শিরোনাম

বৃহস্পতিবার বেগম রোকেয়া দিবস

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৯০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
স্বামীর উৎসাহে ও নিজের আগ্রহে তিনি লেখাপড়ার প্রসার ঘটান। বেগম রোকেয়া ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর মারা যান

আগামীকাল বৃহস্পতিবার বেগম রোকেয়া দিবস। বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হবে। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। এছাড়া দিবসটি উদযাপনের লক্ষে দেশব্যাপী জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে প্রকাশ করা হচ্ছে বিশেষ ক্রোড়পত্র, পোস্টার, বুকলেট ও স্যুভেনির।

করোনা মহামারির এই সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। এবার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় দেশের পাঁচজন নারী পাচ্ছেন  রোকেয়া পদক’।

আগামীকাল ৯ ডিসেম্বর বেগম রোকেয়া পদক -২০২১ প্রাপ্তরা রাজধানীর  ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে উপস্থিত থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরার নিকট  থেকে সম্মাননা পদক গ্রহণ করবেন।

মনোনীতরা হলেন, নারী শিক্ষায় অবদানের ক্ষেত্রে কুমিল্লা জেলার প্রফেসর হাসিনা জাকারিয়া বেলা। নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় যশোর জেলার অর্চনা বিশ্বাস, নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখায় কুমিল্লার শামসুন্নাহার রহমান পরাণ (মরোণোত্তর), পল্লী উন্নয়নে অবদান রাখায় মনোনীত হয়েছেন কুস্টিয়া জেলার গবেষক ড. সারিয়া সুলতানা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও রোকেয়া হলের প্রভোস্ট ড. জিনাত হুদা সাহিত্য ও সংস্কৃতির মাধ্যমে নারী জাগরণের ক্ষেত্রে অবদান রাখায় মনোনীত হয়েছেন। তার নিজ জেলা মুন্সিগঞ্জ।

নারী জাগরণের পথিকৃৎ বেগম রোকেয়ার কর্ম ও আদর্শকে সামনে রেখে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীদের অনন্য অর্জনের জন্য প্রতিবছর ৯ ডিসেম্বর বেগম রোকেয়া পদক প্রদান করা হয়।

বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন  ১৮৮০ সালের ৯ ডিসেম্বর রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। সে সময় মুসলিম সমাজে মেয়েদের লেখাপড়া শেখানোর কোন চল ছিল না। তাই প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলেও পরিবারের সবার অগোচরে তার বড় ভাইয়ের কাছে উর্দূ, বাংলা, আরবী ও ফারসি পড়তে এবং লিখতে শেখেন। তার জীবনে শিক্ষালাভ ও মূল্যবোধ গঠনে তার ভাই ও বড় বোন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছিলেন। পরবর্তীতে বিহারের ভাগলপুরে সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয়। স্বামীর উৎসাহে ও নিজের আগ্রহে তিনি লেখাপড়ার প্রসার ঘটান। বেগম রোকেয়া ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর মারা যান।

বেগম রোকেয়া ২০০৪ সালে বিবিসি বাংলার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি’ জরিপে ষষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি প্রাবন্ধিক, ঔপন্যাসিক, সাহিত্যিক ও সমাজ সংস্কারক হিসেবে পরিচিত। তার উল্লেখযোগ্য রচনা হলো-মতিচূর, সুলতানার স্বপ্ন, পদ্মরাগ, অবরোধ-বাসিনী।এই দিবসটি সরকারিভাবে পালিত একটি জাতীয় দিবস।

নিউজ ট্যাগ: বেগম রোকেয়া

আরও খবর

শুরু হলো বিজয়ের মাস

বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১

১৬ নভেম্বর: ইতিহাসের এই দিনে

মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১




জাপান থেকে এলো অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ৭ লাখ টিকা

প্রকাশিত:বুধবার ২২ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাপান থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ৭ লাখ ৪ হাজার ৯১০ ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা দেশে এসেছে। কোভ্যাক্সের আওতায় এটি জাপানের দেওয়া ১৫ লাখ টিকার দ্বিতীয় চালান।

টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে জানা যায়, ক্যাথে প্যাসিফিক এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেলে ৭ লাখ ৪ হাজার ৯১০ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ঢাকায় পৌঁছায়। সোমবার সন্ধ্যায় এসব টিকা নারিতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা করে।

প্রথম দফায় বাংলাদেশকে ৩০ লাখ টিকা দেওয়ার পর চলতি মাসে আরও ১৫ লাখ টিকা দেওয়ার ঘোষণা দেয় জাপান। ১৫ লাখ টিকার প্রথম চালান গত ১৪ ডিসেম্বর ৭ লাখ ৮৮ হাজার ২০০ ডোজ টিকা দেশে আসে।

গত ১৫ ডিসেম্বর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বাংলাদেশ সরকারের কাছে এসব টিকা হস্তান্তর করেন। সেদিন রাষ্ট্রদূত জানান, বাংলাদেশকে এখন পর্যন্ত ৪৫ লাখ টিকা দিয়েছে দেশটি।


আরও খবর

দেশে মোট ৫৫ জনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




আগামী ৩ দিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টানা তিন দিন ধরে দেশের বেশ কয়েকটি জেলায় মৃদ্যু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে। উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতে এখনও তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, দিনের তাপমাত্রা বাড়লেও আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী শনিবার (৮ জানুয়ারি) দেশের সর্বনিম্ম তাপমাত্রা রেকর্ডে করা হয় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর শ্রীমঙ্গলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত দুইদিন যথাক্রমে তাপমাত্রা ৮, ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। আর ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে বেড়ে শনিবার ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। একদিনের ব্যবধানে বেশিরভাগ অঞ্চলে তাপমাত্রা ১ থেকে দুই ডিগ্রি বেড়ে গেছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে আগামী তিন দিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশীদ জানান, শনিবার সারাদেশে অস্থায়ীভাবে আকাশ মেঘলাসহ শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করবে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চল ও নদ- নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। দেশের অন্যত্রও হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। এসময়ে সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে তবে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ৭২ ঘণ্টা শেষে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টি কমে যাওয়ার তাপমাত্রা বাড়তে পারে। আর এরপরই আবার শীতের পূর্বাভাস রয়েছে।


আরও খবর



অর্ধেক যাত্রী নি‌য়ে চল‌বে গণপ‌রিবহন, ভাড়া বাড়‌ছে না

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
যাত্রী এবং গা‌ড়ির চালক ও সহকারী অবশ্যই মাস্ক প‌রে গা‌ড়ি‌তে থাক‌বেন। গণপ‌রিবহ‌নে বর্তমান যে ভাড়া আছে, সে ভাড়া‌তেই চল‌বে। ত‌বে বা‌সে সি‌টের অর্ধেক যাত্রী বহন কর‌বে

মহানগর প‌রিবহন মা‌লিক স‌মি‌তির স‌ঙ্গে বিআরটিএর আলোচনায় ভাড়া না বাড়ানো ও অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ত‌বে বাসে যত সিট, তত যাত্রী নিয়ে যেন বাস চলতে পারে সে ব‌্যাপারে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সরকা‌রের কা‌ছে অনু‌রোধ জা‌নি‌য়ে‌ছে মহানগর প‌রিবহন মা‌লিক স‌মি‌তি।

বুধবার (১২ জানুয়া‌রি) দুপু‌রে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে গণপ‌রিবহ‌নে আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী বহনের বিষয়ে বাস মালিকদের নিয়ে বৈঠকে ব‌সে‌ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

বনানীর বিআরটিএ কার্যালয়ে এ বৈঠক অনু‌ষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বাসের ভাড়া বৃদ্ধি, চালক ও সহকারীদের সনদ বাধ্যতামূলক করাসহ নানা বিষয় তুলে ধরে‌ছেন প‌রিবহন মালিকরা। দুই ঘণ্টার বৈঠক শে‌ষে বিআর‌টিএ চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার সাংবা‌কি‌দের এ তথ‌্য জানান।

তি‌নি ব‌লেন, ১৫ জানুয়া‌রি থে‌কে সরকা‌রি নি‌র্দেশনা ম‌তে ক‌ঠোর স্বাস্থ্যবি‌ধি মে‌নে গণপ‌রিবহন চলাচল কর‌বে। যাত্রী এবং গা‌ড়ির চালক ও সহকারী অবশ্যই মাস্ক প‌রে গা‌ড়ি‌তে থাক‌বেন। গণপ‌রিবহ‌নে বর্তমান যে ভাড়া আছে, সে ভাড়া‌তেই চল‌বে। ত‌বে বা‌সে সি‌টের অর্ধেক যাত্রী বহন কর‌বে।

চেয়ারম্যান ব‌লেন, মহানগর প‌রিবহন মা‌লিক স‌মি‌তিসহ অন্যান্য স্টক হোল্ডাররা অনু‌রোধ ক‌রে‌ছেন, স্বাস্থ্যবি‌ধি মে‌নে বা‌সে যত সিট তত যাত্রী প‌রিবহ‌নের অনুম‌তি দেওয়ার জন্য। যতক্ষণ সরকার এ ব্যাপা‌রে অনুম‌তি না দেবে, ততক্ষণ পর্যন্তু স্বাস্থ্যবি‌ধি মে‌নে দুই সি‌টে একজন ক‌রে যাত্রী চলাচল কর‌বেন।

২০২০ সালে লকডাউনের প্রথম দফায় ৬৮ দিন বাসসহ সবধরনের গণপরিবহন বন্ধ ছিল। সে বছরের ১ জুন থেকে আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল শুরু হয়। মালিকদের প্রস্তাবে সে বার ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়েছিল। গত বছর দুই দফার লকডাউনের পরও ভাড়া বাড়িয়ে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলেছিল বাস।

তবে ডিজেলের দাম লিটারে এক লাফে ১৫ টাকা বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ৮ নভেম্বর বাসের ভাড়া প্রায় ২৮ শতাংশ বাড়ানো হয়। ঢাকায় বাসের ভাড়া কিলোমিটারে এক টাকা ৭০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে দুই টাকা ১৫ পয়সা করা হয়েছে। দূরপাল্লার বাসের ভাড়া কিলোমিটারে এক টাকা ৪২ পয়সা থেকে বাড়িয়ে এক টাকা ৮০ পয়সা করা হয়েছে। কিন্তু আসন বিন্যাসের কারণে ৪০ আসনের বাসে সেই ভাড়া পড়ছে দুই টাকা ৩৪ পয়সা।

এদিকে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন নিয়ে বিশ্বব্যাপী সতর্ক অবস্থা চলছে। বাংলাদেশেও এই নতুন ভ্যারিয়েন্টটি ঠেকাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দেশব্যাপী কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছে, যা আগামীকাল থেকে কার্যকর হবে।

করোনা ঠেকাতে আজ থেকে ট্রেনের ২৫ শতাংশ টিকিট অনলাইনে এবং ২৫ শতাংশ কাউন্টারে বিক্রি করা হবে। এছাড়া লঞ্চ কীভাবে চলবে, সে বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। দু-এক দিনের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।


আরও খবর



আবারও বিধিনিষেধ হচ্ছে মক্কা-মদিনায়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকাতে সৌদি আরব সরকার মক্কা ও মদিনায় আবারও সামাজিক দূরত্বের বিধান আরোপ করেছে। রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, এই দুটি জায়গায় (মক্কা ও মদিনা) নামাজি এবং উমরাহ্‌ পালনকারী সবার জন্য এসব বিধিনিষেধ প্রযোজ্য হবে।

সব দর্শনার্থীকে মাস্ক পরতে হবে। সৌদি সরকার ঘরের ভেতরে এবং বাইরে সব জায়গায় মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বাধ্যতামূলক করেছে। 

এর সঙ্গে মিলিয়ে মক্কা ও মদিনাতেও একই বিধান চালু করা হয়েছে। করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সৌদি আরবে অনেক বেড়ে গেছে বলেও খবরে জানানো হয়। গত বুধবার সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ৭৪৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত করেছে।গত বছর আগস্টের পর এটি ছিল সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা শুরুর পর থেকে সৌদি আরবে এ পর্যন্ত পাঁচ লক্ষ ৫৪ হাজার রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছে ৮,৮৭৪ জন।

গত রবিবার সরকার ঘোষণা করেছে, ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে দোকানপাট, শপিং সেন্টার এবং রেস্তোরাঁয় যেতে চাইলে সব সৌদি নাগরিক কিংবা সে দেশে বসবাসকারী ও দর্শনার্থীকে কোভিড বুস্টারের সনদ দেখাতে হবে।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




বেনাপোল দিয়ে স্টুডেন্ট ভিসায় ভারতে প্রবেশ বন্ধ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ ডিসেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন সংক্রমণ রোধে স্টুডেন্ট ভিসায় ভারতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছে ভারত সরকার।

মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজু আহমেদ।

ভারতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা অভিযোগ করে জানান, বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভারতীয় শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা করছেন। তারা দুই দেশের মধ্যে যাতায়াত করতে পারছেন। কিন্তু হঠাৎ করে ভারতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভারত। এছাড়া ভারতীয় শিক্ষার্থীরা স্টুডেন্ট ভিসায় যাতায়াত করতে পারলেও বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা যেতে পারছেন না। এসব শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকরা।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজু আহমেদ জানান, ওমিক্রন সংক্রমণ রোধে কথা বলে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের স্টুডেন্ট ভিসায় ভারতে প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন। এ বিষয়ে তাদের মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। তবে অভিভাবকদের বিশেষ অনুরোধে গত দু’দিনে দু’জন স্টুডেন্টকে বহির্গমন সিল দিয়ে ভারতে পাঠানো হলেও তাদের ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন।

এদিকে, যেসব শিক্ষার্থীদের সামনে পরীক্ষা আছে, উপযুক্ত প্রমাণ দিলে শুধুমাত্র তাদেরই ভারতে প্রবেশ করতে দিচ্ছে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন।


আরও খবর