Logo
শিরোনাম

আবাসিক হোটেলের কক্ষে নিখোঁজ ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী আদনান সাকিব (২৫)। গত মঙ্গলবার থেকে তাঁর মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না সাকিবের স্ত্রী। পরে গতকাল বুধবার শাহবাগ থানায় নিখোঁজ স্বামীর সন্ধান পেতে তিনি একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

জিডি করার পর থেকে থানা পুলিশ আদনান সাকিবকে খুঁজতে মাঠে নামেন। মুঠোফোন ট্র্যাকিং করে তাঁর সর্বশেষ অবস্থান শনাক্ত করেন। পুলিশের দাবি, তদন্তে নেমে তাঁরা জানতে পারেন, সাকিব রাজধানীর সেগুনবাগিচার হোটেল কর্ণফুলি নামের একটি আবাসিক হোটেলে রয়েছেন।

গতকাল গভীর রাতে হোটেল কর্ণফুলিতে যান শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) পলাশ সাহা। তিনি বলেন, কর্তৃপক্ষ আমাকে জানালেন, এ হোটেলের সিট বুকিং সাকিবই করেন। হোটেলে প্রবেশের সময় সাকিব কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন, তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে এসেছেন। পরে আমরা সাকিবের কক্ষের সামনে গিয়ে দেখি ভেতর থেকে তালা দেওয়া।

এসআই পলাশ আরও বলেন, অনেক হাঁকডাক করলাম। কিন্তু, কোনো আওয়াজ শুনতে না পেয়ে আমরা কক্ষের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকি। ঢুকে দেখি, সাকিব রশি পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে রয়েছেন। মনে হলো, আরও আগেই তিনি আত্মহত্যা করেছেন। পরে সেখান থেকে রাত দেড়টার দিকে তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, আদনান সাকিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের শিক্ষার্থী। তিনি শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের আবাসিক ছাত্র ছিলেন। সাকিবের বাড়ি নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায়।

এসআই পলাশ সাহা আরও বলেন, আদনান সাকিবের পরিবারকে এ ঘটনা জানানো হয়েছে। তাঁর বাবা-মা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। ফলে, সাকিবের ভাই-ভাবী ও স্ত্রী থানার হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


আরও খবর



সোমালিয়ার মোগাদিসুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে হতাহত ২৮

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৫ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২৩ জন। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) ভোরে পূর্ব আফ্রিকার দেশটির রাজধানীতে ভয়াবহ এই বিস্ফোরণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে বলে কর্মকর্তা ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানা যায়। -রয়টার্স

বার্তাসংস্থাটি বলছে, বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যায় এবং ধোঁয়ার কুণ্ডলি উঠতে দেখা যায়। সোমালিয়ার আমিন অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের পরিচালক আব্দিকাদির আব্দিরহমান রয়টার্সকে জানান, বিস্ফোরণের পর এখন পর্যন্ত ৫ জন নিহত এবং আরও ২৩ জন আহত হয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি।এদিকে বিদ্রোহী গ্রুপ আল-শাবাব এই হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছেন গোষ্ঠীটির সামরিক অভিযান বিষয়ক শাখার মুখপাত্র আব্দিয়াসিস আবু মুসাব। রয়টার্সকে তিনি জানান, রাজধানী মোগাদিসুতে জাতিসংঘের একটি গাড়িবহরকে লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়।

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসুর প্রাণকেন্দ্র কে৪ জংশনে হওয়া এই বিস্ফোরণের মাত্রা ও তীব্রতা এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে সেখান থেকে কিছুটা দূরে অবস্থিত মাকাসার নাম স্থানের দুটি স্কুলের দেওয়াল ভেঙে যায়। এছাড়া বেশ কিছু গাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সোমালিয়ার সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে এক দশকের বেশি সময় ধরে দেশটিতে লড়াই করছে সেই বিদ্রোহী গ্রুপটি।


আরও খবর



জঙ্গিবাদের উত্থান রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকেও হতে পারে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৪২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জঙ্গিবাদের উত্থান রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকেও হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। মন্ত্রী বলেন, যদিও আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সক্ষমতা আগের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে যেকোনো ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় মন্ত্রী একথা বলেন। উপমহাদেশে জঙ্গি, মৌলবাদী, সন্ত্রাস দমন: সরকার ও নাগরিক সমাজের করণীয় শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার ১৩তম বার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভা এবং তিন দিনব্যাপী আলোকচিত্র ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, মিয়ানমার থেকে ১১ লাখ বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাকে জোর করে আমাদের দেশে, আমাদেরকে দিয়ে দেয়া হয়েছে। আমরা এটুকু বলতে চাই, এই যে ১১ লাখ রোহিঙ্গা, তার ভেতর থেকেও জঙ্গিবাদের উত্থান হতে পারে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা যদিও সতর্ক রয়েছি। তারা আমাদের বেড়াজালের মধ্যেই আছে। তারপরও আপনারা দেখেছেন তারা নিজেরা নিজেরা ক্যাম্পের ভেতরেই বিশৃঙ্খলা করছে। এসব নিয়েই আমরা চলছি।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, আমরা মুম্বাই হামলার ঘটনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রেরণা পেয়েছি। কারণ ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে এই হামলার অনেক মিল রয়েছে। এ ধরনের সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় বাংলাদেশ-ভারত একসঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবিরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন- মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী দক্ষিণ এশীয় গণসম্মিলনের সভাপতি বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সহ-সভাপতি শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ও ভাষাসৈনিক ধীরন্দ্রনাথ দত্তের পৌত্রী সমাজকর্মী আরমা দত্ত, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মো. আবদুর রশীদ (অব.) প্রমুখ।


আরও খবর



জলবায়ু সহযোগিতা বাড়াতে সম্মত চীন ও যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জলবায়ু সহযোগিতা বাড়াতে একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। কপ-২৬ জলবায়ু সম্মেলনে দেশ দুটি দশকজুড়ে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

স্থানীয় সময় বুধবার (১০ নভেম্বর) যৌথ ঘোষণায় এতথ্য জানায় যুক্তরাষ্ট্র-চীন।

যৌথ ঘোষণায় উভয় পক্ষই ২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তিতে নির্ধারিত ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা লক্ষ্য অর্জনের জন্য একত্রে কাজ করার জন্য তাদের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি স্মরণে রাখবে। এবং তারা কার্বন নিঃসরণের মাত্রা উল্লেখযোগ্য ব্যবধান কমিয়ে আনতে ধাপে ধাপে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমিত করতে পারলে, তা মানবজাতিকে জলবায়ুর সবচেয়ে খারাপ প্রভাব এড়াতে সাহায্য করবে। একে প্রাক-শিল্পযুগের তাপমাত্রার সঙ্গে তুলনা করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে প্যারিসে বিশ্বনেতারা ব্যাপক কার্বন নির্গমন হ্রাসের মাধ্যমে ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি থেকে ২ ডিগ্রি বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি থেকে রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।


আরও খবর



‘ইকবাল মানসিক ভারসাম্যহীন নয়, সুচতুর সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা উস্কে দেওয়ার অভিযোগে নতুন মামলা হয়েছে। যেখানে একটি নিউজ পোর্টাল পরিচালনাকারী সাজ্জাদ হোসেন শিমুল ও তার ভাই ফয়সাল মবিন পলাশকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (১ নভেম্বর) কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় নতুন করে এ মামলাটি দায়ের করেন সিআইডির পরিদর্শক আতিকুর রহমান। এদিকে মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার মামলার প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন পাগল নয় এবং সে ভবঘুরেও নয় বলে জানিয়েছেন সিআইডি কুমিল্লা অঞ্চলের পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান।

পুলিশ সুপার আরও জানান, ঘটনার দিন নানুয়া দীঘির পাড়ের ঘটনাস্থলে এসে কুমিল্লা টাইমস নামের একটি নিউজ পোর্টালে লাইভ প্রচার করে সহিংসতা উস্কে দেয়। এতে ওই নিউজ পোর্টালের সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন শিমুল ও নির্বাহী সম্পাদক ফয়সাল মবিন পলাশের বিরুদ্ধে সোমবার কোতোয়ালি মডেল থানায় ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টে মামলা দায়েরের পর তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। তারা জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার বাঙ্গরা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

খান মোহাম্মদ রেজওয়ান জানান, রিমান্ডে থাকা আসামি ইকবাল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। তবে রিমান্ডে থাকা মামলার প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন পাগল ও ভবঘুরে বলা হলেও আসলে সে পাগলও নয় ভবঘুরেও নয়।

গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লা নগরীর নানুয়া দীঘির পাড়ে পবিত্র কোরআন অবমাননা ও পরবর্তীতে মন্দির ভাংচুরসহ বিভিন্ন ঘটনায় জেলায় সোমবার পর্যন্ত মোট ১২টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে কোতোয়ালি মডেল থানায় ৮টি, সদর দক্ষিণ মডেল থানায় ২টি এবং দাউদকান্দি মডেল থানায় ১টি ও দেবীদ্বারে একটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে কোতোয়ালি মডেল থানায় পবিত্র কোরআন অবমাননা ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের ঘটনার মূল হোতা ইকবাল হোসেনসহ চার আসামি গত ২৯ অক্টোবর থেকে দ্বিতীয় দফায় ৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।


আরও খবর



ঢাকায় মাত্র ১৯৬টি বাস সিএনজিচালিত, দাবি এনায়েত উল্যার

প্রকাশিত:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
১০-১২ বছর আগে ঢাকায় গ্যাসচালিত গাড়ি চলাচল করতো। এখন এসব বাসের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। আগামী তিনদিনের মধ্যে ডিজেল ও সিএনজিচালিত বাসে স্টিকার লাগানো হবে

ঢাকা শহরে চলাচল করা ছয় হাজার বাস-মিনিবাসের মধ্যে মাত্র ১৯৬টি সিএনজিচালিত বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

বুধবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউয়ে সংগঠনটির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন তিনি।

বাসভাড়া পুনর্নির্ধারণ ও বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

এনায়েত উল্যাহ বলেন, গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে বাস-মিনিবাসের ভাড়া পুনর্নির্ধারণ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বলা হচ্ছে, ঢাকা এবং দূরপাল্লার বাস-মিনিবাসের ৮০-৯০ শতাংশ সিএনজিচালিত। এসব বাসে বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। কিন্তু আমরা ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় ১২০টি কোম্পানির মধ্যে মাত্র ১৩ কোম্পানির ১৯৬টি বাস সিএনজিচালিত পেয়েছি। এটি মোট গণপরিবহনের মাত্র ৩ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তিনি আরও বলেন, ১০-১২ বছর আগে ঢাকায় গ্যাসচালিত গাড়ি চলাচল করতো। এখন এসব বাসের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। আগামী তিনদিনের মধ্যে ডিজেল ও সিএনজিচালিত বাসে স্টিকার লাগানো হবে। তখন বিআরটিএর নির্ধারিত ভাড়া নিতে হবে। এই গাড়িগুলো যাতে অতিরিক্ত ভাড়া নিতে না পারে সেজন্য মালিক-শ্রমিকদের সমন্বয়ে ১১টি ভিজিল্যান্স টিম মাঠে থাকবে।

আগামী তিনদিন পর থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সিটিং সার্ভিস এবং গেইট লক সার্ভিস থাকবে না বলে জানান বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব এনায়েত উল্যাহ।

তিনি বলেন, সিটিং সার্ভিসে কোনো নিয়মনীতি নেই। তারা নিজের মতো করে যাত্রী পরিবহন করে। এতে ভোগান্তি হয় যাত্রীদের। তাই সিটিং বা গেটলক সার্ভিস থাকবে না।


আরও খবর