Logo
শিরোনাম

দেশে ১০ মাসে ধর্ষণের শিকার ৮৩০

প্রকাশিত:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি বছরের প্রথম ১০ মাসে (জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত) দেশে ৮৩০ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এছাড়া ধর্ষণের পর খুন হয়েছেন ৩৯ জন নারী। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ঢাকাতে।

রোববার (২৭ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় নারী অধিকার সংগঠন জেন্ডার প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়াজ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক নাজমা আক্তার, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজের (বিলস) পরিচালক নাজমা ইয়াসমীন, বাংলাদেশ লেবার ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক আশরাফ উদ্দিন মুকুট, বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সীমা জহুর ও কর্মজীবী নারীর নির্বাহী পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) সানজীদ সুলতানাসহ আরও অনেকে।

এসময় লিখিত বক্তব্যে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজের পরিচালক নাজমা ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের তথ্য অনুযায়ী শুধুমাত্র অক্টোবর মাসেই ৩৭১ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ৬২ জন শিশুসহ ৯১ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তার মধ্যে ১২ জন শিশু ও ১০ জন নারী দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে। আর দুজন শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া পাঁচ শিশুসহ ১০ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। তাছাড়া নারী ও শিশু পাচারের ঘটনা ঘটেছে ৬৩টি।

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) বরাত দিয়ে নাজমা ইসলাম বলেন, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত এই দশমাসে সারা দেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৮৩০ জন নারী। ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয়েছেন ৩৯ জন। আর ধর্ষণের কারণে আত্মহত্যা করেছেন ৭ জন। এছাড়া আরও ১৪১ নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। বিশ্লেষণ অনুযায়ী, ঢাকা জেলায় সর্বাধিক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এরপর নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, গাজীপুর ও নোয়াখালী জেলায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে সবচেয়ে বেশি।

তিনি আরও বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা-নারীর মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় অন্যতম বাধা। এটা কোনো একক সমস্যা নয়। এটা বৈশ্বিক সমস্যা। নারীর প্রতি সহিংসতা রোধ করতে হবে। নারীর প্রতি এ সহিংসতা রোধে নতুন আইন প্রণয়ন ও পুরনো আইনগুলোকে সংস্কার করতে হবে এবং সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। নারীদের প্রতি সমাজের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নারী নির্যাতনের একটি উল্লেখযোগ্য কারণ।

হয়রানি ও নির্যাতন রোধে জেন্ডার প্লাটফর্ম বেশ কয়েকটি দাবি জানিয়েছে। দাবিগুলো হলো

১. যৌন হয়রানিমুক্ত কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ আইন প্রণয়ন করতে হবে।

২. কর্মক্ষেত্রে সহিংসতা ও হয়রানি নিরসন বিষয়ক আইএলও কনভেনশন ১৯০ অনুসমর্থন করতে হবে।

৩. যৌন হয়রানি প্রতিরোধে ২০০৯ সালে দেয়া হাইকোর্টের নির্দেশনার যথাযথ বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে। কর্মস্থলে যাতায়াতের পথে এবং সমাজে নারী শ্রমিকের যৌন হয়রানি থেকে সুরক্ষা প্রদান নিশ্চিত করতে হবে।

৪. আদালতের নির্দেশনা যাতে সঠিকভাবে বাস্তবায়িত হয়, সেজন্য সরকারি উদ্যোগে একটি তদারকি কমিটি গঠন করতে হবে।

৫. যৌন হয়রানি প্রতিরোধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নারী ও শিশু নির্যাতনের বিচার নিষ্পত্তি করা ও বৈষম্যমূলক আইন সংশোধন করতে হবে।

৬. বাংলাদেশ শ্রম বিধিমালা ২০১৫ এর সংশোধনীতে মহিলাদের প্রতি আচরণ সংক্রান্ত নতুন বিধি ৩৬১ ক এবং সেই বিধি(২)এ বর্ণিত অভিযোগ কমিটি গঠন করতে হবে। সেগুলো হতে হবে হাইকোর্টের দেয়া গাইডলাইনের ভিত্তিতে।

৭. নারীর প্রতি সহিংসতামুক্ত সংস্কৃতিচর্চা করতে হবে।


আরও খবর



বন্ধ হচ্ছে লয়েডস ও হ্যালিফ্যাক্স ব্যাংকের ৪০ শাখা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শাখার সংখ্যা আরো কমানোর ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্যের লয়েডস ও হ্যালিফ্যাক্স ব্যাংক। ব্যাংক দুটির মালিক প্রতিষ্ঠান লয়েডস ব্যাংকিং গ্রুপের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অনলাইন ব্যাংকিংয়ের প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা বেড়েছে। অনলাইনেই সব ধরনের কাজ সম্ভব হওয়ায় ব্যাংকের শাখা অফিসগুলোয় ক্রমেই কমছে গ্রাহকের সরাসরি সেবা গ্রহণের সংখ্যা। এ কারণে যুক্তরাজ্য ও ওয়েলসে ব্যাংক দুটির আরো ৪০টি শাখা বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

কয়েক বছর ধরেই ব্যাংকিং খাতে কৃচ্ছ্রসাধন চলছে। এর অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন ব্যাংকের হাজারো শাখা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এর আগে গত জুলাইয়ে লয়েডস ব্যাংকিং গ্রুপ জানায়, ২০২২ সালের অক্টোবর থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত ৬৬টি শাখা বন্ধ করে দেয়া হবে।

সবশেষ ঘোষণায় গ্রুপটি জানিয়েছে, হ্যালিফ্যাক্সের ১৮টি শাখা বন্ধ করা হচ্ছে। এছাড়া এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে লয়েডসের বন্ধ হবে ২২টি শাখা। এসব শাখার বেশির ভাগই যুক্তরাজ্যে। তবে ওয়ালসের ব্যাঙ্গর শাখাটি বন্ধ করছে হ্যালিফ্যাক্স। তবে এসব শাখা বন্ধের কারণে কাজ হারাবেন না কোনো কর্মী। এছাড়া যে শাখাগুলো বন্ধ হচ্ছে সেগুলোর কাছাকাছি এলাকায় বিনামূল্যে ব্যবহারের জন্য ক্যাশ মেশিন বা পোস্ট অফিস রয়েছে।

লয়েডস ব্যাংকিং গ্রুপ বলছে, যুক্তরাজ্যে সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের সেবা নিতে আগ্রহী গ্রাহকের সংখ্যা ক্রমেই কমছে। বেশির ভাগ গ্রাহক এখন অনলাইনেই সব কাজ সেরে ফেলতে পছন্দ করেন। বিশেষ করে গত পাঁচ বছরে যেসব শাখায় উল্লেখযোগ্য পরিমাণে গ্রাহকদের যাতায়াত কমেছে সেগুলোই ধীরে ধীরে বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। গ্রুপটির এক মুখপাত্র বলেন, ব্যাংকের কার্যক্রমের ক্ষেত্রে শাখা অফিসগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিন্তু সেগুলো যেন যথাযথ স্থানে স্থাপন ও উপযোগী হয় সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।

লয়েডস ব্যাংকের যেসব শাখা বন্ধ করা হচ্ছে তার মধ্যে রয়েছে নরবারি, বেকেনহ্যাম, চিংফোর্ড, লন্ডনের ম্যারিলেবুন হাই স্ট্রিটের শাখা, ওয়েব্রিজের চার্চ স্ট্রিট শাখা, লিটলহ্যাম্পটনের বিচ রোড শাখা ইত্যাদি। এছাড়া হ্যালিফ্যাক্সের যে শাখাগুলো বন্ধ হচ্ছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে নরবারির লন্ডন রোড শাখা, লন্ডনের ফেনচার্চ স্ট্রিটের শাখা, গ্রেসের হাই স্ট্রিট শাখা ইত্যাদি।


আরও খবর



গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে পরামর্শ দেবে যুক্তরাষ্ট্র: ডোনাল্ড লু

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ২১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ সফররত যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোনাল্ড লু বলেছেন, গণতন্ত্র, সুষ্ঠু নির্বাচন, মানবাধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতার মতো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশকে পরামর্শ দিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। এসব বিষয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকতে চায় তাঁর দেশ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে অনুষ্ঠিত দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেছেন মার্কিন সরকারের এ মন্ত্রী। আজ রোববার (১৫ জানুয়ারি) রাজধানীর সেগুনবাগিচনায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক হয়। এসময় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন উপস্থিত ছিলেন।

ব্রিফিংয়ে ডোনাল্ড লু বলেন, জিএসপি সুবিধা চালু হলে প্রথমে বাংলাদেশ এ সুবিধা পাবে। গণতন্ত্র ও মানবাধিকার আমাদের কেন্দ্রবিন্দু। এটা নিয়ে আমরা পরামর্শ দিই।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নিয়ে যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে উল্লেখ করে মার্কিন এ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) নিয়ে আমাদের ভালো আলোচনা হয়েছে। সন্ত্রাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে।

বহুল আলোচিত মার্কিন ডিপ্লোমেট ও সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোনাল্ড লু গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ভারত হয়ে বাংলাদেশে পৌঁছান। ঢাকা সফরের প্রথম দিনেই তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি তিনি মন্ত্রীর ইস্কাটনস্থ সরকারি বাসভবনে (পররাষ্ট্র ভবন) যান। সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টার বেশি সময় ধরে একান্তে বৈঠক করেন তারা। ওই বৈঠকের বিষয়ে কেউই সাংবাদিকদের কিছু বলেননি।

ঢাকা আসার আগে দুদিন নয়াদিল্লিতে কাটিয়েছেন মার্কিন সহকারী মন্ত্রী। সেখানে ভারত সরকার এবং দেশটির রাজনৈতিক নেতৃত্বের সঙ্গে এশিয়া অঞ্চলের বিভিন্ন বিষয়, সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে তার। দিল্লির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, দিল্লিতে থাকাকালে ভারত-চীন সীমান্ত উত্তেজনার প্রেক্ষাপটে বেইজিংয়ের আগ্রাসী কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করেছেন এশিয়া এক্সপার্ট ডোনাল্ড লু।


আরও খবর



এত দিন মশা ধ্বংসের নামে টাকা অপচয় হয়েছে, স্বীকার করলেন মেয়র

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, মশা মারতে আমরা এতদিন ভুল পদ্ধতি ব্যবহার করেছি। তাতে মশা তো ধ্বংস হয়নি বরং অর্থের অপচয় হয়েছে। তাই অতি দ্রুত ডিএনসিসির মশার প্রজাতি চিহ্নিত করতে একটি ল্যাব স্থাপন করতে চাই। শনিবার (২১ জানুয়ারি) মেয়রের বরাত দিয়ে ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মকবুল হোসাইন এ তথ্য জানিয়েছেন।

মেয়র বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা রাজ্যের মিয়ামি শহরে গিয়ে মশা মারার যে পদ্ধতি শিখেছি সেই অভিজ্ঞতা ডিএনসিসিতে কাজে লাগাতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা এতদিন ভুল পদ্ধতি ব্যবহার করেছি। তাতে মশা তো ধ্বংস হয়নি বরং অর্থের অপচয় হয়েছে। তাই অতি দ্রুত ডিএনসিসি মশার প্রজাতি চিহ্নিত করতে একটি ল্যাব স্থাপন করতে চাই।

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ডিপার্টমেন্ট অব কমার্সের কমার্শিয়াল ল’ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের (সিএলডিপি) আমন্ত্রণ ও অর্থায়নে ডিএনসিসির প্রতিনিধি দল ফ্লোরিডায় সফর করছেন।

প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। সফরকালে মশক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দেশটির অভিজ্ঞতা হাতে কলমে শিখিয়ে দিয়েছেন মিয়ামি ডেড কাউন্টির বিশেষজ্ঞরা। মশা নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের এ সফল কার্যক্রম বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডিএনসিসি মেয়র।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে রয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, সংরক্ষিত কাউন্সিলর রাজিয়া সুলতানা ইতি ও মিতু আক্তার, ডিএনসিসির প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. বরকত হায়াত, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পুর) অতিরিক্ত ড্রেনেজ সার্কেল আবুল হাসনাত মো. আশরাফুল আলম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (সিভিল) খন্দকার মাহবুব আলম, নির্বাহী প্রকৌশলী অতিরিক্ত দায়িত্ব পরিকল্পনা ও নকশা বিভাগ তাবাসসুম আবদুল্লাহ, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইমদাদুল হক, নির্বাহী প্রকৌশলী (পুর) ফারুক হাসান মো. আল মাসুদ, মেয়রের একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী ফরিদ উদ্দিন, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল্লাহ আল মঞ্জুর ও ৫২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদ আহমেদ।


আরও খবর

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট বন্ধ

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

রাজধানীতে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩




২০০ জনকে নিয়োগ দেবে ডিজিকন

প্রকাশিত:সোমবার ০২ জানুয়ারী 2০২3 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ডিজিকন টেকনোলজিস লিমিটেডে কাস্টমার সার্ভিস রিপ্রেজেন্টেটিভ পদে ২০০ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: ডিজিকন টেকনোলজিস লিমিটেড

পদের নাম: কাস্টমার সার্ভিস রিপ্রেজেন্টেটিভ

পদসংখ্যা: ২০০ জন

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক/ডিপ্লোমা

দক্ষতা: বেসিক কম্পিউটারে জ্ঞান ও যোগাযোগে দক্ষতা

অভিজ্ঞতা: বিপিও ইন্ডাস্ট্রিজে কাজের অভিজ্ঞতা

বেতন: ৯,৫০০-১০,০০০ টাকা

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ

বয়স: ৩২ বছর

কর্মস্থল: ঢাকা (মিরপুর)

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

অ্যাকশনএইডে চাকরির সুযোগ

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩




রেকর্ড বাণিজ্য ঘাটতি দক্ষিণ কোরিয়ার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

২০২২ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্য ঘাটতি ছিল ৪ হাজার ৭২০ কোটি ডলার। ২০০৮ সালে বাণিজ্য ঘাটতির হিসাব রাখা শুরুর পর তা রেকর্ড সর্বনিম্ন। গত বছর দক্ষিণ কোরিয়ার রফতানিতে নতুন রেকর্ড হয়েছে। তবে ক্রমবর্ধমান জ্বালানি মূল্যের কারণে বাণিজ্য ঘাটতিতে পড়েছে দেশটি।

সরকারি উপাত্তে জানা গেছে, ২০২২ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্য ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৭২০ কোটি ডলার, যা দেশটির ইতিহাসে রেকর্ড সর্বোচ্চ এবং ১৯৯৬ সালের রেকর্ড বাণিজ্য ঘাটতির প্রায় দ্বিগুণ। ২০০৮ সালে বাণিজ্য ঘাটতির উপাত্ত রাখা শুরু করে দক্ষিণ কোরিয়া। প্রথম বছরে দেশটির বাণিজ্য ঘাটতি ছিল ১ হাজার ৩২৬ কোটি ডলার।

দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্য, শিল্প ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় ১ জানুয়ারি জানায়, ২০২২ সালের ডিসেম্বরে দেশটির রফতানি আয় ছিল ৫ হাজার ৪৮৯ কোটি ডলার। ২০২১ সালের একই মাসের তুলনায় যা ৯ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। এ নিয়ে টানা তিন মাস রফতানি কমল দক্ষিণ কোরিয়ার। খাতওয়ারি, সেমিকন্ডাক্টর রফতানি কমেছে ২৯ দশমিক ১ শতাংশ এবং ইস্পাত, পেট্রোকেমিক্যাল ও ডিসপ্লে রফতানি কমেছে যথাক্রমে ২০ দশমিক ৯ শতাংশ, ২৩ দশমিক ৮ শতাংশ ও ৩৫ দশমিক ৯ শতাংশ। গত ডিসেম্বরে দক্ষিণ কোরিয়ার জ্বালানি আমদানি ২৭ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯৬৮ কোটি ডলার। এতে ২০২২-এর শেষ মাসে দেশটির বাণিজ্য ঘাটতি ছিল ৪৬৯ কোটি ডলার।

২০২২ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার রফতানি ৬ দশমিক ১ শতাংশ বেড়ে ৬৮ হাজার ৩৯০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে। দৈনিক গড় রফতানি ছিল ২৫১ কোটি ডলার। দেশটির দৈনিক রফতানি প্রথমবারের মতো ২৫০ কোটি ডলার ছাড়াল। সেমিকন্ডাক্টর রফতানি রেকর্ড সর্বোচ্চ ১২ হাজার ৯২০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে। গাড়ি রফতানি হয়েছে ৫ হাজার ৪৩০ কোটি ডলারের।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো দেশটির রফতানি ১০০ বিলিয়ন বা ১০ হাজার কোটি ডলারের সীমা অতিক্রম করেছে। শীর্ষ তিন রফতানি গন্তব্য আসিয়ান, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) রফতানি বেড়েছে যথাক্রমে ১৪ দশমিক ৮, ১৪ দশমিক ৫ ও ৭ দশমিক ১ শতাংশ। ভারতে দক্ষিণ কোরিয়ার রফতানি বেড়েছে ২১ শতাংশ। শীর্ষ চার গন্তব্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার রফতানি রেকর্ড সর্বোচ্চ ছিল। গত বছর দক্ষিণ কোরিয়ার আমদানি হয়েছে ৭৩ হাজার ১২০ কোটি ডলার, যা বছরওয়ারি ১৮ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে। অপরিশোধিত জ্বালানি তেল, গ্যাস ও কয়লা আমদানিতে বার্ষিক আমদানি ব্যয়ের ২৬ দশমিক ১ শতাংশ গেছে।

ডিসেম্বরে টানা সাত মাসের মতো চীনে রফতানি কমেছে দক্ষিণ কোরিয়ার। বার্ষিক রফতানি কমেছে ৪ দশমিক ৪ শতাংশ। চীনের অর্থনীতিতে শ্লথগতি ও দ্বিতীয়ার্ধে সেমিকন্ডাক্টরের দাম হ্রাসে এমনটা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: দক্ষিণ কোরিয়া

আরও খবর