Logo
শিরোনাম

চাঁদপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ ২ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চাঁদপুরে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুই এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় এক মুক্তিযোদ্ধাসহ আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাতে চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহ মাহমুদপুর ইউনিয়নের মহামায়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- চাঁদপুর সদর উপজেলার হাফানিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে এসএসসি পরীক্ষার্থী শান্ত (১৭) ও প্রতিবেশী এসএসসি পরীক্ষার্থী আসিফ (১৮)। এর মধ্যে আসিফ ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা যায়।

গুরুতর আহতরা হলেন- মোটরসাইকেল আরোহী সাজ্জাদ (১৭) ও পথচারী মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম (৭০)। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তিন যুবক বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল নিয়ে মহামায়া বাজার এলাকায় যাচ্ছিল। এসময় চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে থাকা পথচারী মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের গায়ে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শান্তর মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের অপর দুই আরোহীসহ পথচারীকে স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে পাঠায়।

চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রোমান বলেন, দুর্ঘটনায় শান্ত নামের ছেলেটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হয় এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া আহত বাকি তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে আমরা ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করি। পথে আশিকের মৃত্যু হয়।

রাতেই চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। নিহত একজনের মরদেহ হাসপাতাল থেকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।



আরও খবর



আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস আজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস আজ। বিশ্বব্যাপী লিঙ্গভিত্তিক সমতা, বালক ও পুরুষদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা এবং পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার প্রধান উপলক্ষ হিসেবে প্রতি বছর ১৯ নভেম্বর দিবসটি পালন করা হয়।

উইকিপিডিয়ার তথ্য মতে, পুরুষ দিবস পালনের প্রস্তাব প্রথম করা হয় ১৯৯৪ সালে। তবে ইতিহাস বেশ পুরোনো। ১৯২২ সাল থেকে সোভিয়েত ইউনিয়নে পালন করা হতো রেড আর্মি অ্যান্ড নেভি ডে। এই দিনটি পালন করা হতো মূলত পুরুষদের বীরত্ব আর ত্যাগের প্রতি সম্মান জানিয়ে। ২০০২ সালে দিবসটির নামকরণ করা হয় ডিফেন্ডার অফ দ্য ফাদারল্যান্ড ডে। রাশিয়া, ইউক্রেনসহ তখনকার সময়ে সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে এই দিবসটি পালন করা হতো।

তবে বলা যায়, প্রতিপক্ষ হিসেবে নয়- নারী দিবসের অনুরূপভাবেই দিবসটি পালিত হয়। ষাটের দশক থেকেই পুরুষ দিবস পালনের জন্য লেখালেখি চলছে। কথিত আছে, ১৯২৩ সালে, অগণিত পুরুষ ৪ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবসের মতো আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালনের দাবি তুলেছিলেন।

সেই সময় পুরুষরা ২৩ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালনের জন্য নির্দিষ্ট করেছিল। ১৯৬৮-তে আমেরিকান সাংবাদিক জন পি হ্যারিস একটি নিবন্ধে লেখেন, সোভিয়েত-রাশিয়ায় লিঙ্গবৈষম্য মারাত্মক। সেখানে নারী দিবস পালিত হলেও পুরুষ দিবসের কোনো অস্তিত্ব নেই। এরপরেই হ্যারিস পুরুষ দিবস পালনের দাবি জানান।

নব্বই দশকের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও মাল্টায় কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ফেব্রুয়ারিতে পুরুষ দিবস পালনের জন্য বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করেন। যদিও অনুষ্ঠানগুলো খুব একটা প্রচার পায়নি, অংশগ্রহণও ছিল কম।

১৯৯৯ সালের ১৯ নভেম্বর ত্রিনিদাদ ও টোবাগোতে প্রথম আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস উদযাপিত হয়েছিল। ড. জেরোম তিলক সিং পুরুষদের অবদানের স্বীকৃতির দানের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তা তার বাবার জন্মদিনে প্রথম বিশ্ব পুরুষ দিবস উদযাপিত হয়। ধীরে ধীরে এভাবেই ১৯ নভেম্বর হয়ে ওঠে পুরুষদের মুখ। পরবর্তী সময়ে ১৯ নভেম্বর পুরো বিশ্বে পুরুষ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্বব্যাপী পুরুষদের মধ্যে লিঙ্গভিত্তিক সমতা, বালক ও পুরুষদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা এবং পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার প্রধান উপলক্ষ হিসেবে দিবসটি উদযাপন করা হয়ে থাকে।

প্রতি বছর বিশ্বের ৮০টিরও বেশি দেশে পালন করা হয় দিবসটি। দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, কানাডা, ভারত, পাকিস্তান, ক্রোয়েশিয়া, জ্যামাইকা, কিউবা, স্কটল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, মাল্টা, কানাডা, ডেনমার্ক, নরওয়ে, অস্ট্রিয়া, ইউক্রেন ইত্যাদি।

বাংলাদেশেও দিবসটি ছোট পরিসরে পালিত হয়। এবারও বেসরকারি সংগঠন এইড ফর মেন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে বিশ্ব পুরুষ দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি পালন করছে। ১৯ নভেম্বর (শুক্রবার) আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও সেমিনারের আয়োজন করেছে সংগঠনটি।

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম নাদিম জানান, সারা বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশেও দিবসটি পালনের জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। পুরুষরা পরিবার, সমাজ তথা গোটা বিশ্বে যে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করে চলেছে দিবসটি তারই স্বীকৃতি স্বরূপ। যেসব মহাপুরুষ যুগে যুগে এই মানবসভ্যতা বিনির্মাণে আত্মত্যাগ করে গেছেন, এই দিবস তাদেরকে স্মরণ করিয়ে দেয়। এই দিবস পুরুষ এর কল্যাণার্থে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। পুরুষ দিবসের ৬টি প্রধান প্রতিপাদ্যের মধ্যে অন্যতম নারী ও পুরুষ এর আন্তঃসম্পর্ক উন্নয়ন এবং নারী ও পুরুষ উভয় এর লিঙ্গ সমতা নিশ্চিতকরণ।

এই লক্ষ্যে ২০২১ সালের পুরুষ দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে- নারী-পুরুষের লিঙ্গ সম্পর্ক উন্নয়ন। দিবসটি উদযাপনে এইড ফর মেন ফাউন্ডেশনর কর্মসূচি-

সকাল সাড়ে ৯টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সামনে জড়ো হয়ে বেলুন উড়িয়ে দিবসটির শুভ উদ্বোধন। সকাল সাড়ে ১০টায় রিপোর্টার্স ইউনিটির সামনে থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি। সকাল সাড়ে ১১টায় র‌্যালি পরবর্তী ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে আলোচনা অনুষ্ঠান। যেখানে উপস্থিত থাকবেন সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, আইনজীবী ও সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। দুপুর ১টায় সভাপতির বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা।


আরও খবর



গাজীপুরে বাসের প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীসহ নিহত ২

প্রকাশিত:সোমবার ০১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মেম্বারবাড়ি এলাকায় বাস উল্টে এক শিক্ষার্থীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। এ সময় বেশ কয়েকজন যাত্রী আহত হয়েছেন। সোমবার (০১ নভেম্বর) সকাল সোয়া ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত একজনের নাম কণা (২০)। তিনি জেলার শ্রীপুর উপজেলার তালতলী গ্রামের মোস্তফা কামালের মেয়ে। এ ঘটনায় অপর নিহতের নাম-ঠিকানা এখনও জানা যায়নি।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও বাসের যাত্রীরা জানান, ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসা সৌখিন পরিবহনের বাসটি বেপরোয়া গতিতে ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। মহাসড়কের মেম্বারবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে সামনের দিকে অপর একটি বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের ওপর উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের যাত্রী কণা ও অজ্ঞাত পথচারী নিহত হয়। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন জানান, দুর্ঘটনাকবলিত বাসটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১

ঘনকুয়াশার কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ

বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১




নিউইয়র্কের মেয়র হলেন সাবেক কৃষ্ণাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাবেক কৃষ্ণাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ও ডেমোক্রেটিক প্রতিনিধি এরিক অ্যাডামস নিউইয়র্ক সিটির নতুন মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম শহরটি পরিচালনার জন্য দ্বিতীয় আফ্রিকান-আমেরিকান হিসেবে দায়িত্ব পেলেন তিনি।

ভোট গণনা চলাকালে এক বক্তব্যে অ্যাডামস বলেন, কারণ আমি এখানে দাঁড়িয়ে আছি, প্রতিদিন নিউইয়র্কবাসীরা বুঝতে পারবেন যে এখানে তাদের অধিকার রয়েছে।

১৯৬০ সালে কুইন্সে জন্মগ্রহণ করেন অ্যাডামস। তার মা একজন পরিচ্ছন্নকর্মী এবং বাবা একজন কসাই হিসেবে কাজ করতেন। ২০০৬ সালে তিনি পুলিশের চাকরি থেকে অবসর নেন। এরপর সিনেটর নির্বাচিত হন তিনি। ২০১৩ সাল সিনেটরের দায়িত্ব পালন করেন।

অ্যাডামস একজন কিশোর হিসেবে পুলিশ কর্মকর্তাদের হাতে মারধরের বর্ণনা দিয়েছিলেন। সে সময় তাকে অনুপ্রবেশের জন্য গ্রেফতার করা হয়েছিল। পরে যখন তিনি পুলিশে যোগ দেন, তখন তিনি বিভাগের একজন সোচ্চার সমালোচক ছিলেন, কৃষ্ণাঙ্গ কর্মকর্তাদের পক্ষে কথা বলতেন এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বলতেন।

গত বছর কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড নিহতের ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশের অপরাধবিষয়ক ইস্যুগুলো জনসম্মুখে চলে আসে। আইন প্রয়োগে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ ওঠে। কখন এবং কোথায় পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রয়োজন বা কখনও কখনও তাদের আদৌ প্রয়োজন কিনা সে প্রশ্নগুলোকে কেন্দ্র করে বিতর্ক শুরু হয়। এবার সাবেক পুলিশ ক্যাপ্টেন মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় বাহিনীটির ভাবমূর্তি আবারও ফিরে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নিউইয়র্কের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র ছিলেন ডেভিড ডিনকিনস। তিনি ১৯৯০ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। তার পরে প্রায় ৩০ বছর পর আবারও কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র পেলো নিউইয়র্কবাসী।


আরও খবর



বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনায় বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও সাত হাজার ১৮৮ জনের মৃত্যু এবং পাঁচ লাখ চার হাজার ৭৮৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে গতকাল (শুক্রবার) ৬ হাজার ৫০২ জনের মৃত্যু এবং ৪ লাখ ৯৫ হাজার ৩০৪ আক্রান্ত হয়েছিলো। শনিবার (১২ নভেম্বর) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য মতে, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫১ লাখ চার হাজার ৩০ জন। আর এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৫ কোটি ৩২ লাখ তিন হাজার ৭৫৮ জন। সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ২২ কোটি ৮৯ লাখ ৯৩ হাজার ৭৭৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাত হাজার ১৮৮ জন। এর আগের দিন করোনায় মারা সাত হাজার ৪৭৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে পাঁচ লাখ চার হাজার ৭৮৯ জনের। এর আগের দিন করোনা শনাক্ত হয় হয়েছে হয়েছে পাঁচ লাখ ৫৭ হাজার একজনের।

করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট সংক্রমিত হয়েছেন চার কোটি ৭৮ লাখ ৩৪ হাজার ৮১০ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন সাত লাখ ৮২ হাজার ৯৩৩ জন। এছাড়া সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিন কোটি ৭৮ লাখ ৪৬ হাজার ৩০৫ জন।

আক্রান্তে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় তিন কোটি ৪৪ লাখ ১৪ হাজার ৬০৯ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ৬২ হাজার ৮৯৩ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ১৯ লাখ ৪০ হাজার ৯৫০ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ছয় লাখ ১০ হাজার ৯৩৫ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৯৪ লাখ ৮৭ হাজার ৩০২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৪২ হাজার ৬৭৮ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯ লাখ ৯২ হাজার ৫৯৫ জন। মারা গেছেন দুই লাখ ৫২ হাজার ৯২৬ জন। আক্রান্তের তালিকায় তুরস্ক ষষ্ঠ, ফ্রান্স সপ্তম, ইরান অষ্টম, আর্জেন্টিনা নবম এবং স্পেন দশম অবস্থানে রয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশে অবস্থান ৩০তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ভাইরাসটি শনাক্ত হতে থাকে দেশে। ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। ইতিমধ্যে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই এই মহামারি ছড়িয়ে পড়েছে।


আরও খবর



নরসিংদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৩

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ১১৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নরসিংদীর রায়পুরায় ইউপি নির্বাচন এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) ভোরে উপজেলার বাঁশগাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. সালাউদ্দিন (৩০) বাঁশগাড়ি এলাকার হেকিম মিয়ার ছেলে। তিনি নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আশরাফুল সরকারের সমর্থক বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বাঁশগাড়ি ইউপিতে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন আশরাফুল হক সরকার। তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল ফোন প্রতীকের জাকির হোসেন। এটা নিয়ে কয়েক দিন ধরেই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। বুধবার সন্ধ্যায় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। সারা রাত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে। ভোরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায় ওই যুবক ।

রায়পুরা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সত্যজিত কুমার ঘোষ বলেন, আজ ভোরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন।


আরও খবর

নরসিংদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৩

বৃহস্পতিবার ০৪ নভেম্বর ২০২১