শিরোনাম

আজ দাউদকান্দি মুক্ত দিবস

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি মুক্ত দিবস আজ ৯ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এ দিনে দাউদকান্দি উপজেলা পাকিস্তানী  হানাদার মুক্ত হয়। লঞ্চযোগে পাক সেনারা ঢাকায় পালিয়ে যায়।

মুক্তিযোদ্ধাদের প্রচন্ড আক্রমণের মুখে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী পিছু হটতে শুরু করলে দাউদকান্দির মুক্তিযোদ্ধারা মানসিকভাবে দ্বিগুণ শক্তিশালী হয়ে উঠে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ইলিয়টগঞ্জ, শহিদনগর ওয়ারল্যাস কেন্দ্রে এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের দাউদকান্দিস্থ ডাক বাংলোতে অবস্থানরত পাকিস্তানী  সেনাদের টার্গেট করে উত্তর ও দক্ষিণ পার্শ্ব হতে এক যোগে আক্রমণ শুরু করে। বৃহত্তর দাউদকান্দির মোহাম্মদপুর, ডাকখোলা, গোয়ালমারী, বাতাকান্দি প্রভৃতি এলাকার ক্যাম্প থেকে মুক্তিযোদ্ধারা অগ্রসর হতে থাকে, পূর্ব দিক হতে মিত্র বাহিনীর সহায়তায় মুক্তিযোদ্ধারা আক্রমণ করলে পাকিস্তানী  সেনারা পশ্চিম দিকে হটতে থাকে।

দাউদকান্দি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদ আলম সরকার বাসসকে জানান, ৮ ডিসেম্বর রাত থেকে ৯ ডিসেম্বর সকাল ১১ টা পর্যন্ত যুদ্ধের পর পাক সেনারা দাউদকান্দিতে তাদের শেষ আশ্রয়স্থল সড়ক ও জনপথের বাংলোতে উঠে এবং সেখান থেকে লঞ্চযোগে মেঘনা নদী দিয়ে গজারিয়া হয়ে ঢাকায় পালিয়ে যায়। দুপুরে মুক্তিযোদ্ধারা দাউদকান্দি পৌঁছে হানাদারমুক্ত দাউদকান্দিতে স্বাধীন বাংলার লাল সবুজের পতাকা উড়ায়। আজ দিবসটি পালন উপলক্ষে দাউদকান্দি উপজেলা সদরে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন কর্মসূচি। এসবের মধ্যে দাউদকান্দি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্যোগে দুপুর ৩টায় উপজেলা কার্যালয়ে আলোচনাসভা ও স্মৃতিচারণ, মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।


আরও খবর

আজ খুলনা মুক্ত দিবস

শুক্রবার ১৭ ডিসেম্বর ২০২১

মঙ্গলবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস

সোমবার ১৩ ডিসেম্বর ২০২১




বেলুনের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে শিশুসহ আহত ৩০

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে শিশুসহ ৩০ জন আহত হয়েছেন। উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের বিরুলিয়া গ্রামে বিকেল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আহতদের মধ্যে অন্তত ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদেরসহ কয়েকজনকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বেলুন ফোলানোর জন্য ওই সিলিন্ডারটি ব্যবহার করা হচ্ছিল।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আসিফ ইমরান বলেন, আমরা এখন পর্যন্ত ২০ জনকে দগ্ধ অবস্থায় রিসিভ করেছি। বেশির ভাগই শিশু। আরও কয়েকজন নাঙ্গলকোট হাসপাতাল থেকে আসছে। এর মধ্যে পাঁচ-ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

কুমিল্লা মেডিক্যালে ভর্তি দগ্ধ শিশুদের অভিভাবকরা জানান, ওই ইউনিয়নে ঐতিহ্যবাহী ঠান্ডাকালীর মেলার আয়োজন চলছে। শনিবার ওই মেলা বসবে। তাতে অংশ নিতে আনোয়ার হোসেন নামে বিরুলিয়া গ্রামের এক বেলুন বিক্রেতা বাড়ির সামনে বসে সিলিন্ডারের হিলিয়াম গ্যাস দিয়ে বেলুন ফোলাচ্ছিলেন। তা দেখতে বিকেলে আশপাশের কয়েক বাড়ির শিশুরা সেখানে জড়ো হয়। সে সময় সিলিন্ডারটি বিস্ফোরিত হয়।

কুমিল্লা মেডিক্যালের চিকিৎসক আসিফ জানান, ওই বেলুন বিক্রেতাও আশঙ্কাজনক অবস্থায় সেখানে ভর্তি আছেন।

নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা দেবদাস দেব জানান, দগ্ধ অবস্থায় অন্তত ৩০ জনকে সেখানে আনা হয়। এর মধ্যে কয়েকজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুমিল্লা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে। অন্যরা এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নিউজ ট্যাগ: কুমিল্লা

আরও খবর

কুমিল্লার লাকসামে বাসচাপায় নিহত-২

বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারী ২০২২




চলতি বছরই প্রবৃদ্ধি হবে ৭.২ শতাংশ : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২০ ডিসেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি অর্থবছরেই মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৭.২ শতাংশ হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। সোমবার ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সব খাতেই আমাদের প্রবৃদ্ধি ভালো হচ্ছে। রপ্তানি বাড়ছে, আমদানিও বাড়ছে। অর্থনীতি গতিশীল হচ্ছে। কাজেই যেভাবে অর্থনীতি এগোচ্ছে, তাতে আশা করা যাচ্ছে, চলতি অর্থবছর শেষেই প্রবৃদ্ধি ৭.২ শতাংশ হবে।

চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে বাজেটে জিডিপির প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ। মুস্তফা কামাল জানান, অর্থনীতি যেভাবে এগোচ্ছে, তাতে নির্ধারিত প্রবৃদ্ধি অর্জিত হবে বলে আশা করছি।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বলেছে, চলতি বছরে বাংলাদেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক সবসময় কনজারভেটিভ। আমরা আশা করছি বাজেটের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, রেমিট্যান্স কিছুটা কম হয়েছে। তবে উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই। সামনে দুটি ঈদ আছে। তখন আরও বেশি রেমিট্যান্স আসবে।

তিনি বলেন, রেমিট্যান্স আসার যে প্রবণতা দেখা যাচ্ছে, এ ধারা অব্যাহত থাকলে বছর শেষে ২৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাব। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ৫০ বছরে দেশের অনেক অর্জন হয়েছে।

তিনি বলেন, ১০০ বিলিয়ন ডলার জিডিপি অর্জন করতে ৩৮ বছর লেগেছে। বাকি ১২ বছরে ৪১   বিলিয়ন ডলার অর্জিত হয়েছে। এই সময়ে সবচেয়ে বেশি এগিয়েছে দেশ। এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ২০৩০ সালের মধ্যে উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বিশ্বের কাতারে পৌঁছানো। আমরা যেভাবে এগোচ্ছি, ইনশাল্লাহ কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব।

এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, রোড শো করা হয় বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে তুলে ধরার জন্য। এরসঙ্গে পুঁজিবাজারের কোনো সম্পর্ক নেই। আমি মনে করি, পুঁজিবাজার সঠিক স্থানেই আছে।


আরও খবর



হিজাব নিষিদ্ধ করলো সেন্ট গ্রেগরী উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪০২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
মনে রাখবেন তেলহীন প্রদীপ কখনো আলো ছড়ায় না। আপনারা অনেকই আবার এর তুলনা করেন ব্রাদার রবি'র সাথে

ঢাকার লক্ষ্মীবাজারে ১৮৮২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় সেন্ট গ্রেগরিজ হাই স্কুল এন্ড কলেজ। শিক্ষা বিস্তার ও মানুষ গড়ার জন্য এ বিদ্যালয়ের রয়েছে ঐতিহ্যবাহী ইতিহাস। রয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধে গৌরবময় ইতিহাস।  ১৯৭১ সালের ৩১ মার্চ এই স্কুলের প্রাঙ্গণ থেকে ছাত্র, শিক্ষকসহ মোট ৩০ জনকে পাক হানাদার বাহিনী জগন্নাথ কলেজ সংলগ্ন আর্মি ক্যাম্প এ ধরে নিয়ে যায় ও নির্মম ভাবে হত্যা করে। এই দিন শ্রদ্ধেয় শিক্ষক পি ডি কস্তাসহ আরো একাধিক শিক্ষক কে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়।

অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী এই প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষা লাভ করে বাংলাদেশ তথা বিশ্বে আলো বিতরণ করে যাচ্ছেন। যাদের মধ্যে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদ, নোবেল বিজয়ী অমর্ত্য সেন, রাজনীতিবিদ একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কামাল হোসেন, জামিলুদ্দিন হাসান, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও জামিলুর রেজা চৌধুরী মত গুণীজনেরা রয়েছেন।

কিন্তু এবার সেই সব অতীত সোনালী অধ্যায় ম্লান করে দিয়েছে সেন্ট গ্রেগরিজ হাই স্কুল এন্ড কলেজ অধ্যক্ষ ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গোমেজ সি, এস, সি। গত ১৫ ডিসেম্বর ( বৃহস্পতিবার) ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গোমেজ স্বাক্ষরিত শিক্ষকদের জন্য দেওয়া এক নোটিশে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিজাব/বোরখা নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং তাদেরকে শ্রেণিকক্ষ বা ক্যাম্পাসে এই সব কর্মকাণ্ড পরিচালনা না করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গোমেজ স্বাক্ষরিত সেই নোটিশটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করেছে।

তাছলিম আহমেদ নামে এক সাবেক শিক্ষার্থী নোটিশটি শেয়ার করে লিখেছেন, নোটিশটা সত্যি হলে দুর্ভাগ্যজনক - এমন গ্রেগরী হয়তো আমরা চাইনি।

মোসাদ্দেক সম্রাট মাওলা নামে একজন লিখেছেন, আমাদের পবিত্র স্কুল কোন ধর্ম বিদ্বেষী মানুষের পৈত্রিক সম্পত্তি নয় বরং এই স্কুল আমাদের প্রতিটি গ্রেগোরিয়ানদের। তাই এই স্কুলের সুনাম রক্ষা করা আমাদের প্রতিটি গ্রেগোরিয়ানদের পবিত্র দায়িত্ব। 

সাইমুর রহমান নামে এক শিক্ষার্থী লিখেছেন, আমাদের স্কুল আমাদের সম্প্রীতি শিখিয়েছে যা আমরা এখনও বুকে ধারণ করি। আমাদের স্কুল আমাদের সহাবস্থান শিখিয়েছে যা আমরা এখনও মেনে চলি। মানের অবক্ষয় মনের সান্ত্বনার প্রলেপে ঢেকে রাখার চেষ্টা করা যায় তবে মানসিকতার অবক্ষয় এত সহজে মেনে নেয়া যায় কি?


মোহাম্মদ শামসুদ্দোহা তাপস নামে এক অভিভাবক লিখেছেন,  পুরান ঢাকায় থাকি। কয়েকবছর আগে আমি আমার প্রাণের প্রিয় স্কুল 'সেন্ট গ্রেগরি' থেকে আমার ছেলেদের সরিয়ে ঢাকার আরেক প্রান্তের অন্য স্কুলে নিয়েছিলাম। যা আমার সন্তানদের জন্য ছিল শারীরিক এবং মানসিক ভাবে খুব কষ্টকর এবং আমার জন্য চরমভাবে ব্যায়বহুল...বাচ্চাদের সরানোর কারণে ওই সময় এবং এখনও অনেক বিরূপ মন্তব্য শুনতে হয় অনেক সিনিয়র Gregorian এর কাছথেকে... আশাকরি এইবার বুঝতে পারছেন কতটা মনের কষ্টে আমি আমার ছেলেদের সারিয়েছিলাম এখান থেকে। মনে রাখবেন তেলহীন প্রদীপ কখনো আলো ছড়ায় না। আপনারা অনেকই আবার এর তুলনা করেন ব্রাদার রবি'র সাথে...

ফয়সাল প্রবাল নামে একজন লিখেছেন, তীব্র ধিক্কার জানাচ্ছি। তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তীব্র তিরস্কার জানাচ্ছি। ধর্মবিদ্বেষী এই ব্রাদারের দ্রুত অপসারণ চাই।

এবিষয়ে জানতে অধ্যক্ষ ব্রাদার প্রদীপ প্লাসিড গোমেজ সি, এস, সি সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায় নি।  

প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর এখানে ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা বন্ধ করে দেওয়া হয়। শুধু বাংলা মাধ্যমে পড়াশোনা চলতে থাকে। তবে ২০০৮ সালের দিকে আবার ইংরেজি ভার্সন চালু করা হয়। ২০১৬ সালে স্কুলটিকে কলেজে উন্নীত করা হয়।


আরও খবর

ফের অবরুদ্ধ শাবি ভিসি !

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে তাঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ সোমবার সকালে ধানমণ্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। এ সময় সেখানে বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানাও উপস্থিত ছিলেন।

আজ ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। পাকিস্তানে বন্দিদশা থেকে মুক্তি পেয়ে ১৯৭২ সালের এদিন তিনি সদ্য-স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে প্রত্যাবর্তন করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনের বছরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসটি ভিন্ন মাত্রা ও আবেগের মধ্য দিয়ে উদ্‌যাপন করা হচ্ছে।

 


আরও খবর



কাশ্মীরে বন্দুকযুদ্ধে দুই পাকিস্তানিসহ নিহত ৬

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মিরে নিরাপত্তার বাহিনীর সঙ্গে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই পাকিস্তানিসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যায় কুলগাম ওবং অন্তনাগে সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। নিহতদের সন্ত্রাসী বলে দাবি করছে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী।

পুলিশের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, কাশ্মিরের কুলগাম ও অনন্তনাগ জেলায় দুটি পৃথক সংঘর্ষে জঙ্গিরা নিহত হন। কাশ্মির পুলিশের ইনস্পেক্টর জেনারেল বিজয় কুমার দাবি করেন, নিহতরা পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মুহাম্মদের সদস্য। নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনাকে বড় সাফল্য হিসেবে দেখছেন তিনি।

কাশ্মির পুলিশ আরও জানিয়েছে, নিহত ছয়জনের মধ্যে চার জনকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। তাদের মধ্যে দুজন পাকিস্তানি এবং দুজন স্থানীয় সন্ত্রাসী। বাকি দুজনের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। পুলিশের ধারণা, ইংরেজি নববর্ষের আগে বড়সড় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল তাদের।

এদিকে অনন্তনাগের নৌগাম এলাকায় তল্লাশি অভিযানের সময় এক পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, অনন্তনাগে সংঘর্ষ শুরুর পরই কুলগামের মিরহামা গ্রামে অভিযান চালানো হয়। ওই গ্রামে সন্ত্রাসী লুকিয়ে থাকার খবর ছিল পুলিশের কাছে। সংঘর্ষের ঘটনায় কাশ্মিরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তল্লাশি বাড়িয়েছে প্রশাসন।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২