শিরোনাম

১৫ লাখ টন জ্বালানি তেল কিনবে সরকার

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশের চাহিদা মেটাতে ১৫ লাখ ৮০ হাজার টন জ্বালানি তেল কিনবে সরকার। এ লক্ষ্যে পৃথক দুটি প্রস্তাব সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় প্রস্তাবগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়।

তথ্য মতে, জিটুজি (সরকার টু সরকার) চুক্তির ভিত্তিতে বিভিন্ন দেশের ৭টি প্রতিষ্ঠান থেকে ১৫ লাখ ৮০ হাজার টন পরিশোধিত জ্বালানি তেল কিনবে সরকার।

এরমধ্যে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) মাধ্যমে জি-টু-জি ভিত্তিতে ৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান (পিটিটি থাইল্যান্ড, ইএনওসি আরব আমিরাত, পেট্রোচিনা, বিএসপি, ইন্দোনেশিয়া, পিটিএলসিএল মালয়েশিয়া ও ইউনিপেক চীন) এর কাছ থেকে ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে জুন সময়ের জন্য ১৪ লাখ ৯০ হাজার মেট্রিক টন পরিশোধিত জ্বালানি তেল ৮ হাজার ৪১৭ কোটি ২৩ লাখ টাকায় আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নুমালীগড় রিফাইনারি লিমিটেডের (এনআরএল) কাছ থেকে ৯০ হাজার মেট্রিক টন ডিজেল (০.০০৫% সালফার) ৫১২ কোটি ৪৮ লাখ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: অর্থমন্ত্রী

আরও খবর



সাত গোলের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে জয় পেল জুভেন্টাস

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রবিবার ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলে দুই ভিন্ন ঘটনার সাক্ষী রইলেন সমর্থকেরা। সেরি আ-তে সাত গোলের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে এএস রোমাকে ৪-৩ হারাল জুভেন্টাস। অন্য দিকে, ফরাসি লিগ ওয়ানে লিয়োনেল মেসি এবং নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রহীন প্যারিস সাঁ জারমাঁ হার বাঁচাল থিলো কেরারের গোলে।

রবিবার ঘরের মাঠে দুর্দান্ত শুরু করেছিল জোসে মোরিনহোর রোমা। ১১ মিনিটে ট্যামি আব্রাহাম গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। কিন্তু সাত মিনিটের মধ্যেই ১-১ করেন জুভেন্টাসের পাওলো দিবালা। ৪৮ মিনিটে হেনরি মাখতারিয়ান ২-১ এগিয়ে দেন রোমাকে। ৫৩ মিনিটে ৩-১ করেন লোরেঞ্জ়ো পেলেগ্রিনি। কিন্তু ১৭ মিনিট পরেই নাটকীয় ভাবে বদলে যায় ম্যাচের রং। ৭০ মিনিটে ২-৩ করেন জুভেন্টাসের ম্যানুয়েল লোকাতেল্লি। দুমিনিটের মধ্যেই ৩-৩ করে দেন দেয়ান কুলুসেভেস্কি। ৭৭ মিনিটে ৪-৩ করেন মাত্তিয়া দে সিলিয়ো। চার মিনিটের মধ্যেই লাল কার্ড (দ্বিতীয় হলুদ) দেখেন মাতিয়াস দে লিখ‌্‌ট। জুভেন্টাস দশ জন হয়ে যাওয়ার পরেও ম্যাচে ফিরে আসতে পারেনি জোসের দল।

সাত মিনিটে তিন গোল খেয়ে জয় হাতছাড়া করে মোরিনহো ম্যাচের পরে বলেছেন, ৭০ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচ আমরাই নিয়ন্ত্রণ করছিলাম। কিন্তু তার পরেই ফুটবলাররা মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ে। যোগ করেছেন, লোকাতেল্লির গোলের পরেই দলের প্রতিরোধের শক্তি হারিয়ে গিয়েছিল। আমরাই জুভেন্টাসকে ম্যাচে ফিরে আসার রাস্তা করে দিয়েছিলাম।


আরও খবর

উন্মোচন করা হল ঢাকা দলের জার্সি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




আগামী অর্থবছরে অর্থনীতির আকার হবে ৫০০ বিলিয়ন ডলার: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশের কাতারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছে। অর্থনীতির সব খাতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। প্রবৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের অর্থনীতি ১০০ বিলিয়ন ডলার হতে ১৯ বছর লেগেছে। এখন আমাদের অর্থনীতির আকার ৪১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং মাথাপিছু আয় বেড়ে দুই হাজার ৫৫৪ ডলার হয়েছে। আগামী অর্থবছরে আমাদের অর্থনীতির আকার ৫০০ বিলিয়ন ডলার হবে।

রোববার (২ জানুয়ারি) বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উদ্যোগে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৪৫ থেকে ৪৬ বিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি। আমি বিশ্বাস করি ইনশাল্লাহ চলতি বছরের শেষ নাগাদ রিজার্ভ ৫০ বিলিয়ন ডলারে নিয়ে যেতে পারবো। দেশে শিক্ষার হার বেড়েছে, কমেছে দারিদ্র্য। আমাদের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির আকার বেড়েছে। কোভিডের মধ্যে বিশ্ব অর্থনীতির অবস্থা ভালো নয়, তারপরও বাংলাদেশ ভালো করছে। ২০৩০ সালের মধ্যে ক্ষুধামুক্ত উচ্চ আয়ের দেশে রূপান্তর করবো।

২০৪১ সালে সুখী-সমৃদ্ধ উন্নত দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ। জাতির পিতার স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ হবে, যোগ করেন আ হ ম মুস্তফা কামাল।


আরও খবর



মিয়ানমারের ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে বাংলাদেশের শুভেচ্ছা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারের ৭৪তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বার্তায় এ শুভেচ্ছা জানানো হয়। বার্তায় উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে মিয়ানমারের জনগণকে আমরা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই।

প্রতিবেশী ও বন্ধু রাষ্ট্র হিসেবে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশ জনগণ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বাড়াতে আগ্রহী। একই সঙ্গে বাংলাদেশ আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের দ্রুত, স্বেচ্ছায় ও নিরাপদ প্রত্যাবসনে আমরা আগ্রহী।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের নতুন বছরে মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। উপহারও পাঠিয়েছেন।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




হংকং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরানো হলো ‘পিলার অব শেম’ ভাস্কর্য

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তিয়েনআনমেন স্কয়ার গণহত্যার স্মরণে হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা ভাস্কর্য পিলার অব শেম সরিয়ে ফেলেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ১৯৮৯ সালে চীনা কর্তৃপক্ষের হাতে নিহত গণতন্ত্রপন্থী আন্দোলনকর্মীদের মরদেহ স্তূপাকারভাবে দেখানো হয়েছিল এই ভাস্কর্যে। ভাস্কর্যটি গত ২৪ বছর ধরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছিল। এখন থেকে এটি নিজেদের স্টোরেজে রাখা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

হংকংয়ের ওই স্মরণীয় ঘটনায় এখনো অবশিষ্ট আছে এমন গুটি কয়েক স্মৃতিস্তম্ভের মধ্যে এটিও একটি ছিল, যা চীনে খুবই স্পর্শকাতর। হংকংয়ে রাজনৈতিক ভিন্ন মতাবলম্বীদের বেইজিংয়ের প্রতিনিয়ত দমন-পীড়নের মধ্যেই এটি সরিয়ে নেওয়া হলো। খবর বিবিসি অনলাইনের। 

বিশ্ববিদ্যালয় গত অক্টোবরে পিলার অব শেম নামের এই ভাস্কর্যটি সরানোর প্রাথমিক নির্দেশ দিয়েছিল। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বিশ্ববিদ্যালয় বলেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বৃহৎ স্বার্থে ঝুঁকি মূল্যায়ন করে এবং বাহ্যিক আইনি পরামর্শের ভিত্তিতে বহু বছরের পুরনো এই ভাস্কর্য সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় এই ভাস্কর্য সম্পর্কিত নিরাপত্তা ইস্যু নিয়েও উদ্বিগ্ন। 

বুধবার রাতে ভাস্কর্যটি সরানোর প্রথম লক্ষণ ধরা পড়ে যখন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্লাস্টিক শিট দিয়ে ওই এলাকা ঘিরে ফেলে। নির্মাণ শ্রমিকরা সারারাত প্লাস্টিকের বেড়ার ওপাশে কাজ করে তামার তৈরি ২৬ ফুট উঁচু ভাস্কর্যটি উপড়াতে সক্ষম হয়। এসময় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলের ছবি তোলার চেষ্টা করলে নিরাপত্তারক্ষীরা বাধা দেয়।

বিবিসির সাংবাদিক গ্র্যাস টোসই ঘটনাস্থল থেকে বলেন, ভেতরে ভাঙচুর ও ড্রিল মেশিনের শব্দ হচ্ছিল কিন্তু কেউ দেখতে পায়নি আসলে কি ঘটতেছিল।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




শরীরের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঠান্ডা পানির ভয়ে প্রতিদিন গোসল না করাদের তালিকা শীতে বড় হতে থাকে। এই শীতেও যারা প্রতিদিন গোসল করছেন, তাদের কথা ভিন্ন। কিন্তু যারা গোসল করছেন না, তাদের গায়ের দুর্গন্ধ দূর হবে কী দিয়ে?

শরীরের দুর্গন্ধ দূর করতে বেশিরভাগই নির্ভর করেন ডিওডোরেন্ট কিংবা পারফিউমের ওপর। কিন্তু তাতে সাময়িক মুক্তি মিললেও পুরোপুরি দূর হয় না। তাই এসব কেমিক্যালযুক্ত জিনিসপত্রের ওপর নির্ভর না করে কাজে লাগাতে পারেন ঘরোয়া পদ্ধতি। এতে প্রতিদিন গোসল না করেও থাকতে পারবেন দুর্গন্ধমুক্ত। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

মৌরি ভেজানো পানি পান:

যারা গায়ে দুর্গন্ধের কারণে অস্বস্তিতে ভোগেন, তারা এখন থেকে মৌরি ভেজানো পানি পান করা শুরু করুন। এতে ঘাম এবং দুর্গন্ধ দুটোই কম হবে। মৌরিতে থাকা নানা উপকারী উপাদান এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখে। মৌরির পানি তৈরি করার জন্য এক কাপ পানিতে এক চা চামচ মৌড়ি গুঁড়া মিশিয়ে সেই পানিটুকু দুই মিনিটের মতো ফুটিয়ে নেবেন। এরপর তাতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করবেন।

নারিকেল তেল মেখে গোসল:

শীতে প্রতিদিন গোসল না করলেও মাঝে মাঝে তো করা হয়, তাই না? তখন একটি কাজ করতে হবে। সারা গায়ে নারিকেল তেল মেখে এরপর গোসলে যেতে হবে। এই তেল আপনার গায়ে দুর্গন্ধ তৈরি হতে দেবে না। কীভাবে? আমাদের শরীরে  ব্যাকটেরিয়ার মাত্রা বাড়তে শুরু করলে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। নারিকেল তেল সেই ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াগুলো মেরে ফেলে। এতে শরীরে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হতে পারে না।

ইপসম সল্ট দিয়ে গোসল:

যখন গোসল করবেন তখন পানিতে ইপসম সল্ট মিশিয়ে নিন। এতে শরীরে জমে থাকা ঘামের দুর্গন্ধ দূর হবে। এই লবণে এমন কিছু উপাদান আছে যেগুলো ঘামের মাত্রা কমানোর পাশাপাশি ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। এতে সহজেই ঘামের দুর্গন্ধ দূর হয়। এক বালতি পানিতে আধা কাপ ইপসম সল্ট মিশিয়ে ব্যবহার করতে হবে। এতে উপকার পাবেন।

গ্রিন টি:

নিয়মিত গ্রিন টি খেলে তা আপনার শরীরে দুর্গন্ধ জমতে দেবে না। তবে শুধু পান করলেই হবে না, সেইসঙ্গে করতে হবে আরও একটি কাজ। প্রথমে চিনি ছাড়া এক কাপ গ্রিন টি তৈরি করে নেবেন। এরপর তা একটি তুলোর সাহায্যে শরীরের যেসব স্থানে ঘাম বেশি হয়, সেখানে লাগাবেন। গ্রিন টিতে থাকা ট্যানিক অ্যাসিড ঘামের মাত্রা কমায় এবং ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলতে সাহায্য করে। এতে সহজেই গায়ের দুর্গন্ধ দূর হয়।

নিউজ ট্যাগ: শরীরের দুর্গন্ধ

আরও খবর

মুখে স্বাদ ফেরাতে বানান মুরগির পুলি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২

চাইনিজ সবজি রান্নার সহজ রেসিপি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২