Logo
শিরোনাম

৫ জানুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ বৃহস্পতিবার ৫ জানুয়ারি ২০২৩। ২১ পৌষ, ১৪২৯, বঙ্গাব্দ। ১১ জমাদিউস সানি , ১৪৪৪ হিজরি।

ইতিহাসের প্রতিটি দিনেই ঘটে কিছু না কিছু যুগান্তকারী ঘটনা। তাই প্রতিটি দিনই এক একটি ইতিহাস। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:

৬০৩ - ইরান ও রোম সম্রাজ্যের মধ্যে ২৪ বছরব্যাপী যুদ্ধ শুরু হয়।

১৫০০ - ডিউক লুদভিক সোফারজ ইতালির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর এবং লাম্বারদিয়া অঞ্চলের রাজধানী ও প্রধান শহর মিলান জয় করেন।

১৫৫৪ - নেদারল্যান্ডের আইন্দহোভেনে ভয়াবহ অগ্নিকার্ড সংগঠিত হয়।

১৬৬৫ - প্যারিসে পৃথিবীর প্রথম সাময়িক প্রকাশিত হয়।

১৬৯১ - ইউরোপে সর্বপ্রথম কাগুজে মুদ্রা ছাপানো হয়।

১৭৫৯ - আমেরিকার প্রথম প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটন মার্থা কসটিসকে বিবাহ করেন।

১৭৮১ - আমেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধ: ভার্জনীয়ার রিচমন্ড বন্দর ব্রিটিশ ক্যাপ্টেন বেনডিক্ট আরন্ল্ডের নেতৃত্বে ব্রিটিশ নৌ-বাহিনী জ্বালিয়ে দেয়।

১৭৮২ - আমেরিকার গৃহযুদ্ধ: ফ্রান্সের সেনাবাহিনী কর্তৃক ব্রিটিশ সেনানিবাস ব্রিমস্টনের সেন্ট কিটস অবরোধ।

১৮০৯ - ওসমানীয় ও বৃটিশ সরকারের মধ্যে একটি ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

১৮৫৪ - সান ফ্রান্সিসকোতে স্টিমারে বিস্ফোরন। এতে প্রায় ৩০০ মানুষ নিহত হয়।

১৮৬৭ - জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ীতে জোড়াসাঁকো থিয়েটার এর উদ্বোধন করা হয়।

১৮৯৬ - অস্ট্রিয়ান সংবাদপত্র সংবাদ প্রকাশ করে উইলিয়াম রনজেনের আবিস্কৃত নতুন ধরনের রশ্মী নিয়ে যা পরে এক্স-রে হিসাবে পরিচিত হয়।

১৯০০ - আইরিশ নেতা জন রেডমন্ড ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে।

১৯০৯ - কলম্বিয়া পানামাকে স্বাধীন ঘোষনা করে।

১৯১৫ - প্রথম বিশ্ব যুদ্ধে তুর্কি বাহিনী ককেশাসে পরাজয় বরণ করে।

১৯১৮ - জার্মান ওয়ার্কার পিস গঠিত হয় যা পরে নাৎসি পার্টি হিসাবে পরিচিত হয়।

১৯১৯ - জার্মানিতে ন্যাশনাল সোশালিস্ট পার্টি গঠিত হয়।

১৯২২ - কাজী নজরুল ইসলামের বিখ্যাত বিদ্রোহী কবিতা প্রকাশিত হয়।

১৯২৯ - দক্ষিণ স্লাভিয়াতে রাজা আলেকজান্ডারের অভ্যুত্থান।

১৯৩৩ - গোল্ডেন গেট ব্রিজের কাজ শুরু হয়।

১৯৩৪ - কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ভারত-ইংল্যান্ড প্রথম টেস্ট ক্রিকেট শুরু হয়।

১৯৩৪ - কলকাতায় ভয়াবহ হিন্দু-মুসলমান দাঙ্গা বাঁধে।

১৯৪২ - ৫৫টি জার্মান ট্যাংক উত্তর আফ্রিকায় পৌঁছায়।

১৯৫০ - ইলা মিত্রের নেতৃত্বে নাচোলে কৃষক বিদ্রোহের সূচনা হয়।

১৯৬৯ - পাকিস্তানে আইয়ুব-বিরোধী আন্দোলনের উদ্দেশ্যে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠন করা হয়।

১৯৭১ - প্রথম ওয়ানডে ক্রিকেট ম্যাচ মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত। এতে অংশ গ্রহন করে অস্ট্রোলিয়া ও ইংল্যান্ড।

১৯৯৬ - জাপানের প্রধানমন্ত্রী তোমিচ মুরায়ামার পদত্যাগ করেন।

১৯৯৬ - ফিলিস্তিনি স্বাধীনতা আন্দোলনের যোদ্ধা হামাস কর্মী ইয়াহিয়া আয়াস ইজরাঈলী বোমা হামলায় নিহত হন।

২০০০ শ্রীলংকায় গৃহযুদ্ধ বাঁধে। কলম্বোয় তামিল টাইগার নেতা কুমার পুনামবালাম পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

২০১৪ - বিএনপি ও তার জোটের দল ছাড়াই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

জন্ম:

১২২৯ - রোমান সম্রাট রিচার্ডের জন্মগ্রহণ করেন।

১৫৯২ - মুঘল সম্রাট শাহজাহান জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৪৬ - নোবেলজয়ী জার্মান সাহিত্যিক রুডলফ অইকেন জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৫৫ - সেফটি ব্লেডের আবিষ্কারক কিং জিলেট জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৮৫ - ইতালিয়ান বংশোদ্ভুত ইংরেজ কবি হামবার্ট উলফ জন্মগ্রহণ করেন।

১৯২৮ - পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টো জন্মগ্রহন করেন।

১৯৩৮ - ছড়াকার সুকুমার বড়ূয়া জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৪০ - লেখক অনুবাদক ফরুজ্জামান চৌধুরী জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৬৯ - আমেরিকান গায়ক মার্লীন ম্যানসন জন্মগ্রহণ করেন।

মৃত্যু:

৮৪২ - বাগদাদের খলিফা আল মুতাসিম ইন্তেকাল করেন।

১০৬৬ - ইংল্যান্ডের রাজা এডওয়ার্ডের মৃত্যু হয়।

১৩২৬ - আলাউদ্দিন খিলজি মৃত্যুবরণ করেন।

১৮৯০ - প্রথম ভারতীয় ব্যারিস্টার জ্ঞানেন্দ্রমোহন ঠাকুর মৃত্যুবরণ করেন

১৯৮১ - রসায়নে নোবেলজয়ী মার্কিন বিজ্ঞানী হ্যারল্ড কেইটন উর মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৩৩ - মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩০তম রাষ্ট্রপতি ক্যালভিন কুলিজ মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৯৪ - কথাসাহিত্যক ও সঙ্গীত শিল্পী সুচরিত চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৯৫ - প্রথম বাঙালী মুসলমান অভিনেত্রী বনানী চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেন।

দিবস:

গণতন্ত্র বিজয় দিবস (বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ),

গণতন্ত্র হত্যা দিবস (বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল),

জাতীয় পাখি দিবস (যুক্তরাষ্ট্র),

সন্তানকে কাজে নিয়ে যাওয়ার দিবস (অস্ট্রেলিয়া),

তুসিন্দা (সাইবেরিয়া, মন্টিনেগ্রো)

নিউজ ট্যাগ: ইতিহাসে এই দিনে

আরও খবর

১৮ জানুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩

১৭ জানুয়ারি: আজকের এই দিনে

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩




তাকসিমের যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি: অভিযোগের বিষয়ে জানতে চান হাইকোর্ট

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি কেনার বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) দাখিল করা দুটি অভিযোগের অনুসন্ধানের অগ্রগতি জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। দুর্নীতি দমন কমিশনকে ১৫ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে জানাতে বলেছেন আদালত।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) এ বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে নিয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ মৌখিকভাবে এ আদেশ দেন।

এর আগে দৈনিক সমকালের একটি প্রতিবেদনে প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের বিপুল অবৈধ সম্পদ অর্জন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৪টি বাড়ি কেনার বিষয়টি উঠে আসে। এ বিষয়ে দুদকে ২টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তাকসিম এ খানের বাড়ি কেনার অর্থের উৎস ও লেনদেন প্রক্রিয়ার তথ্য তালাশে নেমেছে ইন্টারপোলসহ একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা। বিপুল পরিমাণ অর্থে একের পর এক বাড়ি কেনার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রে গোয়েন্দা তালিকায় সন্দেহভাজন হিসেবে তাকসিমের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি কেনা এবং অর্থ পাচারকারী হিসেবে আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থার তালিকায় তাকসিম খানের নাম থাকা নিয়ে সম্প্রতি দুটি অভিযোগ জমা পড়ে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক)। অভিযোগে কিছু বাড়ির সুনির্দিষ্ট ঠিকানা, ছবি, কোন বাড়ি কখন, কত টাকায় কেনা- তা উল্লেখ করা হয়েছে। তাকসিম সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির (সিআইএ) গভর্নমেন্ট ওয়াচ নোটিশ’-এর একটি কপি অভিযোগের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে দুদক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মঈনুদ্দিন আবদুল্লাহ বলেন, আমি এখনো প্রতিবেদনটি পড়িনি। অভিযোগের কিছু শক্ত ভিত্তি থাকতে পারে।”

দুদক চেয়ারম্যান আরও জানান, তাকসিমের বিরুদ্ধে দুদকের কাছে পৃথক ৩টি তদন্ত বিচারাধীন। চলমান তদন্তে নতুন অভিযোগ যোগ করা হবে। আলাদা কোনো তদন্ত শুরু করার প্রয়োজন নেই।

মোহাম্মদ মঈনুদ্দিন আবদুল্লাহ বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে তার সম্পদের বিষয়ে জানতে আমরা বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটকে (বিএফআইইউ) চিঠি দেব। বিএফআইইউ পরবর্তী ব্যবস্থা নেবে।”


আরও খবর



নোটিফিকেশন থেকেই ব্লক করা যাবে হোয়াটসঅ্যাপে

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অপরিচিত মেসেজের ভিড়ে পরিচিতদের মেসেজ অনেক সময় হারিয়ে যায়। এজন্য নাম্বার ব্লক করার সুবিধা থাকলেও এবার নতুন ফিচার নিয়ে আসছে হোয়াটসঅ্যাপ। মেটার মালিকানাধীন এই মেসেজিং অ্যাপ একটি নতুন শর্টকাট চালু করার জন্য কাজ করছে। যার সুবাদে নোটিফিকেশন বার থেকেই কাউকে সহজেই ব্লক করা যাবে।

হোয়াটসঅ্যাপের ফিচার ট্র্যাকার ওয়েবেটাইনফো জানিয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপ একটি নতুন ফিচার নিয়ে কাজ করছে। যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা চ্যাট মেসেজ নোটিফিকেশন থেকে সরাসরি কাউকে ব্লক করতে সক্ষম হবেন। তবে সবসময় কিন্তু এই কাজ করা যাবে না।

জানা গেছে, ব্যবহারকারীরা যখন কোনো অপরিচিত নম্বর থেকে মেসেজ রিসিভ করবেন তখনই কেবলমাত্র এই শর্টকাট কাজে লাগিয়ে কাউকে ব্লক করা যাবে। তবে পরিচিত কোন নাম্বার ব্লক করার ক্ষেত্রে এই শর্টকাট প্রযোজ্য হবে না। এর আগে বছর শুরুতেই নতুন ফিচারের ঘোষণা দিয়েছিল হোয়াটসঅ্যাপ। এতদিন হোয়াটসঅ্যাপে-এ ৩টি চ্যাট পিন টু টপ করা যেত। এখন থেকে ৩টির পরিবর্তে ৫টি চ্যাট পিন টু টপ করা যাবে। 

ওয়াবেটাইনফো জানিয়েছে, বিভিন্ন চ্যাট, মেসেজের ভিড়ে অনেক জরুরি চ্যাট হারিয়ে যায়। প্রয়োজনের সময় সেগুলো দ্রুত খুঁজে পাওয়া কঠিন হয়। সেই সমস্যা দূর করার জন্য আসছে এই নতুন ফিচার। এই ফিচারের সাহায্যে সহজেই প্রয়োজনীয় চ্যাটকে খুঁজে পাওয়া যাবে। সেই কারণেই ৩টির পরিবর্তে বদলে এখন থেকে ৫টি জরুরি চ্যাট পিন টু টপ করা যাবে।

নিউজ ট্যাগ: হোয়াটসঅ্যাপ

আরও খবর



হাওড়ে এখন থেকে আর কোনো রাস্তা নির্মাণ নয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হাওড় ও উপকূলে অপরিকল্পিত অবকাঠামো নির্মাণের ফলে বন্যা ও জলাবদ্ধতার সমস্যা আরও বাড়ছে। এখন থেকে উন্নয়ন প্রকল্প করার ক্ষেত্রে নদী-জলাশয় ও হাওড়ের পরিবেশ ও প্রকৃতিকে মাথায় রাখতে হবে। এতে দেশের উন্নয়ন টেকসই হবে ও জনগণের ভোগান্তি হবে না বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। শনিবার সকালে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট নেটওয়ার্কের (বেন) আয়োজনে বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

হাওড়ে এখন থেকে আর কোনো রাস্তা নির্মাণ করা হবে না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সেখানকার ভূমিরূপ ও প্রতিবেশব্যবস্থাকে মাথায় রেখে সরকার একটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করছে। আরেকটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে।

সরকার পরিবেশ ধ্বংস করে কোনো উন্নয়ন প্রকল্প করবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা টেকসই উন্নয়নে বিশ্বাসী, যা পরিবেশ রক্ষা করে করা হবে।


আরও খবর



রুট পারমিটবিহীন বাস বন্ধে অভিযান চালাবে ডিএনসিসি

প্রকাশিত:শনিবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রুট পারমিটবিহীন বাস ও লেগুনা বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করবে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। মূলত বাস রুট রেশনালাইজেশনের আওতায় ঢাকা নগর পরিবহনের ২১, ২২ ও ২৬ নম্বর রুটের ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকাগুলোতে এ অভিযান পরিচালনা করা হবে। আগামী ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত এই অভিযান চলবে। শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) ডিএনসিসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অভিযান পরিচালনা করতে দুজন ম্যাজিস্ট্রেট নির্ধারণ করে দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অফিস আদেশ জারি করেছেন ডিএনসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ মাহে আলম। আগামী কর্মদিবস থেকে বড় পরিসরে এ অভিযান পরিচালিত হবে।

গত ১৩ ডিসেম্বর ডিএনসিসির প্রধান কার্যালয়ে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২৫তম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছিলেন, রাজধানীতে বাস রুট রেশনালাইজেশনের আওতায় চালু হওয়া ২১,২২ ও ২৬ নম্বর রুটে নগর পরিবহন ব্যতীত অন্য কোনো বাস চলবে না। এই রুটে শুধু নগর পরিবহন চলবে।


আরও খবর

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট বন্ধ

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

রাজধানীতে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩




কারাগারে শূন্য পদে চিকিৎসক নিয়োগ না দেওয়ায় স্বাস্থ্যের ডিজিকে তলব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কারাগারে চিকিৎসক সংকট নিরসনে গাফিলতির ঘটনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে (ডিজি) তলব করেছেন হাইকোর্ট। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি কেএম কামরুল কাদের ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আগামী ২৪ জানুয়ারি সশরীরে হাজির হয়ে স্বাস্থ্যের ডিজিকে এর কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন রিটকারী আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন।

গত বছরের ১৫ নভেম্বর দেশের সব কারাগারে শূন্য পদে চিকিৎসক নিয়োগ দিতে কারা কর্তৃপক্ষ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে গত বছরের ১১ ডিসেম্বর মধ্যে এই নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করতে বলা হয়। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়।

২০১৯ সালে কারাগারে চিকিৎসক সংকট নিয়ে দেশের কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে আদালতে রিট করেন আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন।

পরে ওই বছরের ২৩ জুন জারি করা রুলে কারাগারে মানসম্মত থাকার জায়গা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি হবে না এবং বন্দীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিতে কারা চিকিৎসকের শূন্য পদে নিয়োগ দিতে নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চান আদালত।

সে সময় চার সপ্তাহের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয় সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব (সুরক্ষা বিভাগ), স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচিব, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও কারা মহাপরিদর্শককে এসব রুলের জবাব দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ ছাড়াও অপর এক আদেশে আদালত সারাদেশের সব কারাগারে বন্দীদের ধারণক্ষমতা, বন্দী ও চিকিৎসকের সংখ্যা এবং চিকিৎসকের শূন্যপদের তালিকা দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন।


আরও খবর