Logo
শিরোনাম

বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পথে প্রাণ গেল তরুণীর

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২২৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে বাসচাপায় পিংকী রাণী বর্মণ (২৫) নামে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২৭ মে) সকালে বাবার সঙ্গে মোটরসাইকেলে ময়মনসিংহে পর‌ীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার পথে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চুরখাই এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহত পিংকী রাণী বর্মণ গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের তালতলী গ্রামের নারায়ণ চন্দ্র বর্মণ ও মণিকা রাণী বর্মণ দম্পতির দ্বিতীয় সন্তান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী।

নিহত পিংকীর বড় ভাই নিতাই চন্দ্র বলেন, অনার্স-মাস্টার্স শেষ করে ৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল পিংকী। দিনরাত বইয়ের সঙ্গে মিতালি গড়ে তুলেছিল সে। বিসিএস পরীক্ষার কেন্দ্র ছিল ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ। পরিবারের সঙ্গেই সে গাজীপুরের সদর উপজেলার তালতলী গ্রামে থাকতো। ময়মনসিংহ পরীক্ষা কেন্দ্র হওয়ায় বেশ কিছু দিন আগে ভালুকার নানাবাড়িতে গিয়েছিল। সেখান থেকেই চলছিল তার বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতি।

শুক্রবার খুব ভোরে বাবা নারায়ণ চন্দ্র বর্মণ গাজীপুর থেকে মোটরসাইকেল যোগে ভালুকার নানাবাড়িতে যান। সেখান থেকে পিংকীকে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজের উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চুরখাই পৌঁছালে পেছন থেকে একটি ড্রাম্প ট্রাক তাদের মোটরসাইকেলকে ওভারটেক করে সামনে গিয়ে হার্ড ব্রেক করে। এতে চালকের আসনে থাকা বাবা নিয়ন্ত্রণে হারিয়ে ফেললে পিংকী মোটরসাইকেলের পেছন থেকে পড়ে গিয়ে গায়ে আঘাত পায়। এ সময় পেছন থেকে ময়মনসিংহগামী অপর আরেকটি বাস এসে চাপা দিলে পিংকী গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পিংকীর বাড়ির পাশেই তালতলী মডার্ন স্কুল অ্যান্ড কলেজে। সেখানেই প্রাথমিক শিক্ষাজীবনের তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণিতে পড়েছেন তিনি। ওই বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ কে এম জাহিদুল ইসলাম বলেন, অত্যন্ত শান্ত ও মেধাবী হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত ছিল পিংকী। সকলকে দেখেই শ্রদ্ধা করত, বিনয়ী আচরণ ছিল তার মাঝে। পিংকীর মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।

জয়দেবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন বলেন, এমন মৃত্যু মেনে নেওয়া খুব কষ্টের। পুলিশের পক্ষ থেকে পিংকীর বাড়িতে গিয়ে সমবেদনা জানানো হয়েছে। ঘটনাস্থল ময়মনসিংহে হওয়ায় সেখানকার পুলিশ এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ বলেন, ঘটনাটি শুনার পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে ড্রাম্প ট্রাকটিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। চালককে আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুতে যত সংখ্যক গাড়ি চলবে প্রতিদিন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতু নির্মাণে বজায় রাখা হয়েছে সর্বোচ্চ মান। এ ক্ষেত্রে সরকার বিভিন্ন বিষয় মাথায় রেখেছে। এর মধ্যে অন্যতম ভূমিকম্প। কঠিনতম ভূমিকম্প সহনশীল হিসেবে বানানো হয়েছে এই সেতুকে। পদ্মা সেতুর পিলারের নকশা এমনভাবে করা হয়েছে যে, খরস্রোতা পদ্মা ৬২ মিটার পর্যন্ত মাটি সরিয়ে নিয়ে গেলেও সমস্যা হবে না। এটি রিখটার স্কেলে প্রায় নয় মাত্রার ভূমিকম্প সহনশীল।

সেতুটি চার হাজার ডেড ওয়েট টনেজ (ডিডব্লিউটি) ক্ষমতার জাহাজের ধাক্কা সামলাতে পারবে। মাটি সরে যাওয়া, জাহাজের ধাক্কা ও নয় মাত্রার ভূমিকম্প একসঙ্গে ঘটলেও কোনো সমস্যা হবে না।

সব কিছু সামলিয়ে প্রতিদিন ৭৫ হাজার যানবাহন পার হতে পারবে পদ্মা সেতু দিয়ে। এতে উপকারভোগী হবেন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার তিন কোটি মানুষ।

পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, পদ্মা সেতু দিয়ে দৈনিক ৭৫ হাজার যানবাহন চলতে পারবে। সেই লক্ষ্যমাত্রা নিয়েই নির্মাণ করা হয়েছে সেতু।

ভূমিকম্প সহনীয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পানিপ্রবাহের বিবেচনায় বিশ্বে আমাজন নদীর পরই পদ্মার অবস্থান। মাটির ১২০-১২৭ মিটার গভীরে পাইল বসানো হয়েছে এই সেতুর। পৃথিবীর অন্য কোনো সেতু তৈরিতে এত গভীরে পাইল বসানো হয়নি। যা বিশ্বে রেকর্ড।

শফিকুল ইসলাম জানান, পদ্মা সেতুর আরেকটি রেকর্ড হলো ভূমিকম্পের বিয়ারিং সংক্রান্ত রেকর্ড। এই সেতুতে ফ্রিকশন পেন্ডুলাম বিয়ারিং’র সক্ষমতা ১০ হাজার টন। এখন পর্যন্ত কোনো সেতুতে এমন সক্ষমতার বিয়ারিং লাগানো হয়নি।

রিখটার স্কেলে নয় মাত্রার ভূমিকম্পে পদ্মা সেতু টিকে থাকতে পারবে বলে জানান সেতু নির্মাণ প্রকল্পের এই পরিচালক।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর পিলার এবং স্প্যানের মধ্যে যে বিয়ারিং রয়েছে সেটির ওজন ১০ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন।

নিউজ ট্যাগ: পদ্মা সেতু

আরও খবর



সাত মিনিটেই পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে যানবাহন

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা পার হতে আগে লঞ্চ-ফেরিতে যেখানে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা সময় লাগতো, এখন সহজেই ৬-৭ মিনিটে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতুর ওপর দিয়ে পার হচ্ছে যানবাহনগুলো।

এতোদিন শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও মাঝিকান্দি নৌরুটে লঞ্চ, স্পিডবোট আর ফেরিতে করে নদী পারাপার হলেও এখন সেতু হয়ে দক্ষিণবঙ্গ থেকে ঢাকা আর ঢাকা থেকে দক্ষিণবঙ্গ যাতায়াত করা যাবে খুব সহজেই।

ঘাট সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ নৌরুটে লঞ্চ পারাপারে ৫০ মিনিট থেকে একঘণ্টা সময় নেয়। ফেরিতে যানবাহন পারাপারে সময় লাগে দেড় ঘণ্টার কিছুটা বেশি। নদীর স্রোতের ওপর নির্ভর করে সময় কমবেশি হয়।

মাদারীপুরের বাসিন্দা নাফরুল হাসান বলেন, আমাদের কষ্টের দিন ফুরাইলো। আগে ঢাকায় পৌঁছাতে এক থেকে দেড়ঘণ্টা লাগতো। তার ওপর ঝড়-বৃষ্টি হলে ফেরিঘাটে ফেরি বন্ধ হয়ে যেতো। কুয়াশায়ও ফেরি চলাচল বন্ধ থাকতো। এখন দেড় দুই ঘণ্টার পথ গাড়িতে করে ৬-৭ মিনিটে পার হয়ে যেতে পারবো। এটাই আমাদের সবচেয়ে বড় স্বস্তি।

বরিশালের যাত্রী তানজিম অন্তরা বলেন, ফেরিঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। নদী পার হতে এক থেকে দেড়ঘণ্টা সময় লেগে যায়। তবে জরুরি সময়ে আমাদের বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হয়। সময়মতো ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা করাতে না পেরে আমার দুই নিকটাত্মীয়ের মৃত্যু হয়েছে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় এখন আর সেই দুর্ভোগ থাকবে না। কাউকে আর মরতেও হবে না।

শিমুলিয়াঘাটের ফল ব্যবসায়ী সফিকুল বলেন, সবচেয়ে ভালো হলো মুমূর্ষু রোগীদের জন্য। তাদের সময়ের সঙ্গে জীবনের কাটাও ঘুরতে থাকে। জীবন-মরণ মুহূর্তে সময়ের দাম সবচেয়ে বেশি। এখন তারা সহজেই নদী পার হতে পারবেন। মৃত্যুর ঝুঁকি কমে যাবে।

স্বপ্ন, সক্ষমতা আর বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হয়েছে শনিবার (২৫ জুন)। দুপুর ১২টার দিকে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে সেতুর ফলক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২৬ জুন) ভোর ৬টায় যান চলাচলের জন্য সেতু খুলে দেওয়া হয়।


আরও খবর



রাজধানীতে অজ্ঞান পার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের গ্রেফতার ৪৪

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে অজ্ঞান পার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে র‌্যাব। তারই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত রাজধানীর পল্টন, মতিঝিল, শাহবাগ ও খিলগাঁও এলাকায় একযোগে অভিযান চালিয়ে অন্তত ৪৪ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৩।

আজ বুধবার রাজধানীর টিকাটুলীর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, রাজধানীর লঞ্চঘাট, বাসস্ট্যান্ড ও রেলস্টেশন এলাকায় ঘোরাফেরা করে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা। এছাড়া ছিনতাইকারীরাও রাজধানীর অলিগলিতে ওঁৎ পেতে থাকে। তাদের খপ্পরে সর্বস্ব খোয়ানোর পাশাপাশি হতাহত হচ্ছেন অনেকে।

গ্রেফতা অজ্ঞান পার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা হলো মো. মিজু, মো. উজ্জ্বল, স্বাধীন, মো. জিসান, মো. মাসুদ, রানা মিয়া, সোহেল মিয়া, মাহফুজ শেখ, মো. আলামিন, পংকজ কুমার ভৌমিক, মো. বিল্লাল আবদুল হালিম, জিসান ওরফে শান্ত, রাজিব মৃধা ওরফে আশাদুল, মো. শামীম, মেরাজ, মো. সুমন, রিপন মোল্যা, ফরহাদ, মো. রিংকু, সজীব হোসেন, আরিফ হোসেন, বেলাল হোসেন, মো. রবিন, মো. সাগর, মো. ইয়াছিন, শাকিল আহমেদ সুমন, জুয়েল রানা, সাদ্দাম শেখ, শাকিব মিয়া, মো. শান্ত, আরিফ হোসেন, মো. পারভেজ, মো. জালাল, মো. সোহাগ, মো. রাব্বি, শামীম, আবু বক্কর সিদ্দিক, মো. রাকিব, মো. রানা, আলীমউদ্দিন শেখ, তারেক হোসেন, নুর ইসলাম ও মো. আজিজ।

তাদের কাছ থেকে পাঁচটি সুইচ গিয়ার, তিনটি চাকু, চারটি ক্ষুর, তিনটি অ্যান্টিকাটার, একটি ব্লেড, চারটি গামছা, ১৯ কৌটা বিষাক্ত মলম, ১৫টি মোবাইল ফোন, ১৪টি সিমকার্ড, ৭৬০ গ্রাম গাঁজা এবং ১৪ হাজার ৬০৫ টাকা জব্দ করা হয় বলেও জানিয়েছেন র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন।

নিউজ ট্যাগ: অজ্ঞান পার্টি

আরও খবর

ভিড় নেই লঞ্চে, ভাড়াও কমেছে

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2




প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালিয়াতদের কোনও দয়া নয়: হাইকোর্ট

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালিয়াতি জঘন্য অপরাধ। এদের প্রতি কোনও দয়া নয়, সাজা খাটতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। সোমবার (১৩ জুন) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষর জালিয়াতির মামলার আসামি ফাতেমার জামিন আবেদনের ওপর শুনানিকালে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে, ২০১৯ সালে বেসরকারি নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে কোষাধ্যক্ষ পদে নিয়োগের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি সারসংক্ষেপ পাঠায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম এনামুল হক, বুয়েটের প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মো. আব্দুর রউফ এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর সাবেক কোষাধ্যক্ষ অবসরপ্রাপ্ত এয়ার কমোডোর এম আবদুস সালাম আজাদের নাম প্রস্তাব করা হয়।

সেই সংক্ষেপের নথি প্রধানমন্ত্রীর সামনে উপস্থাপন করা হলে তিনি অধ্যাপক ড. এম এনামুল হকের নামের পাশে টিক চিহ্ন দেন। পরে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য নথিটি রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানোর প্রস্তুতি পর্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অফিস সহকারী ফাতেমার কাছে এলে এম আবদুস সালাম আজাদ অনুমোদন পাননি বলে গোপনীয় তথ্য ফোনে ছাত্রলীগ নেতা তরিকুলকে জানিয়ে দেন।

এরপর গত ১ মার্চ নথিটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে কৌশলে বের করে ৪ নং গেটের সামনে আসামি ফরহাদের হাতে তুলে দেন ফাতেমা। এই কাজের জন্য ফাতেমাকে আসামিরা ১০ হাজার করে বিকাশে মোট ২০ হাজার টাকা দেন বলে অভিযোগ আনা হয়। পরে ২০২০ সালের ৫ মে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক-৭ মোহাম্মদ রফিকুল আলম বাদী হয়ে এ বিষয়ে মামলা করেন।


আরও খবর



দুর্নীতির দায়ে ডিএসসিসির উপ-কর কর্মকর্তাসহ ৩৪ জন চাকরিচ্যুত

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের উপ-কর কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্বে) ও করপোরেশনের সাবেক মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী মো: সেলিম খানসহ ৩৪ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ জুন) দক্ষিণ সিটির সচিব আকরামুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাদের চাকরিচ্যুত করা হয়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের জানিয়েছেন, সেলিম খান দক্ষিণ সিটির অঞ্চল-৫ এ উপ-কর কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে নানাবিধ অনিয়ম ও দুর্নীতির দায়ে পরে তাকে সচিব দপ্তরে ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে সংযুক্ত করা হয়।

এ ছাড়াও করপোরেশনের সচিবের সই করা আলাদা আলাদা আরও দুটি দপ্তর আদেশে রাজস্ব বিভাগের ১৭ জন শ্রমিক ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১৬ জন শ্রমিককে কর্মচ্যুত করা হয়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্বার্থ রক্ষার্থে এ আদেশ জারি করা হয়েছে বলে দপ্তর আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।


আরও খবর