Logo
শিরোনাম

ছাত্রদলের ৮ ইউনিটের কমিটি ঘোষণা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ঢাকা মহানগরের গুরুত্বপূর্ণ ৮টি ইউনিটে (১ টি বিশ্ববিদ্যালয়, ২টি মহানগর ও ৫টি কলেজ) নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সংসদ। নতুন নেতৃত্বকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করে কেন্দ্রে জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ মে) ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবন ও সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল এসব কমিটি অনুমোদন করেন।

ঘোষিত আটটি ইউনিটের কমিটি হলো- ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মেহেদী হাসান রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক রাসেল বাবুসহ ৭ সদস্য বিশিষ্ট; ঢাকা মহানগর পশ্চিমের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ নাসির ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল হাসান রাজসহ ৭ সদস্য বিশিষ্ট; ঢাকা কলেজ শাখার সভাপতি শাহিনুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক জুলহাস মৃধাসহ ১৭ সদস্য বিশিষ্ট; তেজগাঁও কলেজ শাখার সভাপতি ফয়সাল দেওয়ান ও সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন খানসহ ১৩ সদস্য বিশিষ্ট; কবি নজরুল সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ ও সাধারণ সম্পাদক কাউসার হোসেনসহ ১১ সদস্য বিশিষ্ট; সরকারি বাঙলা কলেজ শাখার সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন বিপ্লব ও সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন সোহাগসহ ১৩ সদস্য বিশিষ্ট।

সরকারি তিতুমীর কলেজ শাখার সভাপতি আরিফুর রহমান এমদাদ ও সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেনসহ ১১ সদস্য বিশিষ্ট এবং শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আহমেদুল কবীর তাপস ও সাধারণ সম্পাদক বিএম আলমগীর কবীরসহ ৫ সদস্যবিশিষ্ট।


আরও খবর



তাপমাত্রা বৃদ্ধির পাশাপাশি বাড়বে বজ্রসহ বৃষ্টি

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঈদের দিন সারা দেশে কম-বেশি বৃষ্টি নেমেছে। ফলে কমেছে কিছুটা তাপমাত্রা।

বুধবার (৪ মে) সকাল ৯টা থেকে ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দুই/এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বিজলি চমকানোসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। 

সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা ১-৩ ডিগ্রি সেলিসিয়াস এবং রাতের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলিসিয়াস বাড়তে পারে বলেও জানায় অধিদপ্তর। 

ঢাকায় ১৪ মিলিমিটারসহ রংপুর বিভাগ ছাড়া প্রায় সারাদেশেই বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। 

এদিন ঢাকায় সর্বোচ্চ ২৯ দশমিক ১ ডিগ্রি এবং সর্বনিম্ন ২২ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

এদিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে আন্দামান সাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।  


আরও খবর



খাদ্য নিরাপত্তা: গমের বিকল্প হতে পারে মিলেট

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জলবায়ু সংকট তো রয়েছেই, এর মাঝে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ গড়িয়েছে তৃতীয় মাসে। ফলে বিশ্বজুড়ে খাদ্য সংকট আরও তীব্র আকার ধারণ করছে। ভেঙে পড়ছে বৈশ্বিক খাদ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ফলে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে আমদানি নির্ভর দেশগুলো, বিশেষ করে আফগানিস্তান, ইথিওপিয়া ও সিরিয়া। অথচ গমের সিংহভাগই রপ্তানি করে ইউক্রেন ও রাশিয়া। যুদ্ধের আগে বিশ্বের তিন ভাগের এক ভাগ গম, চার ভাগের এক ভাগ বার্লি ও দুই তৃতীয়াংশ সূর্যমুখী তেল রপ্তানি হতো রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে৷ এখন সংকটময় পরিস্থিতি কাটাতে বিকল্প শস্য হিসেবে মিলেট-এর নাম উঠে আসছে। জোয়ার, বাজরা, রাগি প্রভৃতি কয়েকটি ক্ষুদ্র দানাশস্যকে একত্রে মিলেট বলে।

২০২২ সালে ইউক্রেন দেশটির উৎপাদিত ফসলের পূর্বাভাস প্রকাশ করেনি। চলতি সপ্তাহে সতর্ক বার্তাও দেয় যে রাশিয়ার কৃষ্ণ সাগরের বন্দর অবরোধের ফলে কয়েক মিলিয়ন টন ইউক্রেনীয় খাদ্যশস্য ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ফলে এর প্রভাব পড়বে এশিয়া, আফ্রিকা, এমনকি ইউরোপে। নাইজেরিয়ার অর্থনীতিবিদ রবার্ট ওনিয়েনেকের বলেন, বিশ্ব এরই মধ্যে খাদ্য সংকটের সম্মুখীন হচ্ছে। তিনি বলেন, এখন চাল এবং গমের মতো জনপ্রিয় প্রধান খাবারের বিকল্পগুলো সন্ধান করার সময়। তিনি ধারণা করেন যে, মিলেট পরিবর্তনশীল ছোট-বীজযুক্ত শস্য, একটি সম্ভাব্য বিকল্প হতে পারে। এর পেছনে চারটি যুক্তিও দেখিয়েছেন তিনি। সেগুলো হলো পুষ্টিগুণ সম্পন্ন, জলবায়ু উপযোগী, স্বল্প সময়ে চাষ এবং চাষে কার্বন নিঃসরণ প্রায় নেই বললেই চলে।

মিলেটের প্রথম খোঁজ মেলে যিশু খ্রিস্টের জন্মের তিন হাজার বছর আগে। যেসব খাদ্য শস্য মানুষ গ্রহণ করেছিল মিলেট তার প্রাচীন দানা শস্যগুলোর মধ্যে রয়েছে। ভারত, চীন ও আফ্রিকার কিছু অংশে লাখ লাখ কৃষক এই ফসল চাষ করে আসছেন। এখন ১৩০টিরও বেশি দেশে উৎপাদন হচ্ছে মিলেট। পুষ্টিগুণের কারণে মিলেটকে অনেকে পুষ্টি শস্য বলে থাকেন। এতে উচ্চ মাত্রার আয়রন, ফাইবার ও কিছু ভিটামিনও রয়েছে। তবে আফ্রিকা ও এশিয়ার মাত্র ৯ কোটি মানুষ এটি খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করেন। মূলত গরিবের খাবার হিসেবেই ব্যবহার হয় মিলেট। যেখানে পৃথিবীর অর্ধেক মানুষ চাল ও এক তৃতীয়াংশ মানুষ গমের ওপর এখনো নির্ভরশীল।

জাতিসংঘ ২০২৩ সালকে মিলেটের আন্তর্জাতিক বছর হিসেবে ঘোষণা করেছে। শুধু পুষ্টিগুণই নয়, এটি প্রতিকূল আবহাওয়াতেও টিকে থাকতে পারে বলে জানা গেছে। মাত্র ৬০ থেকে ৯০ দিনে ফসল ঘরে তোলা যায়। এতে খুব কম পরিমাণে সার ও কীটনাশক ব্যবহার করতে হয়। তবে মিলেট কি আদৌও জায়গা করে নিতে পারবে খাদ্যশস্যের শীর্ষ তালিকায়, এমন শঙ্কাও রয়েছে সংশ্লিষ্টদের। এশিয়া ও আফ্রিকায় এখন যতটা মিলেট আবাদ হয়, তা স্থানীয়ভাবে চাহিদা মেটানোর জন্যই খুব কম, রপ্তানিও প্রায় অসম্ভব। তাই সারাবিশ্বে মিলেট ছড়িয়ে দিতে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা।

নিউজ ট্যাগ: মিলেট

আরও খবর



হজের নিবন্ধন শুরু ১৬ মে, চলবে ৩ দিন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি বছর সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনের জন্য নিবন্ধন আগামী ১৬ মে শুরু হচ্ছে। চলবে ১৮ মে পর্যন্ত। এই তিন দিনের মধ্যে অর্থ পরিশোধ করে নিবন্ধিত হতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের হজযাত্রী নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকারি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে ২০২০ সালের নিবন্ধিত সব হজযাত্রী এবং প্রাক-নিবন্ধনের সবশেষ ক্রমিক নম্বর ২৫ হাজার ৯২৪ পর্যন্ত এ বছর হজের নিবন্ধনের আওতায় আসবে। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে এবার নিবন্ধনের আওতায় আসবেন ২০২০ সালের সব নিবন্ধিত ব্যক্তি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, হজযাত্রী নিবন্ধনের জন্য আবশ্যই পাসপোর্ট থাকতে হবে। পাসপোর্ট স্ক্যান করে নিবন্ধন তথ্য পূরণ করতে হবে। হজযাত্রীর পাসপোর্টের মেয়াদ হজের দিন থেকে পরবর্তী ছয় মাস অর্থাৎ ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে। হজযাত্রীর দাখিল করা পাসপোর্টের সঠিকতা অনলাইনে যাচাই করা হবে।

এতে বলা হয়, হজযাত্রী নিবন্ধনের জন্য আবশ্যিকভাবে পাসপোর্ট থাকতে হবে। পাসপোর্ট স্ক্যান করে পূরণ করতে হবে নিবন্ধন তথ্য। পাসপোর্টের মেয়াদ হজের দিন থেকে পরবর্তী ছয় মাস অর্থাৎ ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: হজের নিবন্ধন

আরও খবর



মানবতাবিরোধী অপরাধে মৌলভীবাজারের তিন জনের রায় আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মৌলভীবাজারের বড়লেখা থানার আব্দুল আজিজ হাবলুসহ তিন জনের আজ রায় ঘোষণা করা হবে। আর্ন্তজাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি শাহিনুর ইসলামসহ তিন সদস্যর ট্রাইব্যুনাল আজ বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করবেন। ট্রাইব্যুনালের অপর সদস্যেরা হলেনবিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার ও কে.এম হাফিজুল আলম। 

এর আগে গত ১২ এপ্রিল মামলাটি সিএভি (রায়ের জন্য অপেক্ষমান) রাখেন ট্রাইব্যুনাল। এক মাসের বেশি অপেক্ষায় থাকার পর আজ রায়ের জন্য দিন ঠিক করেন আদালত।মামলার তিন আসামি হলেনআব্দুল আজিজ, আব্দুল মান্নান ও আব্দুল মতিন। এর মধ্যে আব্দুল মতিন পলাতক রয়েছেন।

আদালতে আসামিদেরপক্ষে আইনজীবী ছিলেন এম. সারোয়ার হোসেন ও আব্দুস সাত্তার পালোয়ান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল ও সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি।

পরে সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি বলেন, মৌলভীবাজারের বড়লেখা থানার তিন আসামির বিরুদ্ধে মামলার শুনানি শেষ হয়েছে। পরে রায়ের জন্য অপেক্ষমান রাখা হয়। আজ মামলাটি রায়ের জন্য তালিকায় এলে আগামী ১৯ মে বৃহস্পতিবার রায়ের জন্য দিন ঠিক করে দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা ২০১৪ সালের ১৬ অক্টোবর তিন জনের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। দুই বছর পর ২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর তদন্ত সমাপ্ত হয়। ওই বছর ২৯ ফেব্রুয়ারি তিন আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল। এরপর ১ মার্চ মৌলভীবাজারের বড়লেখা থানা পুলিশ আব্দুল মান্নান ওরফে মনাই ও আব্দুল আজিজ ওরফে হাবুলকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পরের দিন ২ মার্চ তাঁদের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হলে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। আব্দুল মতিনকে আর ধরা যায়নি।

২০১৬ সালের নভেম্বরে ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র চূড়ান্ত করে। ২০১৮ সালের ১৫ মে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে ট্রাইব্যুনাল বিচার শুরুর আদেশ দেয়।

তিন জনের বিরুদ্ধে ৫ অভিযোগ

প্রথম অভিযোগ: ১৯৭১ সালের ১৯শে মে আসামিরা মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানার ঘোলসা গ্রাম থেকে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) নেতা হরেন্দ্রলাল দাস ওরফে হরিদাসসহ মতিলাল দাস, নগেন্দ্র কুমার দাস এবং শ্রীনিবাস দাসকে অপহরণ করেন। তিন দিন বড়লেখা সিও অফিস রাজাকার ক্যাম্পে আটক রেখে নির্যাতনের পর জুরি বাজার বধ্যভূমিতে নিয়ে হরেন্দ্রলাল দাস ওরফে হরিদাসসহ মতিলাল দাস, নগেন্দ্র কুমার দাসকে হত্যা করেন। শ্রীনিবাস দাস কোনোক্রমে প্রাণে বেঁচে যান এবং দুদিন পর বাড়ি ফিরে আসেন।

দ্বিতীয় অভিযোগ: ১৯৭১ সালের অক্টোবরের শেষ দিকে, আসামিরা বড়লেখা থানার বিওসি কেছরিগুল গ্রাম থেকে সাফিয়া খাতুন ও আবদুল খালেককে অপহরণ করে কেরামত নগর টি-গার্ডেন রাজাকার ক্যাম্পে নিয়ে যান। সেখানে আসামিরা সাফিয়া খাতুনকে ধর্ষণ করেন। পরে শাহবাজপুর রাজাকার ক্যাম্প ও বড়লেখা সিও অফিসে রাজাকার ক্যাম্পে নিয়েও সাফিয়া খাতুনকে ধর্ষণ করা হয়। এরপর ৬ ডিসেম্বর বড়লেখা হানাদারমুক্ত হলে বীর মুক্তিযোদ্ধারা সাফিয়া খাতুনকে সিও অফিসের বাংকার থেকে উদ্ধার করেন।

তৃতীয় অভিযোগ: ১৯৭১ সালের ১৩ নভেম্বর আসামিরা বড়লেখা থানার পাখিয়ালা গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা মঈন কমান্ডারের বাড়িতে হামলা করে বাড়ির মালামাল লুটপাট করেন। রাজাকারেরা মঈনের বাবা বছির উদ্দিন, নেছার আলী, ভাই আইয়ুব আলী ও ভাতিজা হারিছ আলীকে অপহরণ করে বড়লেখা সিও অফিস রাজাকার ক্যাম্পে আটক রেখে নির্যাতন করেন। ৬ ডিসেম্বর বড়লেখা হানাদারমুক্ত হলে তাঁরা মুক্তি পান।

চতুর্থ অভিযোগ: ১৯৭১ সালের ১৪ নভেম্বর আসামিরা বড়লেখা থানার হিনাই নগর গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা মস্তকিন কমান্ডারের বাড়িতে হামলা করেন। মস্তকিনকেমস্তকিনকে না পেয়ে তাঁর ভাই মতছিন আলীকে অপহরণ করে বড়লেখা সিও অফিস রাজাকার ক্যাম্পে নিয়ে নির্যাতন করেন তাঁরা। নির্যাতনের ফলে মতছিন আলীর পা ভেঙে যায়। আসামিরা মস্তকিন ও মতছিন আলীর বাড়ির মালামাল লুট করে তিনটি টিনের ঘর পুড়িয়ে দেন।

পঞ্চম অভিযোগ: ১৯৭১ সালের ১৭ নভেম্বর আসামিরা বড়লেখা থানার ডিমাই বাজার থেকে মুক্তিযোদ্ধা মনির আলীকে আটক করেন। তাঁকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিব কমান্ডারকে আটক করার জন‌্য বাড়িতে হামলা করেন তাঁরা। সেখান থেকে আসামিরা মনির আলী ও তাঁর স্ত্রী আফিয়া বেগমকে অপহরণ করে কেরামত নগর টি-গার্ডেন রাজাকার ক্যাম্পে নিয়ে যান। ক্যাম্পে আসামিরা আফিয়া বেগমকে ধর্ষণ করেন। হাবিব কমান্ডার ও মনির আলীর বাড়ির মালামালও লুটপাট করা হয়।


আরও খবর



সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে যাচ্ছেন তাহেরী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ এপ্রিল 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগামী সংসদ নির্বাচনেও প্রার্থী হতে যাচ্ছেন আলোচিত ইসলামি বক্তা মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী। দেশ, জাতি ও ইসলামের জন্য কাজের অংশ হিসেবেই নির্বাচন করতে চান বলে জানান তিনি। তবে আসন্ন সংসদ নির্বাচনে কোনও দলের হয়ে মনোনয়ন চাইবেন নাকি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়বেন সেটা নিশ্চিত করে বলেননি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের ভাদুঘর এলাকায় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান দাওয়াতে ঈমানী বাংলাদেশ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান তাহেরী।

তিনি বলেন, আমি গত নির্বাচন করেছি, আসলে জনগণের খেদমত করা এটা একটা সৌভাগ্যের ব্যাপার। আমাদের চিন্তা ও আশা আকাঙ্ক্ষা ছিল বলেই আমি নির্বাচন করেছি এবং ভবিষ্যতেও আমার সেই ধারাবিহকতা থাকবে। মানুষের সেবা করা, মানুষের পাশে থাকা, আর্তমানবতার সেবায় কল্যাণে কথা বলা, এই মানবতাই ধর্ম। ইসলাম অনেক ক্যাটাগরিতে রয়েছে। মানবতা, ভ্রাতৃত্ব, একতা, শান্তিশৃঙ্খলা সর্বক্ষেত্রেই ইসলামের অনুশাসন খুবই প্রয়োজন আছে। আমিও চাই রাজনৈতিক অঙ্গনটাও যেন ইসলামি ভাবধারায় প্রতিষ্ঠিত হয় এবং আরও যেন সুদৃঢ় হয়। সেজন্য আমার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ।

এর আগেও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ডাব প্রতীকে নির্বাচন করেছিলেন তিনি। তবে জয় পাননি। তিনি পেয়েছিলেন ৩ হাজার ৫ ভোট। এ আসনে ৮৩ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন বিএনপির উকিল আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া।

নিউজ ট্যাগ: তাহেরী

আরও খবর