Logo
শিরোনাম

বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১০১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মুকাব্বির ছিলেন মুয়াজ্জিন হাফেজ কারী কাজী মাসুদুর রহমান।

শুক্রবার (১৪ মে ) সকাল ৭টায় ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ শেষে খুতবা পেশ করা হয়। তারপর অনুষ্ঠিত হয় দোয়া ও মোনাজাত।

জানা গেছে, মসজিদের প্রবেশ পথে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়। যে সকল ব্যক্তিদের মুখে মাস্ক নেই তাদেরকে বিনামূল্যে মাস্ক সরবরাহ করছেন মসজিদ কর্তৃপক্ষ। এ সময় মুসল্লিরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে জামাতে অংশ নেন। তবে মুসল্লিরা সবাই মাস্ক পরলেও সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে আরও ৪টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা, ৯টা, ১০টা ও ১০টা ৪৫ মিনিটে বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে এবার হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে না। তবে প্রতি বছরের মতো এবারও পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে ৫টি ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও নিরাপত্তার জন্য বায়তুল মোকাররম এলাকায় পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের বিষয়ে নির্দেশনা দেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। নির্দেশনায় বলা হয়, ইসলামি শরিয়তে ঈদের জামাত ঈদগাহ বা খোলা জায়গায় আদায়ের ব্যাপারে উৎসাহিত করা হলেও বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে মসজিদে আদায় করার জন্য অনুরোধ করা হলো। প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাত করা যাবে। এছাড়া ঈদগাহে কোলাকুলি, করমর্দন করা থেকে বিরত থাকাসহ নামাজ আদায়ে ১২ দফা নির্দেশনা দেয় মন্ত্রণালয়।



আরও খবর



করোনা: ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যুতে দেশে মোট মৃত্যু বেড়ে ১২ হাজার ৫৮৩ জন হলো। আর নতুন এক হাজার ৪৪৪ জন শনাক্তসহ এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ লাখ ৯৮ হাজার ৮৩০ জনে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৪৪ জন। রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যুতে দেশে মোট মৃত্যু বেড়ে ১২ হাজার ৫৮৩ জন হলো। আর নতুন এক হাজার ৪৪৪ জন শনাক্তসহ এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ লাখ ৯৮ হাজার ৮৩০ জনে। 

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ২৭৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার অনুপাতে শনাক্তের হার ১০ দশমিক ১১ শতাংশ।


আরও খবর



‘পুঁজিবাজারের খুবই ভালো ভবিষ্যৎ দেখছি’

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত এক বছর ধরে পুঁজিবাজারে নতুন ধরন দেখছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলামের নেতৃত্বাধীন নতুন কমিশন অনেকগুলো সুন্দর পদক্ষেপ নিয়েছেন। এখানে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরেছে। তাতে গত এক বছর ধরে পুঁজিবাজারে নতুন ধরন দেখছি।

শনিবার (১৯ জুন) বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমবিএ) ও ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ) আয়োজিত বাজেট পরবর্তী আলোচনা ও শেয়ারবাজারের উন্নয়নের পথ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গত একবছর পুঁজিবাজারে লেনদেন ও বাজার মূলধন বেড়েছে। একইসঙ্গে বেসিক সমস্যা ইক্যুইটিভিত্তিক মার্কেট থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করা হচ্ছে। সবমিলিয়ে পুঁজিবাজারের ভবিষ্যত ভালো দেখছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম, কমিশনার ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান ইউনুসুর রহমান ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম।

এছাড়া আলোচক হিসেবে ছিলেন ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ডিবিএ) সভাপতি শরিফ আনোয়ার হোসাইন ও এএমসি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ড. হাসান ইমাম।

সালমান এফ রহমান বলেন, পুঁজিবাজার ভালো হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্টেক হোল্ডারদের দায়িত্ব বাড়বে। বাজারে স্বার্থে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে ম্যানেজমেন্টের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর পুঁজিবাজার যেভাবে পরিচালিত হয় সেভাবে হতে হবে। সেখানে যে ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে, সেগুলো আমাদেরও চালু করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, আজকের আলোচনায় চূড়ান্ত বাজেটে তালিকাভুক্ত ও অতালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার ব্যবধান বাড়ানো, লভ্যাংশে দ্বৈত করহার প্রত্যাহার, মার্চেন্ট ব্যাংকের করহার কমানো, অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগের সুযোগসহ যেসব প্রস্তাব করা হয়েছে-সেগুলোর পেছনে যুক্তি আছে। এ প্রস্তাবগুলো চূড়ান্ত বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করব।

অনুষ্ঠানে কমিশনার ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, বিগত বিশ বছর ধরে যে পুঁজিবাজার দেখে আসছি, সেখানে পরিবর্তন আনা দরকার। এজন্য নতুন প্রোডাক্ট আনা ও স্ট্র্যাটেজি নিতে হবে।

বিএমবি'র সভাপতি ছায়েদুর রহমান বলেন, তালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার কমানো হয়েছে। এটা ভালো সিদ্ধান্ত। এরফলে কোম্পানির লভ্যাংশ দেওয়ার সক্ষমতা বাড়বে। এর বাইরে বাজেটে পুঁজিবাজারের জন্য অন্যান্য প্রত্যাশিত বিষয়াদি বিবেচনায় নেওয়া হয়নি।

ছায়েদুর রহমান আরো বলেন, তালিকাভুক্ত কোম্পানির পাশাপাশি অতালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার আড়াই শতাংশ কমানো হয়েছে। এর মাধ্যমে উভয় ক্ষেত্রের মধ্যে করহারের ব্যবধান সাড়ে ৭ শতাংশ। কিন্তু একটি তালিকাভুক্ত কোম্পানির বিভিন্ন নিয়মকানুন মেনে চলার কারণে ব্যয় অনেক বেশি হয়। যে কারণে ভালো মুনাফা করা বৃহৎ কোম্পানিগুলো তালিকাভুক্ত হতে চাইবে না। এ সমস্যা কাটিয়ে তুলতে তালিকাভুক্ত ও অতালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার ব্যবধান ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করেন তিনি।

সিএমজেএফ এর সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল বলেন, বিশ্বের যেকোন দেশের অর্থনীতি ভাইব্রেন্ট হয়েছে পুঁজিবাজারের ভাইব্রেন্টের ওপর ভিত্তি করে। বাংলাদেশেও এর বাইরে সুযোগ নাই। তাই এ বাজারকে গুরুত্ব দিতে হবে।

তিনি বলেন, তালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার কমানো হয়েছে। এটা ভালো উদ্যোগ। তবে পুঁজিবাজারে ভালো কোম্পানিকে তালিকাভুক্তিতে উৎসাহিত করার জন্য তালিকাভুক্ত ও অতালিকাভুক্ত কোম্পানির করহার বাড়ানো দরকার।


আরও খবর

লকডাউনে শেয়ার বাজার চলবে

শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১




ফুসফুসকে সুস্থ রাখতে যে খাবারগুলো গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশব্যাপী আবারো মহামারি আকারে দেখা দিয়েছে করোনাভাইরাস। এ সময়ে শরীরে দ্রুত বাড়াতে হবে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। শরীরে করোনাভাইরাসের জীবাণু ঢুকলে তা ফুসফুসে আঘাত হানে। এ জন্য ফুসফুস সুস্থ রাখতে বিশেষ যত্ন নেয়া প্রয়োজন। কারণ ফুসফুসের কার্যকারিতা কমে গেলে জীবনের ঝুঁকি বাড়ে শতগুণ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ফুসফুসকে সুস্থ রাখতে খাবারের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে বয়স বা শ্বাসকষ্টজনিত কারণে যাদের ফুসফুসে আগে থেকে দুর্বল তাদের এ ব্যাপারে বেশি সতর্ক থাকা জরুরি।

ফুসফুস ভালো রাখতে কিছু খাবারের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। আমেরিকান লাং অ্যাসোসিয়েশন-এর তথ্য অনুযায়ী, সিওপিডি বা যাদের অ্যাজমাজাতীয় অসুখ আছে তাদের কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবারের পরিবর্তে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট বেশি পরিমাণে খেতে হবে। তবে বিশেষজ্ঞরা এটাও বলছেন যেহেতু কার্বোহাইড্রেট সুষম খাবারের অঙ্গ তাই এটা একেবারে বাদ দেওয়া যাবে না। বরং কার্বোহাইড্রেটের ধরনটা পাল্টে দিতে হবে।

সাধারণ কার্বোহাইড্রেটের পরিবর্তে কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট খেতে হবে। কম স্টার্চ আছে এমন শাকসবজি বেশি করে খেতে হবে।

এ সময় আলু, পোটল, কুমড়া, গাজর ইত্যাদি খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে হবে।

এছাড়া ময়দার পরিবর্তে আটার রুটি, সাদা ভাতের বদলে ব্রাউন ভাত খেলে ফুসফুসের ক্ষতি যেমন কম হবে তেমনি ওজন ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এ ছাড়া ফুসফুস ভালো রাখতে পটাশিয়ামসমৃদ্ধ খাবার যেমন- সবুজ শাক, টমেটো, বিট, আলু, কলা এগুলো নিয়মিত খাওয়া উচিত। পাশাপাশি প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার যেমন- মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, দই, ডাল, ছোলা ইত্যাদি খাবারও ফুসফুসের জন্য ভালো।

গবেষকদের মতে, নিয়ম মেনে খাওয়া-দাওয়া করার পাশাপাশি কয়েকটি বিশেষ খাবার খেলে ফুসফুসের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ে। 

যেমন:

পেঁয়াজ ও রসুন:  এসব উপাদান প্রদাহের প্রবণতা কমায়, সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি জোগায়। জার্নাল অব ক্যানসার এপিডেমিওলজিবায়োমার্কারস অ্যান্ড প্রিভেনশন-এ প্রকাশিত প্রবন্ধে গবেষকরা জানিয়েছেন, যে সব ধূমপায়ী নিয়মিত কাঁচা রসুন খান তাদের ফুসফুসের বিভিন্ন অসুখে ভোগার আশঙ্কা প্রায় ৪০ শতাংশ কমে যায়।

আদা: এতে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান প্রদাহ কমায়। অল্প করে আদা কুচি নিয়মিত খেলে ফুসফুস ভালো থাকে।

কাঁচা মরিচ : নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়, সংক্রমণের আশঙ্কা কমে।

হলুদ: হলুদে থাকা কারকিউমিন প্রদাহ কমায়।

ফল ও শাকসবজি: আপেল, পেয়ারা, শসা, সফেদা এই সব ফল ফুসফুসের জন্য উপকারী। আপেল ও বাতাবি লেবুতে থাকা ফ্ল্যাভেনয়েড ও ভিটামিন সি ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ায়।

সবজি: গাজর, কুমড়া, গোলমরিচে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

বিভিন্ন ধরনের শিম ও বীজ: বিভিন্ন ধরনের শিম ও বীজে থাকা ম্যাগনেশিয়াম ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়াতে কার্যকর ভূমিকা আছে। তিসির বীজে থাকা ভিটামিন ই রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

এসব ছাড়া ফুসফুস ভালো রাখতে পর্যাপ্ত পানি পান ও নিয়মিত ব্যায়ামের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।



আরও খবর

যে ৫ খাবার লিভারের চর্বি দূর করে

বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১




প্রকৌশলীর ঘরে মিলল টাকার বালিশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিহারে দুর্নীতিবিরোধী সেলের কর্মকর্তারা বিপুল, ভারতীয় রুপিসহ এক দুর্নীতিগ্রস্ত প্রকৌশলীকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠিয়েছেন। তার কাছে মিলেছে ঘুষ নেওয়া লাখ লাখ রুপি। গ্রেফতারকৃত প্রকৌশলীর নাম রামচন্দ্র পাসওয়ান।

ঠিকাদার বাবলু কুমারের কাছে প্রকৌশলী রামচন্দ্র পাসওয়ান ৮০ হাজার রুপি ঘুষ দাবি করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। সড়কের একটি প্রকল্পের বিলের ফাইল ছাড় করার জন্য এ অর্থ দাবি করা হয়। ঠিকাদার সামান্য কিছু রুপি উপহার হিসেবে দেওয়ার কথা বললেও প্রকৌশলী রামচন্দ্র পুরো প্রজেক্টের ১.৫ শতাংশ অর্থ দাবি করে বসেন। ফলে বাধ্য হয়ে ৯ জুন ঠিকাদার লিখিত অভিযোগ জানান।

তার লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পাটনার পূর্ব ছাপারান জেলায় দুর্নীতিবিরোধী গোয়ান্দারা ওই প্রকৌশলীর ফ্ল্যাটে হানা দেয়। ঘণ্টাব্যাপী এ অভিযানে ১১ লাখ রুপি উদ্ধার করা হয়, যা লুকানো ছিল বিছানার বালিশের মধ্যে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, আমরা গ্রেফতারের পর ওই প্রকৌশলীকে জেলে পাঠিয়েছি। জিজ্ঞাসাবাদের সময় টাকার উৎস সম্পর্কে সঠিক তথ্য দিতে পারেননি। আমরা পাটনা এবং অন্য শহরে থাকা তার মালিকানাধীন বাসায় অভিযান চালাচ্ছি।

সরকারি এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ১৫ বছরে ৯১৮ সরকারি কর্মকর্তাকে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে ১৬০ জনের বেশি কর্মকর্তা সাজা পেয়েছেন আর বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ৩০ জনের সম্পদ।

নিউজ ট্যাগ: টাকার বালিশ

আরও খবর



বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৩ জন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়া জেলার মহাস্থানগড়ে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের তিনজন অটোরিকশা যাত্রী নিহত হয়েছেন। হতাহতদের পরিচয় জানা যায়নি। শনিবার (১৯ জুন) সকাল সাড়ে সাতটার দিকে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের হাতিবান্ধা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস ও একটি সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী একই পরিবারের তিনজন মারা যান। এছাড়াও দুইজন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের টিএমএসএস হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত তিনজনের মরদেহ হাইওয়ে পুলিশ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে স্বামী-স্ত্রী ও একজন শিশু আছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর