Logo
শিরোনাম

১৩ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ অক্টোবর ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে যুগোশ্লাভিয়ার বিখ্যাত নেতা মার্শাল টিটো সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের সেনা বাহিনীর সহায়তায় জার্মানীর দখলে থাকা যুগোশ্লাভিয়ার রাজধানী বেলগ্রেড মুক্ত করতে সক্ষম হন।

১৩ অক্টোবর গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ২৮৬তম (অধিবর্ষে ২৮৭তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ৭৯ দিন বাকি রয়েছে। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি

    খ্রিষ্টপূর্ব ৫৩৯ - ইরানে হাখামানেশিয় সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা সাইরাস ইরাকের ঐতিহাসিক বাবেল শহর দখল করে।

    ৬৩৫ - খালিদ বিন ওয়ালিদ সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক জয় করেন।

    ১৫৫৬ - মোগল সম্রাট আকবরের রাজত্বকালের সূচনা হয়।

    ১৭৭০ - তামার পয়সার বদলে আনির প্রচলন শুরু হয়।

    ১৭৯২ - মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হয়।

    ১৮১২ - কুইন্সটন হাইডমের যুদ্ধ শুরু হয়।

    ১৮১৫ - সিসিলির রাজা জোযামিন মোরাটের মুত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

    ১৮৮৪ - ওয়াশিংটন সম্মেলনে গ্রিনউইচ সার্বজনীন মেরুমধ্যরেখা হিসেবে গৃহীত হয়।

    ১৯২৩ - আঙ্কারাকে তুরস্কের নতুন রাজধানী ঘোষণা করা হয়।

    ১৯৩৭ - চীনের জাতীয় বিপ্লবী বাহিনীর নতুন চতুর্থ আর্মী প্রতিষ্ঠিত হয়।

    ১৯৪৩ - ইতালি জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

    ১৯৪৪ - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে যুগোশ্লাভিয়ার বিখ্যাত নেতা মার্শাল টিটো সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের সেনা বাহিনীর সহায়তায় জার্মানীর দখলে থাকা যুগোশ্লাভিয়ার রাজধানী বেলগ্রেড মুক্ত করতে সক্ষম হন।

    ১৯৪৬ - মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ও লর্ড ওয়াডেল এর ফলপ্রসূ আলোচনার পর নিখিল ভারত মুসলিম লীগ ওয়ার্কিং কমিটি কর্তৃক অন্তবর্তীকালীন কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থমন্ত্রীর পদে যোগদানের প্রস্তাব গ্রহণ করেন।

    ১৯৬২ - যুক্তরাষ্ট্রের অধীনে পানামা খাল অঞ্চল নতুন পানামা খালের সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার জন্যে একটি উদযাপনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

    ১৯৬৬ - শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ছয় দফা আন্দোলন চলাকালে প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান অস্ত্র প্রয়োগের ভয় দেখালে তিনি এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানান।

    ১৯৮৯ - আধুনিক বিশ্বের বৃহত্তম ব্রোঞ্জ বৌদ্ধ মূর্তি ২৬.৪ মিটার উঁচু থিয়েনথান বৌদ্ধমূর্তির নির্মাণকাজ হংকংয়ের তায়ুএ পাহাড়ে সমাপ্ত হয় ।

    ১৯৯০ - ভিয়েতনামের কমিউনিস্ট পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও তাত্ত্বিক লে দাক থো মৃত্যুবরণ করেন।

    ১৯৯১ - বাংলার প্রাচীন প্রেক্ষাগৃহ স্টার থিয়েটার আকস্মিক অগ্নিকান্ডে ভস্মীভূত হয়।

    ১৯৯৪ - মার্কিন রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র প্রমাণ করে যে, যুক্তরাষ্ট্রের সারাদেশে কমপক্ষে কয়েক হাজার লোক যুক্তরাষ্ট্রের একটি ব্যক্তিগত আইসক্রিম কোম্পানির উৎপাদিত আইসক্রিম খাওয়ার ফলে বিষক্রিয়ার ঘটনা ঘটে , কিন্তু কেউ মারা যায় নি ।

    ১৯৯৭ - পাঁচ দিনের সফরে বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জেমস টি উলফেনসন ঢাকা আগমন করেন।

    ১৯৯৯ - ভারতে হিন্দুত্ববাদী দলের নেতা অটল বিহারী বাজপেয়ী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন।

    ২০০১ - ভারতীয় সংসদ ভবনে আতঙ্কবাদী হামলা - সব আতঙ্কবাদী সমেত মোট ১৫ জনের মৃত্যু

    ২০০২ - বাঙালি মহীয়সী নারী এবং সংগ্রামী কৃষক নেত্রী ইলা মিত্র মৃত্যুবরণ করেন।

    ২০০৪ - ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি কার্ডিয়াক সেন্টারের যাত্রা শুরু হয়।

    ২০০৬ - শান্তিতে ড. মুহাম্মদ ইউনূস ও গ্রামীণ ব্যাংকের নোবেল পুরস্কার লাভ।

    ২০২০ - বাংলাদেশে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করে "নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) অধ্যাদেশ" জারি করা হয়।

 

জন্ম

    ১৮৬২ - পর্যটক ও লেখক মেরি কিংসলে জন্মগ্রহণ করেন।

    ১৮৯০ - কনরাড রিক্টার, মার্কিন ঔপন্যাসিক।

    ১৯১১ - অশোক কুমার, ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা।

    ১৯২৫ - মার্গারেট থ্যাচার, লৌহমানবী হিসেবে খ্যাত যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।

    ১৯৩৮ - হুগো ইয়াং, ইংরেজ সাংবাদিক ও লেখক।

    ১৯৪৮ - নুসরাত ফতেহ আলি খান, পাকিস্তানি কাওয়ালি সঙ্গীত শিল্পী।

    ১৯৭৯ - ওয়েস ব্রাউন, ইংরেজ ফুটবল খেলোয়াড়।

    ১৯৯৪ - লিটন দাস, বাংলাদেশী ক্রিকেটার।

 

মৃত্যু

    ১৮২২ - আন্তেনিও কানোভা, ইতালীয় ভাস্কর।

    ১৮৮২ - জোযেফ আর্থার গোবিনো, ফরাসী দার্শনিক ও লেখক।

    ১৯১১ - ভগিনী নিবেদিতা, (আসল নাম মার্গারেট এলিজাবেথ নোবেল), অ্যাংলো-আইরিশ বংশোদ্ভূত ভারতহিতৈষী সমাজকর্মী, লেখিকা, শিক্ষিকা এবং স্বামী বিবেকানন্দের শিষ্যা।

    ১৯৬৪ - প্রেমাঙ্কুর আতর্থী, কথাশিল্পী, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা।

    ১৯৬৪ - গোলাম মোস্তফা, বাঙালি কবি।

    ১৯৭১ - আবদুল মোনেম খান, পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর।

    ১৯৮৩ - অজিতেশ বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিনেতা, নাট্যকার ও নাট্য পরিচালক।

    ১৯৮৭ - কিশোর কুমার, ভারতীয় বাঙালি অভিনেতা ও গায়ক।

    ১৯৮৭ - অমলেন্দু বিশ্বাস, বাংলাদেশী যাত্রা অভিনেতা ও পরিচালক।

    ২০০২ - ইলা মিত্র, বাঙালি মহীয়সী নারী, তেভাগা আন্দোলনের নেত্রী।

    ২০০৬ - ভারতীয় বাঙালি ঔপন্যাসিক, ছোটোগল্পকার ও প্রাবন্ধিক প্রতিভা বসু।

    ২০০৭ - ওবায়েদ উল হক, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্রকার।

    ২০১৩ - জনপ্রিয় বাঙালি সাহিত্যিক চিত্তরঞ্জন মাইতি।

    ২০২০ - রশীদ হায়দার, একুশে পদক ও বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার বিজয়ী বাংলাদেশি লেখক, কথাসাহিত্যিক ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক, নজরুল ইনস্টিটিউটের সাবেক নির্বাহী পরিচালক।

 

ছুটি ও অন্যান্য

    আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস৷


আরও খবর

২৬ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১

২৫ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১




আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে গিয়ে গত কিছুদিন যাবৎ আবারও বাড়তে শুরু করেছে বলে সতর্ক বার্তা দিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম। এজন্য সবাইকেই সচেতন হতে হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত প্রথম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএফপিও) সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, আমরা দেখেছি যে গত কিছুদিনে করোনা সংক্রমণ একেবারেই কমে গিয়েছিল। কিন্তু এখন আবার সংক্রমণের হার বাড়ছে, আমাদের সাবধান হওয়ার এটিই সময়। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, করোনার প্রথম ঢেউয়ে ইউএইচএফপিওরা খুবই বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে কাজ করেছে। তারা খুবই দক্ষতার সঙ্গে কাজ করেছেন। যার ফলে দ্বিতীয় ঢেউয়ে তাদের মাধ্যমে সারাদেশেই করোনার চিকিৎসা দিয়েছি। এক্ষেত্রে প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিরা আমাদের সহযোগিতা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমাকে এমন একটা সময়ে এই দায়িত্বে নিয়ে আসা হয়েছে, আমি একদমই প্রস্তুত ছিলাম না। আমি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করছি। সুযোগ পেলেই সারাদেশে চষে বেড়িয়েছি।

 


আরও খবর

আরও ১৭৩ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

করোনায় মৃত্যু কমেছে, শনাক্ত বেড়েছে

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




কারাগার থেকে বার্তা দিলেন ইভ্যালির এমডি রাসেল

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেল কারাগারে থাকলেও গ্রাহকদের উদ্দেশে বার্তা থেমে নেই তার। সুযোগ পেলে ৪ মাসের মধ্যেই জটিলতা দূর করা সম্ভব বলে মনে করেন রাসেল।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) ইভ্যালির ভেরিফায়েড ফেসবুক ঠিকানা (ইভ্যালি ডটকম বিডি) থেকে একটি পোস্টের মাধ্যমে ইভ্যালি এ কথা বলেছে। আইনজীবীর মাধ্যমে ইভ্যালির এমডির কাছ থেকে বক্তব্যটি পাওয়া গেছে বলে ফেসবুক পোস্টে বলা হয়।

গ্রাহকদের উদ্দেশে ইভ্যালির ওই ফেসবুক পোস্টে বলা হয়েছে, সম্মানিত’সম্বোধন করে তাদের উদ্দেশে বলা হয়, বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে আপনারা সবাই অবগত। ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার অংশীদার হয়ে দেশের অনলাইন কেনাকাটাকে সবার হাতের মুঠোয় নিয়ে যেতে আমরা অবিরাম কাজ করে যাচ্ছি। এই কাজকে আমরা এগিয়ে নিতে চাই। সবার সহযোগিতায় ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চাই। এই সুযোগ পেলে সবার সব ধরনের অর্ডার ডেলিভারি দিতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ ছিলাম, আছি এবং থাকব।

ইভ্যালির কর্মচারীরা বর্তমান পরিস্থিতিতে অজ্ঞাতনামা হিসেবে শঙ্কার মধ্যে দিন পার করছেন বলে ইভ্যালির পক্ষ থেকে বলা হয়। উল্লেখ করা হয়, আমাদের সম্মানিত সিইও এবং চেয়ারম্যান কারাগারে থাকায় আমাদের ব্যাংকিংও সাময়িকভাবে বন্ধ। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের সার্ভারসহ, অফিসের খরচ চালানো এবং আমাদের কর্মচারীদের দায়িত্ব নেওয়ার বিষয়গুলোতে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

ইভ্যালির সার্ভার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করে বলা হয়, দ্রুত সার্ভার চালু করে দেওয়ার জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ফেসবুক পোস্টে ইভ্যালির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, গ্রাহক ও সেলারদের স্বার্থ সুরক্ষায় ইভ্যালি সর্বোচ্চ সচেষ্ট। দেশীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিশ্বদরবারে প্রতিষ্ঠিত হতে গ্রাহকদের সব সময় পাশে পেয়েছে ইভ্যালি। এই ভালোবাসায় আমরা চিরকৃতজ্ঞ। সামনের দিনগুলোতেও এভাবে আপনাদের পাশে চাই। আপনাদের ভালোবাসার শক্তি আমাদের অদম্য পথচলার প্রেরণা। ইভ্যালির পাশে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

প্রসঙ্গত,২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ইভ্যালির দায় ছিল ৪০৩ কোটি টাকা, যেখানে তাদের সম্পদ ছিল ৬৫ কোটি টাকা। গ্রাহকদের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় গত ১৬ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির এমডি মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। বর্তমানে তারা কারাবন্দি রয়েছেন। কারাগার থেকে গ্রাহকদের উদ্দেশে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।


আরও খবর



নুরের নেতৃত্বে নতুন রাজনৈতিক দল ঘোষণা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নতুন দল ঘোষণা করলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। নব গঠিত এ দলের নাম গণ অধিকার পরিষদ

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বেলা ১২টার দিকে রাজধানীর পল্টনের প্রিতম জামান টাওয়ারে অবস্থিত দলটির কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দলের নাম ঘোষণা করেন তিনি। এর মাধ্যমে অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বে নতুন একটি রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ ঘটল।

নতুন দলের আত্মপ্রকাশের সময় ড. রেজা কিবরিয়াকে আহ্বায়ক এবং নুরুল হক নুরকে সদস্য সচিব করে দলটির ১০১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটির বিভিন্ন পদে রয়েছেন ছাত্র, যুব, শ্রমিক অধিকার পরিষদের বর্তমান-সাবেক নেতাদের অনেকেই।

দলটির আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রাশেদ খাঁন, সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, আবু হানিফ, ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা, যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ আতাউল্লাহ, শ্রমিক অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুর রহমান প্রমুখ।

গন অধিকার পরিষদের স্লোগান জনতার অধিকার, আমাদের অঙ্গীকার’। এই স্লোগানকে সামনে রেখে দলটির মূলনীতি ঠিক করা হয়েছে চারটি। এগুলো হলো- গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার, অধিকার ও জাতীয় স্বার্থ।


আরও খবর



৭ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানকে ১৫২ রানের টার্গেট দিল ভারত

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়তে পারেনি ভারত। ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫১ রান তুলতে সক্ষম হয় বিরাট কোহলিরা।

রোববার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে টস জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠায় পাকিস্তান।

প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে পড়ে যায় ভারত। মাত্র ৬ রানে দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলের উইকেট হারায় তারা। পাকিস্তানের পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন রোহিত। লোকেশ রাহুলকে বোল্ড করেন এই তরুণ পেসার।

২.১ ওভারে ৬ রানে দুই ওপেনার আউট হওয়ার পর দলীয় ৩১ রানে ফেরেন চার নম্বর পজিশনে চ্যাটিংয়ে নামা সুরাইয়া কুমার যাদবও।

প্রথম সারির ৩ ব্যাটসম্যান আউট হওয়াতে চাপের মধ্যে পড়ে যায় ভারত। দলকে খেলায় ফেরাতে চেষ্টা করে যান অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

চতুর্থ উইকেটে ঋষভ পন্থকে সঙ্গে নিয়ে ৫৩ রানের ‍জুটি গড়েন কোহলি। ৩০ বলে ৩৯ রান করে শাদাব খানের বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ঋষভ পন্থ।

ছয় নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে হাসান আলীর বলে ক্যাচ তুলে দেওয়ার আগে ১৩ বলে মাত্র ১৩ রান করার সুযোগ পান রবিন্দ্র জাদেজা।

এরপর হার্দিক পান্ডিয়াকে বেশি সময় সঙ্গ দিতে পারেননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৪৯ বলে ৫টি চার ও এক ছক্কায় ৫৭ রান করে ফেরেন তিনি।​​​​​


আরও খবর

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে পেছাল বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

কোম্যানকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




বলিউড নিয়ে বিস্ফোরক মহিমা

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সম্প্রতি মুখ খুললেন মহিমা চৌধুরী। সুভাষ ঘাইয়ের পরদেশ ছবির নায়িকা স্পষ্টভাষী। বলিউড সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে তাঁর দাবি, আগে ধারণা ছিল, নায়িকা মানেই কুমারী হতে হবে। কোনও পুরুষ তাঁকে ছুঁতে পারবে না। তবেই বলিউড তাঁকে নায়কের বিপরীতে অভিনয়ের সুযোগ দেবে। পুরনো বলিউড এতটাই গোঁড়া ছিল! দুই যুগ পেরিয়ে সেই বলিউডের পালেও নাকি আধুনিকতার হাওয়া! মহিমার কথায়, এখন নায়িকারা জোরালো চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পাচ্ছেন। পাশাপাশি, নানা সংস্থার প্রচার মুখও হতে পারছেন। বলিউডে প্রচুর পরিবর্তন। তিনি খুশি।

নায়িকাদের কথা প্রসঙ্গে স্বাভাবিক ভাবেই উঠে এসেছে ইন্ডাস্ট্রিতে নায়কদের অবস্থানও। ধড়কন ছবির শীতল-এর কটাক্ষ, নায়কেরা বিবাহিত কিনা, দর্শকেরা খোঁজই রাখেন না! উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন কয়ামত সে কয়ামত তক-এর কথা। প্রথম ছবিতে নায়কের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল বিবাহিত আমির খানকে! অভিনেতার অনুরাগীরা দীর্ঘদিন বিষয়টি জানতেনই না। অথচ, এক জন নায়িকা কারওর সঙ্গে ডেট করলেই তাঁর প্রতি আগ্রহ হারাত বলিউড। বিয়ে করে মা হলে কথাই নেই। টিনসেল টাউন মুখের উপরে দরজা বন্ধ করে দিত।

এখন নায়কদের প্রায় কাছাকাছি পারিশ্রমিক পান নায়িকারা। কোনও কোনও ছবিতে তাঁদের পারিশ্রমিক ছাপিয়ে যায় পুরুষ অভিনেতাদের পারিশ্রমিককে। ফলে, তাঁদের পায়ের তলার মাটি শক্ত হচ্ছে। তাঁরাও তাঁদের ইচ্ছে-অনিচ্ছের কথা জানাতে পারছেন। পাশাপাশি, নায়িকা তকমা সরেছে। ইদানিং সবাই অভিনেত্রী। মহিমার মতে, এই পদক্ষেপ অত্যন্ত ইতিবাচক। এতে কাউকে আর কোনও নির্দিষ্ট গণ্ডিতে বেঁধে দেওয়া হচ্ছে না।

 

নিউজ ট্যাগ: মহিমা চৌধুরী

আরও খবর

অবশেষে জামিন পেলেন শাহরুখপুত্র

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

আজ ফের হাইকোর্টে আরিয়ানের জামিন শুনানি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১