Logo
শিরোনাম

বিশ্বের বসবাস অযোগ্য শহরগুলোর তালিকায় সপ্তম ঢাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি বছর বিশ্বের সবচেয়ে বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা সপ্তম অবস্থানে রয়েছে। ২০২১ সালের তুলনায় তিন ধাপ উন্নতি ঘটেছে শহরটির। গত বছর ঢাকার অবস্থান ছিল চতুর্থ।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) প্রকাশিত ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের বার্ষিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। ঢাকার অবস্থানের উন্নতি ঘটায় পাকিস্তানের করাচি, আলজেরিয়ার আলজিয়ার্স এবং লিবিয়ার ত্রিপোলির অবস্থানের অবনতি ঘটেছে।

ইআইইউ বলেছে, ঢাকার অবস্থানের সামান্য উন্নতি মূলত করোনা মহামারি বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার কারণে হয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত গ্লোবাল লাইভবিলিটি ইনডেক্স ২০২২-এ ঢাকা ১০০ এর মধ্যে ৩৯ দশমিক ২ স্কোর করেছে এবং ১৭২টি শহরের মধ্যে ১৬৬তম স্থানে রয়েছে। গত বছর র‌্যাঙ্কিংয়ে শহরটির স্কোর ছিল ৩৩ দশমিক ৫।

ইআইইউ সূচক পাঁচটি প্রধান বিষয় বিবেচনা করে। সেগুলো হলো- স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি এবং পরিবেশ, শিক্ষা ও অবকাঠামো। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার দামেস্ক সবচেয়ে খারাপ শহর হিসেবে রয়েছে।

এমনকি তালিকার নিচের ১০টি শহরের মধ্যে ঢাকা অবকাঠামোগত দিক থেকে সবচেয়ে খারাপ করেছে। শহরটির স্কোর মাত্র ২৬.৮।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিন বছর পর অকল্যান্ড থেকে শীর্ষ স্থানটি ছিনিয়ে নিয়েছে ভিয়েনা। জাদুঘর ও রেস্তোঁরাগুলো করোনার প্রভাবে বন্ধের কারণে ২০২১ সালে শহরটি ১২তম স্থানে নেমে গিয়েছিল।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, করোনা মহামারির কারণে লকডাউন ও সামাজিক দূরত্বের ব্যবস্থা সারা বিশ্বের শহরগুলোতে সংস্কৃতি, শিক্ষা এবং স্বাস্থ্যসেবার স্কোরকে প্রভাবিত করেছে। মহামারি বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে চলতি বছরের সূচকে স্কোর স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

র‌্যাঙ্কিংয়ের উপরের দিকে মূলত পশ্চিম ইউরোপ ও কানাডার শহরগুলো প্রাধান্য পেয়েছে। জার্মানি, যুক্তরাজ্য এবং ফ্রান্সের শহরগুলোর অবস্থান গত বছরের তুলনায় উন্নতি হয়েছে৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট ৩২2 ধাপ উপরে উঠে সপ্তম স্থানে এসেছে, এবং হামবুর্গ ৩১ ধাপ এগিয়ে ১৬তম স্থানে রয়েছে।

ইআইইউ'র রিপোর্টে বলা হয়, রাশিয়ার আগ্রাসনের কারণে কিয়েভকে জরিপ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে, রাশিয়ার রাজধানী মস্কো বসবাসযোগ্যতা শহরের তালিকায় ১৫ ধাপ নেমে গেছে।

চীনের ১১টিসহ এই বছর তালিকায় ৩৩টি নতুন শহর যুক্ত হয়েছে।

১০টি শীর্ষ বাসযোগ্য শহরগুলো হলো যথাক্রমে ভিয়েনা (প্রথম), কোপেনহেগেন (দ্বিতীয়), জুরিখ (তৃতীয়), ক্যালগারি (চতুর্থ), ভ্যানক্যুভার (পঞ্চম), জেনেভা (ষষ্ঠ), ফ্রাঙ্কফুর্ট (সপ্তম), টোরন্টো (অষ্টম), অ্যামস্টারডাম (নবম), ওসাকা ও মেলবোর্ন (দশম)।

১০টি সবচেয়ে কম বাসযোগ্য শহরগুলো হলো যথাক্রমে দামেস্ক (১৭২তম), লাগোস (১৭১) ত্রিপলি (১৭০তম), আলজেয়ার্স (১৬৯তম), করাচি (১৬৮তম), পোর্ট মোরেসবি (১৬৭তম), ঢাকা (১৬৬তম), হারারে (১৬৫তম), ডৌয়ালা (১৬৪তম) ও তেহরান (১৬৩তম)।


আরও খবর



‘পদ্মা সেতুর মাধ্যমে অর্থনীতির নতুন দ্বার উন্মোচিত হয়েছে’

প্রকাশিত:শনিবার ১১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতু নির্মাণের মাধ্যমে অর্থনীতির নতুন দ্বার উন্মোচিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

শনিবার (১১ জুন) রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে পদ্মা সেতু: দক্ষিণাঞ্চলের স্বপ্ন বুনন শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। বরিশাল ডিভিশনাল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, ঢাকা এ সেমিনার আয়োজন করে।

এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের মাধ্যমে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের সুখের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। এ সেতুর মাধ্যমে আমাদের অর্থনীতির চাকা সচল হবে। দক্ষিণাঞ্চলে শিল্প গড়ে উঠেবে, শিল্পের সাথে সাথে টাউনশিপ গড়ে উঠেবে। পদ্মা সেতু শুধু সেতু নয়, এটি আমাদের বঞ্চনার পরিসমাপ্তির উপাখ্যান। পদ্মা সেতুর সঙ্গে রেল সংযোগ স্থাপন এ অঞ্চলে রেল যোগাযোগ না থাকার বিদ্রূপের পরিসমাপ্তি।

তিনি আরও বলেন, পদ্মা সেতুর সফল বাস্তবায়নের কারণে আমাদের জিডিপিতে ১ দশমিক ২৩ শতাংশ উত্তরণ ঘটবে। আঞ্চলিক জিডিপির ২ দশমিক ৩ শতাংশ উন্নয়ন ঘটবে। পদ্মার অপর পাড়ে কৃষিজ সামগ্রী তথা পেয়ারা, আমড়া, মাল্টা, শাকসবজি, মাছ এগুলোর প্রক্রিয়াকরণ শিল্প এতদিন গড়ে উঠেনি। যাতায়াত ব্যবস্থার সংকটের কারণে দক্ষিণাঞ্চলে কেউ শিল্প স্থাপনে যেতে চাইত না। অনেক সম্ভাবনা থাকার পরও দক্ষিণাঞ্চলে এতদিন কিছুই গড়ে উঠেনি। এখন পদ্মা সেতুর কারণে দেশের দক্ষিণাঞ্চল ট্রান্স এশিয়ান হাইওয়ে এবং ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের সাথে যুক্ত হবে। এর ফলে ভারত, ভুটান ও নেপালের সঙ্গে আমাদের সরাসরি যোগাযোগ হবে। এসব দেশে রপ্তানির সুযোগ তৈরি হবে। ফরিদপুর, শরীয়তপুর, মাদারীপুর ও বৃহত্তর বরিশালের অনেক শিল্প স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

তিনি আরও যোগ করেন, পদ্মায় একটি ব্রীজের প্রয়োজনীয়তা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর জাপান সফরকালে তাদের বলেছিলেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর নির্মম হত্যাকাণ্ডের কারণে এটি আর আলোর মুখ দেখেনি। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন, তারপর নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এর পূর্বে ও পরে অনেক প্রক্রিয়া রয়েছে। কিন্তু পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ বাস্তবায়নের জন্য বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নেয়ার সময় প্রচন্ড ঝড় এসেছে। বিশ্ব ব্যাংক টাকা বরাদ্দ না হওয়া সত্বেও বলেছে এখানে দুর্নীতি হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়া ওয়াশিংটন টাইমসে আর্টিকেলে দুর্নীতির অভিযোগ সাপোর্ট করে বলেছেন এটা না করাই উত্তম। কানাডার কোর্ট মামলার জাজমেন্ট দিয়ে বলল মুখরোচক কথা শোনা ছাড়া অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই এবং যে অভিযোগের ভিত্তিতে মামলাটি, তা গালগল্প মনে হচ্ছে। অথচ এ গালগল্পের ভিত্তিতেই পদ্মা সেতু  প্রকল্পে অর্থায়ন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নিজের টাকায় আমরা পদ্মা সেতু করব। পদ্মা সেতু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ়তা, আত্মবিশ্বাস এবং সততার বিজয় গাঁথা।

মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে নোংরা রাজনীতি, খারাপ চর্চা এখনও চলছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পদ্মা সেতুকে অপ্রয়োজনীয় বলেছেন। তিনি বলেছেন এত টাকা ব্যয়ে এখানে সেতু করার দরকার ছিল না। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি ভিত্তিপ্রস্তর নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন। এটা অসুস্থ রাজনীতির পরিচয়। সরকারের কাজের গঠনমূলক সমালোচনা হতে পারে কিন্তু ভালোকে ভালোই বলবো না, এভাবে সবকিছুর বিরোধিতার প্রবণতা রাজনীতির জন্য সুখকর নয়।

পদ্মা সেতু নিয়ে সমালোচনার জবাবে এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, পদ্মা সেতুর মত ভূপেন হাজারিকা সেতু দোতলা সেতু নয়। পদ্মা সেতু যতটা প্রশস্ত ভূপেন হাজারিকা সেতু ততটা প্রশস্ত নয়। বিশ্বের অন্যতম খরস্রোতা ও অস্থিতিশীল নদী পদ্মার বুকে সেতু নির্মাণের প্রকৌশলগত চ্যালেঞ্জ ভূপেন হাজারিকা সেতুর চেয়ে অনেক বেশি ছিল। পদ্মা সেতুর জমি অধিগ্রহণের জন্য ব্যয়িত তিনগুণ অর্থ ভূপেন হাজারিকা সেতুতে ব্যয় করতে হয় নি। বিশ্বের সর্বোচ্চ মানের যন্ত্রপাতি পদ্মা সেতুতে ব্যবহার করা হয়েছে। পদ্মা সেতু নিয়ে বিএনপির অবস্থা হয়েছে, যারে দেখতে নারি তার চলন বাঁকা। যারা উন্নয়ন পরিপন্থী, যারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় তাদের পক্ষে না থেকে পদ্মা সেতুর মাধ্যমে দক্ষিণাঞ্চলের স্বপ্ন বুননের কারিগর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে থাকতে হব।

বরিশাল ডিভিশনাল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তারিকুল ইসলাম মাসুমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুব সৈকতের সঞ্চালনায় সেমিনারে সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সৈয়দা রুবিনা আক্তার এমপি, এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এস এম পারভেজ তমাল, বরগুনা পৌরসভার মেয়র কামরুল আহসান মহারাজ ও এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক নিজাম উদ্দিন। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু, সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম হাসিব, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি মানিক লাল ঘোষসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সেমিনারে বক্তব্য প্রদান করেন।

সেমিনারে 'পদ্মা সেতু: যা সেতুর চেয়েও বড়' শিরোনামে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক তৌহিদুল হক।


আরও খবর



ফের পেছাল নিপুণ-জায়েদের শুনানি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে জায়েদ-নিপুণের সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগে শুনানি পিছিয়েছে। আগামী রোববার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

সোমবার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার কথা ছিল।

জায়েদ খানের আইনজীবী মো. শহীদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ২৩ মে শুনানি ৫ জুন পর্যন্ত মুলতবি করেছিলেন আপিল বিভাগ।

প্রসঙ্গত, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদে গত ২৮ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির নির্বাচন হয়। পরদিন ২৯ জানুয়ারি প্রাথমিক ফলে ইলিয়াস কাঞ্চনকে সভাপতি ও জায়েদ খানকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। কিন্তু নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে ফল মেনে নিতে অস্বীকার করেন নিপুণ। এর পরই একে অপরের বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ে নেমেছেন জায়েদ-নিপুণ।


আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




খুলনায় বাসচাপায় স্কুলছাত্র নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খুলনার কয়রায় বাস চাপায় রমজান আলী নামে এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ৩ টার দিকে উপজেলার বমিয়া সরদারবাড়ী মোড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রমজান বামিয়া গ্রামের কিনু সরদারের ছেলে। সে উপজেলার বামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত হওয়ার পর বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী বাসটিকে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে কয়রা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রমজান আলী সাইকেলে করে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি যাচ্ছিল। সে বামিয়া সরদারবাড়ী মোড় এলাকায় পৌঁছালে  বিপরীত দিক থেকে আসা পাইকগাছাগামী একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে সে সাইকেল থেকে সড়কে ছিঁটকে পড়ে বাসের সামনের চাকা তার মাথার ওপরে উঠে যায়। ঘটনাস্থলে সে মারা যায়।

কয়রা থানার এসআই বাবন দাশ বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষিণকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। বিক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং সড়ক অবরোধ করে রাখে।


আরও খবর



দর্শক পাচ্ছে না দেশি সিনেমা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনার দিনগুলোতে হল ছিল বন্ধ। ফাঁকে ফাঁকে চালু হলেও দর্শক সাড়া আশাব্যঞ্জক ছিল না। তবে সেই চিত্রটা বদলে দিয়েছেন শাকিব খান ও সিয়ামরা। গত রোজার ঈদে গলুইশান দিয়ে হলে ফিরেছিল দর্শক। আশায় বুক বেঁধেছিলেন হল মালিকারা। সিনেমার মানুষেরাও ভাবছিলেন ইন্ডাস্ট্রির মন্দার দিন হয়তো কাটতে চলছে। তবে গত ২০ মে মুক্তি পাওয়া তারকাবহুল পাপ-পুণ্য সিনেমা সেই আশায় গুড়েবালি হয়ে ধরা দিয়েছে। অল্প কিছু সিনেমা হলে মুক্তি পেয়ে ছবিটি একেবারেই দর্শক টানতে পারেনি। পায়নি কোনো আলোচনাও। অথচ এই সিনেমা দিয়ে দীর্ঘদিন পর জুটি বেঁধেছিলেন মনপুরা ছবির নায়ক চঞ্চল চৌধুরী ও পরিচালক গিয়াসউদ্দিন সেলিম।

বক্স অফিসে পাপ-পুণ্য ছবির চেয়েও করুণ চিত্র প্রায় ৯০ লাখ টাকায় নির্মিত আগামীকাল সিনেমার। নাটক নির্মাণে স্বনামধন্য অঞ্জন আইচ চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে এসে প্রথমেই সুপারফ্লপ তকমার স্বাদ পেলেন।

গত ১০ জুন মুক্তি পাওয়া বিক্ষোভ সিনেমার দিকে তাকিয়ে ছিলেন অনেকেই। ধারণা ছিল তারকাবহুল সিনেমাটি হলে দর্শক টানবে। কলকাতার শ্রাবন্তী ছিলেন সেই প্রত্যাশার স্বপক্ষের বাজি। তবে সেখানেও ব্যর্থতা। বলা চলে কোনো আলোচনাই পায়নি সিনেমাটি। গেল সপ্তাহে মুক্তি পাওয়া অমানুষতালাশ সিনেমাও হলে দর্শক টানতে পারছে না। যদিও ছবি দুটি মুক্তি পেয়েছে দেশে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি অবনতি ঘটার সঙ্গে সঙ্গে। মুক্তির দিন থেকেই দেশজুড়ে থেমে থেমে চলছে বৃষ্টি। এমন আবহাওয়া দর্শক আশা করাও মুশকিল।

তবে দিনশেষে লোকসান তো গুনতে হচ্ছে হল মালিকদেরই। যার ফলে তাদের পিঠ এখন দেয়ালে ঠেকেছে বলে দাবি করছেন তারা। ফার্মগেটের আনন্দ হলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় দর্শকহীন ফাঁকা পরিবেশ। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মী জানান, ঈদে কিছু দর্শক পেয়েছিলাম। তারপর থেকেই একেবারে ফাঁকা। দর্শক যে আসলে কি ছবি দেখতে চায় সেটাই বুঝতে পারি না। মালিক তো বিরক্ত। এভাবে লস দিয়ে তো আর ব্যবসা করা যায় না। যারা সিনেমা বানায় তারা তো বিজ্ঞাপন, টিভি-ফেসবুক দিয়া টাকা পায়া যায়। আমরা তো ক্ষতিগ্রস্থ হই।

একই চিত্র প্রায় সব হলেই। তাই হল ব্যবসা টিকিয়ে রাখতে হলে হিন্দি সিনেমাসহ বিদেশে সিনেমা মুক্তির দাবি হল মালিকদের। এই দাবি অবশ্য তাদের দীর্ঘদিনের। কয়েকবার আন্দোলনও করেছেন তারা। আবারও মানসম্মত বাংলা সিনেমা না থাকায় লোকসানের শঙ্কা দেখিয়ে ভারতীয় সিনেমা আমদানির দাবি তুলেছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির নেতারা। গত ১২ মে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে হল মালিকদের এক মতবিনিময় সভায় এ দাবির কথা জানিয়েছিলেন সংগঠনের নেতারা। সেখানে প্রদর্শক সমিতির নেতারা বলেছিলেন, হল মালিকেরা ঋণ নিতে খুবই আগ্রহী। কিন্তু, ঋণ নিয়ে টাকাটা সুদসহ ফেরত দিতে গেলে সিনেমা চালিয়েই ফেরত দিতে হবে। এখন দেশে যে সিনেমাগুলো হচ্ছে সেগুলো দর্শক দেখতে আসছেন না। হল ব্যবসা কঠিন সময় পার করছে। এই দুঃসময়ে হিন্দি সিনেমা আমদানির অনুমতি দিলে আমাদের জন্য ভালো হয়।

তবে অনুমতি এখনো মেলেনি। এদিকে সম্প্রতি ঢাকার মধুমিতা হলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, সত্যি কথা বলতে পান ব্যবসায়ীরাও আমাদের চেয়ে ভালো আছে। তাদের বেচাবিক্রি আমাদের চেয়ে বেশি হয়। আমাদের এসির বিল, কর্মচারীর বিলটাও উঠে না টিকিট বিক্রি করে। সিনেমার প্রযোজক তো নানা উপায়ে টাকা পাচ্ছেন। আমরা তো সিনেমা চালিয়ে শুধু লস গুনছি। সিনেমা হল বাঁচাতে হলে অবশ্যই হিন্দি সিনেমা আমদানি করতে হবে। তা না হলে আমাদের সিনেমা হল বন্ধ করে দিতে হবে। দর্শকের অনেক আগ্রহ হিন্দি সিনেমার প্রতি বা ভারতের সিনেমার প্রতি। সেগুলো আমদানি করে চালাতে পারলে হয়তো দর্শক হলে পাওয়া যেত। একবার হলে ফিরলে সেটা অভ্যাস হবে। তখন দেশের সিনেমাগুলোও দর্শক পাবে বলে আমার বিশ্বাস।


আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




আজকের রাশিফল

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজকের রাশিফল ২৭ জুন সোমবার, জানুন আজকের রাশিফল, কেমন যাবে আপনার আজকের দিন।

মেষ:

সপ্তাহের শুরুতেই বেশ কিছু ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হতে পারে। তবে আত্মবিশ্বাস হারাবেন না। পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে যাবে। সপ্তাহের মাঝে খরচ অতিরিক্ত বেড়ে গিয়ে আপনাকে আর্থিক সমস্যায় ফেলতে পারে। তাই অতিরিক্ত ব্যয়ে লাগাম দেওয়া দরকার। পরিবারের সকলের চাহিদার দিকে নজর রাখুন। সপ্তাহের শেষে আপনার মন বিক্ষিপ্ত থাকতে পারে। নিজেকে সংযত করে কাজে মন দিন।

বৃষ:

সপ্তাহের শুরুতে কিছু পারিবারিক সমস্যা আপনাকে অস্বস্তিতে রাখবে। শরীর খারাপ হলে সরাসরি ডাক্তার দেখানো দরকার। নিজে নিজের চিকিৎসা করতে গেলে মুশকিলে পড়বেন। সপ্তাহের মাঝে কিছু ব্যবসায়িক পরিকল্পনা ভালো লাভ দেবে। এর ফলে আপনার পুরনো ধার পরিশোধ করতে পারবেন। সপ্তাহের শেষে শিক্ষার্থীরা কোনও নামী প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ পেতে পারেন।

মিথুন:

সপ্তাহের প্রথমেই কিছু অতীত সমস্যা আপনাকে জর্জরিত করে তুলবে। এর ফলে পরিবার এবং বন্ধুদের মধ্যে সমস্যা দেখা যেতে পারে। সবকিছু শান্তিপূর্ণ ভাবে মিটিয়ে না ফেললে ভবিষ্যতে বিপদে পড়তে পারেন। সপ্তাহের মাঝে কোনও কাছের বন্ধু আপনার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারে। কারওর উপরে অকারণ রাগ করবেন না। সপ্তাহের শেষে পরিবারের সাথে সময় কাটান।

কর্কট:

খারাপ অবস্থার কারণে, আপনি এই সপ্তাহে নিজের আত্মবিশ্বাসের অভাব বোধ করবেন। চট করে নার্ভাস হয়ে পড়বেন। নিজের প্রতি আস্থা রাখুন। পরিবারে নতুন অতিথির আগমন উৎসবের পরিবেশ তৈরি করবে। দীর্ঘ সময় পরে পুরো পরিবারের সাথে সময় কাটানোর সুযোগ পাবেন। শিক্ষার্থীদের জন্য এই সময়টা খুব অনুকূল প্রমাণিত হবে এবং এই সময়ে তারা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য পেতে পারে। উচ্চ শিক্ষায় সঠিক কেরিয়ারের বিকল্প বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে উপযুক্ত সময়। নিজের লক্ষ্য পূরণে অবিচল থাকুন।

সিংহ:

অত্যন্ত ধুলোবালিযুক্ত স্থানে যাওয়া এড়িয়ে চলুন এবং শুধুমাত্র ঘরে তৈরি খাবার খান। এই সপ্তাহে কোনও আর্থিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়ে আপনি অতীতে যে ঝামেলার মুখোমুখি হয়েছিলেন তা পুরোপুরি দূর হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিনিয়োগ সংক্রান্ত যে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হবেন। এটি থেকে অর্থও আসতে চলেছে। আপনি কর্মক্ষেত্রে অন্যদের থেকে বেশি আশা করবেন। এর কারণে, না চাইলেও আপনার অধীনে কর্মরত কর্মীদের আঘাত করতে পারেন। অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ এড়িয়ে চলুন, অন্যথায় সমস্যা হতে পারে।

কন্যা:

বাড়িতে, পারিবারিক এবং ব্যক্তিগত জীবনে চলমান স্ট্রেস আপনাকে ভিতর থেকে বিষণ্ণ এবং অস্থির বোধ করতে পারে। আপনার স্বভাবে কিছুটা আগ্রাসনও বাড়তে পারে। এই সপ্তাহে চাকরিজীবীদের আয় বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। ব্যক্তিগত জীবনে আপনার পিতামাতা বা বড় ভাইবোনের অত্যধিক হস্তক্ষেপ আপনাকে এই সপ্তাহে চাপ দিতে পারে। এই সময়ে, তাদের প্রতি আপনার মনোভাব খুব খারাপ হবে, যার কারণে বাড়িতে আপনার সম্মানও হ্রাস পাবে। আপনার কর্মজীবনে কাঙ্খিত ফলাফল পাওয়ার আশা রয়েছে। তবে এর জন্য আপনার সৃজনশীল ক্ষমতা বাড়াতে হবে।

তুলা:

এই সপ্তাহে আপনাকে অতিরিক্ত ব্যয় এবং কোনও ধরনের আর্থিক পরিকল্পনা এড়াতে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।এই সপ্তাহে আপনি পারিবারিক জীবনে স্বাভাবিক ফলাফল পেতে পারেন। আপনার কর্মজীবনে আপনি ভাগ্যের সমর্থন পাবেন, যার কারণে আপনি কম পরিশ্রমের পরেও শুভ ফল পেতে সক্ষম হবেন। যারা শিক্ষা শেষ করেছেন, তারা এই সপ্তাহে চাকরি পাওয়ার ভালো সম্ভাবনা দেখছেন।

বৃশ্চিক :

এই সপ্তাহ, আপনার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক প্রমাণিত হতে পারে। কেবল স্বাস্থ্যের দিক থেকে সমস্যা তৈরি করবে না, ব্যক্তিগত জীবনকেও বেদনাদায়ক করে তুলবে। সপ্তাহের দ্বিতীয়ার্ধে, আপনি কিছু বড় আর্থিক লাভ করবেন। এই সময়টি গার্হস্থ্য বিষয় এবং পারিবারিক কাজের জন্য একটি ভাল সপ্তাহ প্রমাণিত হবে। এই সপ্তাহে আপনার কর্মজীবনে অগ্রসর হওয়ার জন্য কর্মক্ষেত্রে এমন কিছু বলবেন না, যা আপনার ভাবমূর্তির ওপর খারাপ প্রভাব ফেলবে।

ধনু :

স্বাস্থ্যের জন্য এই সপ্তাহ বিশেষ শুভ। যাদের চোখের সমস্যা এই সময়ে চোখের সঠিক যত্ন নিলেই সফল হবেন । যে ব্যবসায়ীরা অতীতে লাভের জন্য কোনও লেনদেন করেছিলেন, এই সপ্তাহে তাদের কিছু শুভ লাভ হবে। এই সপ্তাহে, আপনি পারিবারিক জীবনে অনেক সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন। কিন্তু এত প্রচেষ্টা সত্ত্বেও, নেতিবাচক পরিবেশের কারণে আপনি মানসিক দুশ্চিন্তায় ভুগতে থাকবেন। এই সপ্তাহে এই রাশির শিক্ষার্থীদের জন্য খারাপ সময় অপেক্ষা করবে।

মকর:

সপ্তাহের শুরুটা ভালোই কাটবে। কাজে মনঃসংযোগ করতে পারবেন। পারিবারিক শান্তি বজায় থাকবে। ব্যবসার ক্ষেত্রে কোনও বিরোধ থাকলে তা মিটে যাবে। সপ্তাহের মাঝামাঝি পরিস্থিতি একটু কঠিন হতে পারে। চারপাশের পরিবেশে মন বিক্ষিপ্ত হতে পারে। আত্মবিশ্বাসে অভাব আসতে পারে। ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগের আগে সাবধান থাকলে ভালো। সপ্তাহের শেষ দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে। ব্যবসার ক্ষেত্রে বাধা দূর হবে। কোনও ধর্মীয় স্থানে ভ্রমণে যেতে পারেন, মন শান্ত হবে।

কুম্ভ:

সপ্তাহের শুরুর দিকে মানসিক শান্তি বজায় থাকবে। পূর্বের বিনিয়োগ থেকে আর্থিক লাভ হওয়ার সম্ভাবনা আছে। আত্মবিশ্বাস বাড়বে। উচ্চশিক্ষার কথা ভাবতে পারেন। সপ্তাহের মাঝামাঝি বেশিরভাগ সময় পরিবারের সঙ্গে কাটানোর চেষ্টা করুন। প্রতিপক্ষদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ থাকলে সপ্তাহের শেষ দিকে মিটে যেতে পারে। শিক্ষার্থীরা চাকরির বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

মীন:

এই রাশির জন্য এই সপ্তাহ ভালো কাটবে। সপ্তাহের প্রথমে শরীর ও মন ভালো থাকবে। জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করবেন। কর্মক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন হতে পারে। সপ্তাহের মাঝে সন্তানদের পড়াশোনা এবং কাজের চাপ বাড়তে পারে। কোনও শিক্ষামূলক ভ্রমণে যাওয়া যেতে পারে। সপ্তাহান্তে কোনও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সাথে সাক্ষাত করলে ভালো ফল পাবেন। নতুন কাজের সুযোগ আসবে।

নিউজ ট্যাগ: রাশিফল

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2