়ন ও পরিকল্পনা) সামিয়া তাহমিনা ঝোরা উপস্থিত ছিলেন।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments