Logo
শিরোনাম

বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিতে চায় সার্বিয়া

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ অক্টোবর ২০২১ | ৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেলগ্রেডে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্দার ভুসিক বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের কাছে এ আগ্রহের কথা জানান। এজন্য একটি প্রাতিষ্ঠানিক প্রক্রিয়া তৈরিতে জোর দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট।

বাংলাদেশ থেকে দক্ষ ও আধা দক্ষ শ্রমিক নিতে আগ্রহ দেখিয়েছে ইউরোপের দেশ সার্বিয়া। এজন্য দুই দেশের সরকারের মধ্যে একটি কৌশলগত দিক নির্ধারণের প্রস্তাব দিয়েছে দেশটি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বুধবার সকালে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বেলগ্রেডে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্দার ভুসিক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনকে এ আগ্রহের কথা জানান।

সার্বিয়ার চলমান উচ্চাভিলাষী উন্নয়ন কর্মসূচির জন্য যে বিশাল মানবসম্পদের প্রয়োজন তা পূরণে বাংলাদেশের দক্ষ ও আধা-দক্ষ আইটি পেশাজীবী, ইলেকট্রিশিয়ান, প্লাম্বাদের নিয়োগের প্রস্তাব দেন বৈঠকে মোমেন। সার্বিয়ায় বর্তমানে এসব কাজে অনেক চাহিদা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ প্রস্তাব সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট সাদরে গ্রহণ করেন বলে জানানো হয় বিবৃতিতে। বাংলাদেশ থেকে শ্রম ও জনশক্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য একটি প্রাতিষ্ঠানিক প্রক্রিয়া তৈরিতে জোর দেন ভুসিক।

বৈঠকে দুই বন্ধু দেশের মধ্যে শক্তিশালী বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সংযোগ গড়ে তোলার ওপর জোর দেন মোমেন। সার্বিয়ান বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশ থেকে আমদানি করার এবং সরকারের দেয়া চমৎকার বিনিয়োগের পরিবেশ ব্যবহার করে দেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান তিনি।

করোনাভাইরাস মহামারির চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন যাত্রার ভূয়সী প্রশংসা করেন প্রেসিডেন্ট ভুসিক।

বৈঠকে ঢাকা ও বেলগ্রেডের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ এবং ঐতিহ্যগতভাবে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে মোমেন বলেন, এ সম্পর্ক ইতিহাসে নিহিত। এ সময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও সাবেক যুগোস্লাভিয়ার প্রেসিডেন্ট জোসিপ ব্রোজ টিটোর ব্যক্তিগত বন্ধুত্বকে বিশেষভাবে উল্লেখ করেন তিনি।

সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট এটা জানতে পেরে উচ্ছ্বসিত হন যে, বাংলাদেশ বর্তমানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছে।

বৈঠকে বাংলাদেশ ১২ লাখ জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের (রোহিঙ্গা) আশ্রয় দিয়েছে উল্লেখ করে তাদের নিরাপদ, সেচ্ছায় ও টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য মিয়ানমার জান্তার ওপর চাপ সৃষ্টি করতে সার্বিয়ার প্রতি আহবান জানান মোমেন।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশের উদারতার প্রশংসা করে ভুসিক জানান, এ সমস্যা সমাধানে ঢাকার পাশে থাকবে তার দেশ।

মোমেন সার্বিয়ান প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান, সাদরে এ আমন্ত্রণ গ্রহণ করেন ভুসিক। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকেও সার্বিয়া সফরের আমন্ত্রণ জানান তিনি।


আরও খবর



বিশ্বকাপে প্রথম ডাবল হ্যাটট্রিক

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এর আগে দুটি ডাবল হ্যাটট্রিক হয়েছিল। ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আফগানিস্তানের স্পিনার রশিদ খান প্রথম এই কীর্তি গড়েছিলেন। একই বছর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে রেকর্ডটি গড়েন লঙ্কান কিংবদন্তি  লাসিথ মালিঙ্গা। এবার তৃতীয় রেকর্ডটি গড়লেন আয়ারল্যান্ডের পেসার কার্টিস কাম্পার। অবশ্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম রেকর্ড এটি।

টানা চার বলে চার উইকেট নিয়ে এই রেকর্ড গড়েন কাম্পার। ক্রিকেটে সাধারণত টানা চার বলে চার উইকেট নিলেই ডাবল হ্যাটট্রিক ধরা হয়।

আজ সোমবার আবুধাবিতে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ড পেসার কাম্পার এই ডাবল হ্যাটট্রিক করেন। ইনিংসের দশম ওভারে টানা চার বলে চার ব্যাটসম্যানকে ফেরান তিনি। ৯.২ ওভারে কলিন অ্যাকারম্যানকে প্রথম আউট করেন। পরের বলে লেগ বিফোরে সাজঘরে পাঠান রায়ান টেন ডেসকাটকে। পরের দুই বলে স্কট এডওয়ার্ডস ও রোয়েলফ ভন ডার মারউইকে সাজঘরে পাঠিয়ে তুলে নেন চার উইকেট।

প্রথম ওভারে ১২ রান দেওয়া ক্যাম্পারের দুই ওভার শেষে বোলিং ফিগার ছিল ২-০-১৪-৪। শেষ পর্যন্ত চার ওভারে ২৬ রান দিয়ে চার উইকেট নেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: কার্টিস কাম্পার

আরও খবর

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে পেছাল বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

কোম্যানকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




আজকের রাশিফল

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি তুলা রাশির জাতক/ জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ৮। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : শুক্র ও শনি। আপনার শুভ সংখ্যা : ৬ ও ৮। শুভ বার : শুক্র ও শনি। শুভ রত্ন : হীরা ও নীলা।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

পারস্পরিক সামাজিক সম্পর্ক বজায় রাখুন। দাম্পত্য ভুল বোঝাবুঝি এড়িয়ে চলুন। অপরের প্রতি সদাচরণ করুন। ব্যবসায়িক দিক মোটামুটি ভালো থাকতে পারে। বিক্রয়-বাণিজ্যে লাভযোগ আছে।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

শরীর খুব একটা ভালো না-ও থাকতে পারে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। খাওয়া-দাওয়ায় সতর্ক থাকুন। শত্রুদের দুর্বল ভাববেন না। সীমা লঙ্ঘন করা ঠিক হবে না।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

সন্তানের প্রতি খেয়াল রাখুন। নিজের মতামত স্পষ্ট ভাবে প্রকাশ করুন, অন্যথায় সুযোগ হাতছাড়া হতে পারে। পড়াশুনায় মন বসাতে চেষ্টা করুন। বিনোদন শুভ।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

অসুস্থ মায়ের প্রতি খেয়াল রাখুন। আবেগ সংযত রাখুন। বিলাসদ্রব্য ক্রয় করতে পারেন। হাঁটাচলায় সতর্কতা অবলম্বন করুন। আধ্যাত্মিকতার প্রতি অনুরাগ বোধ করতে পারেন।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

আপনজন কারও সঙ্গে মতানৈক্য দেখা দিতে পারে। তত্ত্বগত বিভ্রান্তি দেখা দিতে পারে। কাজকর্মে প্রত্যাশিত সাফল্য পেতে পারেন। প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করুন। ঠাণ্ডা সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

মূল্যবোধ বজায় রাখুন। প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি রক্ষা করার চেষ্টা করুন। আর্থিক দিক ভালো যাবে। পাওনা টাকা আদায়ের জন্য তাগাদা দিন। চক্ষু বা মাথাব্যথার সমস্যায় ভুগতে পারেন।

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

শরীর ভালো থাকতে পারে। অসুস্থদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে পারে। নিজেকে যথাযথ ভাবে প্রকাশ করার চেষ্টা করুন। সে ক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। অপরের প্রতি বিনয়ী আচরণ করুন।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

অনভিপ্রেত কোনও সংবাদ পেতে পারেন। শোকগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা আছে। ব্যয় কমানোর চেষ্টা করুন। গোপন শত্রুরা ক্ষতি করার চেষ্টা করতে পারে। সে সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো রাখুন। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা পেতে পারেন। পেশাগত যোগাযোগ চালিয়ে যান। সাংগঠনিক কাজে ব্যস্ত থাকতে পারেন। উপার্জন বৃদ্ধির প্রচেষ্টা জোরদার করুন।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

সামাজিক ক্ষেত্রে কোনও কাজে অংশ নিতে পারেন। সে ক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। কর্মপরিবেশ অনুকূল থাকবে। কর্মস্থলে সহকর্মীদের সহযোগিতা পেতে পারেন। সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পেতে পারে।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

জ্ঞানস্পৃহা বৃদ্ধি পাবে। পেশাগত দিক ভালো যাবে। ভাগ্যোন্নয়নের প্রচেষ্টা জোরদার করুন। সামাজিক যোগাযোগ চালিয়ে যান। তীর্থযাত্রা হতে পারে।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। শরীর খুব একটা ভালো না-ও থাকতে পারে। অবহেলা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে না। বিক্রয়-বাণিজ্যে লোকসান হতে পারে।

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১

বাটা মসলার স্বাদে চিংড়ির কোরমা

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১




ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১১২ জন হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১১২ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে রাজধানীর হাসপাতালে ৯৯ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ১৩ জন রোগী ভর্তি হন।

এ নিয়ে বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন এমন রোগীর সংখ্যা ৭৬৮ জন। চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ৮৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি থাকা ৭৬৮ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে রাজধানীর সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৫৯৩ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৭৫ জন।

বুধবার (২০ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ কামরুল কিবরিয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ভর্তি হওয়া ১১২ জন রোগীর মধ্য রাজধানীর সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ৩৭ জন ও বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৬২ জন রয়েছেন। এছাড়া ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি হন ১৩ জন।

সূত্র আরও জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে আজ বুধবার (২০ অক্টোবর) পর্যন্ত দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া মোট রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ৮৩৭ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ হাজার ৯৮৬ জন।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মোট রোগীদের মধ্যে জানুয়ারিতে ৩২ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৯ জন, মার্চে ১৩ জন, এপ্রিলে তিনজন, মেতে ৪৩ জন, জুনে ২৭২ জন, জুলাইয়ে ২ হাজার ২৮৬ জন, আগস্টে ৭ হাজার ৬৯৮ জন, সেপ্টেম্বরে ৭ হাজার ৮৪১ জন এবং ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ৩ হাজার ৬৪০ জন রোগী ভর্তি হন।

নিউজ ট্যাগ: ডেঙ্গু আক্রান্ত

আরও খবর

আরও ১৭৩ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

করোনায় মৃত্যু কমেছে, শনাক্ত বেড়েছে

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




জাতীয় কন্যাশিশু দিবস আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) জাতীয় কন্যাশিশু দিবস।  মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) থেকে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত শিশু অধিকার সপ্তাহের মধ্যে ৩০ সেপ্টেম্বর জাতীয় কন্যাশিশু দিবস পালনে কর্মসূচি দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, পৃথিবীজুড়ে লিঙ্গবৈষম্য দূর করতে ২০১২ সালের ১১ অক্টোবর প্রথম আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস পালন করা হয়। জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলো প্রতিবছর এ দিবসটি পালন করে থাকে। তবে বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন দিনে দিবসটি পালন করে থাকে। বাংলাদেশে দিবসটি পালন করা হচ্ছে ৩০ সেপ্টেম্বর।

এ বছর জাতীয় কন্যাশিশু দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে আমরা কন্যাশিশু-প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ হবো, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়বো।  দিবসের সরকারি সূচি হিসেবে মহিলা বিষয়ক অধিদফতরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

মন্ত্রণালয় জানায়, পুরুষতান্ত্রিক সমাজে কন্যাশিশুর জন্ম অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অনাকাঙ্ক্ষিত হিসেবে বিবেচিত হয়। বিশেষ করে গ্রামীণ সমাজ ব্যবস্থায় কন্যাশিশুর জন্মকে বাড়তি বোঝা হিসেবে বিরক্তির সঙ্গে গ্রহণ করা হয়। এ দৃষ্টিভঙ্গির কারণে শিক্ষিত, সচেতন, কর্মদক্ষ একজন পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে বেড়ে ওঠার সুযোগ থেকে তারা অনেকাংশেই বঞ্চিত হয়। এই প্রেক্ষাপটে ২০১১ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস প্রস্তাব উত্থাপিত হয়। ২০১২ সালে জাতিসংঘের রেজুলেশনের মাধ্যমে ইন্টারন্যাশনাল ডে অফ গার্ল চাইল্ড ঘোষণা করা হয়।আর্ন্তজাতিকভাবে শিশু অধিকার সপ্তাহ শুরু হয় ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে।

২০০০ সালে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় কন্যাশিশু দিবস পালনের আদেশ জারি করে। আদেশে বলা হয়, শিশুঅধিকার সপ্তাহের (২৯শে সেপ্টেম্বর হতে ৫ অক্টোবর) মধ্যে একটি দিন অর্থাৎ ৩০ সেপ্টেম্বর কন্যাশিশু দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০০০ সালের ৪ জুন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ কন্যাশিশুর অধিকার রক্ষা ও তাদের বিকাশের বিষয়টিকে বৃহত্তর সামাজিক আন্দোলনে রূপ দেওয়ার লক্ষ্যে কন্যাশিশু দিবস পালনের প্রস্তাব করে। প্রায় ৫৪টি বেসরকারি সংস্থা, সামাজিক সংগঠন এবং কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি, যারা কন্যাশিশুর অধিকার রক্ষায় কাজ করেছিলেন এ প্রস্তাবকে সমর্থন করেন। এরই ফলশ্রুতিতে জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম নামে একটি ফোরাম গঠিত হয়।


আরও খবর



এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ অক্টোবর ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
খালেদা জিয়ার চিকিৎসক অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেছিলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ বোধ করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। শরীরে তাপমাত্রাও আছে কিছুটা

স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে গিয়ে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এর আগে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেল ৪টা ৪ মিনিটে হাসপাতালে পৌঁছান তিনি।

হাসপাতালের মেডিকেল সার্ভিসেসের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. আরিফ মাহমুদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে খালেদা জিয়ার চিকিৎসক অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেছিলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ বোধ করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। শরীরে তাপমাত্রাও আছে কিছুটা। সেজন্য মেডিকেল টিমের চেকআপের জন্য ম্যাডামকে বিকেল ৩টায় বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হবে। সেখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে মেডিকেল বোর্ড তার সব কিছু পর্যালোচনা করবেন। বোর্ড তাকে দেখবে, এরপর জানানো হবে ম্যাডামের সর্বশেষ অবস্থা।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ম্যাডামকে হাসপাতালে নেওয়ার আগে তার সঙ্গে দেখা করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি ফিরোজায় কিছু সময় থেকে ম্যাডামের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নিয়ে গেছেন।

এর আগে গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। শুরুতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজার একটি কক্ষে চিকিৎসা চলছিল বিএনপি চেয়ারপারসনের। এরপর ১৫ এপ্রিল এভারকেয়ার হাসপাতালে সিটি স্ক্যান করানো হয় খালেদা জিয়ার। তখন সেখান থেকে গুলশানের বাসভবনেই ফিরিয়ে আনা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে ২৭ এপ্রিল তাকে একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর ৩ মে শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে খালেদা জিয়াকে কেবিন থেকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। বিএনপির পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার করোনা মুক্তির খবর দেওয়া হয় ৯ মে।

সিসিইউতে থাকা অবস্থায় হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। ৩ জুন চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে কেবিনে ফিরিয়ে আনা হয়। এর ১৬ দিন পর বাসায় ফেরেন তিনি।


আরও খবর