Logo
শিরোনাম

চলার পথে বাধা সৃষ্টির অপকৌশল গ্রহণ করেছে বিএনপি: কাদের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
করোনা সংক্রমণের চলমান প্রেক্ষাপটে সরকার জনস্বার্থে শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহণের ভাড়া সমন্বয় করছে। তিনি বলেন, অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে অনেকে সরকারি নির্দেশনা মেনে

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রায় নিজেদের সম্পৃক্ত না করে অবিরাম মিথ্যাচার আর চলার পথে বাধা সৃষ্টির অপকৌশল গ্রহণ করেছে বিএনপি। বিএনপি শেখ হাসিনা সরকারের বিরোধিতা করতে গিয়ে রাষ্ট্রের বিরোধিতা করছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ওবায়দুল কাদের তাঁর সরকারি বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নানান ঘাত-প্রতিঘাত মোকাবিলা করে শেখ হাসিনা সরকার দেশের গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, এ ধারাকে আরও অর্থবহ করতে প্রয়োজন সবার সম্মিলিত প্রয়াস। কিন্তু বিএনপি গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার প্রতিটি পদক্ষেপ তাদের স্বভাবজাত নেতিবাচক রাজনীতি দিয়ে বিনষ্ট করছে। মিথ্যাবাদী রাখালের মতো বিএনপির কথা জনগণ এখন আর বিশ্বাস করে না।

সরকার নাকি জুলুম করছে বিএনপি মহাসচিবের এমন অভিযোগ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রকৃতপক্ষে সরকার নয়, আন্দোলনের নামে বিএনপিই মানুষের প্রাণ এবং সম্পদহানি ঘটিয়ে জুলুম-অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। এ দেশে রাজনৈতিক মুখোশের আড়ালে জুলুমতন্ত্র কায়েম করেছিল বিএনপি।

স্বাধীনতাবিরোধী উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তিকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি আবারও নৈরাজ্য তৈরির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এসব অপকৌশল করে ক্ষমতায় যাওয়া যাবে না। ক্ষমতায় যেতে হলে জনগণের রাজনীতি করতে হবে।

সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, করোনা সংক্রমণের চলমান প্রেক্ষাপটে সরকার জনস্বার্থে শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহণের ভাড়া সমন্বয় করছে। তিনি বলেন, অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে অনেকে সরকারি নির্দেশনা মেনে চললেও আবার অনেকেই মানছে না, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করারও অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী এ বিষয়ে পরিবহণ মালিক শ্রমিকদের অর্ধেক আসন খালি রেখে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমন্বয় করা ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর আহ্বান জানান। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারী এবং নির্দেশনা প্রতিপালনে ব্যর্থ পরিবহণের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বিআরটিএ এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে  বলে জানান ওবায়দুল কাদের।


আরও খবর



সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুদের শিক্ষা নিয়ে কাজ করা তারুণ্য নির্ভর সংগঠন 'পাঠশালা'

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জবি থেকে মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ:

তারুণ্য নির্ভর আমাদের এ সমাজে বর্তমানে স্বেচ্ছাসেবকের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। ইন্টারনেটের প্রসারের কারণে তরুণরা খুব সহজেই তাদের চিন্তা-ভাবনাগুলোকে কাজে লাগিয়ে মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে। এদের মধ্যে কেউ কেউ নিজেদেরকে তরুণদের রোল মডেল হিসেবে দাঁড় করিয়েছেন। তেমনই একজন ইয়ুথ লিডার এবাদুল ইসলাম। কাজ করে যাচ্ছেন সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুদের শিক্ষা নিয়ে। 'জ্ঞান অর্জন ও বিস্তার' এ শ্লোগানকে বুকে ধারণ করে প্রতিষ্ঠা করেছেন তারুণ্য নির্ভর সেচ্ছাসেবী সংগঠন 'পাঠশালা'।

সময়টা ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাস। কয়েকজন কোমল মতি শিশুদের রাস্তায় ঘুরে বেড়ানোর ব্যাপারটা স্বেচ্ছাসেবক কয়েকজন তরুণের ভালোলাগেনি। যখন এই কোমল মতি শিশুদের স্কুলে যাওয়ার কথা ঠিক সেই সময় তারা স্কুলে না গিয়ে কাজ করছে কিংবা ঘুরে বেড়াচ্ছে। যা দেখে তারা সিদ্ধান্ত নিলেন এভাবে বসে থাকা যাবে না। এই শিশুদের জন্য কিছু একটা করা উচিত। পরে দৃঢ়চেতা এই তরুণরা সিদ্ধান্ত নিলো সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে কাজ করবে একটি সংগঠন। সেই থেকে শুরু হয় 'পাঠশালা'। পথশিশুদের শিক্ষা নিয়ে কাজ করায় সংগঠনটির নামকরণ করা হলো 'পাঠশালা'। সেই থেকে শুরু আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি, সেই তরুণদের হাত ধরেই গড়ে উঠা সংগঠন আজ সারা বাংলাদেশের কয়েক হাজার তরুণের সংগঠনে পরিণত হয়েছে।

পাঠশালা সৃষ্টির লগ্ন থেকেই সংগঠনের লক্ষ্য উদ্দেশ্য পূরণে অবিচল ছুটে চলেছে সারা দেশের একঝাঁক তরুণ। এ পর্যন্ত সারা দেশে বেশ কিছু কার্যক্রম চালিয়েছে পাঠশালা। পাঠশালা প্রতিষ্ঠার পর থেকে পথশিশুদের পড়ালেখাসহ এ পর্যন্ত নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, ঢাকা, রাজশাহী, বগুড়া, পাবনা, গাজীপুর, টাঙ্গাইল ও ফরিদপুরে খাবার বিতরণ, শিক্ষা সামগ্রী বিতরণসহ নানামুখী কর্মসূচি করেছেন তারা। পথশিশুদের শিক্ষার প্রতি আগ্রহী করতে বিশেষ প্রোগ্রাম। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ করা, রাজশাহীর কাজলায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা, ফরিদপুর ইন্জিনিয়ারিং কলেজে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা,  ঢাকার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা এবং তাদের খাবার সহ শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ, রাজশাহীর রেলওয়ে কলোনি মাঠে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা এবং খাবার ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ, বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় এসএসসির কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে উপহার দেয়া। এছাড়াও করোনাকালীন সময়ে রাজশাহী এবং বগুড়ায় করোনার করাল গ্রাসে দিশেহারা অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। দেশের ২০ টির বেশি জেলায় একযোগে সার্ভে করা হয় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে যাতে তারা শিক্ষার দিকে আরও ধাবিত হয়, বর্তমানে পাঠশালার মেগা ইভেন্ট স্কিল ডেভলপমেন্ট ট্রেনিং সেশন চলছে যেখানে সারা দেশের তরুনরা তাদের নানা ধরনের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে পারবে। এছাড়াও সারা দেশে পাঠশালা ছোট বড় আরও অনেক প্রোগ্রাম করেছে। পাঠশালা কেন্দ্রীয় কমিটি ছাড়াও সারাদেশে বর্তমানে ১১ টি শাখা কমিটি সচল রয়েছে, এছাড়াও বেশ কয়েকটি কমিটি প্রস্তাবিত রয়েছে। সারা দেশে পাঠশালার রয়েছে একঝাঁক ক্যাম্পাস এম্বাসেডর, রয়েছে ক্রিয়েটিভ ফ্যাকাল্টি, আইটি সেল, প্রোগ্রাম অর্গানাইজিং সেল। বর্তমানে প্রায় দেড় হাজার রেজিস্টারকৃত সদস্য নিয়ে এগিয়ে কাজ করে যাচ্ছে পাঠশালা।

পাঠশালার প্রতিষ্ঠাতা এবাদুল ইসলাম বলেন, ২০১৯ সাল থেকে ছোট্ট পরিসরে শুরু করা পাঠশালা এই স্বল্প সময়ে সমাজে অনেক বড় বড় অবদান রাখতে সক্ষম হয়েছে। প্রথমে আশেপাশের এলাকায় সার্ভে করে কিছু সংখ্যক সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা সামগ্রী এবং খাবার বিতরণ করে পাঠশালা। যা থেকে অনুপ্রেরণিত হয়ে সে সকল সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা, পড়াশোনার উপর মনোযোগী হয়। তাদের পিতামাতারা শিশু শ্রমে না দিয়ে পড়ালেখার জন্য পাঠশালায় পাঠায়। পাঠশালার মধ্যে দিয়ে বস্তি এলাকার আশেপাশের অনেক সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা সুযোগ করে দিয়েছে পাঠশালা। পথশিশু ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য সারা দেশে কাজ করে যাচ্ছে পাঠশালা। সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুদের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েই দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলেছে পাঠশালার একঝাঁক তরুণ-তরুণী।

একজন তরুণ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে তিনি মনে করেন, তরুণরা চাইলেই হাতে হাত রেখে আমাদের দেশের সমস্যা গুলো চিহ্নিত করে তা সমাধান করতে পারে। পাঠশালা পরিবারকে নিয়ে তিনি আরও অনেকটা পথ এগিয়ে পথশিশুদের শিক্ষার ক্ষেত্রটা আরও বেগবান করতে চান।

নিউজ ট্যাগ: পাঠশালা পথশিশু

আরও খবর



করোনা: আক্রান্তের সংখ্যা ১২ কোটি ৭ লাখ ছাড়িয়েছে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ৪৮ হাজার ১৩ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এই পর্যন্ত ৩ কোটি ১ লাখ ৩৮

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ কোটি ৭ লাখ ৬৪ হাজার ৯৬৩ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ লাখ ৭১ হাজার ৭৫৭ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৯ কোটি ৭৪ লাখ ৬ হাজার ৭৬৪ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে এই তথ্য জানা যায়।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ৪৮ হাজার ১৩ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এই পর্যন্ত ৩ কোটি ১ লাখ ৩৮ হাজার ৫৮৬ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ১৫ লাখ ২৫ হাজার ৪৭৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৭৯ হাজার ৬০২ জনের। তবে মৃত্যু বিবেচনায় মেক্সিকোর অবস্থান তৃতীয়।

আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে চতুর্থ অবস্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১৪ লাখ ৯ হাজার ৫৯৫ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৮৯২ জনের। দেশে করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এখন পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৫৭১ জনে। এছাড়াও এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৫৯ হাজার ১৬৮ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৭

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বরগুনা থেকে অলিউল্লাহ ইমরান

বরগুনার সদর উপজেলার ৪ নং কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সংঘর্ষে  কমপক্ষে ৭ জন আহত হয়েছে।

গতকাল রবিবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে দক্ষিণ লতাবাড়িয়া ডৌয়াতলা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, রবিবার বিকেলে নির্বাচনের  প্রচারণার জন্য কর্মীসভা ডাকে ৪নং কেওরাবুনিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী লিটন ও সুলতান দুজনের কর্মীসভায় একদিনে হাওয়ায়। এতে তাদের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয় এবং উত্তেজনা দেখা দেয়। লিটনের বাড়ির সামনে দিয়া সুলতানের সর্মথকরা তার কর্মী সভায় অংশগ্রহণ করতে যাওয়ার সময় তাদেরকে হামলা করে লিটন ও তার সমর্থকরা।

একপর্যায়ে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কর্মী সমর্থকরা দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। উভয় প্রার্থীর ৭ জন কর্মী সমর্থক আহত হন। আহতদের মধ্যে ৪ জনকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মেম্বার প্রার্থী সুলতান হাওলাদার বলেন, রাত্রে আমার একটি জনসভা ছিল, আমার কর্মীরা সেইখানে মিছিল আসার সময় পথে সাবেক মেম্বার লিটন কর্মীরা আমার কর্মীদের ওপর দাও লাঠিসোটা নিয়ে  হামলা চালায়। এতে অনেকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছে, অনেকে বাড়িতে আছেন! এর আগেও বিভিন্ন ভাবে আমাদের হয়রানি করে আসছে এই লিটন মেম্বার! যার যার নির্বাচন সে করবে শুধু শুধু কেন এ হামলা চালালো তাহার সঠিক বিচার চাই।

মেম্বার প্রার্থী লিটন মৃধা বলেন, আমার বাড়িতে একটি জনসভা ছিল! সুলতান এর কিছু কর্মীরা সেই জনসভার আশেপাশে ঘুরঘুর করছিল, তখন আমার কর্মীরা তাদেরকে বাধা দিলে তারা শুনেনি! পরে আমি এসে যখন এখান থেকে যেতে বললাম সবাই চলে গেল! এরপর হঠাৎ সুলতান এর কর্মীরা আমার ও আমার কর্মীদের ওপর দৌড়ে এসে হামলা চালায়!

বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে আনি! এখন পর্যন্ত কোন লিখিতভাবে অভিযোগ পাইনি, পেলে আমরা আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো!



আরও খবর



ধামরাইয়ে বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, আহত ৭

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাভার থেকে সাব্বির হোসেন

ঢাকার ধামরাইয়ে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় ৭ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুই জনের অবস্থা গুরুতর।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) দুপুর পৌনে ২টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের কেলিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রাথমিকভাবে আহতদের পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।

ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার হুমায়ন কবির জানান, ঢাকাগামী এসবি লিংক নামের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে আরিচাগামী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। সেখান থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন মাইক্রোবাস চালক। এছাড়া আরও অন্তত পাঁচ জন আহত হয়েছেন।


আরও খবর



আইসিইউতে ভর্তি করোনা আক্রান্ত রিজভী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
রুহুল কবির রিজভীর কাশি ও জ্বর থাকার জন্য অক্সিজেনের লেভেল কমে যাওয়ায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শে ইনজেকশন দেয়া হয়েছে তাকে। কিছুক্ষণ পর অক্সিজেনের লেভেল আরও কমে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ও অক্সিজেন লেভেল কমে যাওয়ায় নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, রুহুল কবির রিজভীর কাশি ও জ্বর থাকার জন্য অক্সিজেনের লেভেল কমে যাওয়ায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শে ইনজেকশন দেয়া হয়েছে তাকে। কিছুক্ষণ পর অক্সিজেনের লেভেল আরও কমে গেলে দ্রুত নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, রুহুল কবির রিজভী কদিন ধরে জ্বরে ভোগার পর গত ১৬ মার্চ করোনা পরীক্ষা করা হলে ফলাফল পজিটিভ আসে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজধানীর বেসরকারি হাসপাতাল স্কয়ারে ভর্তি করা হয় তাকে। বুধবার (৩১ মার্চ) তৃতীয়বারের মতো পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ আসে তার। বর্তমানে ওই হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।


আরও খবর