Logo
শিরোনাম

দিল্লিতে ভবনে আগুন, নিহত ২৭

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতের পশ্চিম দিল্লির মুন্ডকা মেট্রো স্টেশনের কাছে একটি তিন তলা বাড়িতে আগুন লেগে ২৭ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি ও আনন্দবাজার।বাণিজ্যিক ভবনটিতে আগুন লাগার পর বিকালে আসে দমকল কর্মীরা। তাদের ২০টি ইউনিট রাত নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এখন চলছে উদ্ধার অভিযান। ইতোমধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে অন্তত ৬০ থেকে ৭০ জনকে।

দিনের ব্যস্ত সময়ে যখন আগুন লাগে, তখন বাড়িতে অনেকে ছিলেন। আগুন থেকে বাঁচতে বহুতল থেকে ঝাঁপ দিয়েছিলেন অনেকে। তাদের মধ্যে ৪০ জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কীভাবে আগুন লাগল তা এখনও স্পষ্ট নয় বলে জানা গেছে আনন্দবাজারের খবরে। তবে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এনডিটিভির খবরে জানা যায়, আগুনের শুরু ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি অফিস থেকে। সেখানে সিসিটিভি ক্যামেরা ও রাউটার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের অফিস ছিল।

আগুনের ঘটনায় শোক প্রকাশ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইট বার্তায় বলেছেন, দিল্লিতে মর্মান্তিক অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় অত্যন্ত মর্মাহত। শোকাহত পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করছি। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।

এছাড়া তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারের জন্য ২ লাখ ও আহতদের জন্য ৫০ হাজার রুপি করে দেওয়ার ঘোষণা দেন মোদি।

ভারতের প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দের কার্যালয় থেকে টুইট বার্তায় বলা হয়, দিল্লির মুন্ডকা মেট্রো স্টেশনের কাছে একটি ভবনে মর্মান্তিক অগ্নি দুর্ঘটনায় মর্মাহত। শোকাহত পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।


আরও খবর



পি কে হালদার ভারতে গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হাজার কোটি টাকা পাচারকারী এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক কেলেঙ্কারির মূল হোতা প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) ভারতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (১৪ মে) সকালের দিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা।

এর আগে পি কে হালদার ও তার সহযোগী সুকুমার মৃধার বিপুল সম্পদের সন্ধান পাওয়া গেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায়।

শুক্রবার (১৩ মে) পশ্চিমবঙ্গের অন্তত ৯টি স্থানে একযোগে অভিযান চালিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

জানা গেছে, বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট তথ্য ও বার্তা পেয়েই তল্লাশিতে সক্রিয় হয়েছে ভারতীয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বাংলাদেশ থেকে পলাতক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদারের পাঠানো বেআইনি অর্থ সুকুমার মৃধা নামের এক ব্যক্তির মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন শহরে সম্পত্তি কিনতে ব্যয় করা হয়েছিল। মূলত পিকে হালদারের খবর জানতে গিয়েই এদিন অশোকনগরে সুকুমার নামের ওই মাছ ব্যবসায়ীর বিপুল সম্পত্তির হদিস পেয়েছে ইডি।

এদিকে, মাস খানেক আগে পিকে হালদারের অর্থপাচারের সহযোগিতার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গর্ভনর এসকে সুর চৌধুরী ও সাবেক নির্বাহী পরিচালক শাহ আলমকে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অর্থ লুটপাটে এই দুজন পিকে হালদারকে সহযোগিতা করেছে বলে জবানবন্দি দিয়েছেন এক আসামি।

উল্লেখ্য, পিকে হালদারের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে এ পর্যন্ত ৩৪টি মামলা হয়েছে। তার সহযোগীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ১২ জনকে গ্রেপ্তারও করেছে দুদক। এদের মধ্যে ১০ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।


আরও খবর



চলতি হিসাব বছরে মুনাফা বেড়েছে ১৮৯ কোম্পানির

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশীয় উৎপাদন ও সেবা খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলো চলতি ২০২১-২২ হিসাব বছরে আগের চেয়ে ভালো মুনাফা করছে। এমন ১৮৯ কোম্পানির গত জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে সাকল্যে নিট মুনাফায় বেড়েছে ৬ দশমিক ৮৩ শতাংশ। আর গত বছরের জুলাই থেকে এ বছরের মার্চ পর্যন্ত ৯ মাসের হিসাবে মুনাফা বেড়েছে ১৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

বর্তমানে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ৩৪৯টি। এর মধ্যে দেশীয় উৎপাদন ও সেবা খাতের (আর্থিক খাত বাদে) মোট কোম্পানি ২২৭টি। বৃহস্পতিবার (৫ মে) পর্যন্ত ১৮৯টি কোম্পানি গত মার্চ প্রান্তিক শেষে অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তার ভিত্তিতেই এ হিসাব করা হয়েছে। নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার পরও ৩৮টি কোম্পানি এখনও আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা ১৮৯ কোম্পানির মধ্যে ৯ মাসের হিসাবে (জুলাই-মার্চ) ১৫০টি মুনাফায় আছে। এদের নিট মুনাফা ১০ হাজার ৩০২ কোটি টাকা, যা আগের হিসাব বছরের তুলনায় ২০ দশমিক ১৮ শতাংশ বেশি। তবে সর্বশেষ জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে নিট মুনাফা বেশি হয়েছে ৭ দশমিক ৭৯ শতাংশ। আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা কোম্পানিগুলোর মধ্যে ৩৯টি লোকসানে আছে। ৯ মাসে তাদের মোট লোকসানের পরিমাণ ৩২৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে সর্বশেষ জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে লোকসান ছিল ১১২ কোটি টাকা।

জানা গেছে, ৯ মাসের মধ্যে প্রথম ৬ মাসের মুনাফার প্রবৃদ্ধি বেশি হওয়ার কারণ হলো আগের একই সময়ে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বেশিরভাগ কোম্পানির ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত ছিল। কিন্তু ২০২১ সাল থেকে ব্যবসা-বাণিজ্য অনেকটাই স্বাভাবিক পর্যায়ে এসেছে। ফলে চলতি হিসাব বছরের প্রথম ৬ মাসে যত প্রবৃদ্ধি হয়েছে, জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে তত হয়নি।

পর্যালোচনায় আরও দেখা গেছে, ৯ মাসের হিসাবে যেসব কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) সবচেয়ে বেশি বেড়েছে, সেগুলোর বেশ কিছু দুর্বল মৌল ভিত্তির কোম্পানি হিসেবে পরিচিত। যেমন তথ্য-প্রযুক্তি খাতের ইনফরমেশন সার্ভিসেসের ইপিএস হয়েছে ৪৩ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরের তুলনায় ১৪ গুণের বেশি। গত হিসাব বছরের একই সময়ে ছিল মাত্র ১৩ পয়সা। এভাবে বস্ত্র খাতের মোজাফফর হোসেইন স্পিনিং মিলসের ১২ পয়সা থেকে ১ টাকা ৭২ পয়সা হয়েছে। এ তালিকায় আছে- বাংলাদেশ মনোস্পুল পেপার, সোনালী পেপার, পেপার প্রসেসিং, দেশ গার্মেন্টস, তমিজুদ্দিন টেক্সটাইল, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, দেশবন্ধু পলিমার, গোল্ডেন সন, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস ইত্যাদি। এসব কোম্পানির ইপিএস ২ থেকে ৯ গুণ হয়েছে।

স্বাভাবিক ব্যবসায় ফেরার কারণে আরও অনেক কোম্পানির নিট মুনাফা ও ইপিএসে বড় প্রবৃদ্ধি হয়েছে। যেমন- প্রকৌশল খাতের কোম্পানি বিবিএসের ইপিএস ১০ পয়সা থেকে ১৪ গুণ বেড়ে ১ টাকা ৪২ পয়সা হয়েছে। আবার পর্যটন ও ভ্রমণ খাতের কোম্পানি ইউনিক হোটেল আগের বছর যেখানে শেয়ারপ্রতি ২৬ পয়সা লোকসান করেছিল, চলতি হিসাব বছরের প্রথম ৯ মাসে ৩ টাকা ৬ পয়সা হারে মুনাফা করার তথ্য দিয়েছে।

এদিকে মুনাফায় আছে, কিন্তু আগের হিসাব বছরের তুলনায় কমে যাওয়ার শীর্ষে আছে আর্গন ডেনিমস। আগের হিসাব বছরের ৯ মাসে যেখানে এর ইপিএস ছিল ১ টাকা ৩ পয়সা। চলতি হিসাব বছরের একই সময়ে যা ৪ পয়সায় নেমেছে। সরকারি মালিকানাধীন ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসও একই অবস্থায়। কোম্পানিটির ইপিএস ৩১ টাকা ৮১ পয়সা থেকে কমে ২ টাকা ৮১ পয়সায় নেমেছে। ইপিএস কমার তালিকায় আরও আছে সিমেন্ট খাতের প্রিমিয়ার ও ক্রাউন সিমেন্ট, প্রকৌশল খাতের বিডি থাই, কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজ, ডমিনেজ স্টিল, এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল মিলস, মীর আকতার লিমিটেড ইত্যাদি। এ ছাড়া তালিকাভুক্ত ল্যুবরেফ, এমএল ডাইং, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, এস কে ট্রিমস, সামিট পাওয়ার এবং নাভানা সিএনজি রিফুয়েলিং কোম্পানির ইপিএসও উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে।

নিউজ ট্যাগ: নিট মুনাফা

আরও খবর



ইউক্রেনে ৪০ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা অনুমোদন মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের জন্য ৪০ বিলিয়ন ডলারের একটি সহায়তা প্যাকেজের অনুমোদন দিয়েছে মার্কিন কংগ্রেস নিম্নকক্ষ। ৩৬৮-৫৭ ভোটের ব্যবধানে এটির অনুমোদন দিয়েছেন কংগ্রেস সদস্যরা। বুধবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

সাহায্য প্যাকেজ ইস্যুতে ভোটদানকারী ডেমোক্র্যাটদের সবাই এই প্রস্তাবের পক্ষে রায় দিয়েছেন। রিপাবলিকান পার্টির প্রতি চার জনের মধ্যে তিন জনই এটিতে সমর্থন দিয়েছেন।

এর আগে গত মার্চে ইউক্রেনকে ১৩.৬ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দেয় মার্কিন কংগ্রেস। নতুন সহায়তা প্যাকেজটি পাস হওয়ায় দুই দফায় ইউক্রেনে মার্কিন সহায়তার পরিমাণ দাঁড়াবে প্রায় ৫৪ বিলিয়ন ডলার।

এদিকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত এবং পূর্বাঞ্চলীয় ডনবাসে রাশিয়ার বিজয়ে এই যুদ্ধ থামবে না বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন গোয়েন্দা প্রধান আভরিল হেইনেস এমন সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেছেন।

ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স-এর প্রধান আভরিল হেইনেস সিনেটের এক শুনানিতে বলেছেন, আগামী কয়েক মাসে রাশিয়ার সামরিক কর্মকাণ্ড বাড়তে পারে এবং তা আরও অনিশ্চয়তার দিকে অগ্রসর হতে পারে। চলমান প্রবণতা পুতিনকে আরও কঠোর পথে ধাবিত করছে।

তিনি জানান, রাশিয়া মলদোভার বিচ্ছিন্নতাবাদী অঞ্চল ট্রান্সনিস্ট্রিয়ার সঙ্গে একটি স্থল করিডোর স্থাপন করতে চাইতে পারে। পরিস্থিতির আলোকে রাশিয়াতে এমনকি মার্শাল ল জারিরও ঘোষণা দিতে পারেন পুতিন।


আরও খবর



আরেক দফা বাড়ল ১০ পণ্যের দাম

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কয়েকদিন ধরে তেল কিনতে নাজেহাল হচ্ছেন ভোক্তা। সঙ্গে নতুন করে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে পেঁয়াজের দাম। শুধু এই দুটি পণ্য নয়, সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে চাল থেকে শুরু করে ডাল, চিনি, আটা-ময়দা, আদা-রসুন, আলু, সব ধরনের মাংস, ডিম ও গুঁড়াদুধসহ ১০ পণ্যের দাম বেড়েছে আরেক দফা। ফলে এসব পণ্য কিনতে ভোক্তার করুণদশা।

তারা বলছেন, আয় বাড়ছে না বরং ব্যয় প্রতি সপ্তাহেই বাড়ছে। বাজারসংশ্লিষ্টরা বলছেন, পণ্যের দাম বাড়াতে ব্যবসায়ীদের এখন আর কোনো ইস্যু লাগে না। তারা চাইলেই অবৈধ মজুত করে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে, বাড়াচ্ছে দাম। তাই কঠোরভাবে তদারকি না করলে ক্রেতারা কোনো ধরনের সুফল পাবে না। রাজধানীর কাওরান বাজার, নয়াবাজার, জিনজিরা বাজার ও মালিবাগ কাঁচাবাজার ঘুরে খুচরা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে বেশ কয়েকটি পণ্যের বাড়তি দর জানা গেছে।

বিক্রেতারা বলছেন, এসব পণ্যের দাম ঈদের পর বেড়েছে। সেগুলোর মধ্যে ঈদের আগে যে মসুর ডাল (ছোট দানা) ১২০ টাকা বিক্রি হয়েছে তা শুক্রবার ১৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। বড় দানার মসুর ডাল কেজিতে ৫-১০ টাকা বেড়ে ১১০-১১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পাশাপাশি প্রতিকেজি খোলা চিনি মানভেদে ২-৪ টাকা বেড়ে ৮২-৮৪ টাকায় বিক্রি হয়েছে। প্রতিকেজি খোলা আটা ২-৫ টাকা বেড়ে ৪২-৪৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। খোলা ময়দা কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে ৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

এছাড়া খুচরা বাজারে প্রতিকেজি আলুর দাম ৫ টাকা বেড়ে ২৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ শুক্রবার ৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৩৫ টাকা। আমদানি করা পেঁয়াজ কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে ৪৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আর প্রতিকেজি দেশি ও আমদানি করা আদা ১০ টাকা বেড়ে ১৫০ ও ১৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। পাশাপাশি প্রতিকেজি দেশি রসুন ২০ টাকা বেড়ে ১০০-১১০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। দাম বাড়ার তালিকায় শুকনা মরিচও যোগ হয়েছে। কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে বিক্রি হয়েছে ২২০-২৪০ টাকা। বাজারে নতুন করে মুরগি ও গরুর মাংসের দামও বেড়েছে। কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগির দাম এখন ১৮০ টাকা। ঈদের আগে ৭০০ টাকা কেজিদরে প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হলেও এখন সর্বোচ্চ ৭২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। বাজারে ডিমের দামও বেড়েছে। প্রতি হালি (৪ পিস) ফার্মের ডিম এক সপ্তাহ আগে ৩৬ টাকা বিক্রি হলেও শুক্রবার ৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। কোম্পানিভেদে প্রতিকেজি গুঁড়াদুধ ৬৫০-৬৯০ টাকা বিক্রি হলেও খুচরা বাজার ও পাড়া-মহল্লার মুদি দোকানে এখন বিক্রি হচ্ছে ৬৯০-৭৫০ টাকা। আর রাজধানীর খুচরা বাজারে প্রতিলিটার বোতল সয়াবিন বিক্রি হয়েছে ২০০-২১০ টাকা।

জানতে চাইলে কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান  বলেন, পণ্যের দাম কী কারণে বাড়ছে তার সুনির্দিষ্ট কারণ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে বের করতে হবে। কোথায় কোথায় অভিযান পরিচালনা করতে হবে তার রোডম্যাপ তৈরি করতে হবে। পাশাপাশি কঠোরভাবে তদারকি না করলে ভোক্তা কখনো সুফল পাবে না।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান কে বলেন, সার্বিকভাবে তদারকি করে বাজারে পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে আনা হচ্ছে। সুনির্দিষ্ট কিছু কারণে অধিদপ্তর ফৌজদারি মামলা করতে পারে না। কারণ তদারকিকালে অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে কোনো ম্যাজিস্ট্রেট থাকে না। তবে আমাকে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে কঠোর অবস্থানে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমাকে বলা হচ্ছে, কেন শুধু জরিমানা করা হচ্ছে? কেন বিশেষ ব্যবস্থায় মামলা করা হচ্ছে না? আমরা সেই দিকে যাচ্ছি। এবার অনিয়ম রোধে জরিমানার সঙ্গে মামলা দিয়ে অসাধুদের জেলে দেওয়া হবে।

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি পাঠানো প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চট্টগ্রামে তেলের পর এবার পেঁয়াজ নিয়ে চলছে অস্থিরতা। পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে প্রতিদিনই ২-৩ টাকা করে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। গত রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত পাঁচ দিনের ব্যবধানে কেজিপ্রতি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১২ টাকা। ব্যবসায়ীদের দাবি, ইমপোর্ট পারমিটের (আইপি) মেয়াদ শেষ হওয়ায় বন্ধ রয়েছে পেঁয়াজের আমদানি। এ কারণে বাজারে পেঁয়াজ সংকট সৃষ্টি হওয়ায় দাম বাড়ছে। তবে কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) দাবি-পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি পুরোপুরি ব্যবসায়ীদের কারসাজি। তারা কখনো তেল, কখনো পেঁয়াজ, আবার কখনো আলু কিংবা অন্য পণ্য নিয়ে খেলছে।

মধ্যম চাকতাই এলাকায় অবস্থিত এইচজে ট্রেডার্সের মালিক দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, আইপি বন্ধ থাকায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রয়েছে। এ কারণে দাম বাড়ছে। খাতুনগঞ্জে আগে যেখানে প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ ট্রাক পেঁয়াজ আসত, বর্তমানে আসছে মাত্র ১০-১৫ ট্রাক করে। সীমান্তের বিভিন্ন গুদামে মজুত থাকা পেঁয়াজ এখন খাতুনগঞ্জে আনা হচ্ছে। গত রবিবার খাতুনগঞ্জে ভারতীয় পেঁয়াজ প্রতিকেজি বিক্রি হয় ২৮ থেকে ৩০ টাকায়। দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয় ২৫ থেকে ২৬ টাকায়। গত পাঁচ দিনের ব্যবধানে বৃহস্পতিবার ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি বিক্রি হয় ৩৮ থেকে ৩৯ টাকায় আর দেশি পেঁয়াজ ৩২ থেকে ৩৩ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

এদিকে পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে খুচরা বাজারেও বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকায়। দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা ৪২ টাকায়। চাকতাই-খাতুনগঞ্জ ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কাসেম বলেন, আইপির মেয়াদ শেষ হওয়ায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আসছে না। এ কারণে দেশে পেঁয়াজ সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। প্রতিদিনই দাম বাড়ছে। বর্তমানে বাজারে দেশি পেঁয়াজের পাশাপাশি আছে ভারতীয় পেঁয়াজ। ভারত ছাড়া অন্য কোনো দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে না। এখন মিয়ানমার থেকেও পেঁয়াজ আনার কথা চলছে। এ বিষয়ে ১৪ মে ব্যবসায়ীদের বৈঠক রয়েছে। সেখানে সিদ্ধান্ত হতে পারে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আসবে কিনা।

নিউজ ট্যাগ: পেঁয়াজের দাম

আরও খবর



নাটকীয় জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে লিভারপুল

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রতিপক্ষের মাঠে মঙ্গলবার রাতে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিভারপুল জিতল ৩-২ গোলে। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-২ গোলের অগ্রগামিতায় প্যারিসের ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করল ইংলিশ দলটি। মৌসুমে চার শিরোপা জয়ের সম্ভাবনাও বাঁচিয়ে রাখল লিভারপুল।

বোলায়ে দিয়া ও ফ্রান্সিস কোকেলিনের গোলে পিছিয়ে পড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে ১২ মিনিটের মধ্যে লিভারপুলের তিন গোল করেন ফাবিনিয়ো, লুইস দিয়াস ও সাদিও মানে।

 প্রথম লেগে ২-০ গোলের জয়ে আত্মবিশ্বাস নিয়েই স্পেনে নেমেছিল অলরেডরা। কিন্তু ঘরের মাঠে নিজ সমর্থকদের সামনে ৪১ মিনিটের মধ্যে ২ গোলে এগিয়ে যায় ভিয়ারিয়াল। বোউলাইয়া দিয়া ও ফ্রান্সিস কোকুলিনের গোল স্বাগতিকদের আশা দেখায়। তবে দ্বিতীয়ার্ধে অন্য লিভারপুল। ম্যাচে ব্যবধান কমান ফাবিনহো আর এগিয়ে দেন দুই লেগের গোল সংখ্যায়।

লুইস দিয়াজ আর সাদিও মানে আরও দুই গোল করে লিভারপুলের জয়ের সঙ্গে ফাইনাল নিশ্চিত করেন। এ মৌসুমে লিগ কাপ জিতেছে লিভারপুল। আশা আছে এফ কাপ, ইংলিশ লিগ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতারও। কোনো ইংলিশ ক্লাব এক মৌসুমে একসঙ্গে চার ট্রফি জিততে পারেনি।

কোয়াড্রপলের পথে দারুণভাবে ছুটে চলা লিভারপুল পাঁচ মৌসুমের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠল।

আরেক সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার সিটির মধ্যে জয়ী দলের বিপক্ষে ২৮ মে শিরোপা লড়াইয়ে নামবে ক্লপের দল। প্রথম লেগে ৪-৩ গোলে জেতা সিটি বুধবার মাদ্রিদে খেলবে।


আরও খবর