Logo
শিরোনাম

৩২ মাস পর কারামুক্ত সম্রাট

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলাসহ মোট ৪টি মামলায় ৩২ মাস কারাভোগ করে অবশেষে জামিনে মুক্ত হয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট।

বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেল থেকে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কারা কর্মকর্তা জামিনের কাগজ নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে যান। সব নিয়ম-কানুন মেনে সেখানে সিসিইউতে চিকিৎসাধীন সম্রাটের পাহারায় থাকা কারারক্ষীদের সরিয়ে নেওয়া হয়। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

এর আগে আজই অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

তার আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল গণমাধ্যমকে জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন দুদকের মামলায়।

১৯৫ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে সম্রাটের বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনে একটি মামলা করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি।সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগের উপপরিদর্শক রাশেদুর রহমান বাদী হয়ে রাজধানীর রমনা থানায় এই মামলা (মামলা নম্বর ১৪) করেন। সম্রাট তার সহযোগী এনামুল হক আরমানের মাধ্যমে ১৯৫ কোটি টাকা সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় পাচার করেছেন বলে মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে। সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার জিসানুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিআইডি কর্মকর্তারা জানান, ২০১১ সালের ২৭ ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৯ আগস্ট পর্যন্ত সম্রাট সিঙ্গাপুরে ৩৫ বার, মালয়েশিয়ায় তিনবার, দুবাইতে দুবার এবং হংকংয়ে একবার ভ্রমণ করেছেন। এছাড়া তার সহযোগী এনামুল হক আরমান ২০১১ সালের ১২ ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ১৮ মে পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ২৩ বার ভ্রমণ করেছেন। সম্রাট ও আরমান অবৈধ অর্থ দিয়ে যৌথভাবে সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন।

৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামে আত্মগোপনে থাকা সম্রাটকে গ্রেফতার করা হয়। তার সঙ্গে আরমানকেও গ্রেফতার করা হয়। পরে ঢাকায় এনে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদও করে র‌্যাব।

৬ অক্টোবর দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্ব একটি দল কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে সম্রাটের কার্যালয়ে অভিযান শুরু করে। এদিন নিজ কার্যালয়ে পশুর চামড়া রাখার দায়ে তার ছয় মাসের জেল দিয়ে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। এর পর সম্রাটকে কারাগারে পাঠানো হয়।


আরও খবর



ইউক্রেন সফর করলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রোমানিয়া এবং স্লোভেনিয়া সফরের এক পর্যায়ে আচমকা ইউক্রেন সফরে গেলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। সেখানে পৌঁছে তিনি সামরিক জোট ন্যাটোর মিত্রদের যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। রবিবার (৮ মে) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান।

ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী শহর উজহোরোদের একটি স্কুলে দেশটির ফার্স্ট লেডি ওলেনা জেলেনস্কির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন জিল বাইডেন। স্কুলটি বর্তমানে যুদ্ধে বাস্তুচ্যুত ইউক্রেনীয়দের আশ্রয়শিবির হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

জিল বাইডেন বলেন, তিনি দেখাতে চান যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ ইউক্রেনের জনগণের পাশে রয়েছে। এখন যুদ্ধের তৃতীয় মাস চলছে, এটি নিষ্ঠুর এবং এটা থামাতে হবে।

এদিকে, যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যে জিল বাইডেনের এই সফরকে ইউক্রেনের ফার্স্ট লেডি ওলেনা জেলেনস্কি সাহসী কাজ বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, আমরা বুঝতে পারছি কি জন্য যুদ্ধ চলাকালীন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি এখানে এসেছেন। যখন প্রতিদিন সামরিক কর্মকাণ্ড চলছে। যেখানে প্রতিদিন এয়ার সাইরেন বাজছে, এমনকি আজকেও বেজেছে।

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক মা দিবসে এই সফর দারুণ প্রতীকী। এই রকম গুরুত্বপূর্ণ একটি দিনে আপনার ভালোবাসা এবং সমর্থন আমরা অনুভব করছি।

একই দিনে, কোনো ঘোষণা ছাড়াই ইউক্রেন সফর করছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামে দেওয়া পোস্টে শহরটির মেয়র ওলেক্সান্ডার মার্কুশিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তীব্র যুদ্ধের পর গত মার্চের শেষ দিকে রুশ বাহিনীর কাছ থেকে এই ইরপিন শহরটি পুনরুদ্ধার করে ইউক্রেনীয় বাহিনী।

টেলিগ্রামে দেওয়া পোস্টে শহটির মেয়র ওলেক্সান্ডার মার্কুশিন বলেন, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে এইমাত্র দেখা করার সম্মান অর্জন করেছি। রুশ দখলদাররা আমাদের শহরে যে ভয়াবহতা তৈরি করেছে তা নিজের চোখে দেখতে তিনি ইরপিন এসেছেন।


আরও খবর



৪ কেজি ছোলা ছাড়া ডাল-তেল-চিনি মিলছে না টিসিবিতে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টিসিবির পণ্য কিনতে গিয়ে একপ্রকার বাধ্য হয়েই ক্রেতাদের নিতে হচ্ছে চার কেজি ছোলা। চার কেজি চোলা না কিনলে দেওয়া হচ্ছে না ডাল, তেল ও চিনি। আর এই নিয়মের কারণে কম দামে টিসিবির পণ্য কিনতে আসা অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে টিসিবির অফিসের সামনেই বিএম এন্টারপ্রাইজের ট্রাকসেলে এ চিত্র দেখা গেছে।

কম দামে টিসিবি পণ্য কিনতে আসা আনোয়ারা বেগম বলেন, লন বাবা লন, আমার ছোলা লন। এতো ছোলা কি করব। এক ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে দুই কেজি করে চিনি ও ডাল দিলেও চার কেজি ছোলা ধরিয়ে দিল। বেশি টাকা আটকে গেল। তেল তো বেশি দিল না। মাত্র দুই লিটার। সব মিলে ৬৬০ টাকা নিল। এভাবে শুধু আনোয়ারাই নয়, দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পর যারাই পণ্য পাচ্ছেন তারাই অভিযোগ করে বলছেন, চার কেজি ছোলা করব কি? শাহাদত হোসেন নামে এক ক্রেতা বলেন, ঘণ্টাখানেক অপেক্ষার পর ট্রাক থেকে চার কেজি ছোলাসহ অন্য পণ্য দিল। ৬৬০ টাকা নিল। কিন্তু এতো ছোলা কি করব? ঈদের সময় এতো তো লাগবে না। আবার তেল তো বেশি দিল না।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ট্রাকের আলম বলেন, বেশি করে আনা হয়েছে। তাই চার কেজি করে দেওয়া হচ্ছে। এই চিত্র শুধু কারওয়ান বাজারেই নয়, রাজধানীর মোহাম্মদপুর, আদারবসহ ১৫০ ট্রাকসেলের একই চিত্র। দুপুর ১২টার আগে থেকে অনেকে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকলেও শঙ্কা প্রকাশ করে বলছেন, শেষ পর্যন্ত পাব তো। অনেকেই বলছেন, লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পরও অনেক দিন পাওয়া যায় না। রাজধানীতে প্রতিদিন ১৫০টি ট্রাকসেলে ৫৫ টাকা কেজি চিনি, ১১০ টাকা লিটার তেল, ৬৫ টাকা কেজি ডাল ও ৫০ টাকা কেজি ছোলা বিক্রি করা হচ্ছে।

সাকিল হোসেন নামে এক ক্রেতা বলেন, ফাকা পেয়ে প্রথম লাইনে দাঁড়িয়েছি। তারপরও ঘণ্টাখানেক পর পেলাম। কিন্তু বেশি ছোলায় মনটা খারাপ হয়ে গেল। কারণ এতো ছোলা লাগে না। তেল দিলে ভালো হতো। মোহাম্মদপুরের ট্রাক সেলেরও একই চিত্র। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পর তেল, ডাল, চিনি ও ছোলা পেলেও খুশি নয় তারা। কারণ বেশি ছোলার দরকার নেই। তারপরও ট্রাক থেকে বেশি করে দেওয়া হচ্ছে।

রাজধানীতে প্রতি ট্রাকে ২৫০০ কেজি ও লিটার করে পণ্য মোট তিন লাখ ৭৫ হাজার কেজি ও লিটার পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে। এ ছাড়া সারাদেশে এক কোটি পরিবারকেও কম দামে ডাল, তেল , চিনি ও ছোলা দেওয়া হচ্ছে। যা বাজারের চেয়ে অনেক কম দামে বিক্রি করা হচ্ছে।

সার্বিক ব্যাপারে জানতে চাইলে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মুখপাত্র এবং তেজগাঁও আঞ্চলিক কার্যালয়ের অফিস প্রধান মো. হুমায়ুন করিব বলেন, সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী রমজান মাস উপলক্ষে সারাদেশে এক কোটি পরিবারকে সাশ্রয়ী মূল্যে ডাল, চিনি, ছোলা ও তেল দেওয়া হচ্ছে। এরমধ্যে ৮৭ লাখ ১০ হাজার কার্ডধারীদের বিভিন্ন এলাকায়, বরিশালে ৯০ হাজার ও রাজধানীতে ১২ লাখ পরিবারকে ট্রাকসেলে পণ্য দেওয়া হচ্ছে। ৬ মার্চ থেকে বিভিন্ন এলাকায় প্রথম কিন্তির পর দ্বিতীয় কিস্তিতে মালামাল দেওয়া শুরু হয়েছে। চলবে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত। এ পর্যন্ত চার কোটি লিটার তেল, ৪০ হাজার মেট্রিক টন করে ছোলা, ডাল, চিনি দেওয়া হয়েছে। রমজান উপলক্ষে আগে খেজুরও দেওয়া হয়েছে। বাজারে পেঁয়াজের দাম কমতে থাকায় ট্রাকসেলে তা বন্ধ রয়েছে।

দুপুর গড়িয়ে গেলেও ট্রাক স্পটে যায় না কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ৭টার পর ডিও লেটারের কাজ শুরু হয়। যারা আগে টাকা দেয় তারা আগে পায়, দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত চলে মাল দেওয়ার কাজ।

টিসিবি থেকে এত পণ্য দেওয়া হচ্ছে তারপরও চাহিদা কমছে না। লাইন দীর্ঘ হচ্ছে। অনেকে তারপরও পাচ্ছে না কম দামের এসব পণ্য? এমন প্রশ্নের জবাবে হুমায়ুন কবির বলেন, গত বছরে চাহিদার ১০ থেকে ১২ শতাংশ পূরণ করেছে টিসিবি। এবার দ্বিগুণেরও বেশি ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ হবে। এর ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, আগে প্রতি ট্রাকে দুই হাজার কেজি ও লিটার দেওয়া হত। এবারে তা ৩৫০০ কেজি ও লিটার ছাড়িয়ে গেছে।

টিসিবির প্রধান কার্যালয়ে বিক্রয় কেন্দ্র থেকে আগে এ সব পণ্য দেওয়া হলেও বর্তমানে বন্ধ কেন? এ ব্যাপারে তিনি বলেন, লোকবলের সংকট। আগে আটটি অফিস থাকলে বর্তমানে ক্যাম্প অফিসসহ ১২টি অফিস করা হয়েছে। তারপরও লোকবল কম রয়েছে।


আরও খবর



‘ইউক্রেনে যুদ্ধের প্রভাবে বৈশ্বিক খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাতিসংঘ সতর্ক করে বলেছে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের কারণে আগামী কয়েক মাসে বিশ্বজুড়ে খাদ্য ঘাটতি তৈরি হতে পারে। সংস্থার মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস বলেছেন, এই যুদ্ধে মূল্য বৃদ্ধির কারণে দরিদ্র দেশগুলোতে খাদ্য নিরাপত্তা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, ইউক্রেন যদি যুদ্ধ শুরুর আগের মাত্রায় রফতানি ফের শুরু করতে না পারে তাহলে বিশ্বে দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে আর সেই দুর্ভিক্ষ কয়েক বছর চলবে।

এই যুদ্ধের কারণে ইউক্রেনের বন্দর থেকে রফতানি বন্ধ হয়ে গেছে। এসব বন্দর থেকে এক সময়ে বিপুল পরিমাণ সূর্যমূখী তেল, ভুট্টা এবং গমের মতো খাদ্য শস্য রফতানি হয়েছে। এতে বৈশ্বিক সরবরাহে ঘাটতি দেখা দিয়েছে এবং এর বিকল্পগুলোর দাম বেড়ে গেছে। জাতিসংঘের হিসেব অনুযায়ী, গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এই বছর বিশ্বে খাদ্যের দাম ৩০ শতাংশ বেড়েছে।

বুধবার নিউ ইয়র্কে অ্যান্তনিও গুতেরেস বলেন এই সংঘাত লাখ লাখ মানুষকে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার কিনারায় নিয়ে গেছে, এর জেরে অপুষ্টি, গণ ক্ষুধা এবং দুর্ভিক্ষের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, আমরা যদি যৌথভাবে এগিয়ে আসি তাহলে পৃথিবীতে যথেষ্ট খাবার আছে। কিন্তু এই সমস্যা যদি আজই সমাধান না করি, তাহলে আমরা সামনের মাসগুলোতে বিশ্বব্যাপী খাদ্য ঘাটতির ভূতের মুখোমুখি হবো। তিনি সতর্ক করে বলেন, ইউক্রেনের খাদ্য উৎপাদন রাশিয়া ও বেলারুশের সার উৎপাদন ফের শুরু করা, ছাড়া খাদ্য সংকটের আর কোনও কার্যকর সমাধান নেই।


আরও খবর



রুশ সীমান্তে দাঁড়িয়ে ইউক্রেনীয় বাহিনীর গর্জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ক্রমশ লক্ষ্যভ্রষ্ট হচ্ছে রাশিয়া। ২৪ ফেব্রুয়ারি যুদ্ধ শুরুর সময়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছিলেন, গোটা ইউক্রেনকে মুক্ত করবেন তাঁরা। ক্রমে সেই লক্ষ্য থেকে সরে পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেনে নজর দেয় রাশিয়া। এখন উত্তর-পূর্ব ইউক্রেনের দখলও হাতছাড়া হয়েছে মস্কোর। এ দিন একটি ভিডিয়ো ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতে দেখা যাচ্ছে, রুশ সীমান্তে দাঁড়িয়ে ইউক্রেনীয় বাহিনীর গর্জন, আমরা এখানে মিস্টার প্রেসিডেন্ট!

এই মুহূর্তে একমাত্র মারিয়ুপোল-সহ ডনবাস অঞ্চল রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জ়েলেনস্কি অবশ্য দবি করেছেন, মারিয়ুপোলও তিনি মুক্ত করবেন। তাঁকে সমর্থন করে ইউরোপ-আমেরিকা ও জি-৭-এর মতো ধনী দেশের গোষ্ঠীও জানিয়েছে, রাশিয়া যদি ইউক্রেনের সীমান্ত বদলের চেষ্টা করে, তারা তা মান্যতা দেবে না।

রুশ সীমান্ত ঘেঁষা সুমি অঞ্চলেও মস্কোর হামলা বন্ধ হয়েছে বলে দাবি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। রুশ আগ্রাসনের শুরু থেকে এই অঞ্চলটি ভয়ানক হামলার শিকার। ইউক্রেনের পশ্চিম অংশ এখন একেবারেই শান্ত। কাল থেকে কিভে ভারতীয় দূতাবাসের কাজও চালু হয়ে যাবে। বহু অঞ্চলেই মানুষ ঘরে ফিরতে শুরু করেছে। একমাত্র ডনবাস এলাকায় এখনও রয়েছে রুশরা।

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক আজ একটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, যুদ্ধের শুরু থেকে এ পর্যন্ত স্থলবাহিনীর এক-তৃতীয়াংশ হারিয়েছে রাশিয়া। বিপুল ক্ষয়ক্ষতি ও মৃত্যুর বোঝা মস্কোর ঘাড়ে। এমনকি রাশিয়া যা-ই দাবি করুক, পূর্ব ইউক্রেনেও তেমন অগ্রগতি হয়নি ক্রেমলিনের সেনার। ব্রিটিশ মন্ত্রক বলেছে, রুশ বাহিনীর শক্তি ক্রমশ কমছে। নৈতিক দিক থেকেও তারা জোর পাচ্ছে না। বাহিনীর কর্মক্ষমতা কমেছে।

কিছু ক্ষেত্রে এমন অবস্থা যে কোনও পরিবর্তিত ব্যবস্থা নেই রাশিয়ার হাতে। ফলে রুশ অভিযান ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে।ব্রিটেনের গোয়েন্দা বাহিনীর দাবি, আগামী এক মাসে আরও পিছু হটতে বাধ্য হবে রাশিয়া। এ-ও শোনা গিয়েছে, মারিয়ুপোলের আজ়ভস্টল কারখানার নীচে আটকে থাকা জখম সেনাবাহিনীকে উদ্ধারে ইউক্রেন সরকারে সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে রাশিয়া। যদিও এই পরিস্থিতিতেও রাশিয়ার হামলা অব্যাহত রয়েছে। আজ তারা দাবি করেছে, কৃষ্ণসাগরে স্নেক আইল্যান্ডের কাছে ইউক্রেনের তিনটি যুদ্ধবিমান তারা গুলি করে নামিয়েছে। পূর্ব ইউক্রেনে মস্কোর ক্ষেপণাস্ত্র হানাও জারি রয়েছে।


আরও খবর



কলকাতায় এএফসি কাপে দুর্দান্ত সূচনা বসুন্ধরা কিংসের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এএফসি কাপে মালদ্বীপের ক্লাব মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশনের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জয় তুলেছে বসুন্ধরা কিংস। কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে উদ্বোধনি দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে গ্রুপ ডির ম্যাচে বসুন্ধরা কিংস মুখোমুখি হয় মালদ্বীপের ক্লাবটির।

এই ম্যাচে দাপট দেখিয়ে ম্যাচটি জিতে নেয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়নরা। যুব ভারতী ক্রীড়াঙ্গনে নুহা মারংয়ের গোলে ৩৩ মিনিটে এগিয়ে যায় বসুন্ধরা। মাঝ মাঠ থেকে সোহেলে রানার লম্বা পাসে হেডের মাধ্যমে গোল আদায় করেন গাম্বিয়ান এই ফরোয়ার্ড।

প্রথমার্ধের গোলে এগিয়ে থেকেই মাঠ ছাড়ে কিংস। বিরতির পর ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে মাজিয়া। যদিও শেষ পর্যন্ত মালদ্বীপের চ্যাম্পিয়নদের পাত্তা না দিয়েই জয় তুলে নেয় অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা।

ম্যাচে মাজিয়া স্পোর্টসসের নেয়া ১৬ শটের বিপরিতে কিংস নেয় ১২টি শট। টার্গেট শট দুদলের ছিল সমান ৫টি। আগামী ২১ মে একই ভেন্যুতে গ্রুপের বাকি ম্যাচে ২১ মে মোহন বাগান ও ২৪ মে গোকুলম কেরালার বিপক্ষে লড়বে বসুন্ধরা কিংস।

 


আরও খবর