Logo
শিরোনাম

আল-জাজিরার সেই প্রতিবেদন সরিয়ে নিতে ফেসবুক-ইউটিউবকে চিঠি

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আল-জাজিরার বিতর্কিত প্রতিবেদনটি সামাজিক যোগাযোগমধ্যম থেকে সরিয়ে নিতে ইউটিউব এবং ফেসবুকের কাছে চিঠি দিয়েছে বিটিআরসি।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের নির্দেশের পর এ পদক্ষেপ নেয় সংস্থাটি। বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা ফেসবুক ও ইউটিউবের কাছে মেইল পাঠিয়েছি যেন বাংলাদেশকে নিয়ে আল জাজিরার কনটেন্টটি সরিয়ে নেয়। আশা করছি, তারা আদালতের নির্দেশনাকে সম্মান জানাবে। এখন পর্যন্ত কোনো উত্তর পাইনি।

এর আগে বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ সকল মাধ্যমে থেকে বিটিআরসিকে প্রতিবেদনটি সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

আর জাজিরার ওই প্রতিবেদনের প্রতিবাদে গত গত ৮ ফেব্রুয়ারি কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটির সম্প্রচার বন্ধ এবং অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার্স মেন' প্রতিবেদনটি ফেসবুক ও ইউটিউব থেকে সরানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

অন্যদিকে, বাংলাদেশ ও সরকারের সুনাম ক্ষুণ্ণ করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরা টেলিভিশনে তথ্য চিত্র প্রচার করার দায়ে শায়ের জুলকারনাইন সামি ও ডেভিড বার্গম্যানসহ চার জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন করেছে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন।

ঢাকা মহানগর হাকিম আশেক ইমামের আদালতে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে আল জাজিরায় তথ্যচিত্রের প্রধান চরিত্র জুলকারনাইন ওরফে সামিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার সিএমএম আদালতে মামলার আবেদন করেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট মশিউর মালেক।

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয় আল জাজিরায় প্রচারিত তথ্য চিত্রে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ইসরাইল থেকে যে গোয়েন্দা সরঞ্জাম কেনার বিষয়ে অভিযোগ তোলা হয়েছে তার পক্ষে সুনির্দিষ্ট প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেনি গণমাধ্যমটি।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ডেভিড বার্গম্যান, আল-জাজিরা টেলিভিশনের ডিরেক্টর জেনারেল মোস্তেফা স্যোউয়াগ ও নেত্র নিউজের প্রধান সম্পাদক তাসনিম খলিল।

Share

আরও খবর

ডিভোর্স নিয়ে তামিমার দেওয়া তথ্য ভুল : সুবাহ

বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১




ভেড়ামারার ক্যানেলে মিলল তরুণীর বিবস্ত্র লাশ

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুষ্টিয়া থেকে এস এম সুমন

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় অজ্ঞাত পরিচয়ে (২৪) এক তরুণীর বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার(১৭ই ফেব্রুয়ারি) সকালে ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের চন্ডিপুর বটগাছ নামক স্থানের জিকে ক্যানালের নিচ পানির কিনারায় পড়ে থাকা অজ্ঞাতনামা আনুমানিক (১৮) বছর বয়সের এক মেয়ের বিবস্ত্র লাশ উদ্ধার করেছে ভেড়ামারা থানা পুলিশ।

ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজালাল জানান, মৃত নারীর পরিচয় এখন পর্যন্ত সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি,  তবে কিছু আলামত পাওয়া গেছে।  লাশের ময়না তদন্ত করার জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তবে এলাকাবাসীর দাবি তাকে তামাকের ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে, ধর্ষকরা মেরে রেখে যায়।

এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন‍্য এবং তাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানিয়েছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

Share

আরও খবর

করোনায় ইবি শিক্ষকের মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১




জিয়ার রাষ্ট্রীয় খেতাব প্রত্যাহার প্রশ্নে তদন্ত কমিটি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে তার মধ্যে আছে অবৈধভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল, সংবিধানের মূল নীতি বাতিল, বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের মদদ দেওয়া, খুনিদের বিভিন্ন সময় দেওয়া

মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানসহ বঙ্গবন্ধু হত্যা ও হতাকারীদের সহযোগীদের মুক্তিযুদ্ধে অবদান রাখায় দেয়া রাষ্ট্রীয় খেতাব প্রত্যাহারের বিষয়টি খতিয়ে দেখা এবং আরো প্রমাণাদি সংগ্রহের জন্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এর আগে গত ২ ফেরুয়ারি জিয়াউর রহমান এবং বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত কয়েক জন মুক্তিযোদ্ধা সেনা অফিসার ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ক্ষমতা দখলকারী খন্দকার মোশতাক আহমেদসহ বেশ কয়েকজনের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের সুপারিশ করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)।

মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপিকে প্রধান এবং শাহাজান খান এমপি ও সাবেক সচিব রশিদুল আলমকে সদস্য করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। ঐ প্রজ্ঞাপনে কমিটিকে যেসব অভিযোগের অধিকতর প্রমাণপত্র সংগ্রহের কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে এসব অভিযোগে খেতাব বাতিল করা যায় কি না, সে বিষয়ে কমিটি সুপারিশ করবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সম্প্রতি জামুকার সভায় আলোচনার এক পর্যায়ে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের জন্য জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের প্রস্তাব উত্থাপিত হয়। বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের আত্মস্বীকৃত খুনিদের খেতাব বাতিলের প্রসঙ্গ আলোচিত হয়।

জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে তার মধ্যে আছে অবৈধভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল, সংবিধানের মূল নীতি বাতিল, বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের মদদ দেওয়া, খুনিদের বিভিন্ন সময় দেওয়া বক্তব্যে জিয়াউর রহমানের সম্পৃক্ততার উল্লেখ থাকা খুনিদের দেশ ত্যাগে সহায়তা করা, নিজে মুক্তিযোদ্ধা হয়েও স্বাধীনতা বিরোধীদের নিয়ে সরকার গঠন করায় তার খেতাব বাতিলযোগ্য।

জামুকার ঐ সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে জড়িত জিয়াউর রহমান, খন্দকার মোশতাক, মাহবুব আলী চাষিসহ বেশকয়েক জনের কর্মকাণ্ড মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এ ছাড়া একই ধরনের আরো যেসব মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন তাদের পূর্ণ তথ্যসহ প্রমাণাদি উত্থাপনের জন্য কমিটিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পর যুদ্ধের বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদক হিসেবে ৬৮ জনকে বীর উত্তম খেতাব দেওয়া হয়েছিল এবং এ তালিকায় তিন নম্বরে ছিল জিয়াউর রহমানের নাম। তালিকায় যাদের নাম ছিলো তাদের মধ্যে আব্দুল কাদের সিদ্দিকী ছাড়া বাকী সবাই সশস্ত্র বাহিনীর বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্য ছিলেন। ১৯৭২ সালে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত গেজেটের মাধ্যমে ঐ খেতাব প্রদানের ঘোষণা দেওয়া হয়। রাষ্ট্রপতির নির্বাহী আদেশে তখন তা কার্যকর করা হয়েছেল যা সামরিক গেজেটে প্রকাশিত। এখন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল তা বাতিলের সুপারিশ করল। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এটি কার্যকর করবে।

নিউজ ট্যাগ: জিয়াউর রহমান
Share

আরও খবর



জয়ার থ্রিডি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে ১৯ মার্চ

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৩৪জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জয়া আহসান ছক ভাঙতেই বেশি ভালোবাসেন। এবার নতুন অধ্যায়ে সামিল হলেন তিনি। এই প্রথম বাংলা থ্রি ডি ছবির নায়িকা জয়া। ছবির নাম অলাতচক্র। আগামী ১৯ মার্চ মুক্তি পাচ্ছে সিনেমাটি।

বিখ্যাত লেখক আহমদ ছফার জীবন নিয়ে তৈরি এই ছবি। স্বভাবে প্রথাবিরোধী এবং দুঃসাহসিক বলে পরিচিত এই সাহিত্যিক ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রশিক্ষণ নেওয়ার জন্য পা রেখেছিলেন কলকাতায়। তার ভালবাসার মানুষ তায়বাও সেই সময় একই কারণে এসে পৌঁছেছিলেন কলকাতায়।

মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে সেই গল্পের উপর ভিত্তি করেই ছবির গল্প বুনেছে পরিচালক হাবিবুর রহমান।

আহমদ ছফার চরিত্রে অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল। সাহিত্যিকের প্রেমিকার ভূমিকায় দেখা যাবে জয়াকে। সেই সময়কার কলকাতার নানা অংশকে তুলে ধরা হবে এই জীবনীমূলক ছবিতে। জয়া তাই আশাবাদী অলাতচক্র এপার বাংলার দর্শকরা দেখলে, তাঁদের কাছেও সমাদৃত হবে এই ছবি।

জয়া আনন্দবাজারকে জানান, চলতি বছরে পালিত হবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী। একই সঙ্গে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানেরও জন্ম শতবার্ষিকী। এই দুই সূত্রকে একসঙ্গে উদযাপন করব এই ছবির মাধ্যমে। নতুন ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার এই ছবিকে অন্য মাত্রা দেবে।

নিউজ ট্যাগ: জয়া আহসান
Share

আরও খবর

মারা গেছেন শিল্পী জানে আলম

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১




এবার সু চির ঘনিষ্ঠ সহযোগী গ্রেফতার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০১ মার্চ ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিল অং সান সু চির অন্যতম সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। মিয়ানমারের রাজনৈতিক নেতা উইন হাতেইন শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ভোরে তার বোনের বাসা থেকে গ্রেফতার হন।

সু চিকে গ্রেফতার করে সামরিক শাসন জারি করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হুমকি-ধামকির মধ্যেই নতুন করে এই শীর্ষ রাজনীতিককে আটক করেছে।

সু চির দল এনলডি জানিয়েছে, ইয়াঙ্গুনে তার বোনের বাসায় রাত্রিযাপন করছিলেন। ওখান থেকেই তাকে ধরে নাইপিদোর পুলিশ স্টেশনে নেওয়া হয়েছে। ৭৯ বছর বয়সী সু চির এই সহযোগীকে এর আগেও দীর্ঘ সময় কারাগারে কাটাতে হয়।

উইন হাতেইনকে সু চির ডান হাত হিসেবেও বিবেচিত। গ্রেফতারের আগে এক গণমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন, সামরিক অভ্যুত্থান কোনো জ্ঞানসম্পন্ন কাজ নয়, সামরিক শাসনে দেশকে ধ্বংসের দিকে এগিয়ে নেওয়া হবে, এর বিরুদ্ধে জনতাকে প্রতিরোধ গড়ে তোলা এখনই সময়।

মার্কিন বার্তা সংস্থা এপির তথ্যমতে, গত সোমবার সামরিক অভুত্থ্যানের পর এ পর্যন্ত ১৩০ জনের বেশি রাজনৈতিক ও আইনপ্রণেতাকে আটক করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এ অবস্থায় মিয়ানমারের পরিস্থিতি দিন দিন আরো নাজুকের দিকে যাচ্ছে। সামারিক শাসনের বিরুদ্ধে জনগণের ভেতর ক্ষোভের জন্ম হচ্ছে, অনেককে রাস্তায় প্রতিবাদ জানাতেও দেখা গেছে। শুধু সু চির সহযোগীদেরই আটক করা হচ্ছে না, দেশটির অনেক জায়গায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকসহ ইন্টারনেট পরিষেবাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন খুবই বিরক্ত মিয়ানমারে চলমান পরিস্থিতি নিয়ে। সামরিক বাহিনীকে অবশ্যই ক্ষমতা ছেড়ে রাজবন্দিদের মুক্তি দেওয়া উচিত মনে করছেন বাইডেন।

গত বছরের নভেম্বরের অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় পায় সু চির দল এনএলডি। নির্বাচনে ভুরাডবি হয় সেনাসমর্থিত দলের। সু চির বিরুদ্ধে কারচুপির অভিযোগ তোলে পুনরায় নির্বাচনের আহ্বান জানান সেনাবাহিনী। এমকি ক্ষমতা নিয়ে চলে বনিবনা না হওয়ায় গত সোমবার ভোরে অভ্যুত্থান ঘটিয়ে সু চিসহ অনেক আইন প্রণেতাকে গ্রেফতার করে সেনারা। দীর্ঘ ১০ বছর পর আবারো মিয়ানমার জান্তা সরকারের অধীনে ফিরে গেল। অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞারও হুমকি দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

Share

আরও খবর



আজ বিশ্ব কনডম দিবস

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৬৬জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ বিশ্ব কনডম দিবস। কনডম ব্যবহার করে নিরাপদ শারীরিক সম্পর্কের মাধ্যমে গর্ভধারণ ও এইডসসহ বিভিন্ন যৌন রোগ প্রতিরোধের বার্তা মানুষকে পৌঁছে দিতে এইডস হেলথকেয়ার ফাউন্ডেশন (এএইচএফ) বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের আগের দিন এ দিবসটির প্রচলন করে।

এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো "যৌনতা হোক নিরাপদ" (সেফার ইজ সেক্স)। দিবসটির প্রচারণা উপলক্ষে বিভিন্ন দেশে এইডস হেলথকেয়ার ফাউন্ডেশন এক মিলিয়ন কনডম প্রদান করেছে। এছাড়া সংগঠনটি একটি প্যারোডি মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করেছে এ উপলক্ষে।

সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট মাইকেল উইন্সটেইন জানান, 'শুধুমাত্র নিরাপদ শারীরিক সম্পর্কই নয়, যৌনতা হোক আরো আবেদনময়ী। ভালোবাসাই হলো সেরা নিরাপত্তা। দিবসটিতে মানুষের দ্বারে দ্বারে এই বার্তাগুলো আমরা পৌঁছে দিতে পারি।'

এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্রের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান ইমপালস গ্রুপ ডিসি গত শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) কনডম দিবসের সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দিতে একটি ভার্চুয়াল নাচের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আফ্রিকায় নিরাপদ যৌনতা ও এইডস প্রতিরোধে কাজ করা 'কিং অব কনডম' খেতাবপ্রাপ্ত স্ট্যানলি এনগারা কনডম দিবসের প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি উল্লেখ করে জানান, 'দিনটি আমার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আফ্রিকায় মানুষ আগে কনডম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতো না। এমনকি এর ব্যবহার নিয়েও নানা কুসংস্কার ছিলো। অযাচিত গর্ভধারণ কমানো ও এইডস সহ ভয়াবহ যৌন রোগ ঠেকাতে অনেক দিন ধরেই কাজ করে যাচ্ছি। এ দিবস উপলক্ষে অনেকেই এখন ক্যাম্পেইনে যোগ দিচ্ছে। আমাদের উচিত কনডমের ব্যবহার বাড়ানো। অনেকেই মনে করে কনডম শুধু যৌনকর্মীদের জন্য, যা সঠিক নয়। নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই এটি তৈরি, যা ব্যবহার করতে কারও লজ্জা পাওয়া উচিত না। ভালোবাসা দিবসের বাজেটে প্রত্যেকেরই উচিত ফুল ও অন্যান্য উপহারের সঙ্গে কনডম যোগ করা।'

নিউজ ট্যাগ: বিশ্ব কনডম দিবস
Share

আরও খবর

অর্ধেক পুরুষ-অর্ধেক নারী পাখি

রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১