Logo
শিরোনাম

বিদ্যানন্দের নামে ভুয়া পেজ খুলে টাকা আদায়, গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | ১৩৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দের নামে পেজ খুলে বন্যার্তদের সাহায্যের কথা বলে প্রতারণা করে আসছিল একটি চক্র। এ অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন।

তারা হলেন আমির হোসেন শাকিল (২৫), মো. দেলোয়ার হোসেন (২২), মো. মশিউর রহমান (২৬), মো. ইসরাফিল পাবেল (২৪) ও মো. মহিন উদ্দিন (২২)।

সোমবার (৭ নভেম্বর) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) ধ্রুব জ্যোতির্ময় গোপ।

তিনি বলেন, গত ১৬ ও ২৯ জুলাই পল্লবী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দুটি মামলা হয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়, একটি অস্বাদু চক্র বিদ্যানন্দের নামে ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণা করছে। পরে মামলার তদন্তভার পায় সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন।

এতে দেখা যায়, চক্রটি বিদ্যানন্দের নামে পেজ খুলে বন্যার্তদের সাহায্যের কথা বলে বিভিন্ন পোস্ট দেয়। পরে অনেক মানুষ এসব পোস্ট দেখে সাহায্যের জন্য লাখ লাখ টাকা পাঠায় বিদ্যানন্দের ভুয়া পেজের মালিকদের কাছে। পরে চক্রটি এসব টাকা আত্মসাৎ করে ফোন বন্ধ করে দেয়।

ধ্রুব জ্যোতির্ময় গোপ বলেন, তদন্তের একপর্যায়ে প্রযুক্তির ব্যবহার করে চক্রটির পাঁচ সদস্যকে রোববার (৬ নভেম্বর) নোয়াখালী থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অর্থ আত্মসাতের কথা স্বীকার করেছেন।

এদিকে প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিএমপির সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বেশ কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছে। এগুলো হলো-

১. নিজ নামের সিমকার্ড অন্য কাউকে না দেওয়া

২. নিজ এনআইডি দিয়ে কেনা যে সিম আছে তা চেক করে অব্যবহৃত সিম বন্ধ করা।

৩. প্রি-রেজিস্টার্ড সিম বিক্রি না করা।

৪. মোবাইল ফাইন্যান্স সার্ভিসের ক্যাশ আউটের সময় গ্রহীতার পরিচয় নিশ্চিত করা।

৫. দানের আগে গ্রহীতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া।


আরও খবর

রাজধানীর ৯০ ভাগ হিজড়াই নকল

শনিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩