শিরোনাম

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে দল থেকে বাদ পড়লেন নেইমার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দুই মাসের বিরতি শেষে চলতি মাসে আবারও মাঠে গড়াচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব। চলতি মাসের শেষ দিকে, আর পরবর্তী মাসের শুরুতে দুই ম্যাচে আবারও মাঠে নামবে দক্ষিণ আমেরিকান দলগুলো। সেই দুই ম্যাচকে সামনে রেখে ব্রাজিল কোচ তিতে ঘোষণা করেছেন স্কোয়াড। যাতে বার্সেলোনা ডিফেন্ডার দানি আলভেস ফিরেছেন, জায়গা হারিয়েছেন নেইমার!

সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে এই দল ঘোষণা করেছেন তিতে। নেইমার অবশ্য চোটের কারণে দল থেকে বাদ পড়েছেন। গত নভেম্বরে পিএসজির হয়ে এক ম্যাচে চোট পেয়ে প্রায় দুই মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যান তিনি।

জাতীয় দলে জায়গা ফিরে পেয়েছেন দানি আলভেস। চলতি শীতকালীন দলবদলে তাকে মূল দলের সঙ্গে নিবন্ধন করিয়ে নিয়েছে বার্সা। খেলে ফেলেছেন দুটো ম্যাচও। গ্রানাডার বিপক্ষে পুনরাভিষেকে করেছেন একটি অ্যাসিস্টও। দ্বিতীয় ম্যাচে গত বৃহস্পতিবার তার দল বার্সেলোনা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারলেও তার পারফর্ম্যান্স নজর কেড়েছে সবার। আর তাই কোচ তিতে তাকে দলে ফিরিয়ে এনেছেন।

শেষ কিছুদিনে মাঠে না নামলেও দলে আছেন ফেলিপে কৌতিনিও। কোচ তিতে জানালেন দলের গুরুত্বপূর্ণ এক সদস্য তিনি। বললেন, কৌতিনিও একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় যে খেলা গড়ে দিতে পারে, গোল করতে পারে। সে ধীরে ধীরে তার সেরা ফর্মে ফেরার চেষ্টা করছে। বর্তমানে যে অবস্থায় আছে সে, তাতে সে জাতীয় দলে ফেরার জন্য যথেষ্ট।

আগামী ২৮ জানুয়ারি ইকুয়েডরের আতিথ্য নেবেন তিতের শিষ্যরা। এর পাঁচ দিন পর ফেব্রুয়ারির শুরুতে দলটি খেলবে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে। নিজেদের মাঠেই হবে সেই ম্যাচটি।

সেলেসাওদের বিশ্বকাপ অবশ্য নিশ্চিত হয়ে গেছে গেল নভেম্বরেই। ১৩ ম্যাচে ১১ জয় ও ২ ড্রয়ে ৩৫ পয়েন্ট অর্জন করেছে দলটি। কনমেবল বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের পয়েন্ট তালিকায় দুইয়ে আছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের সমান ১৩ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট অর্জন করে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করে ফেলেছে তারাও।

ব্রাজিল দল:

গোলরক্ষক: অ্যালিসন, এডারসন, ওয়েভারটন

ডিফেন্ডার: দানি আলভেস, এমারসন, আলেক্স সান্দ্রো, আলেক্স তেলেস, এডার মিলিতাও, গ্যাব্রিয়েল, মারকিনিওস, থিয়াগো সিলভা।

মিডফিল্ডার: ক্যাসেমিরো, ফ্যাবিনিও, ব্রুনো গিমারেস, গারসন, ফ্রেড, কৌতিনিও, লুকাস পাকেতা।

ফরোয়ার্ড: রাফিনিয়া, অ্যান্থনি, রদ্রিগো, এভারটন রিবেইরো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, ভিনিসিয়াস জুনিয়র, মাতিয়াস কুনিয়া, গ্যাবিগোল।

নিউজ ট্যাগ: নেইমার

আরও খবর

উন্মোচন করা হল ঢাকা দলের জার্সি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




ডিআইজি প্রিজন্স পার্থ গোপাল বনিকের ৮ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বরখাস্ত  হওয়া সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজন্স) পার্থ গোপাল বনিককে ৮ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রোববার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের এ রায় ঘোষণা করেন। ঘুসগ্রহণ ও মানি লন্ডারিং (অর্থপাচার) আইনের পৃথক ধারায় তাকে এ সাজা দেওয়া হয়।

এর আগে গত ২৭ ডিসেম্বর একই আদালতের বিচারক রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করেছিলেন। মামলায় বিভিন্ন সময় আদালতে ১২ জন সাক্ষ্য দেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৯ সালের ২৯ জুলাই ডিআইজি পার্থর বিরুদ্ধে মামলার সুপারিশ করে অনুসন্ধান প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।  প্রতিবেদন পর্যালোচনা শেষে ওই দিনই তার বিরুদ্ধে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে (ঢাকা-১) মামলাটি করা হয়।  মামলা ও গ্রেফতারের পরিপ্রেক্ষিতে একইদিন তাকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ২৪ আগস্ট দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন আদালতে মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন।

চার্জশিটে বলা হয়, পার্থ বণিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঘুসের মাধ্যমে অর্জিত অর্থ পাচারের উদ্দেশ্যে নিজ বাড়িতে সংরক্ষণ করছেন বলে তথ্য পায় দুদকের অনুসন্ধান টিম। ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই পার্থ দুদকের প্রধান কার্যালয়ে এসে অভিযোগের বিষয়ে তার বক্তব্য দেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি জানান, তার বাসায় নিজ হেফাজতে ৩০ লাখ টাকা রয়েছে। ওই অর্থের উৎস সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি কোনো বৈধ উৎস দেখাতে পারেননি। অর্থাৎ ওই অর্থ তার জ্ঞাতআয়বহির্ভূত অবৈধ অর্থ বলে প্রতীয়মান হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে তাকে নিয়ে অনুসন্ধান টিম ঢাকার কলাবাগান গ্রিন রোডের তার আবাসিক বাসায় (ডমিনো প্লানেটা, বি-৬, ২৭-২৮ নর্থ রোড) অভিযান চালায়। অভিযানে তার বাসা থেকে ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। প্রকৃতপক্ষে তিনি সরকারি দায়িত্ব পালনকালে ঘুস, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে ওই অর্থ উপার্জন করেছেন। ২০২০ সালের ৪ নভেম্বর চার্জ (অভিযোগ) গঠনের মাধ্যমে এ মামলায় আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়। ১৬ নভেম্বর এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। ২৪ নভেম্বর আত্মপক্ষ শুনানিতে আদালতের কাছে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন পার্থ। মামলায় ১৪ সাক্ষীর মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে।


আরও খবর



নানাবাড়িতে একাধিকবার ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ১২৯৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলায় নানাবাড়িতে এক কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয়রা।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার দাওগাঁও ইউনিয়নের চন্দনীআটা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় বিকালে মুক্তাগাছা থানায় ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন।

গ্রেফতার হাফিজুল (২৫) চন্দনীআটা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে ও পার্শ্ববর্তী ফুলবাড়িয়া উপজেলার বৈলাজান গ্রামের আবু হানিফার ছেলে দুলাল (৫০)।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী কিশোরী মুক্তাগাছা উপজেলার চন্দনীআটা গ্রামে নানাবাড়িতে বসবাস করে আসছিল। আত্মীয়তার সুবাদে একই গ্রামের হাফিজুল ও ফুলবাড়িয়া উপজেলার বৈলাজান গ্রামের বাসিন্দা দুলাল প্রায়ই ভুক্তভোগীর নানাবাড়ি যাতায়াত করত। সেই সুযোগে দুজন মিলে প্রায়ই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে আসছিল।

একপর্যায়ে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এতে ভুক্তভোগী কিশোরীর পরিবার ও এলাকায় ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়লে লোকজন অভিযুক্ত ওই দুজনকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

মুক্তাগাছা থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। এ ঘটনায় আমরা মূল আসামি দুজনকে গ্রেফতার করেছি। রোববার আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর ভুক্তভোগী কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।


আরও খবর

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় মৃত্যু-৪

বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২




ব্রাহ্মণবাড়িয়ার গুলিবিদ্ধ ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মাহফিল থেকে ফেরার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত চেয়ারম্যান প্রার্থী এরশাদুল হকও (৩৫) মারা গেছেন। শুক্রবার রাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হওয়ার পর ঢাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। এনিয়ে গুলির ঘটনায় নিহতের সংখ্যা দুজনে দাঁড়ালো।

নিহত এরশাদুল হক নবীনগর উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কাশেমের ছেলে এবং আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন।

এরআগে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের কুড়িঘর গ্রামে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন বাদল সরকার (২৩) নামে এক যুবক। নিহত বাদল একই ইউনিয়নের নান্দুরা গ্রামের সন্তোষ সরকারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাটঘর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কাশেম বার্ধক্যজনিত কারণে প্রায় সময় অসুস্থ থাকেন। তাই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আবুল কাশেমের স্থলে তার ছেলে এরশাদুল হক এবার চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

শুক্রবার রাতে ইউনিয়নের কুড়িঘর গ্রামের বাজার এলাকায় ওয়াজ মাহফিলে চলছিল। সেই ওয়াজ মাহফিলে এরশাদ ও বাদলসহ কয়েকজন মোটরসাইকেলে যান। ওয়াজ মাহফিলে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে উপস্থিত সবার নিকট দোয়া কামনা করেন এরশাদুল। সেখান থেকে তারা ফেরার পথে মোটরসাইকেলে চালাচ্ছিল বাদল এবং তার পেছনে বসা ছিল এরশাদ। পথিমধ্যে দুর্বৃত্তরা গুলি ছুড়লে সামনে চালকের আসনে বসা বাদল প্রথমে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এসময় এরশাদকে লক্ষ্য করে গুলি করে দুর্বৃত্তরা।

গুলিবিদ্ধ এরশাদকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসক তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করেন। ঢাকায় পৌঁছার আগেই রাস্তায় এরশাদুল মারা যান।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন বলেন, নবীনগরে বাদলের পর এরশাদও ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা গেছেন। আমি নিজেও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের আটক করতে চেষ্টা চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।


আরও খবর



দেশে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত দুটোই বাড়ল

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে গত চব্বিশ ঘণ্টায় সারা দেশে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৯১ জন। আর গত শনিবার ১ জনের মৃত্যু হয় এবং শনাক্ত হয়ছিল ১ হাজার ১৪৬ জন।

রোববার (৯ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। গত চব্বিশ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার বেড়েছে ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশে। এ পর্যন্ত দেশে ২৮ হাজার ১০২ জনের মৃত্যু হয়েছে; শনাক্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ৫০ হাজার ৯০৫ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ২২ হাজার ১২৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ২১ হাজার ৯৮০টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ। মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় দুজন নারী, একজন পুরুষের মৃত্যু হয়। ঢাকায় ২ ও চট্টগ্রামে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি বিভাগগুলোতে কোনো মৃত্যু হয়নি।

প্রসঙ্গত, দেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে একজনের মৃত্যু হয়। ধাপে ধাপে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা দুটোই বাড়ছে।


আরও খবর

দেশে মোট ৫৫ জনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




শিল্পাচার্যের ১০৮তম জন্মদিন আজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের ১০৮তম জন্মদিন আজ (২৯ ডিসেম্বর) । ১৯১৪ সালের এই দিনে বৃহত্তর ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জ জেলার কেন্দুয়ায় জন্মগ্রহণ করেন বিশ্ব বরেণ্য এই বাঙালি চিত্রশিল্পী।

তার বাবার নাম তমিজউদ্দীন আহমেদ, মায়ের নাম জয়নাবুন্নেছা। শৈশব থেকেই ছবি আঁকার প্রতি ছিল প্রবল ঝোঁক। রঙ-তুলির খেলায় ফুল-ফল, বৃক্ষ, লতাপাতা, মাছ, পাখিসহ নানা বিষয়কে মেলে ধরতেন ক্যানভাসে। ব্রহ্মপুত্রের পাড়ে বেড়ে উঠা জয়নুল তার শিল্পী সত্ত্বা দিয়ে বার বার পৃথিবীকে নাড়া দিয়েছেন।

এদিকে শিল্পাচার্যের জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) চারুকলা অনুষদ বুধবার থেকে তিন দিনব্যাপী জয়নুল উৎসবের আয়োজন করেছে। সকাল পৌনে ১০টায় শিল্পাচার্যের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান। এরপর সকাল ১০টায় শুরু হয় উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

এছাড়া  শিল্পাচার্যের জন্মদিন উপলক্ষে বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করবে।

ছবি আঁকার টানেই ১৯৩৩ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ না নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান জয়নুল আবেদিন। আশ্রয় নেন কলকাতায়। সেখানে ভর্তি হন গভর্নমেন্ট স্কুল অব আর্টসে।

১৯৩৮ সাল পর্যন্ত সেখানেই চলে শিল্পাচার্যের চারুশিক্ষার দীক্ষা। ১৯৩৮ সালে ড্রইং অ্যান্ড পেইন্টিং বিভাগ থেকে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হয়ে অর্জন করেন স্নাতক ডিগ্রি। ততদিনে শিল্পী হিসেবেও শিল্পরসিকদের স্বীকৃতি অর্জন করে নেন। স্থান করে নেন মুষ্টিমেয় আধুনিক ভারতীয় শিল্পীর তালিকায়। এরপর তিনি কলকাতা থেকে চলে আসেন ঢাকায়।

শিল্প আন্দোলনের পুরোধা জয়নুল আবেদিনের অক্লান্ত চেষ্টাতেই বাংলাদেশে আধুনিক শিল্পকলার বিকাশ ঘটে। অসাধারণ শিল্প দক্ষতায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও খ্যাতিমান হয়ে ওঠেন তিনি।

১৯৪৮ সালে পুরান ঢাকার জনসন রোডে চালু করা জয়নুল আবেদিনের স্বপ্নের আর্ট স্কুলই ১৯৮৩ সালের ১ সেপ্টেম্বর ঢাবির চারুকলা ইনস্টিটিউটে পরিণত হয়। ঢাকায় আর্ট স্কুল প্রতিষ্ঠার জন্যই শুধু নয়, পূর্ববাংলায় শিল্প শিক্ষার প্রসারে আমৃত্যু চেষ্টার জন্য সম্মান জানাতেই তাকে শিল্পাচার্য উপাধি দেওয়া হয়।

তার বিখ্যাত চিত্রকর্মের মধ্যে রয়েছে দুর্ভিক্ষ-চিত্রমালা, মই দেওয়া, সংগ্রাম, সাঁওতাল রমণী, ঝড়, কাক, বিদ্রোহী ইত্যাদি। শিল্পীজীবনে রঙ-তুলির ছোঁয়ায় জয়নুল আবেদিন ১৯৪৩ সালের দুর্ভিক্ষ নিয়ে এঁকেছেন দুর্ভিক্ষের রেখাচিত্র। ১৯৬৯ সালে তার ক্যানভাসে উঠে আসে গণ-অভ্যুত্থানের প্রেক্ষাপট। ১৯৭০ সালে এঁকেছেন ৬৫ ফুট দীর্ঘ বিখ্যাত চিত্রকর্ম নবান্ন। একই বছরে মনপুরা নামে প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ের হৃদয়স্পর্শী চিত্র সৃজন করেছেন। শিল্পীর এসব কালজয়ী শিল্পকর্ম দেশের সীমা পেরিয়ে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে পেয়েছে ব্যাপক প্রশংসা ও স্বীকৃতি।

নিজের অনবদ্য শিন্পকর্মের জন্য ১৯৫৮ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার কর্তৃক প্রাইড অব পারফরম্যান্স পুরস্কারে ভূষিত হন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বাংলাদেশ সরকার তাকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদক স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদান করেন।

১৯৭৬ সালের ২৮ মে মৃত্যুবরণ করেন বিশ্ব বরেণ্য শিল্পী জয়নুল আবেদিন। পরে ঢাবির চারুকলা ইনস্টিটিউটে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: জয়নুল আবেদিন

আরও খবর

দুই সপ্তাহ পেছালো বইমেলা

রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২

১ ফেব্রুয়ারি থেকেই একুশে বইমেলা

বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২