Logo
শিরোনাম

আজ বিশ্ব সুখ দিবস

প্রকাশিত:শনিবার ২০ মার্চ ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১৯৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
প্রতিবছর বিশ্বের একাধিক দেশ দিবসটি নানা আয়োজনে পালন করে। জাতিসংঘ তাদের সদস্যভুক্ত দেশগুলোর ওপর পূর্ণ এক বছর জরিপ পরিচালনা করে সুখী দেশের তালিকা প্রকাশ করে এ দিনে

মানুষ সুখ প্রত্যাশী। সবাই সুখী হতে চায়। পৃথিবীতে এমন কাউকে পাওয়া যাবে না যে সুখী হতে চায় না।  বিশ্ব সুখ দিবস আজ। পৃথিবীর প্রতিটি মানুষের সুখ-সমৃদ্ধি নিশ্চিত করার জন্য দিবসটি পালনের সিদ্ধান্ত নেয় জাতিসংঘ

২০১২ সালের ৮ জুন জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের এক অধিবেশনে এ দিনটিতে আন্তর্জাতিক সুখ দিবস বা বিশ্ব সুখী দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  অধিবেশনে জাতিসংঘের ১৯৩টি দেশের প্রতিনিধিরা দিবসটিকে স্বীকৃতি দেন। এরপর থেকে প্রতিবছর বিশ্বের একাধিক দেশ দিবসটি নানা আয়োজনে পালন করে। জাতিসংঘ তাদের সদস্যভুক্ত দেশগুলোর ওপর পূর্ণ এক বছর জরিপ পরিচালনা করে সুখী দেশের তালিকা প্রকাশ করে এ দিনে।

দিবসটির প্রতিষ্ঠাতা অর্থনীতিবিদ জেম এলিয়েন। তিনি জাতিসংঘের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও জাতিসংঘের পরামর্শদাতা এবং শান্তি ও নিরাপত্তা অর্থনীতিবিদদের প্রতিনিধি এবং জাতিসংঘ অনুমোদিত এনজিও ইসিওএসসি বিশেষ পরামর্শদাতার দায়িত্ব পালন করেন।

দিবসটি পালন সংক্রান্ত বিষয়ে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের প্রস্তাবে বলা হয়, সুখের অনুসন্ধান একটি মৌলিক মানবিক লক্ষ্য। মানুষের জীবনের মূল উদ্দেশ্য সুখে থাকা। ভারসাম্যপূর্ণ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন, দারিদ্র্য দূরীকরণসহ পৃথিবীর প্রতিটি মানুষের সুখ-সমৃদ্ধি নিশ্চিতে দিবসটি পালন করা হবে।

প্রস্তাবে জাতিসংঘের সব সদস্য রাষ্ট্রকে শিক্ষা ও জনসচেতনতামূলক কর্মকাণ্ডসহ যথাযথ রীতিতে আন্তর্জাতিক সুখ দিবস পালনের আহ্বান জানানো হয়। এরপর থেকে প্রতিবছর বিশ্বের অনেক দেশেই দিবসটি নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন হয়।


আরও খবর

প্রতি কেজি সবজির দাম ১ লাখ টাকা

শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১




শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটির এক বছর আজ

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
গত বছরের এইচএসসি পরীক্ষাও হয়নি। পরীক্ষা না নিয়েই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়নের ফল গত জানুয়ারিতে ঘোষণা করা হয়। এছাড়াও প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক

প্রাণঘাতী করোনা মহামারির কারণে গেল বছর ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। সে হিসেবে আজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটির একবছর পূর্ণ।

সরকারের সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ২৯ মার্চের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সম্ভাবনা রয়েছিল। তবে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির অবনতির কারণে এ সিদ্ধান্তের রিভিউ হতে পারে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বিঘ্নিত হয়েছে গত এক বছর। সংক্রমণ পরিস্থিতিতে গত বছরের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা এবং জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

গত বছরের এইচএসসি পরীক্ষাও হয়নি। পরীক্ষা না নিয়েই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়নের ফল গত জানুয়ারিতে ঘোষণা করা হয়। এছাড়াও প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থীদের ওপরের শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হলে ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটির ঘোষণা দেওয়া হয়। যদিও ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ছিল। সে কারণে ১৮ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি কার্যকর ধরা হয়। প্রথমে কওমি মাদরাসাসহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হলেও পরে কওমি মাদরাসা চালুর নির্দেশনা দেয় সরকার। তবে বন্ধ থাকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।


আরও খবর



মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে দুই সপ্তাহের জন্য রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের মাধ্যমে মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

আজ বুধবার বিআরটিএর এক অফিস আদেশে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত (আপাতত দুই সপ্তাহ) রাইড শেয়ারিং সার্ভিসে মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও, গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনাও দিয়েছে বিআরটিএ।


আরও খবর

লকডাউনেও ট্রাফিক জ্যাম

মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১




মায়ের লাশ নিয়ে ৩ দিন ধরে ঘুমালেন সন্তানরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মায়ের লাশ দুদিন ধরে লুকিয়ে রেখে ঘরবন্দি হয়ে ছিলেন ছেলে-মেয়েরা। দাফন না করে লাশ নিয়ে ঘরে ঘুমিয়েছেন তারা। এমন অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটেছে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সদরের রাজনপুর গ্রামে।

সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা জানাজানি হলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। দুদিন ধরে লাশ ঘরবন্দি থাকায় মরদেহটি ফুলে গিয়ে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। পরে নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও স্থানীয় গ্রামবাসী লাশটি দাফন করেন।

পুলিশ ও প্রতিবেশীরা জানান, উপজেলা সদরের ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ছানা মিয়া চলতি বছরের ২ জানুয়ারি মারা যান। স্ত্রীর সঙ্গে বনিবনা ছিল না তার। যে কারণে ছানা মিয়ার স্ত্রী চল্লিশোর্ধ্ব জেসমিন বেগম এক ছেলে ও ৩ মেয়েকে নিয়ে সিলেট মহানগরে বসবাস করতেন।

অসুস্থ অবস্থায় গত শনিবার (২০ মার্চ) নগরের মিরবক্সটুলাস্থ উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান। ওইদিন গভীর রাত ৩টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যান ছেলে-মেয়েরা। এরপর থেকেই তারা ঘরবন্দি ছিলেন। বাড়ির আশপাশের লোকজনও জানতেন না ঘরের ভেতর মরদেহ আছে!

প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সোমবার (২২মার্চ) সন্ধ্যায় অ্যাম্বুলেন্সচালক টাকা চাইতে বাড়িতে গেলে ঘরে মরদেহ রাখার বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে বাড়ির আত্মীয় স্বজনরা থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে।

বাড়ির লোকজন জানান, সাংসারিক জীবনে ছানা মিয়ার সঙ্গে তার স্ত্রীর দূরত্ব থাকলেও প্রায় অর্ধকোটি টাকার সম্পদ বিক্রি করে সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ দিয়ে গেছেন। কিন্তু তারাও ঠিকমতো পড়ালেখা করতে পারেনি। আর মরদেহের সঙ্গে একই ঘরে বসবাসের বিষয়টি সন্তানদের মানসিক সমস্যা হিসেবে দেখছেন তারা। কেননা তারাও জানতেন ঘরে লোকজন আছে। ডাকাডাকি করলেও জবাব দিতেন, কিন্তু দরজা খুলতেন না।


আরও খবর



বলিউড কাঁপাতে আসছেন সঞ্জয়কন্যা শানায়া

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৩৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনেক দিন ধরেই বি-টাউনে স্টার কিড শানায়া কাপুরের অভিষেক নিয়ে কানাঘুষো চলছিল। অবশেষে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলো। নির্মাতা-প্রযোজক করণ জোহরের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের হাত ধরে বলিউডে যাত্রা শুরু করতে চলেছেন শানায়া।

বলিউড হাঙ্গামার খবর, বুলবুল-এর তৃপ্তি দিমরি, গিল্টির গুরফাতে পিরজাদা, উরি দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক-এর ধৈর্য কারওয়া ও দস্তানা টুর লক্ষ্যের পর ধর্ম কর্নারস্টোন এজেন্সি তাদের নতুন প্রতিভার নাম ঘোষণা করল। আর সেই প্রতিভা হলেন বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় কাপুর ও মাহিপ কাপুরের মেয়ে শানায়া কাপুর।

কিছুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট পাবলিক করেছেন শানায়া কাপুর আর এরই মধ্যে এ মাধ্যমে তাঁর অনুসরণকারী হয়েছে প্রায় সাড়ে চার লাখ। সেখানে এ সুখবর প্রকাশ করেছেন শানায়াও। লিখেছেন প্রথম সিনেমার কাজ শুরু করার জন্য উদগ্রীব তিনি। সিনেমাটির শুট শুরু হবে জুলাইয়ে।

জাহ্নবী কাপুরের গুঞ্জন সাক্সেনাদ্য কার্গিল গার্ল সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন শানায়া কাপুর। এর আগে মাহিপ কাপুরের নেটফ্লিক্স সিরিজ ফেবুলাস লাইভস অব বলিউড ওয়াইভস-এ দেখা গিয়েছিল শানায়াকে। বলিউডে অভিষেকের আগেই এ স্টার কিডের বেশ ফ্যান-ফলোয়ার রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: শানায়া কাপুর

আরও খবর



হাইকোর্টে চার ভার্চুয়াল বেঞ্চ চালু থাকবে

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সব আদালতের মামলাগুলোর জামিনের মেয়াদ এবং আদালতের অন্তবর্তীকালীন আদেশের কার্যকারিতা বাড়িয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। একইসঙ্গে সুপ্রিমকোর্টে শুধু চারটি বেঞ্চ চালু রাখা হয়েছে। এ ছাড়া অধস্তন আদালতে একজন ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।

গতকাল রোববার রাতে প্রধান বিচারপতির নির্দেশক্রমে হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যেসব মামলায় আসামিকে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত জামিন দেওয়া হয়েছে সেসব মামলার জামিন আগামী দুই সপ্তাহ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে।

এ ছাড়া উচ্চ আদালত থেকে অধস্তন আদালতে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আত্মসমর্পণের শর্তে যেসব মামলায় জামিন দেওয়া হয়েছে সেসব মামলার ক্ষেত্রেও আগামী দুই সপ্তাহ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে। আবার যেসব মামলায় নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অন্তবর্তীকালীন আদেশ দেওয়া হয়েছে, সেসব অন্তর্বর্তীকালীন আদেশগুলোর কার্যকারিতাও আগামী দুই সপ্তাহ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, করোনা পরিস্থিতিতে ৫ এপ্রিল (সোমবার) থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কার্যক্রম সীমিত করা হয়েছে। অন্যান্য অধস্তন আদালত ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালনা না করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তবে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় প্রত্যেক চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে শারীরিক উপস্থিতিতে দায়িত্বপালন করবেন।

নিউজ ট্যাগ: হাইকোর্ট

আরও খবর