Logo
শিরোনাম

১০টি দৈনিক পত্রিকার ঘোষণাপত্র বাতিল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দীর্ঘদিন ধারাবাহিকভাবে বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে প্রকাশিত ৯টি দৈনিক বাংলা পত্রিকা ও একটি ইংরেজি দৈনিক পত্রিকার ঘোষণাপত্র বাতিল করা হয়েছে।

ঘোষণাপত্র বাতিল করে ঢাকার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের স্বাক্ষরে গত ৮ সেপ্টেম্বর একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার এক সরকারি তথ্য বিবরণীতে এ কথা জানানো হয়েছে।

গণ আওয়াজ, দৈনিক জনসেবা, ঢাকা প্রকাশ, জাতির কণ্ঠ, কিষাণ, এই দেশ এই দিন, পূর্ব আলো, সময়ের পাতা ও রিপোর্টার এবং ইংরেজি দৈনিক দি ফাইনান্সিয়াল ডেইলির ঘোষণাপত্র বাতিল করা হয়েছে।

১৯৭৩ সালের ছাপাখানা ও প্রকাশনা (ঘোষণা ও নিবন্ধন) আইনের ৯(১) এর (৩)(ক) ধারা এবং পত্রিকাগুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে চুক্তিপত্রের শর্ত না মানার কারণে একই আইনের ১০ ধারা অনুযায়ী পত্রিকাগুলোর ঘোষণাপত্র বাতিল করা হয়েছে।


আরও খবর



গণমাধ্যম বিকশিত হলে রাষ্ট্র উপকৃত হবে : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২০ আগস্ট ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, "গণমাধ্যম ও সাংবাদিকদের কল্যাণে শেখ হাসিনা অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। শেখ হাসিনার আমলে গণমাধ্যম মুক্ত বিহঙ্গের মত উন্মুক্ত দিগন্তে বিচরণ করে মতামত প্রকাশ করছে। এখন দাপ্তরিকভাবে কোথাও কোন সংবাদ সেন্সর করা হয় না। এর অর্থ শেখ হাসিনা চান গণমাধ্যম বিকশিত হোক। গণমাধ্যম বিকশিত হলে রাষ্ট্র উপকৃত হবে।"

শুক্রবার (২০ আগস্ট) পিরোজপুর সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে করোনাকালীন (২য় পর্যায়) ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, "করোনাকালে শেখ হাসিনা সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর পরিসর বাড়িয়েছেন। সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে এ বেষ্টনীতে অন্তর্ভুক্ত করেছেন।  সম্মুখ সারির যোদ্ধা হিসেবে তিনি গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের অত্যন্ত গুরুত্ব দেন। করোনা সংকটের মধ্যে সাংবাদিকদের জীবন বাজি রেখে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। কঠিনকে ভালোবাসার নাম সাংবাদিকতা। এজন্য প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রতি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।"

এসময় তিনি আরো বলেন, "শেখ হাসিনা সরকার সংবাদমাধ্যমের গলা টিপে ধরার প্রবণতায় বিশ্বাস করে না। সংবাদমাধ্যমের গঠনমূলক সমালোচনা আমাদের এগিয়ে যেতে সহায়তা করে। আমি নিজেকে সংবাদমাধ্যমের অংশ মনে করি। আমি যতদিন এমপি-মন্ত্রী আছি শুধু ততদিন না বরং সাধারন মানুষ হিসেবে গণমাধ্যমের সাথে আন্তরিকতা, মমতা ও ভাতৃত্বের বন্ধন সব সময় রক্ষা করবো।"

কাউকে ছোট করার জন্য নিউজ করার চেয়ে বস্তুনিষ্ঠ নিউজ করা অনেক প্রয়োজন বলে এ সময় মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

শ ম রেজাউল করিম আরো রোগ করেন, "দেশের উন্নয়নে, শান্তি সুপ্রতিষ্ঠায় সামাজিক বলয়কে শিষ্টাচারপূর্ণ রাখার জন্য সবাইকে দায়িত্ববোধ থেকে এগিয়ে আসতে হবে।"

পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান ও পিরোজপুর প্রেস ক্লাবের আহ্বায়ক গৌতম নারায়ণ রায় চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য কামরুজ্জামান খান শামিম, পিরোজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান ফুলু ও সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহাসান গাজীসহ পিরোজপুরের আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও  পিরোজপুর প্রেস ক্লাবের প্রাক্তন নেতৃবৃন্দ এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে পিরোজপুর জেলা কারাগার কর্তৃপক্ষ আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে অংশ নেন মন্ত্রী।



আরও খবর

১০টি দৈনিক পত্রিকার ঘোষণাপত্র বাতিল

মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১




কাবুল বিমানবন্দরে এক বোতল পানির দাম ৩৫০০ টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কাবুল বিমানবন্দরের করুণ ছবি উঠে এসেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে। বিমানবন্দরের চারদিকে কেবলই আশাহীন মানুষের ছোটাছুটি। রোদ-গরমে ক্লান্ত, ক্ষুধার্ত ও তৃষ্ণার্ত মানুষ রয়েছেন বিরামহীন অপেক্ষায়। মানুষের আস্থা-ভরসাও ভেঙে পড়তে শুরু করেছে। শারীরিক ভাবে দুর্বল হয়ে পড়ছেন অনেকেই।

পরিস্থিতি এতোটাই খারাপ হয়েছে যে, কাবুল বিমানবন্দরের আশপাশে এক বোতল পানি বিক্রি হচ্ছে ৪০ মার্কিন ডলারে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৩ হাজার ৫০০ টাকা। এছাড়া এক প্লেট ভাতের মূল্যও চাওয়া হচ্ছে ১০০ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৮ হাজার ৫০০ টাকারও বেশি। বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

খাবার ও পানির উচ্চ মূল্যে কার্যত দিশেহারা বিমানবন্দরে অপেক্ষারত মানুষেরা। এক আফগান নাগরিক দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টকে জানিয়েছেন, তিনি এক বোতল পানি কিনেছেন যার দাম পড়েছে ৪০ মার্কিন ডলারের মতো।

ফজল-উর-রেহমান নামে এক ব্যক্তি বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, কাবুল বিমানবন্দরে এখন এক বোতল পানি ৪০ মার্কিন ডলারে এবং এক প্লেট ভাত ১০০ মার্কিন ডলারে বিক্রি হচ্ছে। সেখানে আফগানি মুদ্রার বদলে কেবল মার্কিন ডলারে বেচাকেনা চলছে। এই উচ্চ মূল্যের কারণে সেখানে খাবার ও পানীয় এখন সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে।


আরও খবর



খালে গোসল করতে গিয়ে তিন কিশোরীর মৃত্যু, নিখোঁজ ১

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুর সদর উপজেলায় একটি খালে গোসল করতে নেমে তিন ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার ভাওয়াল মির্জাপুর উত্তর পানশাইল এলাকা থেকে নিখোঁজ দুই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরেক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় এখানো এক ছাত্রী নিখোঁজ রয়েছে।

নিহতরা হচ্ছে- ওই এলাকার হায়েত আলীর মেয়ে ও পাইনশাইল মাদরাসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী আইরিন আক্তার (১৪), ভাওয়াল মির্জাপুর হাজী জমির হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী ও স্থানীয় মঞ্জুর আলমের মেয়ে মায়া বেগম (১৫) এবং স্থানীয় পানশাইল উত্তরপাড়া এলাকার মো. সোলায়মান মিয়ার বড় মেয়ে  ও ভাওয়াল মির্জাপুর হাজী জমির হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রী সাদিয়া আক্তার রিচি (১৪)। এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছে সাদিয়া আক্তার রিচির ছোট বোন শম্পা মডেল স্কুলের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী রিয়া (১০)।

শম্পা মডেল স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা শফিকুল ইসলাম জানান, দুপুর সোয়া ১২টার দিকে ওই চার ছাত্রী পাইনশাইল খালে গোসলে নামে। একপর্যায়ে খালের পানির স্রোতে রিচি গভীর পানিতে তলিয়ে যেতে থাকে। এ সময় তার সঙ্গীরা চিৎকার শুরু করে এবং তাকে উদ্ধারে নেমে তারাও পানিতে তলিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী গুরুতর অবস্থায় রিচিকে উদ্ধার করতে পারলেও অন্যদের সন্ধান পায়নি।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পারিচালক মো. আব্দুল হামিদ জানান, দুপুরে খবর পেয়ে টঙ্গী ফায়ার স্টেশন থেকে ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে তল্লাশি অভিযান শুরু করে। বিকেল সোয়া ৪টার দিকে খাল থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে একজন। এখনো একজনকে উদ্ধার করা যায়নি। তাকে উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর

আপনার আজকের দিন

রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১




গাইবান্ধায় পানিবন্দী ২৫ হাজার মানুষ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় এসব এলাকার অন্তত ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। বন্যার কারণে সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চরাঞ্চলের পাট, পটল, কাঁচামরিচ ও শাক-সবজির ক্ষেতসহ

কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে গাইবান্ধার সবগুলো নদ-নদীর পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্রের পানি ১৩ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপৎসীমার ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া তিস্তায় পানি কমলেও ঘাঘট ও করতোয়া নদীর পানি বিপৎসীমার কাছ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) সকালে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শোখলেছুর রহমান।

জানা গেছে, জেলার সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার মধ্যদিয়ে প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা ও যমুনা নদী বেষ্টিত ফুলছড়ি উপজেলার ফুলছড়ি, গজারিয়া, খাটিয়ামারী ইউনিয়নের চরাঞ্চল, যমুনা নদী বেষ্টিত সাঘাটা উপজেলার হলদিয়া, চিনিরপটল, পালপাড়া, পবনতাইড়, থৈকরপাড়া, বাঁশহাটা, চকপাড়া, মুন্সিরহাট, গোবিন্দ, নলছিয়া ও তিস্তা নদী বেষ্টিত এছাড়া সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর, তারাপুর, কাপাসিয়া, বেলকা, হরিপুর ও শ্রীপুর এবং সদর উপজেলার কামারজানি ও মোল্লারচর ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

এদিকে রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় এসব এলাকার অন্তত ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। বন্যার কারণে সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চরাঞ্চলের পাট, পটল, কাঁচামরিচ ও শাক-সবজির ক্ষেতসহ সদ্য রোপণকৃত আমন ক্ষেত তলিয়ে গেছে।

গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শোখলেছুর রহমান জানান, ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধ অব্যাহত থাকলে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ভেতরে নদ-নদী বেষ্টিত গাইবান্ধার ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সদর উপজেলার চরগুলোর বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।


আরও খবর



জনবান্ধব মানসিকতা নিয়ে দায়িত্ব পালনের আহ্বান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
স্বচ্ছতা, সততা ও দায়িত্বশীলতা নিয়ে কাজ করতে হবে। গতানুগতিক চাকরি করার মাঝে কোন কৃতিত্ব নেই। চাকরিতে সৃজনশীলতা দেখানোর মধ্যে কৃতিত্ব আছে। সৃজনশীলভাবে নথি নিষ্পত্তি ও ব্যবস্থাপনায় কৃতিত্ব আছে। অহেতুকভাবে একটা প্রক্রিয়াকে জটিল করার প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে

জনবান্ধব মানসিকতা নিয়ে সরকারি দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

বুধবার (০৮ সেপ্টেম্বর) সকালে সচিবালয়ের নিজ দপ্তর কক্ষে সরকারের অতিরিক্ত সচিব পদে সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব এস এম ফেরদৌস আলমকে অভিনন্দন জ্ঞাপনে আয়োজিত সভায় মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের এ আহ্বান জানান মন্ত্রী ।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, স্বচ্ছতা, সততা ও দায়িত্বশীলতা নিয়ে কাজ করতে হবে। গতানুগতিক চাকরি করার মাঝে কোন কৃতিত্ব নেই। চাকরিতে সৃজনশীলতা দেখানোর মধ্যে কৃতিত্ব আছে। সৃজনশীলভাবে নথি নিষ্পত্তি ও ব্যবস্থাপনায় কৃতিত্ব আছে। অহেতুকভাবে একটা প্রক্রিয়াকে জটিল করার প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে

তিনি আরো যোগ করেন, মন্ত্রণালয়ে অর্পিত দায়িত্ব পালনে জনবান্ধব মানসিকতা ধারণ করতে হবে। নিজের কাজ যেন কোন বিষয়ে অহেতুক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করে, সেটা খেয়াল রাখতে হবে। আইনের মধ্যে থেকে কীভাবে দাপ্তরিক কাজ সহজ করা যায় সে বিষয়ে সচেষ্ট হতে হবে। জনবান্ধব মানসিকতা, স্বচ্ছতার সাথে নথি নিষ্পত্তি করতে হবে। আন্তরিকতা, সততা, নিষ্ঠা এবং অনুভূতিতে দেশপ্রেম রেখে দায়িত্ব পালন করতে হবে

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ, অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার, সুবোল বোস মনি ও মোঃ তৌফিকুল আরিফ, সদ্য অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত এস এম ফেরদৌস আলম, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ এবং মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ অভিনন্দন জ্ঞাপন সভায় উপস্থিত ছিলেন।



আরও খবর

অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১