ভোলায় লঞ্চ-ফেরি চলাচল বন্ধ, জোয়ারে ডুবে গেছে পল্টুন

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

নিন্মচাপের প্রভাবে আজ সকাল থেকে ভোলায় বৈরী আবহাওয়ার বিরাজ করছে। নদীতে জোয়ারের পানিতে প্রবল স্রোত ও ঝড়বাতাসের আঘাতে ডুবে গেছে ইলিশা লঞ্চঘাটের পন্টুন। বৈরী আবহাওয়ার কারণে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ভোলা-লক্ষ্মীপুর ও ভোলা-বরিশাল রুটের লঞ্চ এবং ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তবে আবহাওয়া ভালো হলে ফেরি চলাচল শুরু হবে।

ইলিশা লঞ্চঘাটের পন্টুন ডুবে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ভোলা বিআইডব্লিটিএ উপ-পরিচালক মো: কামরুজ্জামান জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে নদী উত্তাল থাকায় আজ বুধবার সকাল ৮টা থেকে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে ফেরি ও ভোলা-বরিশাল-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ফেরি চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে আবহাওয়া ভালো হলে ফেরি চলাচল শুরু হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে উত্তাল হয়ে ওঠা মেঘনা নদীর অতিজোয়ার ফের আঘাত হানে ভোলা সদর উপজেলার সাজিকান্দি পয়েন্টের বন্যা নিয়ন্ত্রন বেড়িবাঁধে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে শতাধিক শ্রমিক গত রাত থেকে বাধঁ রক্ষায় কাজ করছে। প্রতিবারেই বাধের ধসে যাওয়া অংশ মেরামত করলেও অতিজোয়ারের সময় তা ধসে মেঘনার পানি প্রবেশ করে প্লাবিত হচ্ছে নিকটবর্তী গ্রাম।

পানি উন্নবোর্ডের তত্বাবধায়ক আব্দুল হান্নান জানান, তারা এখন বালি ভর্তি জিও টেক্সটাইল টিউব ডাম্পিং করে পানি প্রবেশ বন্ধ করার চেস্টা করছেন।

এছাড়া মেঘনার অতিজোয়াওর জেলার অন্তত ৩০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া প্লাবিত হয় ২১টি চর। পানিবন্দি ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের জন্য ২০০ মেট্রিক টন চাল, ৬ লাখ টাকা ও শুকনো খাবার বিতরণ কার্যক্রম চলছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিক।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments