শিরোনাম

দেশের সব প্রবেশপথে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
তারা বিভিন্ন দেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছেন। তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে সবার নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য যে সমস্ত কার্যকরী

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন নিয়ে বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ বাড়ছে। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের প্রবেশপথগুলোতে সতর্কবার্তা দেওয়ার কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

আজ রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম এক বুলেটিনে বলেন, নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট প্রতিরোধে সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

তিনি বলেন, আমরা সবাই জেনেছি ওমিক্রন নামক দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে উৎপন্ন করোনার একটি নতুন ভ্যারিয়েন্টকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা উদ্বেগের কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছে। এরই মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ প্রতিকার ও প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। আমাদের সব পোর্ট অফ এন্ট্রিতে নির্দেশনা দিয়েছি।

নাজমুল ইসলাম বলেন, জাতীয় কারিগরি কমিটি, ন্যাশনাল ইমুনাইজেশন টেকনিক্যাল কমিটিসহ (নাইট্যাগ) স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বিভিন্ন পর্যায়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও সভা করছেন। তারা বিভিন্ন দেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছেন। তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে সবার নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য যে সমস্ত কার্যকরী উদ্যোগ নিতে হয় সেগুলো আমরা নেব। আমরা সবার সহযোগিতা নিয়ে এটি মোকাবিলা করতে চাই, করোনা মোকাবিলা করতে চাই।

সতর্ক বার্তায় তিনি আরও বলেন, কোনো অবস্থাতেই আত্মতুষ্টিতে ভোগার কোনো সুযোগ নেই। যেকোনো সময়েই সংক্রমণ বেড়ে যেতে পারে। তাই সংক্রমণ মোকাবিলায় ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি ও শিষ্টাচার মেনে চলতে হবে। নাক-মুখ ঢেকে সঠিক নিয়মে মাস্ক পরতে হবে এবং নিয়মিত সাবান পানি দিয়ে ২০ সেকেন্ড বা তার চেয়ে বেশি সময় হাত ধুতে হবে।

গত মঙ্গলবার দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাসের নতুন এ ধরনটি প্রথম শনাক্ত হয়। বুধবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর নাম দেয় ওমিক্রন

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



ছবি শেয়ার-ভয়েস মেসেজের জন্য নতুন ফিচার চালু করেছে ইমো

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ব্যবহারকারীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে ছবি শেয়ার ও ভয়েস মেসেজের জন্য নতুন ফিচার চালু করেছে ইমো।

নতুন ফিচারগুলো ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতায় পরিবর্তন আনবে বলে আশা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ইমো ছবি শেয়ারের দুটি নতুন অপশন- অরিজিনাল ইমেজ এবং হাই কোয়ালিটি যুক্ত করেছে।

এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানটি ডেটা সেভার মোডের জন্য ছবির ডেফিনিশন আরও উন্নত করার পেছনে কাজ করেছে। অন্যান্য ফিচারের মধ্যে ম্যানুয়ালি ইয়ার স্পিকার মোড, ভয়েস মেসেজিং ফাংশনটি ব্যবহারকারীদের জন্য চালু করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ইমো

আরও খবর



আইবুড়ো নাম মুছতে চলেছেন রুদ্রনীল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আইবুড়ো নাম মুছতে চলেছেন খুব শিগগিরিই? ৬ জানুয়ারি, রুদ্রনীল ঘোষের জন্মদিনের সকালে বড় খবর ফাঁস করেছেন প্রযোজক রানা সরকার। বিজেপির সদস্য নাকি বিয়ে করতে চলেছেন! তাঁর বক্তব্যের স্বপক্ষে রানা একটি ছোট্ট ভিডিয়ো ক্লিপিং পোস্ট করেছেন ফেসবুকে। সেখানে রুদ্রনীলকে নিজের মুখে বলতে শোনা গিয়েছে, বিয়ে করছি সেপ্টেম্বরের মধ্যেই! রানার এই পোস্ট দেখে প্রশ্ন তুলেছেন স্বয়ং রফিয়াদ রশিদ মিথিলা। তার রসিকতা, কোন বছরের সেপ্টেম্বরে সেটা বললে আয়োজনটা সে ভাবে নিতাম!

পুরোটাই রটনা না ঘটনা? কাকে বিয়ে করছেন টলিউডের এলিজেবল ব্যাচেলর? জানতে আনন্দবাজার অনলাইন যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিল অভিনেতা-রাজনীতিবিদের সঙ্গে। ফোনে সাড়া মেলেনি বার্থডে বয়-এর। তবে গত অক্টোবরে আনন্দবাজার অনলাইনের লাইভ আড্ডা অ-জানাকথায় তিনি নিজ মুখে বলেছেন, ‘‘বিয়েতে আমার আপত্তি নেই। হতেই পারে, আজ থেকে দু'তিন মাস পরে আমি বিয়ে করে নিলাম।’’ অর্থাৎ, বিয়েতে আপত্তি নেই তাঁর। আইবুড়ো থাকার পণও করেননি মোটেই।

সাল ২০১৭। বিয়ে করবেন বলে নিজেই ঘোষণা করেছিলেন রুদ্রনীল। পাত্রী, টলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী চক্রবর্তী। পরে যদিও সেই প্রেম ভেঙে গিয়েছে। রুদ্রনীল-তনুশ্রীর চার হাত এক হয়নি। কারণ হিসেবে তনুশ্রীর দাবি, তাঁর সহ-অভিনেতা বন্ধুটি নাকি বেড়ে পাকা! রুদ্রনীলের কী বক্তব্য? "আমরা খুব ভাল বন্ধু ছিলাম। কিন্তু সেই বন্ধুত্বকেই অন্য আকার-আকৃতিতে নিয়ে যেতে গিয়ে দেখলাম, স্বামী-স্ত্রী হয়ে গেলে অনেক কিছুতে বাধো বাধো ঠেকে। বন্ধু হিসেবে যে কথাগুলো অবলীলায় বলে ফেলা যায়, প্রেমের ক্ষেত্রে তা সম্ভব নয়। তাই আলাদা হয়ে গেলাম আমরা। ও এখন নতুন জীবনে পা রেখেছে। নতুন প্রেমিক আছে ওর। অনেক শুভেচ্ছা", এ কথাই শোনা গিয়েছে তাঁর মুখ থেকে।

নিউজ ট্যাগ: রুদ্রনীল ঘোষ

আরও খবর



করোনা আতঙ্কে কোন কোন ছবির মুক্তি স্থগিত?

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দীর্ঘ লকডাউনের ধাক্কা সামলে উঠে সবে একটু একটু করে ছন্দে ফিরছিল বিনোদন জগৎ। ধুঁকতে থাকা প্রেক্ষাগৃহগুলিও প্রাণ ফিরে পাচ্ছিল একাধিক ছবি মুক্তির হাত ধরে। সূর্যবংশী, স্পাইডারম্যান: নো ওয়ে হোম, পুষ্পা: দ্য রাইজ কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করেছে। নতুন বছরেও একাধিক বড় বাজেটের ছবি আসার কথা। কিন্তু দেশ জুড়ে ফের ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণের কারণে স্থগিত রাখা হয়েছে বেশ কয়েকটি ছবির মুক্তি। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন ছবির জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে সিনেমাপ্রেমীদের।

জার্সি: শাহিদ কপূর এবং ম্রুনাল ঠাকুর অভিনীত এই ছবি গত বছর ৩১ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল । করোনা উদ্বেগের মাঝে এই ছবির মুক্তি স্থগিত রাখার ঘোষণা করা হয়। বিবৃতি জারি করে প্রযোজনা সংস্থা জানায়, বর্তমান পরিস্থিতি এবং নতুন কোভিড বিধির কথা মাথায় রেখে আমরা আপাতত ছবির মুক্তি পিছিয়ে দিচ্ছি।

আরআরআর: ৭ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এস এস রাজামৌলি পরিচালিত এই ছবি। রাম চরণ, জুনিয়র এনটিআর, অজয় দেবগণ এবং আলিয়া ভট্ট অভিনীত আরআরআর নিয়ে আগাগোড়াই জোরদার উৎসাহ দর্শকমহলে। প্রথমে জানানো হয়েছিল, এই ছবি মুক্তির দিন পিছনো হবে না। কিন্তু ঘোষণার এক দিনের মাথায় সিদ্ধান্ত বদল করেন নির্মাতারা। একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, অনেক চেষ্টা করেছি আমরা। কিন্তু কিছু পরিস্থিতি তৈরি হয়, যা আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকে না। ভারতের একাধিক রাজ্যে প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ করে দেওয়ায় আমাদের কাছে আর কোনও রাস্তা নেই। তাই বাধ্য হচ্ছি, আপনাদের উত্তেজনায় বাধ সাধতে। ঠিক সময়ে ভারতীয় ছবির ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলাম।

ভীমলা নায়ক: দক্ষিণী অভিনেতা পবন কল্যাণের এই তেলুগু ছবি প্রেক্ষাগৃহে আসার কথা ছিল ১২ জানুয়ারি। কিন্তু প্রযোজক সংগঠন এবং আরআরআর ছবির প্রযোজকদের অনুরোধে মুক্তির দিন আপাতত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে এই ছবি বড় পর্দায় আনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দিল্লি, হরিয়ানার মতো রাজ্যে বন্ধ রাখা হয়েছে প্রেক্ষাগৃহ। রবিবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, সোমবার থেকে মোট আসনের ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে চালাতে হবে সিনেমা হল, থিয়েটার। খোলা রাখা যাবে রাত ১০টা পর্যন্ত। এমন অবস্থায় কাঙ্ক্ষিত ব্যবসা না হওয়ার আশঙ্কায় পিছিয়ে যাচ্ছে একের পর এক ছবির মুক্তি।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে নির্বাচনে থাকছে ৫ হাজারের বেশি পুলিশ-বিজিবি

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন শুরু বাকি আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। রবিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হবে এ সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।

নির্বাচনকে ঘিরে নিরাপত্তার বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেছেন, কাউকে কেন্দ্র দখল ও প্রভাব বিস্তার করতে দেওয়া হবে না। ভোটকেন্দ্রে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় থাকবে। নির্বাচনে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবিসহ পাঁচ হাজারের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন থাকবেন। একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে নিরাপত্তায় কঠোর অবস্থানে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইরে অবস্থিত জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা পুলিশ ও আনসার সদস্যদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মতিয়ুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, নির্বাচন উপলক্ষে একটি উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয়েছে। নির্বাচনের এই পরিবেশ কেউ ভঙ্গ করার চেষ্টা করবেন না। কেউ যদি বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করেন, তাহলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে। ভোটাররা নিশ্চিন্তে ভোট দিতে আসবেন, কোনও বাধা সৃষ্টি হবে না। সারা বিশ্ববাসী দেখবে, ঐতিহ্যবাহী এই নারায়ণগঞ্জের ভোট কতটা সুষ্ঠু হয়। এটা একটি মডেল নির্বাচন হবে। নির্বাচনে কোনও ধরনের ছাড় এবং অরাজকতা সৃষ্টি করার সুযোগ দেবো না। বহিরাগত কাউকে আমরা নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করতে দেবো না। প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটরা ও র‌্যাব সদস্যরা থাকবেন। ভোটের দিন জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে আপনাকে ভোট কেন্দ্রে যেতে দেওয়া হবে। ভোটের দিন অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র সঙ্গে নিয়ে বের হবেন।’

তিনি বলেন, নির্বাচনের দিন বহিরাগত কাউকে সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। ১৮ বছরের ওপরে যারা নারায়ণগঞ্জ থেকে বের হবেন- তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে।’

মেয়র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকারের অভিযোগের বিষয়ে এসপি বলেন, পুলিশ কোনও ব্যক্তি, দল বা গোষ্ঠীর হয়ে কাজ করছে না। কাউকে হয়রানি করা হচ্ছে না। যে সন্ত্রাসী বা মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’


আরও খবর



টিকা না নিলে স্কুল-কলেজে যাওয়া যাবে না

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন, ১২ বছরের বেশি বয়সী শিক্ষার্থীরা অন্তত এক ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা না নিলে স্কুল-কলেজে যেতে পারবেন না। বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

আজ ভার্চুয়ালি মন্ত্রিসভার বৈঠকে হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা বৈঠকে যোগ দেন। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেছেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় অলরেডি ইনস্ট্রাকশন দিয়েছে। ভ্যাকসিন ছাড়া কেউ স্কুল বা কলেজে আসতে পারবে না।

শিক্ষার্থীদের তো এখনও ভ্যাকসিন দেওয়াই হয়নি, সাংবাদিকদের এ কথার জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এখন আমাদের গ্রাম-গঞ্জ পর্যন্ত পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন আছে। যদি না থাকত, তাহলে হেলথ বিভাগকে ধরতাম।

তিনি আরও বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলে দিয়েছেন যে, ভ্যাকসিনেটেড না হলে শিক্ষার্থীরা স্কুলে যেতে পারবেন না। অন্তত এক ডোজ নিতে হবে।

এখন থেকে ১২ বছরের বেশি বয়সীদের স্কুলে যেতে হলে অন্তত এক ডোজ টিকা লাগবে, ম্যাসেজটা কি এমন? এ প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, জ্বি। আজকে নির্দেশনা দিয়ে দেওয়া হয়েছে। পরশুদিন আলোচনা হয়েছে। আজকে কনফার্ম করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা হলোযারা ভ্যাকসিন না নেবে, তারা স্কুল-কলেজে আসতে পারবে না। বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা ওনারা বলেননি।

সারা দেশে কি শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা আছে? এ প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, যেকোনো আইডি কার্ড নিয়ে গেলে করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারবে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর