Logo
শিরোনাম

বিএনপিকে বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার পরামর্শ কাদেরের

প্রকাশিত:শনিবার ১১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৮২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় সরকার কোনো বাধা দিচ্ছে না বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আজ শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বাজেট প্রতিক্রিয়া নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার কি জন্য দায়-দায়িত্ব নেবে? শেখ হাসিনার উদারতা ও মানবিকতায় খালেদা জিয়া মুক্ত আছেন। বাসায় থাকার অধিকার পেয়েছেন তিনি। চিকিৎসার ব্যাপারে কোনো বাধা নেই। তাঁদের যদি এত ইচ্ছা হয় তাহলে দেশের বাইরে থেকে চিকিৎসক আনুক। এতে অসুবিধাতো নেই।

সরকারি নির্দেশনার পরেও কর্মকর্তাদের বিদেশ সফর ঠেকানো যাচ্ছে না, কর্মকর্তারা সরকারি যানবাহন পারিবারিক কাজে ব্যবহার করছেন। এমন অপচয় রোধে বাজেটে সুনির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা নেই এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা বাজেটে কেন? প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশে যাওয়া নিষিদ্ধ করে দিয়েছেন। কথায় কথায় চলে যাবে, যার ইচ্ছা সে বিদেশে চলে যাবে, এটা মন্ত্রী হোক বা কর্মকর্তা হোক কারও ব্যাপারে এটা আর উৎসাহিত করা হবে না। আর প্রধানমন্ত্রী নিজেইতো সামারিতে সই করেন, কিন্তু এখন আর সামারিতে সই করছেন না। কাজেই এ ব্যাপারে চিন্তার কোনো কারণ নেই।


আরও খবর



ওড়না পেঁচিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাগেরহাটের শরণখোলায় তামান্না আক্তার (১৩) নামের এক ৮ম শ্রেণির স্কুলছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সকাল ৯টায় উপজেলার ধানসাগর আমড়াগাছিয়া এলাকার কালিবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তামান্না আক্তার আমড়াগাছিয়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ও কালিবাড়ি গ্রামের মো. ইয়াছিন ফকিরের মেয়ে।

আমড়াগাছিয়া বাজারের চিকিৎসক মইনুল ইসলাম বলেন, সকাল ৯টার দিকে তামান্নার মা বাজার করার উদ্দেশ্যে আমড়াগাছিয়া বাজারে আসেন। এ সময় আমার দোকানের ওষুধের পাওনা টাকা দিয়ে বাড়ি গিয়ে দেখেন তার মেয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে আছে।

প্রতিবেশিরা বলেন, তামান্নার বাবা থাকেন ফেনী জেলায়। সেখানে কনস্ট্রাকশন কাজের সহকারী ঠিকাদার। সকালে মেয়ে বাবাকে ফোন করে নানা বাড়ি বেড়াতে যাবে বলে অনুরোধ করেন। তখন তার বাবা কয়েকদিন পরে যেতে বলায় এই আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা তাদের।

শরণখোলা থানার ওসি ইকরাম হোসেন বলেন, আমড়াগাছিয়ার কালিবাড়ি গ্রামে তামান্না আক্তার নামে এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর

নদী দখল করে মাছ চাষ, জানে না পাউবো

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




১৪ জুন: ইতিহাসের এই দিনে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ ১৪ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১৬৫ তম দিন। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ কিছু ঘটনা।

আজকের দিনটি সময়ের হিসাবে অতি অল্প সময়। আবার একটি ঘটনার জন্য যথেষ্ট সময়। ইতিহাস ঘেঁটে দেখা যায় বছরের প্রতিটি দিনেই ঘটেছে নানা উল্লেখযোগ্য ঘটনা। অনেকের আজ জন্মবার্ষিকী আবার কেউ মৃত্যুবরণ করেছিলেন এই দিনেই।

চলুন এক নজরে দেখে নেয়া যাক আজকের দিনের ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য কিছু বিষয়-  

ঘটনাবলী:

১৮২০ মোহাম্মদ আলী পাশার নেতৃত্বে মিশরীয় বাহিনী, সুদানে হামলা চালিয়ে দেশটির একটি বড় অংশ দখল করে নেয়।

১৮৩০ ফরাসি বাহিনী আলজেরিয়ায় অভিযান শুরু করে। তবে ফ্রান্সের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে আলজেরিয়ার জনগণ প্রথম থেকেই সোচ্চার ছিল।

১৮৩৯ প্রথম বাংলা দৈনিক পত্রিকা সংবাদ প্রভাকর’ ঈশ্বর গুপ্তের সম্পাদনায় প্রকাশিত হয়।

১৮৩৯ কলকাতায় বাংলা পাঠশালার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হয়।

১৮৫৫ ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর রচিত বর্ণ পরিচয়’ দ্বিতীয় ভাগ প্রকাশিত হয়।

১৯০৭ নরওয়েতে নারীর ভোটাধিকার স্বীকৃত হয়।

১৯২৭ ব্রিটিশ নারীদের ভোটাধিকার স্বীকৃত হয়।

১৯৪৯ সাবেক সম্রাট বাও দাই’র নেতৃত্বে সায়গলে ভিয়েতনামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা।

১৯৬৩ বিশ্বের প্রথম মহিলা নভোচারী ভ্যালেনটিনা তেরেশকোভার মহাশূন্য যাত্রা।

১৯৭৫ বেতবুনিয়ায় বাংলাদেশের প্রথম ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্র স্থাপন।

১৯৮২ ফকল্যান্ডস যুদ্ধ শেষ হয়।

১৯৯১ ঐতিহাসিক নগরী লেনিনগ্রাদের নতুন নামকরণ পিটার্সবার্গ।

১৯৯৩ তানসু সিলার তুরস্কের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত।

১৯৯৫ আন্তর্জাতিক রক্তদাতা ফেডারেশনের উদ্যোগে প্রথম বিশ্ব রক্তদাতা দিবস পালিত হয়।

১৯৯৫ ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক দেশে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা সম্পর্কিত ব্যাঙ্কিং ন্যায়পাল প্রকল্প” প্রথম চালু করে।

১৯৯৭ সিলেটের মাগুরছড়া গ্যাস ফিল্ডে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

১৯৯৯ কসোভোতে প্রথম গণকবরের সন্ধান লাভ। ৮১টি কঙ্কাল উদ্ধার।

২০০৭ ফিলিস্তিনের স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস হামাস নেতৃত্বাধীন নির্বাচিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়াকে অন্যায় ভাবে বরখাস্ত করে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন।

২০১৮ রাশিয়ায় ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ শুরু হয়।

জন্ম:

১৭৩৬ জন্মগ্রহণ করেছিলেন চার্লস অগাস্টিন কুলম্ব, তিনি ছিলেন ফরাসি পদার্থবিজ্ঞানী।

১৭৯৮ জন্মগ্রহণ করেছিলেন ফ্রেঙ্কিসেক পোলাৎস্কি, তিনি ছিলেন চেক ইতিহাসবিদ ও রাজনীতিবিদ।

১৮৪৮ জন্মগ্রহণ করেছিলেন বার্নার্ড বোসাঙ্কুয়ে, তিনি ছিলেন ইংরেজ দার্শনিক ও তাত্ত্বিক।

১৮৫৬ জন্মগ্রহণ করেছিলেন আন্দ্রেই মার্কভ, তিনি ছিলেন রাশিয়ান গণিতবিদ ও তাত্তিক।

১৮৬৪ জন্মগ্রহণ করেছিলেন অ্যালোয়িজ্ অ্যাল্জায়মার, তিনি ছিলেন জার্মান সাইকোলজিস্ট ও নিউরোপেথ্যলগিস্ট।

১৮৬৮ জন্মগ্রহণ করেছিলেন কার্ল লান্ডষ্টাইনার, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অস্ট্রিয়ান জীববিজ্ঞানী ও চিকিৎসক।

১৮৭৫ জন্মগ্রহণ করেছিলেন হাইনরিখ লুই দ্য আরেস্ট, তিনি ছিলেন জার্মান বিজ্ঞানী ও নেপচুনের আবিষ্কর্তা।

১৮৮০ জন্মগ্রহণ করেছিলেন সতীশচন্দ্র দাশগুপ্ত, তিনি ছিলেন প্রখ্যাত গান্ধীবাদী নেতা ও গঠনমূলক সেবাকার্য ও পল্লীউন্নয়নের বিভিন্ন পদ্ধতির আবিষ্কারক।

১৯০৩ জন্মগ্রহণ করেছিলেন অ্যালোঞ্জো চার্চ, তিনি ছিলেন আমেরিকান গণিতবিদ ও তাত্তিক।

১৯১৭ জন্মগ্রহণ করেছিলেন বিনয় ঘোষ, সালে এই দিনে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন বাঙালি সমাজবিজ্ঞানী, সাহিত্য সমালোচক, সাহিত্যিক, লোকসংস্কৃতি সাধক, চিন্তাবিদ ও গবেষক।

১৯২৪ জন্মগ্রহণ করেছিলেন জেমস হোয়াইট ব্ল্যাক, তিনি ছিলেন স্কটিশ নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ফার্মাকোলজিস্ট ও অধ্যাপক।

১৯২৮ জন্মগ্রহণ করেছিলেন চে গুয়েভারা, তিনি ছিলেন আর্জেন্টিনীয় বিপ্লবী।

১৯২৯ জন্মগ্রহণ করেছিলেন অ্যালান ডেভিডসন, তিনি ছিলেন বিখ্যাত ও সাবেক অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা।

১৯৩২ জন্মগ্রহণ করেছিলেন হাসান হাফিজুর রহমান, তিনি ছিলেন বাংলাদেশী কবি।

১৯৪৬ জন্মগ্রহণ করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, তিনি ধনাঢ্য ব্যবসায়ী, বিনিয়োগকারী, বিশিষ্ট সামাজিক ব্যক্তিত্ব, সাহিত্যিক ও ২০১৬ সালে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন।

১৯৪৭ জন্মগ্রহণ করেছিলেন সেলিনা হোসেন, তিনি বাংলাদেশী লেখিকা।

১৯৫৫ জন্মগ্রহণ করেছিলেন কিরণ খের, তিনি ভারতীয় মঞ্চ, চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অভিনেত্রী।

১৯৫৬ জন্মগ্রহণ করেছিলেন গিয়ানা নানিনি, তিনি ইতালীয় গায়ক ও গীতিকার।

১৯৬৩ জন্মগ্রহণ করেছিলেন মিজানুর রহমান সাঈদ, তিনি

বাংলাদেশি ইসলামি স্কলার, হানাফি সুন্নি আলেম, মুফতি, লেখক এবং ধর্মীয় আলোচক। তিনি ২০১১ সালে ফতোয়া বিরোধী রায়ে মুফতি হিসেবে ইসলামি ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কর্তৃক নির্বাচিত পাঁচজন ওলামার একজন।

১৯৬৯ জন্মগ্রহণ করেছিলেন স্টিফানি মারিয়া স্টেফি” গ্রাফ, তিনি জার্মান টেনিস খেলোয়াড়।

১৯৭৬ জন্মগ্রহণ করেছিলেন মাসিমো অডো, তিনি ইতালিয়ান ফুটবল।

১৯৭৭ জন্মগ্রহণ করেছিলেন বোয়েতা ডিপেনার, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকান সাবেক ক্রিকেটার।

১৯৮৯ জন্মগ্রহণ করেছিলেন লুসি হালে, তিনি আমেরিকান অভিনেত্রী ও গায়ক।

১৯৯১ জন্মগ্রহণ করেছিলেন কোস্টাস মানোলাস, তিনি গ্রিক ফুটবলার।

মৃত্যু:

০৭৬৭ মৃত্যুবরণ করেন ইমাম আবু হানিফা, তিনি ছিলেন ফিকহশাস্ত্রের একজন প্রখ্যাত বিশেষজ্ঞ ও হিজরী প্রথম শতাব্দীর একজন গুরুত্বপূর্ণ ইসলামী ব্যক্তিত্ব।

১৫৫৮ মৃত্যুবরণ করেন সুলতান গিয়াসউদ্দিন ।

১৭৪৬ মৃত্যুবরণ করেন কলিন ম্যাকলাউরিন, তিনি ছিলেন স্কটিশ গণিতবিদ।

১৮০১ মৃত্যুবরণ করেন বেনেডিক্ট আর্নল্ড, তিনি ছিলেন আমেরিকান বিপ্লবের সময় আমেরিকান জেনারেল ও পরে ব্রিটিশ গুপ্তচর পরিণত হয়েছিলেন।

১৮৮৬ মৃত্যুবরণ করেন আলেকজান্ডার অস্ট্রোভস্কাই, তিনি ছিলেন রাশিয়ান পরিচালক ও নাট্যকার।

১৮৮৭ মৃত্যুবরণ করেন মেরি কার্পেন্টার, তিনি ছিলেন ইংরেজ ভারতপ্রেমিক মহিলা শিক্ষাব্রতী ও সমাজসংস্কারক।

১৯২০ মৃত্যুবরণ করেন ম্যাক্সিমিলিয়ান কার্ল এমিল মাক্স ভেবার, তিনি ছিলেন জার্মান সমাজবিজ্ঞানী ও অর্থনীতিবিদ।

১৯২৭ মৃত্যুবরণ করেন জেরোম কে জেরোম, তিনি ছিলেন ইংরেজ লেখক।

১৯৩৬ মৃত্যুবরণ করেন জি. কে. চেস্টারটন, তিনি ছিলেন ইংরেজ প্রাবন্ধিক, কবি ও নাট্যকার।

১৯৪৬ মৃত্যুবরণ করেন জন লগি বেয়ার্ড, তিনি ছিলেন স্কটিশ বংশোদ্ভূত ইংরেজ পদার্থবিদ, প্রকৌশলী ও টেলিভিশন আবিষ্কারক।

১৯৬৮ মৃত্যুবরণ করেন সালভাটরে কুয়াসিমডো, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ইতালিয়ান লেখক ও কবি।

১৯৮৬ মৃত্যুবরণ করেন খুর্খা লুইস বুরখাস, তিনি ছিলেন লাতিন আমেরিকার বিখ্যাত লেখক খুর্খা লুইস বুরখাস।

১৯৮৬ মৃত্যুবরণ করেন হোর্হে লুইস বোর্হেস, তিনি ছিলেন আর্জেন্টিনার লেখক ও কবি।

১৯৯৪ মৃত্যুবরণ করেন হেনরি ম্যান্সিনি, তিনি ছিলেন আমেরিকান সুরকার ও কন্ডাকটর।

১৯৯৫ মৃত্যুবরণ করেন ররি গ্যালাগার, তিনি ছিলেন আইরিশ ব্লুস অ্যান্ড রক বহু-যন্ত্রবাদক, সঙ্গীত রচয়িতা ও প্রযোজক।

২০০৭ মৃত্যুবরণ করেন কার্ট ওয়াল্ডহেইম, তিনি ছিলেন অস্ট্রিয়া লেফটেন্যান্ট, রাজনীতিবিদ ও ৯ম প্রেসিডেন্ট।

২০১৫ মৃত্যুবরণ করেন সাংবাদিক হাবিবুর রহমান মিলন, তিনি ছিলেন বাংলাদেশী প্রবীণ সাংবাদিক।

২০১৫ মৃত্যুবরণ করেন যিটো, তিনি ছিলে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার।সালে এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন হেনরি ম্যান্সিনি, তিনি ছিলেন আমেরিকান সুরকার ও কন্ডাকটর।

২০২০ মৃত্যুবরণ করেন সাইফুল আজম, তিনি ছিলেন বাংলাদেশ, পাকিস্তান, জর্ডান ও ইরাক-এই চারটি দেশের বিমানবাহিনীতে দায়িত্ব পালনকারী বাংলাদেশি বৈমানিক ও রাজনীতিবিদ।

২০২০ মৃত্যুবরণ করেন সুশান্ত সিং রাজপুত, তিনি ছিলেন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা।

ইতিহাসে আজকে দিবস সমূহ ও অন্যান্য:

আজ বিশ্ব রক্তদাতা দিবস।

নিউজ ট্যাগ: ইতিহাসে এই দিনে

আরও খবর

৩০ জুন: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২




সুইস ব্যাংকে এক বছরে বাংলাদেশিদের টাকা বেড়েছে প্রায় ৩ হাজার কোটি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে গত এক বছরে বাংলাদেশিদের টাকার পরিমাণ নজিরবিহীনভাবে বেড়েছে। গত বছর (২০২১ সাল) বাংলাদেশিরা সুইস ব্যাংকে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার সমপরিমাণ অর্থ জমা করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের (এসএনবি) প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের বার্ষিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০২১ সালে সেখানকার ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমা রাখা অর্থের পরিমাণ প্রায় ৮ হাজার ৩৩৩ কোটি টাকা; যা দেশটির ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ পরিমাণ অর্থ করা জমা।

এসএনবির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর সুইজারল্যান্ডের শতাধিক ব্যাংকে বাংলাদেশিদের আমানত ৮৭২ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঁতে পৌঁছেছে। সুইজারল্যান্ডের প্রতি ফ্রাঁ বাংলাদেশের ৯৫ টাকার সমান। সেই হিসেবে সেখানকার ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমা করা অর্থের পরিমাণ প্রায় ৮ হাজার ৩৩৩ কোটি টাকা।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে বৈধ-অবৈধ পথে উপার্জিত অর্থ গচ্ছিত রাখেন। দেশটির কঠোর গোপনীয় ব্যাংকিং নীতির কারণে সারা দুনিয়ার মানুষ সেখানে অর্থ জমা রাখেন।

সুইজারল্যান্ডের আইনে গ্রাহকদের গোপনীয়তা দৃঢ়ভাবে রক্ষার নিয়ম রয়েছে। এ আইনের ফলে দেশটির ব্যাংকগুলো কোনো পরিস্থিতিতেই গ্রাহকদের তথ্য কারও কাছে প্রকাশে বাধ্য নয়। ফলে কারা, কেন অথবা কীভাবে অর্থ ব্যাংকে রাখছেন, সে সম্পর্কে ব্যাংকগুলো কাউকে কোনো তথ্য দেয় না।

প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ২০২০ সালে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমা অর্থের পরিমাণ তার আগের বছরের তুলনায় কম ছিল। ওই বছর সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ ছিল ৫৬ কোটি ৩০ লাখ সুইস ফ্রাঁ; যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫ হাজার ২০৩ কোটি টাকা।

তার আগের বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে দেশটির বিভিন্ন ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ ছিল ৬০ কোটি ৩০ লাখ ফ্রাঁ। ২০১৮ সালে এই অর্থের পরিমাণ ছিল ৬২ কোটি সুইস ফ্রাঁ। আর ২০১৭ সালে এর পরিমাণ ছিল ৬৬ কোটি ১৯ লাখ সুইস ফ্রাঁ।

তবে ২০২১ সালে বাংলাদেশিদের মতো সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের অর্থ গচ্ছিত রাখার পরিমাণও ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। বৃহস্পতিবার ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থ আগের বছরের তুলনায় ৫০ শতাং‌শেরও বে‌শি বেড়ে ৩০ হাজার কোটি রুপিতে পৌঁছেছে। যা গত ১৪ বছরের মধ্যে সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে ভারতীয়দের সর্বোচ্চ পরিমাণ অর্থ জমা।

পিটিআই বলছে, ২০২০ সালে সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের অর্থ জমার পরিমাণ ছিল ২ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ বা ২০ হাজার ৭০০ কোটি রুপি। এর ফলে সুইস ব্যাংকে ভারতীয়দের অর্থ জমা টানা দ্বিতীয় বছরের মতো বৃদ্ধি পেয়েছে। এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তানের নাগরিকদেরও গত বছর সুইস ব্যাংকে অর্থ জমার পরিমাণ বেড়েছে। ২০২১ সালে পাকিস্তানিরা সুইস ব্যাংকে জমা করেছেন ৭১২ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ।

সুইস ব্যাংকে অর্থ রাখার শীর্ষে কারা?

সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২১ সালে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে সর্বোচ্চ পরিমাণ অর্থ জমা করেছেন ব্রিটিশ নাগরিকরা। সুইস ব্যাঙ্কে ৩৭৯ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ জমা রেখে এই তালিকার সবার শীর্ষে আছে যুক্তরাজ্য।

আর এরপরই দ্বিতীয় স্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন নাগরিকরা ১৬৮ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ জমা রেখেছেন সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংকে। তালিকায় মাত্র এই দুটি দেশের নাগরিকরা ১০০ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁর ওপরে অর্থ গচ্ছিত রেখেছেন।

সুইস ব্যাংকে অর্থ জমা রাখা অন্য শীর্ষ ১০ দেশ হল— ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জার্মানি, ফ্রান্স, সিঙ্গাপুর, হংকং, লুক্সেমবার্গ, বাহামা, নেদারল্যান্ডস, কেম্যান দ্বীপপুঞ্জ এবং সাইপ্রাস।

এই তালিকায় ভারত রয়েছে ৪৪তম স্থানে। এরপরই আছে পোল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, সুইডেন, বাহরাইন, ওমান, নিউজিল্যান্ড, নরওয়ে, মরিশাস, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, হাঙ্গেরি এবং ফিনল্যান্ড।

২০২১ সালে সুইজারল্যান্ডের ২৩৯টি ব্যাংকের সমন্বয়ে সুইস ব্যাঙ্কিং স্পেকট্রামে গ্রাহকের আমানত বেড়ে প্রায় ২ দশমিক ২৫ ট্রিলিয়ন সুইস ফ্রাঁতে দাঁড়িয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: সুইস ব্যাংক

আরও খবর



ঘাটাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মাঝে ভেড়া বিতরণ

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে সমতল ভূমিতে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর আর্থসামাজিক ও জীবন মানোন্নয়নের লক্ষ্যে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প এর আওতায় সুফল ভোগীদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ অনুদান হিসেবে ভেড়া ও গৃহনির্মাণ উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।

সোমবার (২০ জুন) দুপুরে উপকার ভোগী ১২৮টি পরিবারের মাঝে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ২৫৬টি ভেড়া বিতরণ করা হয়। এছাড়াও যারা ভেড়া পেয়েছেন তাদের প্রত্যেককে ভেড়া পালনের জন্য ঘর তৈরীর উপকরণ দানাদার খাবারসহ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঘাটাইল উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শহিদুল ইসলাম লেবু, টাঙ্গাইল জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা: রানা মিয়া, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনিয়া চৌধুরী, ঘাটাইল পৌর মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশীদ মিয়া, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা: তোফায়েল আহমদ, ধলাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো: এজহারুল ইসলাম মিঠু, সাগরদিঘী ইউপি চেয়ারম্যান হেকমত সিকদার, ট্রাইবাল ওয়েল ফেরার এসোসিয়েশন ঘাটাইল উপজেলা শাখার চেয়ারম্যান স্বপক কুমার কোচ, আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা উপকারভোগী বৃন্দ।


আরও খবর



ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৫ জন হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৫ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। শনিবার (২৫ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৫ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ৩৩ জন এবং ঢাকার বাইরে সারাদেশে দুই জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

বর্তমানে সারাদেশে সর্বমোট ১২৭ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ১১৮ জন এবং ঢাকার বাইরে সারাদেশে নয় জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।    

এ বছর ১ জানুয়ারি থেকে ২৫ জুন পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৯২০ জন। একই সময়ে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৯২ জন রোগী। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এ বছরে একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

গত বছর ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৪২৯ জন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৮ হাজার ২৬৫ জন এবং ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা যান ১০৫ জন। 


আরও খবর

করোনায় ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৮৩

বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২