Logo
শিরোনাম

বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ২১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী আজ ২৬ ফেব্রুয়ারি। ১৯৩৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি নড়াইল সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের মহিষখোলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আমানত শেখ এবং মায়ের নাম জেন্নাতুন্নেছা মতান্তরে জেন্নাতা খানম।

বাল্যকালেই বাবা-মাকে হারান বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ। সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন তিনি। বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখের জন্মভূমি মহিষখোলার নাম পরিবর্তন করে ২০০৮ সালের ১৮ মার্চ নূর মোহাম্মদ নগর করা হয়।

বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের কর্মময় জীবন থেকে জানা যায়, ১৯৫৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি পূর্ব পাকিস্তান রাইফেলসে (তৎকালীন ইপিআর) যোগদান করেন তিনি। বর্তমানে এটি বর্ডার গার্ড অব বাংলাদেশ (বিজিবি) হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। এই বাহিনীতে দীর্ঘদিন দিনাজপুর সীমান্তে চাকরি করার পর ১৯৭০ সালের ১০ জুলাই যশোর সেক্টরে বদলি হন তিনি। পরবর্তীতে ল্যান্স নায়েক হিসেবে পদোন্নতি পান।

১৯৭১ সালে যশোর অঞ্চল নিয়ে গঠিত ৮ নম্বর সেক্টরে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। নূর মোহাম্মদ শেখ যশোরের শার্শা উপজেলার কাশিপুর সীমান্তের বয়রা অঞ্চলে ক্যাপ্টেন নাজমুল হুদার নের্তৃত্বে পাক হানাদারদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে দেশ শত্রুমুক্ত করেন।

১৯৭১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর যশোর জেলার গোয়ালহাটি গ্রামে শাহাদাতবরণ করেন তিনি। এদিন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে প্রতিরোধ এবং দলীয় সঙ্গীদের জীবন ও অস্ত্র রক্ষা করতে গিয়ে শহীদ হন নূর মোহাম্মদ শেখ। যশোরের শার্শা উপজেলার কাশিপুরে তাকে সমাহিত করা হয়।

বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ ট্রাস্টের সদস্য সচিব ও চন্ডিবরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আজিজুর রহমান ভূঁইয়া জানান, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ ট্রাস্ট ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নূর মোহাম্মদ নগরে শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় কোরআনখানি, সকাল ১০টায় নূর মোহাম্মদ শেখ স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও গার্ড অব অনার প্রদান, সকাল সাড়ে ১০টায় দোয়া মাহফিলসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান।


আরও খবর



ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে বিশেষ অভিযানের ঘোষণা ডিএনসিসি মেয়রের

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ডেঙ্গু রোগের বাহক এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) থেকে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ অভিযান পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। ডিএনসিসির দশটি অঞ্চলে দশটি টিম এই অভিযান পরিচালনা করবে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের মাধ্যমে অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে। এডিসের লার্ভা পেলেই নেওয়া হবে আইনানুগ ব্যবস্থা।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানী উত্তরায় ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন দক্ষিণখানে মধ্য আজমপুর এলাকায় এডিস মশার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযানে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম এসব কথা জানান।

বাসা-বাড়ি-অফিসে জমে থাকা পানিতে এডিসের লার্ভা পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে মেয়র বলেন, 'আইন অনুযায়ী নিয়মিত মামলা হবে। কঠোর থেকে কঠোরতর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আপনার বাড়ি বা স্থাপনার ভেতরে, বাইরে, আশপাশে কোথাও পানি জমে থাকলে এখনি ফেলে দিন। ডেঙ্গু থেকে আপনি সুরক্ষিত থাকুন, আপনার পরিবার ও প্রতিবেশীকে সুরক্ষিত রাখুন। বাড়িতে লার্ভার চাষ করে শাস্তি না পেয়ে বরং লার্ভার উৎস ধ্বংস করে পুরস্কৃত হোন।'

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ধারণা করা হয়েছিল অন্যান্য সময়ের তুলনায় এবছর ডেঙ্গু ভয়াবহ রূপ নিতে পারে। তাই বর্ষা মৌসুম শুরুর আগেই আমরা বছরের শুরু থেকে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে জনগণকে সচেতন করাসহ নানা কর্মসূচি চালিয়ে আসছি। তবে অতীতের সঙ্গে পরিসংখ্যান তুলনা করে দেখা যাচ্ছে এবছর ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা অনেকটা কম। আমাদের কার্যকর পদক্ষেপের কারণে এখন পর্যন্ত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছি। পার্শ্ববর্তী অনেক দেশের তুলনায়ও আমাদের দেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা অনেক কম। ডেঙ্গু পুরোপুরিভাবে নিয়ন্ত্রণ করাই আমাদের লক্ষ্য।'

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে প্রচারাভিযানে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে প্রচারাভিযানে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণখানের মধ্য আজমপুর এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়িতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী রয়েছে। মেয়র আতিকুল ইসলাম সরেজমিনে এলাকাটি পরিদর্শন করেন। দেখা গেছে এই এলাকায় অনেকগুলো  ভবনের নির্মাণ কাজ চলছে। বেশ কয়েকটি নির্মাণাধীন ভবনে পানি জমে আছে। একটিতে এডিসের লার্ভা পাওয়া গেছে। এসময় নির্মাণাধীন একটি ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ডিএনসিসির আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জুলকার নাইন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

নগরবাসীর উদ্দেশ্যে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, শুধু সিটি করপোরেশনের পক্ষে পুরোপুরিভাবে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়৷ এক্ষেত্রে জনগণের সহযোগিতা অতি গুরুত্বপূর্ণ। জনগণের আন্তরিক সহযোগিতায় গত ঈদে মাত্র ১২ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছি। জনগণের সহযোগিতা পেলে আমরা ডেঙ্গুও সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবো। নিজেদের বাসাবাড়িতে ফুলের টব, অব্যবহৃত টায়ার, ডাবের খোসা, চিপসের খোলা প্যাকেট, বিভিন্ন ধরনের খোলা পাত্র, ছাদ কিংবা অন্য কোথাও যেন পানি জমে না থাকে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। সুস্থতার জন্য সুস্থ পরিবেশের কোনও বিকল্প নেই। আর সুস্থ পরিবেশ নিশ্চিত করতে হলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম-সংক্রান্ত সামাজিক আন্দোলনে সমাজের সর্বস্তরের জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হবে।

আজমপুর এলাকায় প্রচারাভিযান শেষে ডিএনসিসি মেয়র নিকুঞ্জ-১ এলাকায় প্রচারাভিযানে অংশ নেন। তিনি আজমপুর ও নিকুঞ্জ এলাকায় বিভিন্ন রাস্তায় ঘুরে ঘুরে জনসাধারণকে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেন এবং নিজে মাইকিং করে সচেতন করেন। নিকুঞ্জ এলাকায় অভিযানকালে দুটি বাড়িতে এডিসের লার্ভা পাওয়া যায়। বাড়ি দুটির মালিক বিদেশে অবস্থান করায় খিলক্ষেত থানায় দুটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।

প্রচারাভিযানে অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ উল ইসলাম, ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইসহাক মিয়া, ৫০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ডি. এম. শামিম, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর হাছিনা বারী চৌধুরী ও জাকিয়া সুলতানা এবং নিকুঞ্জ-১ কল্যাণ সমিতির সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: ডেঙ্গু জ্বর

আরও খবর



আরও ৫০৬ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৫০৬ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোলরুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৫০৬ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় ৩৬৭ জন ও ঢাকার বাইরে ১৩৯ জন।

বর্তমানে সারা দেশে এক হাজার ৮৭৪ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে এক হাজার ৪২৭ জন ও ঢাকার বাইরে ৪৪৭ জন।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৮৫২ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ১২ হাজার ১৩১ জন ও ঢাকার বাইরে তিন হাজার ৭২১ জন।

একই সময় সারা দেশে ছাড়প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ১৩ হাজার ৯২৩ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ছাড়প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ৬৭৭ জন ও ঢাকার বাইরে তিন হাজার ২৪৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হয়নি। চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৫৫ জন মারা গেছেন।

গত বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৪২৯ জন। একই সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৮ হাজার ২৬৫ জন ও ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা যান ১০৫ জন।


আরও খবর

কোভিড: আরও ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৯১

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




গণঅবসরে কর্মী সংকটে পড়তে পারে কানাডা

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের মতো প্রতিবেশী কানাডাও পড়েছে গণঅবসর সমস্যায়। পরিসংখ্যান বলছে, দেশটিতে যতজন চাকরি পাচ্ছেন, তার চেয়েও বেশি মানুষ অবসরে যাচ্ছেন। এই প্রবণতা অব্যাহত থাকলে অচিরেই বড় সংকটে পড়তে পারে কানাডা। করোনাভাইরাস মহামারির সময় যুক্তরাষ্ট্রে জীবন সম্পর্কে দৃষ্টিভঙ্গি বদলে যায় অনেকের। লকডাউনে ঘরবন্দি থাকতে গিয়ে তারা উপলব্ধি করেন, জীবন মানে অর্থ উপার্জন করতে গিয়ে বছরের পর বছর পার করে দেওয়া নয়। নিজের মতো করে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোতেই বরং জীবনের সার্থকতা! এই ভাবনা থেকে দেশটিতে এত মানুষ চাকরি ছাড়তে শুরু করেন যে, তাদের গণহারে অবসর নেওয়ার প্রবণতার নামই হয়ে যায় গ্রেট রেজিগনেশন

যুক্তরাষ্ট্রে গ্রেট রেজিগনেশন পর্ব দৃশ্যত শেষ হওয়ার এক বছরের মধ্যে প্রতিবেশী কানাডাতেও লক্ষ্য করা যাচ্ছে একই প্রবণতা। দেশটির জাতীয় পরিসংখ্যান সংস্থা স্ট্যাটসক্যানের তথ্য বলছে, শুধু ৬৫ বছর বয়সোর্ধ্বরা নন, গত এক বছরে সেখানে ৫৫ থেকে ৬৪ বছর বয়সী বহু মানুষই আগেভাগে অবসর নিয়েছেন।

গত আগস্ট পর্যন্ত এক বছরে কানাডায় অন্তত ৩ লাখ ৭ হাজার মানুষ অবসর নিয়েছেন। এটি আগের বছর একই সময়ের তুলনায় অন্তত ৩১ দশমিক ৮ শতাংশ এবং ২০১৯ সালের আগস্টের তুলনায় ১২ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। করোনা মহামারির প্রথম দুই বছরে কানাডায় অবসর নেওয়ার বয়স ছুঁয়েছেন অনেকে। স্ট্যাটসক্যানের তথ্যমতে, এ সময়ে অন্তত ৬ লাখ ২০ হাজার মানুষের বয়স ৬৫ ছাড়ায়। কিন্তু মহামারির কারণে তখন নতুন নিয়োগ কার্যত বন্ধ ছিল।

দেশটিতে গত মে মাস থেকে শুধু স্বাস্থ্যখাতেই চাকরি ছেড়েছেন ৩৪ হাজার মানুষ। মহামারির সময় তাদের অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কোনো ছুটি ছাড়া দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। গণঅবসরের কারণে কর্মী সংকট দেখা দিয়েছে কানাডার পরিবহন খাতেও। ট্রাকচালকদের প্রশিক্ষণ সংস্থা ট্রান্স-কানাডা কলেজের স্বত্বাধিকারী টনি রিডার জানান, অনেক চালক বয়স হয়ে যাওয়ায় অবসর নিচ্ছেন বা ট্রাক চালানো বাদ দিয়ে ভিন্ন ধারার জীবন বেছে নিচ্ছেন৷

দেসজার্দিনস গ্রুপের প্রধান অর্থনীতিবিদ জিমি জিন মনে করেন, স্বেচ্ছা অবসরের এ ঢেউয়ের কারণে নিকট ভবিষ্যতে বড় সংকটে পড়তে পারে কানাডা। তিনি বলেন, আমরা আগে থেকেই বুঝতে পারছিলাম এমন একটা (অবসর নেওয়ার) ঢেউ আসছে। এমন সময় যে আসবে তা অনুমান করা যাচ্ছিল। আগামী বছরগুলোতে এ সংকট শুধুই বাড়বে।

নিউজ ট্যাগ: কানাডা

আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




আপনাদের মাঝে ইতিহাসের সাক্ষ্য দিতে এসেছি: জয়া

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মুক্তি পেতে যাচ্ছে জয়া আহসান অভিনীত বহুল প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র বিউটি সার্কাস। মুক্তি সামনে রেখে প্রচারের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন সিনেমাটির পরিচালক মাহমুদ দিদার। এবার সার্কাসের বিউটি হয়ে সামনে এলেন জয়া আহসান।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে মুক্তি পেয়েছে বিউটি সার্কাস সিনেমাটির ট্রেইলার। ২ মিনিট ৮ সেকেন্ড দৈর্ঘ্যের এই ট্রেইলারে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী মেলা, সার্কাস, জাদুর পাশাপাশি সম্পর্ক, সমাজ ও প্রতিশোধের ইঙ্গিত মেলে। যাতে জয়ার একাধিক রূপ দেখা যায়। অল্প সময়ে জয়ার উপস্থিতি মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। বিশেষ করে একাধিক সংলাপে পাওয়া যায় আড়ালের অন্য গল্প।

কখনো বলেছেন, এই গল্পটা শুধু আমার না। এইটা যদি শুধু একটা গল্প হইতো অথবা ছোটবেলায় শোনা কোনো রূপকথা হইতো, কতই না মজা অইতো। আমি বলি এইটা কোনো গল্প না। না বিউটির, না সার্কাসের। আমি আজ আপনাদের মাঝে ইতিহাসের সাক্ষ্য দিতে এসেছি। রক্তের ইতিহাসের সাক্ষ্য।

২০১৭ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হলেও চলচ্চিত্রটির ব্যাপ্তি ও নির্মাণের বৃহৎ আয়োজন সম্পন্ন করতে প্রায় পাঁচ বছর সময় লেগেছে পরিচালকের। করোনা মহামারির কারণেও পিছিয়েছে বহুল প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্রটির মুক্তি। চলচ্চিত্রটির মধ্য দিয়ে দীর্ঘদিন পর ২৩ সেপ্টেম্বর দেশের বড়পর্দায় হাজির হচ্ছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

সরকারের অনুদানপ্রাপ্ত ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত মাহমুদ দিদার নির্মিত বিউটি সার্কাসে জয়া আহসান ছাড়াও আর অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেনচিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ, তৌকীর আহমেদ, এবিএম সুমন, শতাব্দী ওয়াদুদ, গাজী রাকায়েত, হুমায়ূন সাধু, মানিসা অর্চি প্রমুখ। চলচ্চিত্রটিতে তিনটি গান ব্যবহার করা হয়েছে। গানগুলো গেয়েছেন চিরকুট ব্যান্ডের শারমীন সুলতানা সুমী, অ্যাশেজ ব্যান্ডের ইভান ও টুনটুন বাউল।

নিউজ ট্যাগ: জয়া আহসান

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




মূল্যস্ফীতির পাগলা ঘোড়া বাগে এসেছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মূল্যস্ফীতির পাগলা ঘোড়া বাগে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। তিনি বলেছেন, একটি সুখবর আছে মূল্যস্ফীতির পাগলা ঘোড়ার লাগাম টানা সম্ভব হয়েছে। দু-এক দিনের মধ্যে মূল্যস্ফীতির তথ্য প্রকাশ করা হবে। আগস্টে মূল্যস্ফীতি বেড়েছিল। কিন্তু সেপ্টেম্বরে সেটি কমেছে। এর কারণ হচ্ছে এক কোটি ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে চার কোটি লোক সুবিধা পাচ্ছে। সেই সঙ্গে সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে যারা সরাসরি মূল্যস্ফীতিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তারা উপকৃত হচ্ছে। ফলে মূল্যস্ফীতিতে লাগাম টানা সম্ভব হয়েছে।

সোমবার বিডিএসের এক প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। রাজধানীর আগরগাঁওয়ে বিআইডিএসের সম্মেলনকক্ষে এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। গেস্ট অব অনার ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা সচিব মামুন-আল-রশীদ, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব  ড. শাহনাজ আরেফিন ও বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মতিউর রহমান। সভাপতিত্ব করেন বিআইডিএসের মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেন। বক্তব্য দেন জনশুমারি ও গৃহ গণনা প্রকল্পের পরিচালক মো. দিলদার হোসেন, পিইসি কার্যক্রমের সমন্বয়কারী ড. ইউনূস।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে জনশুমারির তদারকি শুরু হচ্ছে ১০ অক্টোবর। দেশের ৩৫৪টি নমুমা এলাকায় নতুন করে তথ্য সংগ্রহ শুরু করা হবে। ৯ অক্টোর রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে শুরু হয়ে এ কার্যক্রম চলবে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত।

তিনি বলেন, আমরা তথ্যেও কোনো ইঞ্জিনিয়ারিং করব না। শুধু প্রক্রিয়াগত কারণে এটি দেরি হয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, জনগণের টাকা ব্যয় করে এই শুমারি করা হয়েছে। এখন পিইসিও করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে, যাতে বড় অংকের এই টাকার সঠিক ব্যবহার হয়। এই টাকা খরচের দায়িত্ব যেমন বিরল সন্মানের তেমনি গুরুত্বপূর্ণও। আপনারা স্বাধীনভাবে কাজ করুণ। আমি বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষ হিসেবে বলছি কাজের ক্ষেত্রে কোনো সম্যস্যা নেই। আমি কোনো দলের বা ব্যবস্থার প্রতি নয়, দেশের প্রতি অনুগত থেকে কাজ করছি।  

ড. শামসুল আলম বলেন, নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও বিবিএস একটি ভালো শুমারি করেছে। এখন সেটির পরীক্ষা করা হচ্ছে। বিবিএসকে আরও একটু স্বাধীনতা দেওয়া উচিত। ভারতে পরিসংখ্যান সংস্থান যেভাবে স্বাধীনতা ভোগ করে বাংলাদেশে সেটি হচ্ছে না। পরিসংখ্যান ব্যুরোকে আরও হালনাগাদ তথ্য দিতে হবে।


আরও খবর