বন্যায় ভেঙে পড়েছে যোগাযোগ, দুর্ভোগে সিলেটবাসী

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় সিলেটের ৫১২ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

জানা গেছে, সিলেটে এলজিইডির আওতাধীন সাড়ে ৭ হাজার কিলোমিটার সড়ক রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম দুই দফা বন্যায় জেলার তিন উপজেলার কিছু সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। পরে তৃতীয় দফা বন্যায় নয়টি উপজেলায় সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে পুরো জেলায় ৫১২ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এছাড়া সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের অধীন সড়ক-মহাসড়কও ক্ষতি হয়েছে। তবে এসব সড়ক ইতোমধ্যেই সংস্কার করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

সওজ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী রিতেশ বড়ূয়া বলেন, বন্যায় সওজের অধীন সড়ক-মহাসড়কে বেশি ক্ষতি হয়নি। তবে সামান্য যে ক্ষতি হয়েছে, সেই স্থানগুলোতে তাৎক্ষণিক সংস্কার করা হয়েছে।

সিলেট জেলায় সবচেয়ে বেশি সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সীমান্তবর্তী উপজেলা গোয়াইন ঘাটে। তিন দফা বন্যায় এ উপজেলার ১৬৫ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি প্রধান সড়কও রয়েছে। বিশেষ করে উপজেলা সদর থেকে রাধানগর হয়ে জাফলং পর্যন্ত সড়ক ভেঙে একাকার হয়ে গেছে। সরে গেছে সেতুর সংযোগ সড়কও। এছাড়া সালুটিকর-গোয়াইঘাট সড়ক, সারি-গোয়াইঘাট, বঙ্গবীর-বিছনাকান্দি সড়কসহ আরও বেশ কয়েকটি প্রধান সড়কও বন্যায় ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দলিল লেখক রাসেল আহমদ সিরাজী বলেন, তিন দফা বন্যায় উপজেলার আঞ্চলিক সড়কগুলোর বেশিরভাগ সড়কই ক্ষতি হয়েছে। বন্যার পানি নামার পর থেকেই ভোগান্তিতে পড়েছেন জনসাধারণ। দ্রুত এসব সড়ক সংস্কার করা না হলে দুর্ভোগ আরও বাড়বে।

এলজিইডি সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের তালিকা তৈরি করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে কিছু সড়ক চলাচলের উপযোগী করা হচ্ছে। বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই টেন্ডারের মাধ্যমে দ্রুত সংস্কার কাজ করা হবে। এছাড়া করোনার কারণে গত অর্থবছরের অনেক সড়কই সংস্কার করা সম্ভব হয়নি।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments