Logo
শিরোনাম

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন এবং ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান তিনি। সে সময় আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।

এই রাজনৈতিক দলটি এ দেশের সুদীর্ঘ রাজনীতি এবং বাঙালি জাতির আন্দোলন-সংগ্রামের গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক। প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী দলটির নেতৃত্বেই এদেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়। রোজগার্ডেনে জন্মগ্রহণের পর থেকে নানা লড়াই, সংগ্রাম, চড়াই-উৎরাইপেরিয়ে দলটি এখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায়।

আওয়ামী লীগের ইতিহাস থেকে জানা যায়, এ দেশের অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল ও তরুণ মুসলিম লীগ নেতাদের উদ্যোগে ১৯৪৯ সালের ২৩-২৪ জুন পুরনো ঢাকার কেএম দাস লেনের বশির সাহেবের রোজ গার্ডেনের বাসভবনে একটি রাজনৈতিক কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে পাকিস্তানের প্রথম বিরোধী দল পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়।

মুসলিম লীগের প্রগতিশীল নেতা-কর্মীরা সংগঠন থেকে বেরিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন আওয়ামী মুসলিম লীগ। প্রথম সম্মেলনে সভাপতি নির্বাচিত হন মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী এবং সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন প্রথম কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক।

১৯৬৬ সালের সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। পরে তিনি হয়ে ওঠেন বাঙালির একচ্ছত্র নেতা। স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি ও জাতির পিতা।

৬৯-এর গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক শাসক-শোষক গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে বাঙালির যে জাগরণ ও বিজয় সূচিত হয়, সেই আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিল আওয়ামী লীগ এবং এই আন্দোলনের পথ ধরেই বাঙালি জাতি স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা, ৩ নভেম্বর জেলখানায় জাতীয় চার নেতাকে হত্যার পর নেতৃত্ব শুন্যতায় পড়ে আওয়ামী লীগ। এর পর দলের মধ্যে ভাঙনও দেখা দেয়। ১৯৮১ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। তার নেতৃত্বে দ্বিধা-বিভক্ত আওয়ামী লীগ আবার ঐক্যবদ্ধ হয়। তিন দশক ধরে তাঁর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ পরিচালিত হচ্ছে। এই সময়ে আন্দোলন-সংগ্রামের পাশাপাশি চারবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হতে পেরেছে দলটি।

আবার ৭৩ বছরের মধ্যে প্রায় ৫০ বছরই আওয়ামী লীগকে থাকতে হয়েছে রাষ্ট্র ক্ষমতার বাইরে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু সরকারের সাড়ে তিন বছর এবং ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ৫ বছর, ২০০৯ সাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা করছে।

২০০১ সালের নির্বাচনে পরাজয়ের পর অনেকটা সুসংহত হতে সক্ষম হয়ে জোট সরকার বিরোধী আন্দোলনে সফলতার পরিচয়ও দিয়েছিল দলটি। কিন্তু এই আন্দোলনের শেষ পর্যায়ে ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারির পরিবর্তিত রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার দায়িত্ব নিলে আবারো নতুন সংকটের মুখে পড়ে যায় দলটি। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাসহ প্রথম সারির অসংখ্য নেতারা গ্রেফতার এবং একাংশের সংস্কার তৎপরতায় কিছুটা সংকটে পড়ে দলীয় কার্যক্রম।

তবে, সকল প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলা করেই ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট ঐতিহাসিক বিজয় অর্জন করে। ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি গঠিত হয় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার। দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা।

পরে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি বিএনপি-জামায়াত জোটের শত প্রতিকূলতাকে মোকাবেলা করে নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে এবং তৃতীয় বারের মত প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা। সর্বশেষ, ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে এবং শেখ হাসিনা চতুর্থবারের মত প্রধানমন্ত্রী হন।

নির্বাচনী অঙ্গীকার অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত, আধুনিক বিজ্ঞান ও তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর সুখী, সমৃদ্ধ ডিজটাল বাংলাদেশ গড়াসহ বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করছে দলটি।


আরও খবর



রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর গুলিস্তানে ট্রাকের ধাক্কায় অজ্ঞাত (২৫) এক যুবক মারা গেছেন। নিহতের পরিচয় সম্পর্কে এখনো জানতে পারেনি পুলিশ। শুক্রবার (১ জুলাই) দিনগত রাতে গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনের রাস্তায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পরে প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। রাত ১২টার দিকে ওই যুবককে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

উদ্ধারকারীদের একজন রবিউল জানান, গুলিস্তান হলমার্কের সামনের রাস্তায় একটি ট্রাকের ধাক্কায় অজ্ঞাত যুবক প্রথমে আহত হযন। পরে তাকে কয়েকজন মিলে হাসপাতালে নিয়ে আসলে মারা যান।

রবিউল নিহতের নাম-ঠিকানা জানাতে না পারলেও গুলিস্তান এলাকায় তাকে ঘোরাফেরা করতে করতে দেখেছেন বলে জানান। 

ঢাকা মেডিক্যাল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।


আরও খবর

ভিড় নেই লঞ্চে, ভাড়াও কমেছে

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2




যুক্তরাষ্ট্রে শিশুর গুলিতে পিতার মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘরের ভেতর বন্দুক খুঁজে পেয়েছিল দুই বছরের এক শিশু। দুর্ভাগ্যক্রমে ওই বন্দুক দিয়ে না বুঝেই নিজের বাবাকে গুলি করে বসে সে। এতে ওই ব্যক্তি প্রাণ হারান। এই ঘটনায় ওই শিশুটির মায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কর্মকর্তারা সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

গত মাসে রেগি মার্বি (২৬) তার ছেলের গুলিতে নিহত হন। ঘটনার সময় তিনি ভিডিও গেম খেলছিলেন। তিনি কিছু বুঝে ওঠার আগেই তার ছেলে তাকে গুলি করে বসেন। অরেঞ্জ কাউন্টি শেরিফের কার্যালয় জানিয়েছে, নিজ বাড়িতেই গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন মার্বি।

তার স্ত্রী মেরি আয়ালা এবং তার তিন সন্তানও সে সময় বাড়িতেই ছিল। অরেঞ্জ কাউন্টি শেরিফ জন মিনা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বন্দুকটি সঠিকভাবে সংরক্ষণ করা হয়নি। এমনকি এটা এমন ভাবে রাখা হয়েছিল যে, চাইলেই সেটি কেউ ব্যবহার করতে পারবে। সে কারণেই দুই বছরের ওই শিশুটি খুব সহজেই বন্দুকটি দিয়ে তার বাবাকে গুলি করে বসে। আর এর ফলাফলও হয়েছে খুব ভয়াবহ। এমন ঘটনা কেউ আশা করেনি।

জন মিনা বলেন, ২৮ বছরের আয়ালার অবহেলার কারণে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগ্নেয়াস্ত্র রাখা এবং তা সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে না পারার জন্য তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

কর্মকর্তাদের আয়ালা জানান, ঘটনার দিন তার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে তাকে জানায় তার দুই বছর বয়সী সন্তান তার বাবাকে গুলি করেছে। কিন্তু শিশুটির হাতে এই বন্দুক কিভাবে গেল সে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

তবে ওই ঘটনায় শিশুদের কোনো ক্ষতি হয়নি। এই ঘটনার পর ওই শিশুদের ফ্লোরিডা ডিপার্টমেন্ট অব চিলড্রেন অ্যান্ড ফ্যামিলির হেফাজতে রাখা হয়েছে। শেরিফ অফিসের কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, এ ধরনের অস্ত্র নিরাপদে রাখা গেলে এই দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হতো।


আরও খবর



আজ পেশ করা হবে দেশের ৫১ তম বাজেট

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ১৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্ব অর্থনীতির অস্থির পরিস্থিতি ও মূল্যস্ফীতির মত চ্যালেঞ্জকে সামনে রেখে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল আজ (০৯ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার জাতীয় বাজেট পেশ করবেন। এটি দেশের ৫১তম এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ২৩তম বাজেট।

অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল এমন সময়ে তার চতুর্থ বাজেট পেশ করতে যাচ্ছেন যখন বিশ্ব অর্থনীতি রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অস্থির পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে এবং একইসাথে কোভিড-১৯ মহামারি থেকে অর্থনীতির পুনরুদ্ধার গতিও মন্থর।

এবারের বাজেটে প্রাধিকার পাবে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী। কোভিডের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তন শিরোনামের এবারের বাজেটি প্রস্তুত হয়েছে সরকারের অতীতের অর্জন এবং উদ্ভুত বর্তমান পরিস্থিতির সমন্বয়ে। এবারের বাজেটে সঙ্গত কারণেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষি খাত, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ, কর্মসংস্থান ও শিক্ষাসহ বেশ কিছু খাত।

বৈশ্বিক ঝুঁকি কাটিয়ে অর্থনীতির স্থিতিশীলতা রক্ষার পাশাপাশি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রেখে জনজীবনে স্বস্তি ফেরানো এবারের বাজেটের প্রধানতম লক্ষ্য।

ইতিমধ্যে সরকার মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রস্তাবিত বাজেটে সরকার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ এবং মূল্যস্ফীতির নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ।

আগামী অর্থবছরের বাজেটে সরকারের আয়ের সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৩৬ হাজার ২৭১ কোটি টাকা। ঘাটতি বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ২ লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

প্রস্তাবিত বাজেটে কর বাবদ আয় ধরা হচ্ছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মাধ্যমে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকা। এছাড়া রাজস্ব বোর্ড বহির্ভূত কর থেকে আয় করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হচ্ছে ১৮ হাজার কোটি টাকা। আর কর ছাড়া আয় ধরা হয়েছে ৪৫ হাজার কোটি টাকা।

বাজেটের ঘাটতি পূরণে সরকারকে অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণ নিতে হবে। যে কারণে প্রস্তাবিত বাজেটে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা। যেখানে বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৯৫ হাজার ৪৫৮ কোটি টাকা।


আরও খবর



প্রিজনভ্যানে বাসের ধাক্কা, পুলিশসহ আহত ৯

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর উপকণ্ঠ কেরানীগঞ্জে প্রিজন ভ্যানে বাসের ধাক্কায় দুই পুলিশ সদস্য ৭ কয়েদি গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের কারো নাম জানা যায়নি।

সোমবার (০৬ জুন) রাতে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার রাজেন্দ্রপুর এলাকায় সিরাজদিখান পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আহত পুলিশ সদস্যদের রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে এবং কয়েদিদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত থেকে আসামিদের নিয়ে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশে রওনা দেয় প্রিজনভ্যানটি। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক থেকে বাম দিকে মোড় নেওয়ার পর সিরাজদিখান পরিবহনের একটি দ্রুতগামী বাস ভ্যানটিকে পেছন থেকে সজোরে ধাক্বা দিলে প্রিজনভ্যানটি উল্টে যায়। বাসটি দ্রুত পালিয়ে গেছে।


আরও খবর



প্রস্রাব হয়ে যাওয়ার পরেও বিন্দু মূত্র ত্যাগ, কিসের সঙ্কেত ?

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৯৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রস্রাব হয়ে যাওয়ার পরেও অনেক সময় দেখা যায় কয়েক বিন্দু মূত্র ত্যাগ হতেই থাকে। বিষয়টি কিন্তু খুব একটা বিরল নয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বয়স ও স্বাস্থ্য নির্বিশেষে অধিকাংশ পুরুষের ক্ষেত্রেই এমনটা হয়। বিষয়টিকে বিজ্ঞানের ভাষায় বলে টার্মিনাল ড্রিপিং।

তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিষয়টি স্বাভাবিক হলেও কিছু কিছু সময় এটি বিপদের সঙ্কেত হতে পারে। মূল প্রস্রাবের পর অনিয়ন্ত্রিত ভাবে আবার কিছুটা প্রস্রাব বেরিয়ে আসা টার্মিনাল ড্রিপিং-এর তুলনায় আলাদা। একে বলে পোস্ট মিকচুরিশন ড্রিবলিং বা পিএমডি। মূত্রথলি থেকে শিশ্নমুখ পর্যন্ত যে নালি থাকে তাকে ইউরেথ্রা বলে।

এই রোগে সেই ইউরেথ্রার মধ্যে কিছু পরিমাণ মূত্র জমা হয়ে থাকে। প্রস্রাবের শেষে সেই মূত্রই বার হয়ে আসে ও ফোঁটা ফোঁটা করে পড়তে থাকে।একটি পরিসংখ্যান বলছে, প্রায় ১৭.১ শতাংশ পুরুষ এই সমস্যায় আক্রান্ত। বিশেষ করে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃদ্ধি পেতে থাকে সমস্যা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন অসুবিধাজনক তো বটেই, এই সমস্যা কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রস্টেট ও স্নায়ুর সমস্যার ইঙ্গিতও হতে পারে। তাই যতই সাধারণ বিষয় হোক না কেন, এই সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই বাঞ্ছনীয়।


আরও খবর

করোনায় ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৮৩

বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২