Logo
শিরোনাম

বলিউডে ভাগ্য নেই, অথচ ওটিটি কাঁপাচ্ছেন যে সাত তারকা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত দুই বছর ধরে ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয়তা শুধু বাড়ছেই। বিশেষ করে করোনাকালে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে অভ্যস্ত হয়েছে মানুষ। এই প্ল্যাটফর্মগুলোর কারণে সুযোগ পাচ্ছে পুরনো দক্ষ অভিনেতাদের পাশাপাশি অনেক নতুন মেধাবী মুখ।

বলিউডের বেশ কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রীকে ছাড়া যেন ওটিটির কোনো সিরিজ বা সিনেমার কথা চিন্তাই করতে পারেন না দর্শকরা। নওয়াজুদ্দিন, পঙ্কজ ত্রিপাঠি, মনোজ বাজপেয়ীর মতো গুণী অভিনেতারা বলিউডে তাদের কাজের প্রকৃত মূল্য না পেলেও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা। তেমনই সাত তারকা সম্পর্কে জেনে নিন যাদের বলিউড ভাগ্য সুপ্রসন্ন না হলেও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রাজত্ব করছেন তারা।

পঙ্কজ ত্রিপাঠি: বলিউডে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেও সাড়া ফেলতে পারেননি পঙ্কজ ত্রিপাঠি। কিন্তু মির্জাপুর এবং সেক্রেড গেমস প্রকাশের পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি এই অভিনেতাকে। তার অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা বরাবরই মুগ্ধ করে দর্শকদের।

রাধিকা আপ্তে: ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রাজত্ব করার আগে বেশ কিছু মারাঠি, হিন্দি ও ইংরেজি ছবিতে অভিনয় করেছেন রাধিকা আপ্তে। কিন্তু এখন তাকে ওটিটি কুইন বলা হয়। লাস্ট স্টোরিজ, সেক্রেড গেমস, রাত আকেলি হ্যায় সহ অনেকগুলো কাজে রাধিকা প্রমাণ করেছেন, তিনি অপ্রতিদ্বন্দ্বী।

নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী: সেক্রেড গেমস নওয়াজুদ্দিনের ক্যারিয়ার পুরোপুরি বদলে দিয়েছে। মুম্বাই ডন গণেশ চরিত্রটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ভারতের বাইরেও পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। সেক্রেড গেমস-এর পর রাত আকেলি হ্যায় এবং সিরিয়াস ম্যানর মতো আরও কিছু কাজ দর্শক মহলে প্রশংসা পেয়েছে।

সোভিতা ধুলিপালা: বহুবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয়ের পর সোভিতা এখন নিজের যায়গা গড়ে নিয়েছেন। জোয়া আখতারের মেড ইন হ্যাভেন-এর পর রাতারাতি সোভিতাকে নিয়ে মাতামাতি শুরু হয়। প্রথম সিজন তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। দর্শক অপেক্ষা করছেন দ্বিতীয় সিজনের।

জয়দীপ আহলাওয়াত: বেশ কিছু চরিত্রে অভিনয় করেও তেমন সাড়া পাচ্ছিলেন না জয়দীপ। আনুশকা শর্মার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের পাতাল লোক এর পরে তার ভাগ্য বদলে যায়। এই ওয়েবসিরিজের পরে তিনি নিজের অভিনয়ের জাদু দেখিয়েছেন আজিব দাস্তানস-এ।

মনোজ বাজপেয়ী: ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সবচেয়ে মেধাবী তারকাদের একজন মনোজ। বলিউডের এই দক্ষ অভিনেতা রাজত্ব করছেন ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। দ্য ফ্যামিলি ম্যান-এ তার চরিত্র মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। দর্শক অপেক্ষায় আছেন দ্বিতীয় সিজনের।

দিব্যেন্দু শর্মা: পেয়ার কা পঞ্চনামা ছবির মাধ্যমে দর্শকমহলে পরিচিতি পান দিব্যেন্দু শর্মা। এরপর টয়লেট এক প্রেম কথা ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসা পেয়েছেন। তবে এগুলোর কোনটির সাথেই মির্জাপুর এর মুন্না ভাইয়া চরিত্রের তুলনা চলে না। এই চরিত্র দিব্যেন্দু শর্মাকে তুমুল জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে।


আরও খবর



মহানবীর উদ্ধৃতি বিকৃতি করে সমালোচনার মুখে সৌদি যুবরাজ

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
ইসলামের পবিত্রতম স্থানের অধিকারী হওয়ায় সৌদি আরব চরমপন্থা এবং সন্ত্রাসীদের টার্গেট হয়েছিল। বিশেষ করে ১৯৫০-৭০’র দশকে এই সমস্যা জটিল আকার ধারণ করেছিল

একটি হাদিস বিবৃতি করে সমালোচনার মুখে সৌদি আরবের ক্ষমতাশালী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। কয়েকদিন আগে দীর্ঘ এক সাক্ষাৎকার দেন যুবরাজ মোহাম্মদ। সেখানে ধর্মীয় চরমপন্থার বিষয় নিয়েও কথা বলেন তিনি। তখনই মহানবী (সা.)-র উদ্ধৃতি বিকৃতি করেন যুবরাজ মোহাম্মদ।

যুবরাজ মোহাম্মদ বলেন, সবকিছুর মধ্যে চরমপন্থা ভুল কাজ। আমাদের নবী মুহাম্মদ (সা.) তার এক হাদিসে বলেছেন, একদিন চরমপন্থীদের উত্থান ঘটবে এবং যখন এটা ঘটবে তখন তিনি তাদের হত্যার নির্দেশ দিয়েছেন। হাদিসের ভুল উদ্ধৃতি দিয়ে সৌদি যুবরাজ আরও বলেন, তাদের ধর্মে চরমপন্থার জন্য আগের জাতিগুলো ধ্বংস হয়ে গেছে।

তবে তিনি যে হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন, সেখানে চরমপন্থীদের হত্যা করার কথা বলা হয়নি। বরং ওই হাদিসে বলা হয়েছে, ধর্মের মধ্যে বাড়াবাড়ি (চরমপন্থা) থেকে সতর্ক থাকো, ধর্মের বাড়াবাড়ির কারণে তোমাদের আগের জাতিগুলো ধ্বংস হয়ে গেছে।

যুবরাজ মোহাম্মদ বলেন, ধর্ম বা আমাদের সংস্কৃতি বা আরবত্বে চরমপন্থা আমাদের নবী (সা.)-র শিক্ষা, অভিজ্ঞতা এবং ইতিহাস অনুযায়ী গুরুতর একটি বিষয়।

তিনি বলেন, ইসলামের পবিত্রতম স্থানের অধিকারী হওয়ায় সৌদি আরব চরমপন্থা এবং সন্ত্রাসীদের টার্গেট হয়েছিল। বিশেষ করে ১৯৫০-৭০’র দশকে এই সমস্যা জটিল আকার ধারণ করেছিল। কারণ এই অঞ্চলে তখন সোশ্যালিস্ট এবং কমিউনিস্ট প্রজেক্ট’ হাতে নেয়া হয়েছিল। এসব লোক (চরমপন্থী) কোনোভাবেই আমাদের ধর্ম বা আল্লাহর নীতির প্রতিনিধি হতে পারে না। যেকোনো ব্যক্তি চরমপন্থার নীতি গ্রহণ করে, যদি সে সন্ত্রাসী নাও হয়, তবুও তিনি একজন অপরাধী এবং তাকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।


আরও খবর



সৌদিতে কাল ঈদ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সৌদি আরবে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৩ মে) দেশটি ঈদ উদযাপন করবে। এবার দেশটিতে পবিত্র রমজান মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হচ্ছে।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল মঙ্গলবার (১১ মে) সৌদি আরবের চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠক করে। কিন্তু সেদিন চাঁদ দেখা যায়নি। তবে ৩০ দিন রোজা শেষে বৃহস্পতিবার দেশটিতে ঈদ পালন করা হবে। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে।

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখেই সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, ওমান, মিসর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় সব দেশে পবিত্র রমজান পালন এবং ঈদ উদযাপনসহ ইসলাম ধর্মের সকল ধর্মীয় উৎসব ও ইবাদত-বন্দেগি করা হয়ে থাকে।

ভৌগলিক কারণে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর একদিন পরই সাধারণত বাংলাদেশের আকাশে চাঁদ দেখা যায়। এ জন্য সৌদির সঙ্গে মিল রেখে একদিন পরই বাংলাদেশে রমজান পালন ও ঈদ উদযাপন করা হয়। তবে মুসলিমরা ধর্মীয় নিয়ম অনুযায়ী চাঁদ দেখা সাপেক্ষে সব ধর্মীয় উৎসব ও ইবাদত করে থাকেন।

নিউজ ট্যাগ: সৌদিতে ঈদ

আরও খবর



ঈদ সামনে রেখে বৃহস্পতিবার থেকে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত : কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রোজার ঈদ সামনে রেখে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহন চালুর কথা জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার বিআরটিএ ও বিআরটিসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, ঈদুল ফিতর সামনে রেখে আগামী ৬ মে থেকে গণপরিবহন চালু করার সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

তবে শর্ত হল, সিটি সার্ভিস ও জেলার বাস সার্ভিস অন্য জেলায় প্রবেশ করতে পারবে না। বাস ছাড়ার আগে সম্পূর্ণ স্বাস্থবিধি মেনে পুরো বাসে জীবাণুনাশক ছিটাতে হবে। যাত্রী, বাসচালক ও সহকারীকে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক সিট খালি রেখে গণপরিবহন চালাতে হবে।

শিগগিরই এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে প্রজ্ঞাপণ জারি করা হবে বলে জানান সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, জেলার গাড়িগুলো জেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে এবং কোনোভাবেই জেলার সীমানা অতিক্রম করতে পারবে না। সিটির ক্ষেত্রেও সিটি পরিবহন সিটির বাইরে যেতে পারবে না। ঢাকার কোনো গাড়ি ঢাকা জেলার সীমারেখার বাইরে যেতে পারবে না।

পরিবহনগুলোকে অবশ্যই অর্ধেক আসন খালি রেখে নতুন সমন্বয়কৃত ভাড়ায় চলতে হবে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা যাবে না, পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যাবহার বাধ্যতামূলক করতে হবে এবং প্রতি ট্রিপে গাড়ি জীবাণুমুক্ত করাও বাধ্যতামূলক।

এদিকে মহামারীর এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর শুধু শহরের মধ্যে সীমিত আকারে যানবাহন চালুর অনুমতি দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বলে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম জানিয়েছেন।

সোমবার মহাখালীতে এক অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি মনে করি ঈদের সময় গণপরিবহন চালু করা ঠিক হবে না। গতকাল আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হয়েছে সমস্ত মেয়রদের সাথে। সেখানে সবাই একমত হয়েছেন যে ইন্ট্রাসিটি চলতে পারে, কিন্তু ইন্টারসিটি না।


আরও খবর

ঈদ মোবারক

শুক্রবার ১৪ মে ২০২১




তরুণীর আত্মহত্যা: বসুন্ধরার এমডির বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | ২৮৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
মেয়েটির সঙ্গে ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এমডির সম্পর্ক দুই বছরের। এমডি এক বছর মেয়েটিকে বনানীর ফ্ল্যাটে রাখেন। পরে মনোমালিন্য হলে মেয়েটি কুমিল্লায় চলে যায়। তবে মার্চ মাসে ঢাকায় এসে গুলশানের

রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মোসারাত জাহান (মুনিয়া) নামের ওই তরুণী রাজধানীর একটি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। সোমবার সন্ধ্যার পর গুলশান ২ নম্বরের ১২০ নম্বর সড়কের একটি ফ্ল্যাট থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত ওই তরুণীর গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায়।

এরপর মেয়েটিকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে সোমবার গভীর রাতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান এর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে মামলা করেন ওই তরুণীর বোন নুসরাত জাহান।

গুলশান জোনের উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী সাংবাদিকদের জানান, সোমবার সন্ধ্যার দিকে গুলশান ২ নম্বরের ১২০ নম্বর সড়কের ফ্ল্যাট থেকে ওই তরুণীর ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ।


মামলার বরাত দিয়ে উপকমিশনার বলেন, মেয়েটির সঙ্গে ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এমডির সম্পর্ক দুই বছরের। এমডি এক বছর মেয়েটিকে বনানীর ফ্ল্যাটে রাখেন। পরে মনোমালিন্য হলে মেয়েটি কুমিল্লায় চলে যায়। তবে মার্চ মাসে ঢাকায় এসে গুলশানের ওই ফ্ল্যাটে থাকা শুরু করেন। ২৩ এপ্রিল একটি ইফতার পার্টি হয় ওই বাসায়। ওই পার্টির ছবি ফেসবুকে আপলোড করা হলে মেয়েটির সঙ্গে ওই এমডির মনোমালিন্য হয়। পরে মেয়েটি তার বোনকে ফোন করে জানান, যেকোনো মুহূর্তে তার যেকোনো ঘটনা ঘটতে পারে।

এই ফোনের পর কুমিল্লা থেকে সোমবার বিকেলে ঢাকায় আসেন ওই তরুণীর বোন। তবে গুলশানের ফ্ল্যাটটির দরজা ভেতর থেকে বন্ধ পান তিনি। পরে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে শোবার ঘরে তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান।

উপকমিশনার সুদীপ বলেন, সাক্ষ্যপ্রমাণ হাতে এলে ওই এমডির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গুরুত্ব বিবেচেনায় গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামলার তদন্ত করছেন জানিয়ে উপকমিশনার বলেন, ঘটনাস্থল থেকে সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। ফুটেজ বিশ্লেষণ করার মাধ্যমে মামলার তদন্তে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি আসবে।

এক প্রশ্নের জবাবে উপকমিশনার বলেন, চুক্তিপত্র অনুযায়ী ওই ফ্ল্যাটের মাসিক ভাড়া এক লাখ টাকা। এবং অগ্রিম দেয়া হয়েছে দুই লাখ টাকা। এরই মধ্যে দুই মাসের ভাড়া পরিশোধ করা হয়েছে।


আরও খবর



করোনার তিনগুণ শক্তিশালী ধরন শনাক্ত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | ৭৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বিশেষজ্ঞদের ধারণা নতুন স্ট্রেনের কারণেই বিশ্বে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। সংক্রামক শক্তি অনেক বেশি তো বটেই। নতুন স্ট্রেনে আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থার অবনতিও খুব দ্রুত হচ্ছে। তাই সময় মতো লাগাম টানতে না

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস এখন লাগামহীন। এরই মধ্যে ভারতে করোনার তিণনগুণ শক্তিশালী একটি ধরন শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে করোনার ডাবল মিউট্যান্ট সক্রিয়। সেটার আতঙ্ক কাটতে না কাটতেই এবার দেশটিতে ট্রিপল মিউট্যান্ট ভ্যারিয়্যান্ট শনাক্ত করা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, ইতোমধ্যেই দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যে তা ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতীয় বিশেষজ্ঞদের ধারণা পশ্চিমবঙ্গ, মহারাষ্ট্র ও দিল্লিতেও এই ট্রিপল মিউট্যান্টের সংক্রমণ ছড়িয়েছে। তারা বলছেন, কোভিড-১৯ ভাইরাসের তিনটি আলাদা স্ট্রেন মিলে তৈরি নতুন এই ভ্যারিয়্যান্টের সংক্রামক ক্ষমতাও প্রায় তিনগুণ।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা নতুন স্ট্রেনের কারণেই বিশ্বে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। সংক্রামক শক্তি অনেক বেশি তো বটেই। নতুন স্ট্রেনে আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থার অবনতিও খুব দ্রুত হচ্ছে। তাই সময় মতো লাগাম টানতে না পারলে এবার সংক্রমণ সুনামির আকার ধারণ করতে পারে বলে তাদের আশঙ্কা।

আপাতত এই স্ট্রেনে বিরুদ্ধে টিকার কার্যকারিতা পরীক্ষা করে যাওয়া ছাড়া কোনও পথ নেই বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তবে সবার আগে এর চরিত্র বিশ্লেষণ প্রয়োজন। প্রয়োজন নিয়মিত জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের। এর কোনও বিকল্প নেই বলেও মত বিশেষজ্ঞদের।

তাদের মতে, ডাবল মিউট্যান্ট স্ট্রেন ঠিক সময়ে ধরতে না পারার কারণেই হয়তো অগোচরে এতটা ছড়িয়ে পড়েছে এই ট্রিপল মিউট্যান্ট। ভাইরাস যত ছড়ায় সেটির মিউটেশনের হারও তত বৃদ্ধি পায়। এই নয়া স্ট্রেনটি শিশুদেরও আক্রান্ত করছে। তবে নতুন ভ্যারিয়্যান্ট নিয়ে খুব বেশি তথ্য নেই বিজ্ঞানীদের কাছে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর