Logo
শিরোনাম

বাইডেনকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ সেপ্টেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্র সময় বুধবার সন্ধ্যায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আয়োজিত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ আমন্ত্রণ জানান শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে অংশগ্রহণের জন্য নিউইর্য়কে আসা রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সম্মানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও তার স্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্টোরিতে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। পরে হোটেল লটেতে প্রেস ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, বাইডেন ও তার স্ত্রী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ সময় উভয় নেতা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন। তবে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাৎক্ষণিকভাবে সে ব্যাপারে কিছু উল্লেখ করেননি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে বাইডেনকে আমন্ত্রণ জানান।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে আছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে এরই মধ্যে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন তিনি।

এর আগে, জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বুধবার সকালে বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে খাদ্য, জ্বালানি ও অর্থবিষয়ক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের তৈরি প্ল্যাটফর্ম চ্যাম্পিয়নস গ্রুপ অফ গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স (জিসিআরজি) আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

সেই বৈঠকে দেয়া বক্তব্যে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ ও তা ঘিরে নিষেধাজ্ঞা-পাল্টা নিষেধাজ্ঞায় গোটা বিশ্বের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, গোটা বিশ্বে অর্থনৈতিক মন্দার পাশাপাশি দেখা দিয়েছে খাদ্যসংকট, বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম।

এসব সংকট কোনও দেশের পক্ষে এককভাবে মোকাবিলা সম্ভব নয় উল্লেখ করে দৃঢ় রাজনৈতিক অঙ্গীকার ও বৈশ্বিক সংহতির ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সংকট সমাধানে তুলে ধরেছেন পাঁচ দফা প্রস্তাব।


আরও খবর



নোয়াখালীতে দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ল ৩২ ভেড়া

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরএলাহী ইউনিয়নের চরবালুয়া গ্রামে একটি খামারে দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে খামারে থাকা অন্তত ৩২টি ভেড়া পুঁড়ে ছাই হয়ে গেছে। পেট্রোলে দেওয়া এ আগুনে খামারে থাকা ভেড়া পুঁড়ে অন্তত ৪ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্থদের।

গতকাল রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ৮নং চরএলাহী ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডের চরবালুয়া গ্রামের জামশেদের খামার বাড়িতে এ আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাত সাড়ে ৮টার দিকে জামশেদের খামারে আগুন জ্বলতে দেখে স্থানীয় লোকজন। পরে বিষয়টি স্থানীয় একটি মসজিদের মাইকে ঘোষণা করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। কিন্তু আগুনের ভয়াবহতা থাকায় নিয়ন্ত্রণের আগেই পুরো খামার এবং খামারে থাকা জীবন্ত ৩২টি ভেড়া পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্থ খামারের মালিক মো. জামশেদ উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, সন্ধ্যায় ভেড়াগুলোকে খামারে রেখে আমি স্থানীয় বাজারে যাই। রাত ৮টার দিকে আগুন দেখে স্থানীয় লোকজন আমাকে খবর দিলে দ্রুত আমি খামারে যাই। কিন্তু স্থানীয়রা এগিয়ে এলেও আগুনের তীব্রতায় দেখে ভয় পেয়ে যায়। ততক্ষণে খামারে থাকা ৩২ টি ভেড়া পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আগুনে প্রায় চার লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

তিনি অভিযোগ করেন, স্থানীয় আবদুল হামিদ মেস্ত্রী নামের এক ব্যক্তির সাথে তাদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে রোববার দিবাগত রাতে খামারের ভেতরে কেউ না থাকার সুযোগে পেট্রোল দিয়ে খামারে আগুন ধরিয়ে দেয়। তিনি বলেন, হামিদ মেস্ত্রীকে আমার পরিবারের লোকজন দেখেছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে আবদুল হামিদ মেস্ত্রীর ব্যবহৃত মোবাইলে একাধিক বার চেষ্টা করলেও তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

কোম্পানীগঞ্জের উরিরচর পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই রমজান হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ক্ষতিগ্রস্থদের অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর

বিয়ে বাড়িতে কিশোরীকে ধর্ষণ

বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২




‘এখনও মনের মতো চরিত্র পাইনি’

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া। নিয়মিত কাজ করছেন দুই বাংলার সিনেমায়। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তার একাধিক সিনেমা। সেই তালিকায় থাকা অপারেশন সুন্দরবন দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে আজ। এই সিনেমাটির পাশাপাশি নিজের ক্যারিয়ার ভাবনাসহ ইন্ডাস্ট্রির নানা দিক নিয়ে কথা বললেন ইত্তেফাকের সঙ্গে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন এ এম রুবেল। প্রায় ২ বছর পর আপনার নতুন সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। সিনেমাটি প্রসঙ্গে জানতে চাই।

নুসরাত ফারিয়া: হ্যাঁ, আজ আমার অপারেশন সুন্দরবন সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে। এই সিনেমাটির জন্য অনেকদিন ধরে অপেক্ষা করছি। ৪ বছর কষ্ট করেছি। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থেকে বনে-জঙ্গলে শুটিং করেছি। এটি আমার ২০ তম সিনেমা হলেও মনে হচ্ছে প্রথম সিনেমা। এত এক্সাইটমেন্ট কাজ করছে যে, ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না।

সিনেমাটি ঘিরে প্রত্যাশা কেমন থাকছে?

নুসরাত ফারিয়া: শুরু থেকেই সিনেমাটি ঘিরে আমার প্রত্যাশা অনেক বেশি ছিল। তবে প্রিমিয়ারে সিনেমাটি দেখার পর আত্মত্মবিশ্বাসটাও বেড়ে গেছে। এমন একটি থ্রিলার এবং বিনোদনে ভরপুর সিনেমা মিস করা কারও ঠিক হবে না। সিনেমাটির নায়িকা হিসেবে নয়, একজন দর্শক হিসেবে সিনেমাটি দেখে আমার এমনটাই মনে হয়েছে। দর্শকদের পয়সা উসুল হবে, এটা বলতে পারি।

অনেকেই বলছেন, চলচ্চিত্রে সুদিন ফিরছে। আপনি কেমন দেখছেন?

নুসরাত ফারিয়া: অবশ্যই সুদিন ফিরছে। আমি খুবই ভাগ্যবান যে, এমন সময় অপারেশন সুন্দরবন মুক্তি পাচ্ছে। তবে আমরা যেমন প্রতি শুক্রবার দর্শকদের উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব, তেমনি দর্শকদেরও হলে আসার চর্চাটা অব্যাহত রাখতে রাখতে হবে। আমার মনে হয়, চলচ্চিত্রের সুদিন ফেরাতে দু পক্ষের সমান দায়িত্ব পক্ষের রয়েছে শুরুতে রোমান্টিক ঘরানার সিনেমায় আপনাকে বেশি দেখা গেলেও ইদানিং নানামুখী চরিত্রে দেখা মিলছে।

কিছুদিন আগে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল মুজিব সিনেমাটির কিছু দৃশ্য রিটেক হবে। সংবাদটির সত্যতা কতটুকু?

নুসরাত ফারিয়া: আমি আসলে এই বিষয়টি নিয়ে তেমন কিছু জানি না। কারণ আমার তো কোনো সিডিউল নেওয়া হয়নি বা নতুন করে কোনো শুটিং করিনি।

আপনার কলকাতার সিনেমাগুলোর কোনো আপডেড আছে কি না?


নুসরাত ফারিয়া: হ্যাঁ, আসছে অক্টোবরে ভয় সিনেমাটি মুক্তির কথা রয়েছে। সিনেমাটি প্রথমে কলকাতা এবং পরে বাংলাদেশে মুক্তি পাবে। রকস্টার আগামী বছর পর্দায় আসবে। পাশাপাশি বিবাহ অভিযান টু সিনেমাটির শুটিংও ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু করব।

দুই বাংলার সিনেমাতেই কাজ করছেন। দুই ইন্ডাস্ট্রির ভেতর তফাৎ কতটা দেখতে পাচ্ছেন?

নুসরাত ফারিয়া: তেমন কোনো পার্থক্য আমি দেখতে পাই না। প্রতিটি ইন্ডাস্ট্রি নিজেদের জায়গা থেকে গুছিয়ে কাজ করে। তাছাড়া আমি দুই দেশের বড় বড় প্রডাকশনের সঙ্গে কাজের সুযোগ পাওয়ায় হয়তো পার্থক্যটা সেভাবে চোখে পড়েনি।

ওটিটি মাধ্যমটি চলচ্চিত্রের জন্য কতটা সহায়ক হবে মনে করছেন। পাশাপাশি মাধ্যমটি নিয়ে আপনার পরিকল্পনাগুলো কেমন?

নুসরাত ফারিয়া: এর আগে ওটিটির একটি কাজ আমি করেছি। আবার যদি কখনও গল্প চরিত্র দেখে মনে হয় এটি আমার ক্যারিয়ারে ভিন্নমাত্রা যুক্ত করবে তাহলে অবশ্যই সেই হবে না সেটা। আসলে কাজটি করব। আর মাধ্যমটি চলচ্চিত্রের জন্য সহায়ক হবে কী নির্দিষ্ট করে বলা যাবে না। করোনার সময় দর্শক ওটিটি বেশি দেখলেও এখন কিন্তু আবার হলে চলে এসেছে। তবে আমি মনে করি, দুটি মাধ্যমেরই সমান দায়িত্ব রয়েছে ইডাস্তিকে বাঁচিয়ে রাখার।

মাঝে মাঝে গানেও নুসরাতের দেখা মেলে। নতুন গান কবে পাচ্ছে শ্রোতারা?