Logo
শিরোনাম

বগুড়ায় ভুয়া ‘ডোপ টেস্ট’ রিপোর্ট বিক্রির অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়ায় ভুয়া ডোপ টেস্ট রিপোর্ট বিক্রির অভিযোগে রাসেল মাহমুদ (২৫) নামে এক কম্পিউটার ও ফটোষ্ট্যাট দোকানদারকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। বৃহস্পতিবার রাতে তাকে নিজ দোকান থেকে সরকারি মোঃ আলী হাসপাতালের ভুয়া ডোপ টেস্ট-এর ফলাফলসহ গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত রাসেল মাহমুদ গাইবান্ধা জেলার সাপমারা গ্রামের আবজাল হোসেন এর ছেলে ও সরকারি আজিজুল হক কলেজের কামাড়গাড়ি গেট এলাকা মার্কেটের রাসেল কম্পিউটার এন্ড ফটোষ্ট্যাট দোকানের স্বত্বাধিকারি। এছাড়াও সে ওই কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের মাস্টার্স পরিক্ষার্থী।

র‍্যাব-১২ বগুড়া সূত্র জানায়, সরকারি আজিজুল হক কলেজে প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী মাদক গ্রহণ করে কিনা তা নিশ্চিত হতে "ডোপ টেস্ট" বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এমতাবস্থায় র‍্যাব বগুড়ার গোয়েন্দা দল জানতে পারে কামাড়গাড়িতে কিছু অসাধু কম্পিউটার ও ফটোষ্ট্যাট দোকানদার সরকারি হাসপাতালের নাম ব্যবহার করে "ডোপ টেস্টের" ভুয়া ফলাফল তিনশত থেকে চারশত টাকায় বিক্রি করছে৷

এরপর নিশ্চিত হয়ে তারা অভিযান পরিচালনা করে রাসেল নামের ওই দোকানদারের কাছ থেকে ২৩ টি ডোপ টেস্টের ভুয়া ফলাফল সহ হাতেনাতে গ্রেফতার করে।

র‍্যাব-১২ বগুড়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সোহরাব হোসেন জানান, গ্রেফতার রাসেলের কাছ থেকে আমরা ২৩ টি ভুয়া ডোপ টেস্টের ফলাফল পাওয়ায় তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে মামলা করে সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর

২০০ টাকার জন্য বাবাকে পিটিয়ে খুন

বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১




পাঞ্জশির দখল করতে রওনা হয়েছেন তালেবান যোদ্ধারা, তৈরি মাসউদ বাহিনীও

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানের অধিকাংশ এলাকা তালেবান বাহিনী দখল করলেও এখনও পাঞ্জশির উপত্যকা নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেনি। ওই এলাকা দখল করতে গিয়ে গত কয়েক দিনে বাধার মুখে পড়তে হয়েছে তাদের। তবে এবার পাঞ্জশির দখলের জন্য সর্বশক্তি দিয়ে নামার ঘোষণা দিয়েছে তালেবান।  জানা গেছে, পাঞ্জশির দখল করতে ইতোমধ্যে রওনা হয়েছেন শত শত তালেবান যোদ্ধা। খবর আনন্দবাজার।

আফগানিস্তানে একের পর এক প্রদেশ বিনাযুদ্ধে আত্মসমর্পণ করলেও সে পথে হাঁটেনি হিন্দুকুশ পর্বতের পাদদেশে অবস্থিত পাঞ্জশির উপত্যকা। ১৫ আগস্টের পরও তালেবানের দখলের বাইরে ছিল এই এলাকার বেশ কয়েকটি প্রদেশ।

আহমদ মাসউদের নেতৃত্বে তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই হচ্ছে সেখানে। আশরাফ ঘানির শাসনামলের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহও রয়েছেন তার সঙ্গে। আফগান বাহিনীর একটি অংশও যোগ দিয়েছে তাদের সঙ্গে।

এই বাহিনীর সামনে পড়ে গত কয়েক দিনে বেশ কয়েকবার পিছু হটেছে তালেবান। সেই পাঞ্জশির দখলে এবার সর্বশক্তি দিয়ে নামতে চাইছেন তারা।

সম্প্রতি তালেবানের পক্ষে এক টুইটার অ্যাকাউন্টে লেখা হয়েছে স্থানীয় প্রশাসন শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে রাজি হয়নি। তাই ইসলামিক আমির শাহির শতাধিক মুজাহিদীন পাঞ্জশির দখলের জন্য যাচ্ছে।

এদিকে তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই করতে বিরোধী জোটরা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পাঞ্জশিরে জড়ো হচ্ছেন বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএফপি।

মাসউদও এক সংবাদমাধ্যমকে রবিবার বলেছেন, আফগানিস্তানের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে সাবেক আফগান সরকারের বহু সেনা পাঞ্জশিরে এসেছেন। ফলে তালেবান বাহিনীকে রুখতে প্রস্তুত পাঞ্জশির। সেই প্রতিরোধ ভাঙতে এগোচ্ছেন তালেবান যোদ্ধারাও।



আরও খবর

আফগানিস্তানে আবারও বিস্ফোরণ, নিহত ৭

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১




আজ আসছে ফাইজারের আরো ১০ লাখ টিকা

প্রকাশিত:সোমবার ৩০ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা মহামারি মোকাবিলায় কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের উপহার হিসেবে ফাইজারের আরো ১০ লাখ ডোজ টিকা আজ দেশে এসে পৌঁছবে। সোমবার (৩০ আগস্ট) সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট এ টিকার চালান নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে টিকার চালান গ্রহণ করবেন।

গত সপ্তাহে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছিল।

গত ২৩ আগস্ট দুপুরে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, সেপ্টেম্বরেই যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফাইজারের আরো ৬০ লাখ টিকা পাওয়া যাবে। এরই অংশ হিসেবে ৩০ আগস্ট সন্ধ্যায় ১০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসছে। বাকি ৫০ লাখ টিকা ক্রমান্বয়ে সেপ্টেম্বরের মধ্যেই দেশে আসবে বলে জানান তিনি।

গত ২৭ মে জরুরি ব্যবহারের জন্য ফাইজারের টিকা অনুমোদন দেয়া হয়। ২১ জুন সকাল থেকে রাজধানীর তিনটি হাসপাতালে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। এর আগে গত ৩১ মে কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজের মাধ্যমেই যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া ফাইজার-বায়োএনটেকের এক লাখ ৬২০ ডোজ টিকার প্রথম চালান দেশে পৌঁছায়। 


আরও খবর

ডেঙ্গুতে হাসপাতালে আরও ২৩২ রোগী

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




চকলেট ভেবে ইঁদুর মারার ওষুধ খেয়ে শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলায় চকলেট ভেবে ইঁদুর মারার ওষুধ খেয়ে ফেলে দুই বোন। এ ঘটনায় মারিয়া (২) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

মারিয়া নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের আতুকুড়া গ্রামের মুহাম্মদ রহিছ আলীর মেয়ে। তার আরেক মেয়ে লিজা (৩) হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

শিশুদের দাদা আলী নেওয়াজ বলেন, রহিছ আলীর টিনসেডের ঘরে রাতে ইঁদুর ঢুকে যায়। ইঁদুরের উৎপাত থেকে বাঁচার জন্য কিছু ওষুধ বাসায় নিয়ে রাখে। সকালে সবার অগোচরে মারিয়া ও তার বোন লিজা একটি র্যাকের ওপর রাখা সেই ট্যাবলেটগুলোকে চকলেট মনে করে খেয়ে ফেলে। তাদের উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিভাগে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারিয়া বিকেল ৪টার দিকে মারা যায়। লিজা হাসপাতালে ভর্তি আছে।

নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুল্লাহ সরকার বলেন, হাসপাতাল সূত্রে জেনেছি মারিয়া নামে এক শিশু ইঁদুর মারার ওষুধ খেয়ে মারা গেছে। লিজা নামের আরেক শিশুকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

নিউজ ট্যাগ: শিশুর মৃত্যু

আরও খবর

ঘরজামাই বলায় সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাংচুর

বৃহস্পতিবার ০২ সেপ্টেম্বর 2০২1




তার সঙ্গে কথা বলতে না পারার একটা আফসোসও রয়ে গেছে

প্রকাশিত:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিংবদন্তি সংগীত সাধক, গীতিকার, সুরকার, শিল্পী শাহ আবদুল করিম-এর প্রয়াণের এক যুগ হলো আজ (১২ সেপ্টেম্বর)। তার গানকে নতুন প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় করতে যারা ভূমিকা রেখেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হাবিব ওয়াহিদ। বেঁচে থাকতে শাহ আবদুল করিমের বাড়িতেও গিয়েছিলেন হাবিব। সেই অনুভূতির কথাই ফুঠে উঠেছে তার এই লেখায়।

২০০৫ সালের কথা। শাহ আবদুল করিমের সঙ্গে দেখা করতে সিলেটে যাই। প্রায় ১২ ঘণ্টা জার্নি করে তার বাড়িতে গিয়েছিলাম। যাওয়ার সময় মনের ভেতর দারুণ একটা উত্তেজনা কাজ করছিল। তার গ্রামে পা রাখতেই মনে হলো অন্য রকম এক পরিবেশে এসেছি। ইঞ্জিন বোটে চড়া, আশপাশের মনোরম সব দৃশ্য দেখার কথা কখনোই ভুলব না। বুঝতে পারছিলাম চারপাশের এসব বিষয়বস্তুকেই তিনি গানে রূপান্তর করেছেন।

তখন তিনি খুবই অসুস্থ। কথা বলতে পারেন না, ঠিকমতো নড়াচড়া করতে পারেন না। আমি তার চোখের দিকে তাকিয়ে রইলাম। তিনিও আমার দিকে তাকিয়ে। তার মুখ থেকে কোনো কথাই বের হলো না। কিন্তু চোখের একটা চাহনি ছিল। সেই চাহনিতেই যেন হাজার কথা বলে গেলেন। এমন একজন গুণী এবং সৃষ্টিশীল মানুষকে কাছ থেকে দেখার মধ্যেও আনন্দ আছে। অবশ্য তার সঙ্গে কথা বলতে না পারার একটা আফসোসও রয়ে গেছে। তবে তার সামনে গিয়ে দাঁড়ানোর স্মৃতি সারাজীবন মনে থাকবে।

তার সৃষ্টির পেছনে গ্রাম, বেড়ে ওঠা এবং পরিবেশের একটা ব্যাপার রয়েছে বলে আমি মনে করি। তিনি কিন্তু লন্ডনেও গিয়েছিলেন। জীবনে অনেক রঙিন জিনিসই দেখেছিলেন। তার পরও নিজ গ্রামের মায়াতেই পড়েছিলেন। যা তার সৃষ্টির প্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে। এটা অনেক বড় ধৈর্যের ব্যাপার। এই ধৈর্য সবার থাকে না। তার কথা ও সুরের যে গভীরতা, সেটা ওই পরিবেশ এবং জীবনবোধ থেকেই পেয়েছেন। আমরা সাধারণত শহরের বর্ণিল জীবনের মায়াজালে আটকা পড়ি। এত সহজ-সরল জীবন পার করার ধৈর্য থাকে না। কিন্তু তিনি সেটাই করে দেখিয়েছেন, সফলতাও পেয়েছেন। তার সৃষ্টিই এর প্রমাণ। তার সঙ্গে কথা বলতে পারলে জিজ্ঞেস করতাম, এত এত সুন্দর এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ গান তিনি কিভাবে লেখেন? এগুলোর উৎস কী? লেখার সময় কী করেন। কিভাবে নিজের পরিচর্যা করেন।

শাহ আবদুল করিমের গান করে মানুষের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। হাতেগোনা কেউ কেউ আবার সমালোচনাও করেছেন। তবে আমি মনে করি যেকোনো মানুষই স্বাধীনভাবে তার মতামত দিতে পারেন। যে যেভাবেই গানগুলোকে গ্রহণ করেছেন, সবার প্রতিই আমার সম্মান রয়েছে।


আরও খবর



চিকিৎসার জন্য দিল্লি নেয়া হলো তোফায়েল আহমেদকে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতের রাজধানী দিল্লি দিল্লিতে নেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তোফায়েল আহমেদের মেয়ের জামাই ডাক্তার তৌহিদুজ্জামান।

শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি দিল্লির উদ্দেশে ছেড়ে যায়। এর আগে বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

তোফায়েল আহমেদের জামাতা ডা. তৌহিদুজ্জামান জানান, হঠাৎ করে অসুস্থ হওয়ার পর তিনি স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এখন অবস্থা ভালো। তবে বাম হাতে একটু কম শক্তি পাচ্ছেন। উন্নতি চিকিৎসা ও চেকআপের জন্য তিনি দিল্লি গেছেন। তাকে দিল্লির মেডান্টা দি মেডিটিডি হাসপাতালে ভর্তি করা হবে।

উল্লেখ্য, ৭৭ বছর বয়সী তোফায়েল আহমেদ পাঁচবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য। সবশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-১ আসন থেকে নির্বাচিত হন তিনি। এক সময় তিনি বাণিজ্যমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।


আরও খবর