Logo
শিরোনাম

আমলাতন্ত্রের বিকল্প শূন্যতা: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আমলাতন্ত্রের বিকল্প শূন্যতা। জীবনে শূন্যতা ভয়ংকর বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পরিসংখ্যান ভবনে বিবিএস গ্লোসারি (কনসেপ্টস অ্যান্ড ডেফিশেন) শীর্ষক বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। মূল প্রবদ্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল স্ট্রাটেজি ফর ডেভেলপমেন্ট অব স্টাটিসটিকস (এনএসডিএস) প্রকল্পের পরিচালক দিলদার হোসেন।

আমলাতন্ত্রের প্রসংশা করে এম এ মান্নান বলেন, আমলাতন্ত্রের যে কত প্রয়োজন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমিও এক সময় ছোটখাট আমলা ছিলাম। তবে সকল পর্যায়ে কর্মকর্তাদের উচিত মাঠ পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়ানো। ইউএন, ডিসিসহ মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের উচিত স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান এমনকি মেম্বারদের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানো।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, তথ্য লুকানোর কিছু নেই। ৯৯ শতাংশ ক্ষেত্রে সরকারি তথ্য প্রকাশে কোনো সমস্যা নেই। শুধু রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার কারণে ১ শতাংশ গোপনীয়তা রয়েছে। সেটির প্রতি গণমাধ্যম সম্মান দেখাবে অবশ্যই। আগামীতে হয়তো সেই ১ শতাংশও আর গোপন রাখার প্রয়োজন নাও হতে পারে। সরকার অত্যন্ত স্বচ্ছ।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, কোনো তথ্য লুকাবেন না। আপাদের জরিপে যদি কোনো ভয়ংকর কিছু আসে সে ক্ষেত্রে মহাপরিচালক ও সচিবকে জানাবেন। তারা মনে করলে আমাকে জানাবেন। আমি মনে করলে সরকার প্রধানকে জানাবো।

তিনি আরও বলেন, সরকার বিবিএস এর ওপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে পরিকল্পনা প্রণয়নের ক্ষেত্রে মূল আকর আছে বিবিএস থেকে। এজন্য পরিসংখ্যান ব্যুরোর বিশুদ্ধতা দরকার। আমরা জনগণের পক্ষে কাজ করি। আমলাদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। বেশি বেশি প্রশিক্ষণ দিতে হবে।

দিলদার হোসেন জানান, প্রকাশনাটিতে কৃষি, শিল্প, পরিবেশ, ব্যবসা, উৎপাদন, সেবা, জিডিপি, মূল্য ও মজুরি, বৈদেশিক বাণিজ্যে, ব্যাংকিং, দারিদ্র্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাসস্থান, শ্রমশক্তি, জেন্ডার, রেমিট্যান্স, ডেমোগ্রামি, ফার্টিলিটি, মর্টালিটি, মাইগ্রেশনসহ বিভিন্ন বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক বিষয়ে ২ হাজার ৪১টি কনস্পেট ও ডেফিনেশন স্থান পেয়েছে। গ্রন্থটির বাংলা অনুবাদ এবং তিন বছর পর পর এর হালনাগাদকরণ প্রয়োজন হবে।

স্বাগত বক্তব্যে বিবিএস মহাপরিচালক তাজুল ইসলাম জানান, বাংলাদেশের সার্বিক পরিসংখ্যান ব্যবস্থার উন্নয়নে ২০১৩ সালে মন্ত্রিপরিষদ কর্তৃক জাতীয় পরিসংখ্যান উন্নয়ন কৌশলপত্র বা ন্যাশনাল স্ট্র্যাটিজি ফর দ্য ডেভলপমেন্ট অব স্টাটিসটিকস অনুমোদিত হয়। এটা বাস্তবায়নে সহায়তা এবং বিবিএস এর সার্বিক সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২০১৮ সালে এনএসডিএস ইমপ্লিমেন্টেশন সাপোর্ট প্রজেক্ট গ্রহণ করা হয়। ওই প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম সম্পাদিত হয়েছে।


আরও খবর



হেফাজতের নতুন কমিটিতে জায়গা পাচ্ছেন কারা?

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা নিয়ে জল্পনা-কল্পনা চলছে। কারা আসবে নতুন কমিটিতে, কারা বাদ পড়বে তা নিয়ে চলছে গুঞ্জন। শুনা যাচ্ছে, বিতর্কিত নেতাদের বাদ দিয়েই কমিটি গঠন করা হবে। এমনকি সরাসরি রাজনৈতিক দলের পদে রয়েছে এমন কাউকেই রাখা হয়নি খসড়া কমিটিতে।

সোমবার (৭ জুন) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর খিলগাঁও চৌরাস্তায় মাখজানুল উলুম মাদ্রাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

জানা গেছে, ৩৮ সদস্যবিশিষ্ট যে খসড়া কমিটি করা হয়েছে তাতে জুনায়েদ বাবুনগরীকে আমির এবং নুরুল ইসলাম জিহাদীকে মহাসচিব হিসেবে রাখা হয়েছে। কমিটিতে প্রয়াত আমির আহমদ শফীর বড় ছেলে মো. ইউসুফকেও রাখা হচ্ছে।

এ ছাড়া কমিটিতে মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মাওলানা সালাউদ্দিন নানুপুরী, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, মাওলানা মুহিব্বুল হক (সিলেট) ও মাওলানা উবায়দুর রহমান মাহবুবসহ (বরিশাল) কয়েকজনকে নায়েবে আমির হিসেবে রাখা হয়েছে।

যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে নাম রয়েছে- মাওলানা সাজিদুর রহমান (বি-বাড়িয়া), মাওলানা আবদুল আউয়াল (নারায়নগঞ্জ) ও মাওলানা আরশাদ রহমানী (বসুন্ধরা)।

আর নতুন কমিটি থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছেন- সদ্য বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, নাছির উদ্দিন মুনির, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী, কেন্দ্রীয় নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী, খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, হাসান জামিল, মুফতি হারুন ইজহারসহ নানা ইস্যুতে বিতর্কে জড়িয়ে পড়া হেফাজতের নেতারা।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের সুবর্ণজয়ন্তীতে যোগ দিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে সহিংস ঘটনা ঘটে এবং এ সহিংসতায় অন্তত ১৭ জন নিহত হয়। এসব নাশকতার পেছনে জড়িত থাকার অভিযোগে অন্তত এক ডজন হেফাজত নেতা গ্রেপ্তার রয়েছেন।


নিউজ ট্যাগ: হেফাজতে ইসলাম

আরও খবর



রোহিঙ্গাদের টোপ হিসেবে ব্যবহার করে ক্ষমতায় যেতে চায় সু চি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জান্তা সরকারকে উৎখাত করতে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের সহায়তা চেয়েছে মিয়ানমারের ছায়া সরকার। তাদের সহায়তায় সামরিক সরকারকে উৎখাত করতে পারলে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে আনা এবং নাগরিকত্ব দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছে তারা। খবর এএফপির।

বৃহস্পতিবার রাতে জান্তাবিরোধী জাতীয় ঐক্য সরকার (এনইউজি) তাদের সম্ভাব্য সংখ্যালঘুনীতি নিয়ে তিন পৃষ্ঠার এক বিবৃতি প্রকাশ করে। সেখানেই সামরিক জান্তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে রোহিঙ্গাদের সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে দেশটিতে বিদ্যমান ১৯৮২ সালের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা। সেক্ষেত্রে মিয়ানমারে জন্ম নেয়া সবাইকে বা বিশ্বের যেকোনো স্থানে জন্ম নেয়া বার্মিজ নাগরিকের সন্তানদের পূর্ণ নাগরিকত্ব দানের অঙ্গীকার করেছে এই ছায়া সরকার।

অভ্যুত্থান ঘটিয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের শাসন ক্ষমতা দখল করে নেয় দেশটির সামরিক বাহিনী। ক্ষমতাচ্যুত করা হয় মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) সরকারকে। এরপরই জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে মিয়ানমার।

এমতাবস্থায় জান্তা সরকারও বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হয়। সামরিক সরকার বিরোধী এই বিক্ষোভে আট শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এসময় গ্রেপ্তার করা হয় শত শত মানুষকে। তখনই মিয়ানমারের রাজনীতিকরা জান্তা সরকারকে অবৈধ ঘোষণা দিয়ে ছায়া সরকার গড়ে তোলে।

জাতীয় ঐক্য সরকার (এনইউজি) নামের এই ছায়া সরকারের বেশিরভাগ সদস্যই এনএলডির। সরকার গঠনের পর তারাই মিয়ানমারের বৈধ সরকার বলে দাবি করে এনইউজি। যদিও এনইউজিকে সন্ত্রাসী বলে ঘোষণা দিয়েছে জান্তা সরকার।

নিউজ ট্যাগ: অং সান সু চি

আরও খবর



করোনার উপসর্গ নিয়ে রাজশাহীতে আরো ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১০ জন। এরমধ্যে রাজশাহী ৭ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে, নাটোর ও নওগাঁর ১ জন করে মারা গিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) সকালে রামেক উপ-পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রামেকের দুই ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪০০ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৬৬ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৪১.৫%।

আজ বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) জেলা প্রশাসনের ঘোষণা অনুযায়ী ৭ম দিনের মত চলছে রাজশাহী মহানগরীতে সর্বাত্মক লকডাউন। এ সর্বাত্মক লকডাউন পরিস্থিতি সবসময় অবলোকন করছেন প্রশাসন কিন্তু রাজশাহী নগরীর মানুষ লকডাউন মানলেও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ ব্যাংক-বীমা, কাঁচা বাজার খোলা রাখা ও আম পরিবহন ও বিপণনের কারণগুলোর জন্য বেশ কিছু মানুষকে বিভিন্ন সময়ে বাহিরে চলাচল করতে দেখা গেছে।

এদিকে পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে বেশ সতর্ক দৃষ্টি রেখেছেন। তারা লকডাউনে বাহিরে চলাচলকারীদের পথ রোধ করছেন এবং সন্তোষজনক উত্তর পেলেই তাদের গন্তব্যে যেতে দিচ্ছেন। এ সর্বাত্মক লকডাউনে আমসহ কৃষিজাত পণ্য পরিবহন ও জরুরী সেবা পরিবহন ছাড়া দূরপাল্লার বাস, স্থানীয় গণপরিবহন ও রাজশাহী রেল স্টেশন থেকে সব ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।


আরও খবর



২ মাস পরে ভারতে সর্বনিম্ন সংক্রমণ, মৃত্যু নিয়ে উদ্বেগ থাকছেই

প্রকাশিত:রবিবার ০৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১২২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রায় দুই মাস তাণ্ডব চালানোর পর ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিনই কিছু কিছু করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা কমছে ভারতে। শনিবারের তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছয় হাজার কমেছে। সেদিন সাড়ে ৩ হাজারে পৌঁছানো মৃত্যু কমে রোববার তা কমে এসে দাঁড়িয়েছে আড়াই হাজারের ঘরে।

রবিবার (৬ জুন) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার ও ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

জানা গেছে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজার ৪৬০ জন। নতুন সংক্রমিত রোগী কমেছে ৬ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ৮৮ লাখ ৮ হাজার ৩৭২ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার ৭৮৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৬৭৭ জনের। গত দিনের তুলনায় রোববার এই সংখ্যা কমেছে সাত শতাধিক।

এছাড়াও প্রতিদিনই সক্রিয় রোগী থেকে সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেক মানুষ। কয়েক মাস আগেও দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল ৩৭ লাখের বেশি। তবে শেষ এক মাসে সেই সংখ্যা কমতে কমতে ১৪ লাখের ঘরে নেমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগী কমেছে ৭৮ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৪ লাখ ৭৭ হাজার ৭৯৯ জন।



আরও খবর



সব রেকর্ড ভেঙে ভারতে একদিনে করোনায় ৬১৩৮ মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতে করোনাভাইরাসে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা আগের সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ হাজার ১৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বের অন্য কোনও দেশে এর আগে একদিনে এত বেশি মানুষের মৃত্যু হয়নি। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ভারতেই হয়েছিল।

গত মে মাসের মাঝামাঝিতে সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। তখন দেশটিতে একদিনে ৪ হাজার ৫২৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর গত কয়েক মাস তাণ্ডব চালায় এই ভাইরাস। এক পর্যায়ে দৈনিক সংক্রমণ ৪ লাখ পার হয়ে যায়।

এদিকে বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছে ২ কোটি ৯১ লাখ ৮২ হাজার ৭২ জন। আর মারা গেছে ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৫ জন।

অন্যদিকে করোনায় এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এ পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছে ৩ কোটি ৪২ লাখ ৬৪ হাজার ৭২৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১৩ হাজার ৪৯৪ জন। এছাড়া ব্রাজিল, মেক্সিকো, স্পেন, ইতালি, যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনা ছোবল অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, এই মহামারিতে বিশ্বে এ পর্যন্ত ১৭ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৫০ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ২৬১ জন। সুস্থ হয়েছে ১৫ কোটি ৮৬ লাখ ৬৮ হাজার ৯৩৮ জন।



আরও খবর