Logo
শিরোনাম

দেশে কমেছে মোবাইলের উৎপাদন

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ডলারের দাম বৃদ্ধি, জ্বালানি তেলের মূল্য বেড়ে যাওয়ায় জাহাজ বাড়তি ভাড়া, মূল্যস্ফীতি এবং তিন স্তরে ভ্যাট (মূল্য সংযোজন কর) আরোপের  কারণে দেশে মোবাইল ফোনের দাম বেড়েছে। ফলে কমে গেছে চাহিদাও। বাধ্য হয়ে উৎপাদকরা মোবাইল তৈরি কমিয়ে দিয়েছেন। আমদানিও কমেছে। এর পরিনামে দীর্ঘদিন বাজারে নতুন কোনও মোবাইল ফোন নেই। এদিকে বাজারে প্রযুক্তি পণ্যের বিক্রিতেও ধ্বস নেমেছে। বিক্রি কমেছে প্রায় ৪০ শতাংশের মতো। তবে শূন্যতে নেমে যাওয়া গ্রে মার্কেটে (অবৈধ বাজার) মোবাইলের বিক্রি বেড়েছে। কম দামে এই বাজারে মোবাইল পাওয়া যাওয়ায় গ্রে মার্কেটে অবৈধ মোবাইলের বিক্রি ৫ শতাংশ থেকে বেড়ে  ২৫-৩০ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। যা উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা বাড়িয়েছে স্থানীয় নির্মাতা ও উদ্যোক্তাদের।

বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমপিআইএ) সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া শহিদ বলেন, মোবাইল ফোনের দাম বেড়ে যাওয়া ও চাহিদা কমে যাওয়ায় অনেক উদ্যোক্তা  উৎপাদন কমিয়ে দিয়েছেন। আমরাও (সিম্ফনি ব্র্যান্ড) কমিয়েছি। কোনও উপায় নেই। কারণ, বাজারে টিকে থাকতে হবে। বাজারে মোবাইলের বিক্রি কমে গেছে ২০-৩০ শতাংশ। আমরা মার্কেট ধরে রাখার জন্য মুনাফায় ছাড় দিয়েছি, অনেক ধরনের বাজার প্রসারমূলক কাজ (ছাড়, উপহার, কিস্তিতে বিক্রি ইত্যাদি) হাতে নিয়ে বাজার ধরে রাখার চেষ্টা করছি। কিন্তু পুরোপুরি সফল হতে পারছি না। এতসব উদ্যোগ নেওয়ার পরও মোবাইল প্রতি দাম বেড়েছে প্রায় ২০ থেকে ৩০ শতাংশ।

মোবাইল ফোনের বাজার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে দেশে মটোরোলা মোবাইল ফোনের ন্যাশনাল পার্টনার সেলেক্সট্রা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাকিব আরাফাত বলেন, বাজারের অবস্থা খুব খারাপ। বিক্রি কমে গেছে, মোবাইলের দাম বেড়ে গেছে। এসবের পেছনে অনেক কারণ যদিও দায়ী। দেশে গ্রে মার্কেটে আসা অবৈধ মোবাইলের বিক্রি বেড়ে গেছে। সরকারের একটা উদ্যোগের কারণে গ্রে মার্কেটে মোবাইলের বিক্রি শূন্য শতাংশে নেমে গিয়েছিল। এখন তা অনেক বেড়ে গেছে। অফিসিয়াল বা বৈধ চ্যানেলে মোবাইলের বিক্রি কমে যাওয়ার পেছনে এটাও একটা কারণ। গ্রে মার্কেটের দৌরাত্ম্য কমাতে জরুরি কোনও ইতিবাচক উদ্যোগ যেন নেওয়া হয়। তাহলে মোবাইলের আসল  বাজার বাঁচবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এরই মধ্যে গ্রে মার্কেটের ব্যবসায়ীরা আইফোন-১৪ নিয়ে ফেসবুকে বেশ সরব। অনেকে অগ্রিম বুকিং নিতে শুরু করেছেন। দেশে বৈধ চ্যানেলে (অ্যাপল পণ্যের তালিকাভুক্ত রিসেলার) আইফোন-১৪ আসার আগেই ফেসবুকভিত্তিক অনেক পেজ থেকে ক্রেতাদের প্রি-বুক করতে বলা হচ্ছে। কেউ কেউ ১৬ সেপ্টেম্বর বিকালের পর থেকে আইফোন-১৪ ডেলিভারির কথাও উল্লেখ করেছেন। বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গ্রে মার্কেটের ব্যবসায়ীরা হুন্ডির মাধ্যমে দেশের বাইরে টাকা পাঠিয়ে এর মূল্য পরিশোধ করছেন। ফলে এভাবেও টাকা পাচার হয়ে যাচ্ছে। মূল বাজার নষ্ট করার পাশাপাশি এরা দেশের টাকা পাচার করে রাষ্ট্রীয় ক্ষতিসাধন করছে। 

প্রযুক্তি পণ্যের বিক্রি কমেছে ৪০ শতাংশ: প্রযুক্তি পণ্যের বাজারে বিক্রিতে ধ্বস নেমেছে। মোবাইলের বিক্রি যেসব কারণে কমেছে, সেসব কারণেই কমেছে প্রযুক্তি পণ্যের দাম। ওইসব কারণের সঙ্গে আরও যুক্ত হয়েছে ল্যাপটপ আমদানিতে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ। ডলারের দাম বৃদ্ধি এবং ভ্যাট আরোপের কারণে ল্যাপটপের দাম বেড়েছে বেশি। অন্যান্য পণ্যের দামও বেশি বলে জানিয়েছেন দেশের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি পণ্যের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান স্মার্ট টেকনোলজিস লিমিটেড।

প্রতিষ্ঠানটির চ্যানেল সেলস পরিচালক মুজাহিদ আল বেরুনী সুজন বলেন, গত কিছুদিনের মধ্যে প্রযুক্তি বাজারে ৪০ শতাংশ বিক্রি কমে গেছে। পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় অনেকের সামর্থ্যে কুলোচ্ছে না। ফলে বাজারে ক্রেতা কম।  ল্যাপটপের দাম সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। এভাবে চলতে থাকলে বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য বাজারে টিকে থাকাই কঠিন হয়ে পড়বে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, প্রযুক্তি পণ্যের প্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মী ছাঁটাই শুরু হয়েছে। ব্যবসা করে প্রতিষ্ঠানগুলো টিকে থাকতে পারছে না। যদিও এসব কারণে কর্মী ছাঁটাই হচ্ছে পারফরমেন্সের ভিত্তিতে। খুচরা বিক্রি, করপোরেট বিক্রি, সংশ্লিষ্ট পণ্যের স্টক, বিগত দিনের পারফরমেন্স ইত্যাদি দেখে কর্মী ছাঁটাই চলছে বলে জানা গেছে।

নিউজ ট্যাগ: মূল্যস্ফীতি

আরও খবর



মেক্সিকোয় বাস-ট্রাকের সংঘর্ষে ১৮ জন নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মেক্সিকোর উত্তরাঞ্চলে জ্বালানি তেলবাহী একটি ট্রাকের সাথে বাসের সংঘর্ষে অন্তত ১৮ জন নিহত হয়েছে।

দেশটির স্থানীয় প্রসিকিউটর কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিউভো লিওন রাজ্যের মন্টেরে থেকে তামাওলিপাসের সিউদাদ ভিক্টোরিয়ায় যাওয়ার মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জ্বালানি তেলবাহী ট্রাকটির বিস্ফোরণে ১৮ জন নিহত হয়েছে।

বাসটি হিদালগো রাজ্য থেকে মেন্টেরে যাচ্ছিল। দুর্ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: মেক্সিকো

আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




দেশরত্ন শেখ হাসিনা এখন বিশ্ব জলবায়ু নেত্রী: পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পক্ষে জোরালো ভূমিকা পালন করে বিশ্ব জলবায়ু নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী তাঁর উল্লেখযোগ্য কর্মকাণ্ড ও বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর সমগ্র বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে। জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় তাঁর পরামর্শ এখন বিশ্বের বিভিন্ন সভায় গৃহীত হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্বে রোল মডেল।

বুধবার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

মো. শাহাব উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হবে না, শুধু সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। দেশ যতদিন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে থাকবে, ততদিন নিরাপদ থাকবে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোঁটানোর জন্যই তিনি বেচে আছেন। তিনি দেশকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে ফেলছেন। তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

মন্ত্রী এসময় দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার কাজ সম্পন্ন করার জন্য শেখ হাসিনার দীর্ঘজীবন কামনা করেন।

আলোচনা সভায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) ও কবি মো. মনিরুজ্জামান "একাত্তর একটি মহাকাব্য" শীর্ষক কাব্যগ্রন্থ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর রচিত 'বাংলাদেশের দেবদূত' শিরোনামের একটি স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন। তিনি উল্লেখ করেন, তোমাকেই ঘিরে বাঙালি আশায় বুকবাঁধে আবার জাগিবে বাঙালি, পৃথিবীর মানচিত্রে করে নিবে ঠাঁই, মর্যাদার উচ্চ আসনে বসবে স্বমহিমায়; বাংলাদেশের দেবদূত শেখ হাসিনার উচ্ছল হাসিতে উদ্ভাসিত হবে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ!

আলোচনা সভায় মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো. মিজানুল হক চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) মো. মনিরুজ্জামান, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আব্দুল হামিদ এবং বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


আরও খবর



ভাইরাল ছবি নিয়ে বিব্রত ববি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চিত্রনায়িকা ইয়ামিন হক ববি ও প্রযোজক সাকিব সনেটের অন্তরঙ্গ কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে শোবিজে হইচই পড়ে গেছে। বর্তমানে সনেট ও ববি চণ্ডীগড়ে একটি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে যোগ দিয়েছেন। কয়েক দিন পরই দেশে ফিরবেন তাঁরা। ভাইরাল হওয়া ছবিগুলো নিয়ে বেশ বিব্রত এই অভিনেত্রী।

ববি বলেন, আমি মানসিকভাবে বিধ্বস্ত। আপাতত বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাই না। ছবিগুলো কীভাবে ছড়িয়ে পড়েছে এ বিষয়েও কোনো মন্তব্য করতে চাননি ববি। ছবির বিষয়ে সনেট বলেন, অনেকেই ফোন করছেন। কীভাবে ছবি ফাঁস হলো জানতে চাইছেন। এটা নিয়ে আমরা বিব্রত। চিত্রনায়িকা ইয়ামিন হক ববির প্রেমের খবর পুরোনো। পাঁচ বছর ধরে তাঁদের এই প্রেম। ২০১৭ সালের শেষ দিক থেকে ববি-সনেটের প্রেম শুরু। প্রেমের বিষয়টি স্বীকার করেছেন প্রযোজক ও ব্যবসায়ী সনেট। তিনি বলেন, নোলকের শুটিংয়ের আগে থেকে ববির সঙ্গে পরিচয় ও বন্ধুত্ব হয়। রামুজি ফিল্ম সিটিতে শুটিংয়ে বিভিন্ন ঝামেলা পোহাতে হয়। তখন ববি ভীষণভাবে সাপোর্ট দেয়। পরে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ি। এরপর সে আমার ব্যবসায়িক পার্টনার হয়।

শুধু প্রেম নয়, ববির সঙ্গে বিয়ের গুঞ্জনও আছে সনেটের। এই প্রযোজক বলেন, ববি আমার ব্যবসায়িক পার্টনার হওয়ায় দৈনিক তাঁর সঙ্গে আমার দেখা করতে হয়। এ কারণে সবাই ভাবে আমরা বিয়ে করেছি। আর বিয়ের গুঞ্জন আমরাও শুনেছি। ওটা শ্রেফ গুঞ্জন। আমাদের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে দুই পরিবার অবগত। ববি মানুষ হিসেবে অমায়িক, সৎ, শান্ত। যেকোনো পরিস্থিতি সে চমৎকার ম্যানেজ করতে পারে। আমার কাছে এটাই তার বিশেষত্ব।

জানা গেছে, দুই পরিবারের সম্মতিতে চলতি বছরই বিয়ে করতে পারেন তারা। এর আগে পরিচালক ইফতেখার চৌধুরীর সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন ছিল ববির। অবশ্য বিষয়টি দুজনের কেউই স্বীকার করেননি। ববি অভিনীত বেশ কটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এ তালিকায় রয়েছে ময়ূরাক্ষীবৃদ্ধাশ্রম

নিউজ ট্যাগ: ইয়ামিন হক ববি

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




আর কোনো রোহিঙ্গাকে ঢুকতে দেব না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গা নাগরিককে বাংলাদেশে ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেছেন, যে সংখ্যক রোহিঙ্গা দেশে আছে, তাদের নিয়েই আমরা বিভিন্ন জটিলতার মধ্যে আছি। নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ঢুকতে দেব না।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন সমস্যার কারণে মিয়ানমার যুদ্ধে জড়িয়েছে। আমরা এখনো সঠিকভাবে জানি না, কার সঙ্গে তারা গোলাগুলি করছে, কাদের তারা প্রতিহত করছে। আমরা যতটুকু জানি, আরাকান আর্মির সঙ্গে তাদের বিরোধ।

তিনি বলেন, তাদের অভ্যন্তরীণ সমস্যার কারণে গুলি আমাদের সীমান্তের কাছাকাছি বা দুয়েকটা ভেতরেও এসে পৌঁছেছে। একজনের প্রাণহানি ঘটেছে এবং কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ কারণে আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে তাদের কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। তাদের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। প্রতিবাদে কাজ না হলে আমরা জাতিসংঘের কাছে আমাদের সমস্যাগুলো জানাব।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা শান্তিপ্রিয় দেশ। কখনো কোথাও শান্তি বিঘ্নিত হোক, তা আমরা চাই না। আমরা শান্তিপূর্ণ মীমাংসার ব্যবস্থা করব। প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এর আগে অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করে আমরা বাংলাদেশে কোনো জঙ্গির উত্থান হতে দেব না। কোনো টেররিস্টকে এখানে অবস্থান করতে দেব না। শুধু তাই নয়, বিদেশের কোনো টেররিস্টের স্থানও এই মাটিতে হবে না। অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের পাঁচ বছর পূর্তি হয়েছে। আমাদের যেতে হবে আরও বহুদূর।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে গত শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে নতুন করে গোলাগুলি শুরু হয়। রাত ৮টার দিকে মিয়ানমারের ভূখণ্ড থেকে একটি মর্টার শেল এসে তুমব্রু সীমান্তের বিপরীতে শূন্যরেখায় পড়ে। এতে এক রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় এক শিশুসহ পাঁচ রোহিঙ্গা নাগরিক আহত হন। এতে রোববার মিয়ানমারের দূতকে ডেকে কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়।

এর আগে কয়েক দফায় মিয়ানমার থেকে মর্টার শেল ও গোলা এসে পড়ে বাংলাদেশের ভেতরে। ওইসব ঘটনায়ও মিয়ানমার রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানানো হয়। তবে, বিশেষজ্ঞরা সমালোচনা করে বলছেন, এমন মৌখিক প্রতিবাদ কার্যকর কিছু নয়।


আরও খবর



আবুধাবিতে তৈরি হচ্ছে প্রথম হিন্দু মন্দির

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে তৈরি হচ্ছে প্রথম হিন্দু মন্দির। আনুষ্ঠানিকভাবে মন্দিরটির উদ্বোধন না হলেও, ইতোমধ্যে আংশিকভাবে চালু হয়েছে। অক্টোবর মাসে জমকালোভাবে উদ্বোধন হওয়ার কথা রয়েছে মন্দিরটির। 

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ইতোমধ্যে পরিদর্শন করেছেন মন্দিরটি। এ মন্দিরের অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক হলো- এটি তৈরিতে ব্যবহার করা হচ্ছে না কোনো লোহা। বেলে পাথর দিয়ে নির্মিত হচ্ছে মন্দিরটি। মন্দিরটি তৈরিতে লেগেছে প্রায় ২২৫০ টন পাথর।

১৬ দেবতার মূর্তি থাকছে মন্দিরটিতে। আগস্টের শেষদিকে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে শিখদের ধর্মগ্রন্থ গ্রন্থসাহেব।আরব আমিরাতে বসবাস করেন প্রায় ৩০ লাখ ভারতীয়। মন্দির প্রতিষ্ঠার এ খবরে তারা খুশি। জয়শঙ্কর কয়েকদিন আগে একটি টুইটে এ মন্দিরের প্রশংসা করে এটি নির্মাণের জন্য মন্ত্রী শেখ নাহিয়ান বিন মোবারককে ধন্যবাদ জানান।

এই মন্দির নির্মাণ ও এর আগে ভারতের সংবিধানে কাশ্মীরকে বিশেষ স্বায়ত্বশাসিত এলাকার মর্যাদা দেওয়া ধারা বাতিলের সময় ভারতকে সমর্থন করেছিল আমিরাত। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে জি নিউজ বলছে যে, এসব থেকে বোঝা যাচ্ছে কূটনৈতিকভাবে ভারতের হাত ধরতে চাইছে আমিরাত। 

নিউজ ট্যাগ: আবুধাবি

আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২