Logo
শিরোনাম

আজ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ বৃহস্পতিবার বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ ঘটবে। তবে গ্রহণটি বাংলাদেশ থেকে দেখা যাবে না। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের জলবায়ু মহাশাখা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, আজ বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ১২ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে গ্রহণটি শুরু হবে। কেন্দ্রীয় গ্রহণ শুরু হবে দুপুর ৩টা ৫৫ মিনিটে। সর্বোচ্চ গ্রহণ শুরু হবে বিকেল ৪টা ৪১ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডে। কেন্দ্রীয় গ্রহণ শেষ হবে বিকেল ৫টা ২৮ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে। আর গ্রহণ শেষ হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ১১ মিনিট ১২ সেকেন্ডে।

জলবায়ু মহাশাখা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের পুয়ের্তো রিকো থেকে উত্তর-পূর্ব দিকে উত্তর আটলান্টিক মহাসাগরে গ্রহণ শুরু হবে। কেন্দ্রীয় গ্রহণ শুরু হবে কানাডার হাডসন সাগর থেকে দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে। সর্বোচ্চ গ্রহণ হবে গ্রিনল্যান্ডের আবনানাটা থেকে দক্ষিণপূর্ব দিকে হান্স আইল্যান্ডে। রাশিয়ার মাগদান ওব্লাস্ট শহর থেকে উত্তর-পশ্চিম দিকে বেরিং সাগরে কেন্দ্রীয় গ্রহণ শেষ হবে। গ্রহণ শেষ হবে চীনের ইজহু শহরে।

নিউজ ট্যাগ: সূর্যগ্রহণ

আরও খবর

বন্ধ হচ্ছে উইন্ডোজ ১০

সোমবার ১৪ জুন ২০২১




বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে ১০ জুন

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১১৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চন্দ্রগ্রহণের পর এবার আসছে সূর্যগ্রহণ। গত ২৬ মে চন্দ্রগ্রহণের দিন সুপার মুন ও ব্লাড মুন দেখা গিয়েছিল। তার কয়েকদিন পর এবার সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। এর ফলে অন্ধকারে ঢাকা পড়বে সূর্যের প্রায় ৯৪.৩ শতাংশ।

আগামী ১০ জুন সূর্য ও পৃথিবীর মাঝখানে চলে আসবে চাঁদ। ফলে গ্রহণে ঢাকা পড়বে সূর্য। তবে কেবল একটা বলয় দৃশ্যমান থাকবে। একে বলে রিং অব ফায়ার। সহজেই অনুমান করা যায়, আকাশের কোলে কেমন সৌন্দর্য বিচ্ছুরণ করবে এই দৃশ্য।

রাশিয়া, কানাডা, গ্রিনল্যান্ড ও উত্তর মেরু থেকে আগুনের বলয় দেখা যাবে। এর মধ্যে গ্রিনল্যান্ড থেকেই গ্রহণের চূড়ান্ত অবস্থা প্রত্যক্ষ করা যাবে।

এ ছাড়া ইউরোপ ও এশিয়ার উত্তরাংশ থেকেও গ্রহণ দেখা যাবে। তবে সেখানে আংশিকভাবেই তা দেখা যাবে।

সাধারণভাবে সূর্যের খণ্ডগ্রাস, পূর্ণগ্রাস গ্রহণ ছাড়াও এই বলয়গ্রাস গ্রহণ দেখা যায়। এ বছরের দ্বিতীয় সূর্যগ্রহণ হতে পারে আগামী ৪ ডিসেম্বর। সেটি হবে পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ।

দক্ষিণ আমেরিকা, আন্টার্কটিকার বিভিন্ন প্রান্ত ও প্রশান্ত মহাসাগর, আটলান্টিক মহাসাগর ও ভারত মহাসাগরের কিছু অঞ্চল থেকে সেটা দৃশ্যমান হবে।


নিউজ ট্যাগ: সূর্যগ্রহণ

আরও খবর

বন্ধ হচ্ছে উইন্ডোজ ১০

সোমবার ১৪ জুন ২০২১




নারীর সঙ্গে আপত্তিকর কাজ করতে না দেওয়ায় যুবক নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় অটোরিকশাচালক সিকান্দরকে গলা কেটে হত্যার দুই সপ্তাহ পর এর রহস্য উদ্ঘাটিত হয়েছে। অটোরিকশায় নারীর সঙ্গে আপত্তিকর কাজ করতে না দেওয়ায় খুন হয়েছেন চালক।

মঙ্গলবার সকালে পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, এ ঘটনায় রোববার রাতে আমির হোসেন (৩৫) নামে এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার তার স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দিতে জানা গেছে, অটোরিকশায় নারী নিয়ে অনৈতিক কাজে ভাড়ায় যেতে অস্বীকৃতি জানানোর কারণে পাঁচ দুর্বৃত্ত দা দিয়ে সিকান্দরকে গলাকেটে হত্যা করে। স্বীকারোক্তির পর আসামি আমিরকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেফতার আসামি উপজেলার শুকদেবপুর গ্রামের মৃত জহুর আলীর ছেলে। প্রসঙ্গত, ১১ মে বাড়ি থেকে অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে নিখোঁজ হন সিকান্দর। পরদিন সকালে সাচনা বাজার ইউনিয়নের শরিফপুর সড়কের পাশ থেকে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

সিকান্দর উপজেলার সাচনা বাজার ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের আবদুর রউফের ছেলে। বুধবার রাতে নিহতের ছেলে মাজহারুল ইসলাম মারুফ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করেন।


নিউজ ট্যাগ: সুনামগঞ্জ

আরও খবর



দেশে ফাইজারের টিকা আসছে আজ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কোভ্যাক্সের পক্ষ থেকে ফাইজার বায়োএনটেকের টিকা দেশে আসছে আজ। রবিবার রাতে ফাইজারের এক লাখ ৬২০ ডোজ টিকা দেশে এসে পৌঁছবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক।

তিনি জানান, কোভ্যাক্সের পক্ষ থেকে রোববার রাত ১১টা ২০ মিনিটে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ফাইজারের টিকাগুলো দেশে পৌঁছবে। তবে কাদের এবং কবে থেকে এই টিকা দেওয়া হবে, সে বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত হয়নি বলে জানান তিনি।

এর আগে গত ১৯ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ২ জুন গ্যাভির কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটি থেকে ফাইজারের অন্তত এক লাখ ৬ হাজার টিকা বাংলাদেশে পাঠাবে।

এদিকে দেশের চতুর্থ টিকা হিসেবে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেয়েছে ফাইজারের টিকা। গত বৃহস্পতিবার ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর মহাপরিচালক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের পক্ষ থেকে গত ২৪ মে স্টিকার ইমারজেন্সি ইউজ অথরাইজেশনের জন্য আবেদন করা হয়। আবেদনের প্রেক্ষিতে অধিদপ্তরের ভ্যাকসিন দেওয়ার (ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে সিএমসি পার্ট রেগুলারিটি স্ট্যাটাস) পর্যবেক্ষণ করে ২৫ মে পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সির ক্ষেত্রে ওষুধ ইনভেস্টিগেশনাল ভ্যাকসিন এবং মেডিকেল ডিভাইস মূল্য নির্ধারণ কমিটির মতামতের জন্য উপস্থাপন করা হয়। কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ২৭ মে টিকার অনুমোদন প্রদান করে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ ডিসেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ফাইজারের টিকা জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন করে। এই টিকা ১২ বছরের উপরের বয়সীদের ব্যবহারের উপযোগী এটি সংরক্ষণ করতে হিমাঙ্কের নিচে ৬০ থেকে ৯০ ডিগ্রি তাপমাত্রা প্রয়োজন হয়। তবে ২ থেকে ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ৫ দিন সংরক্ষণ করা সম্ভব।

দেশের করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর এ নিয়ে চারটি টিকা ইমারজেন্সি ইউজ অথরাইজেশন প্রদান করেছে। প্রথমেই ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্র্যাজেনেকা টিকার অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে জরুরি ব্যবহারের জন্য রাশিয়ার উৎপাদিত টিকা স্পুটনিক-এর অনুমোদন দেওয়া হয়। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর তারপরেই অনুমোদন দেয় চীনের সিনোফার্মের টিকা।


নিউজ ট্যাগ: ফাইজারের টিকা

আরও খবর



‘হামাস মোকাবিলায় ইসরায়েলের এই অবস্থা হলে হিজবুল্লাহর সঙ্গে কী হবে?’

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১১৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজা উপত্যকা থেকে হামাস ইসরাইলের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে হাজার হাজার রকেট ছুড়েছে। এসব রকেট যদি সরাসরি বিভিন্ন ভবন বা জনাকীর্ণ এলাকায় পড়ত তা হলে বড় ধরনের ক্ষতি হতো ইসরাইলের।  কিন্তু আয়রন ডোম প্রতিরক্ষাব্যবস্থা বাঁচিয়ে দিয়েছে দেশটিকে। তবে তেলআবিবের জন্য আশঙ্কার খবর হচ্ছে এ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা ভেদ করে ইসরাইলের অভ্যন্তরে হামলার ক্ষেত্রে সাফল্য দেখিয়েছে হামাসের রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র।

এর পর থেকে বিশ্লেষকরা ইসরাইলের নিরাপত্তার নানা ত্রুটি খুঁজে বের করছেন।  গাজার প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস-ইসলামিক জিহাদের হামলায় যদি এ অবস্থা হয়, তবে লেবাননের হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধে জড়ালে ইসরাইলের পরিণতি কী হবে তা নিয়ে শঙ্কিত দেশটির নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা।

ইসরাইলের পররাষ্ট্র এবং জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক বিশ্লেষক গিল মার্সিয়ানো।  যিনি কাজ করছেন বার্লিনভিত্তিক থিংক ট্যাংক জার্মান ইনস্টিটিউট ফর ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাফেয়ার্স (এসডব্লিউপি)-এ।  ইসরাইলের ইংরেজি দৈনিক হারেৎজ পত্রিকায় এক কলামে তিনি লিখেছেন ফিলিস্তিন ও লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসকে মোকাবিলায় ইসরাইল দুর্বল।

তিনি লিখেছেন জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে গত কয়েক দশকে ওয়ার বিইটু্ন দ্য ওয়ার্স নীতি ইসরাইলের অন্যতম রক্ষাকবচ।  কূটনৈতিকভাবে সংকট সমাধানের চেয়ে সামরিক আগ্রাসন সুবিধাজনক বিকল্প হিসেবে স্থান করে নিয়েছে এ নীতি।  কিন্তু এ নীতির অনুসরণ ইসরাইলের জন্য বাস্তব যুদ্ধের দুঃখ-কষ্টের মধ্যে টিকে থাকার অবস্থা খুবই সীমিত পর্যায়ে।

মার্সিয়ানোর মতে, ইসরাইল আধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত এবং তার ভাণ্ডারে গুরুত্বপূর্ণ অভিজ্ঞতা রয়েছে- এমনটিই বলা হয় সবসময়। কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রতিরোধ অক্ষের বিরুদ্ধে সংঘর্ষে ইসরাইল তার লক্ষ্য অর্জন করতে পারছে না।

প্রায় প্রতিটি নতুন সংঘাতে ইসরাইল শক্তি হারাচ্ছে আর গাজার প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস আরও বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠছে, যোগ করেন তিনি। তার লেখায় সাম্প্রতিক সংঘাতে গাজার হামাস ও ইসলামিক জিহাদ আন্দোলনের যুদ্ধ-সক্ষমতা এবং শত্রুপক্ষের ক্ষতি করার ক্ষমতার বিস্তারিত তুলে ধরেন।

সাম্প্রতিক গাজা আগ্রাসনের সময় ইসরাইলি বর্বরতার বিরুদ্ধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লাখ লাখ মানুষ প্রতিবাদ জানিয়ে সমাবেশ করেছেন। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও ব্যবহারকারীরা ছিল সরব। এটিকে ফিলিস্তিনিদের জন্য বড় ধরনের সফলতা হিসেবে দেখছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা।

এ বিষয়ে গিল মার্সিয়ানো লেখেন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ইসরাইল দুর্বল হয়ে পড়ছে। অধিকৃত ফিলিস্তিন ভূখণ্ডে ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞের বিষয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রধান কৌঁসুলি ফাতু বেনসুদা গত মার্চ মাসে তদন্তের যে পদক্ষেপ নেন তাতে দেশটির বিপদে পড়েছে।

ইসরাইলি বর্বরতার সর্বশেষ নজির গাজায় সাম্প্রতিক ইসরাইলি আগ্রাসন।  টানা ১১ দিনের সংঘাতে ২৫৪ ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৬৬ শিশু ও ৩৯ নারী রয়েছে। এ ছাড়া আহত হয়েছে প্রায় দুই হাজার ফিলিস্তিনি।


নিউজ ট্যাগ: হামাস ইসরাইল

আরও খবর



বাইডেনের প্রথম বাজেট ৬ ট্রিলিয়ন ডলারের

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনার কারণে ধুঁকতে থাকা মার্কিন অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ছয় লাখ কোটি ডলারের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী করাই তার লক্ষ্য। মার্কিন নাগরিকদের এ নিয়ে আশা ও তার সরকারের প্রতিশ্রুতির কথা শোনান বাইডেন।

জানুয়ারিতে ক্ষমতায় আসার পর প্রথমবারের মতো ঘোষিত বার্ষিক অর্থনৈতিক পরিকল্পনায় অসমতা বা বৈষম্য দূর করার কথা বলা হয়েছে। এ জন্য সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচি রাখা হয়েছে। গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুকেও। বাড়ানো হয়েছে, ধনীদের ট্যাক্স।

এই বাজেট পরিকল্পনায় ২০৩১ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের ঋণের পরিমাণ জিডিপির ১১৭ শতাংশ বাড়বে, যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন সময়ের চেয়েও বেশি বলে উল্লেখ করেন এই ডেমোক্র্যেট প্রেসিডেন্ট।

আগামী ১ অক্টোবর থেকে মার্কিন অর্থবছর শুরু। তার ঘোষিত এই পরিকল্পনা কংগ্রেসের অনুমোদন পেলেই কার্যকর হবে। 


নিউজ ট্যাগ: জো বাইডেন

আরও খবর