Logo
শিরোনাম

দিনমজুর বাবার যমজ ছেলে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে উপজেলার মান্দারগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পায় আরিফ ও শরিফ। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি হয় কুমিল্লা সরকারি সিটি কলেজে

দিনমজুর বাবার যমজ দুই ছেলে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাদের বাড়ি কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার মানরা গ্রামে। তাদের দিনমজুর বাবার নাম বিল্লাল হোসেন। পেশায় তিনি অটোরিকশা চালক। তার যমজ দুই ছেলে আরিফুল ইসলাম ও শরিফুল ইসলাম এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।

২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে উপজেলার মান্দারগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পায় আরিফ ও শরিফ। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি হয় কুমিল্লা সরকারি সিটি কলেজে। সেখান থেকেও এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পায় এই যমজ দুই ভাই। দিনমজুর বাজার আয়ে চার সন্তানের লেখাপড়া খরচ ছাড়াও সংসার চলে।

আরিফ সারা বাংলাদেশে ৮২২তম হয়ে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে, শরিফ ১১৮৬তম হয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। তারা চিকিৎসক হয়ে মানুষের সেবা করতে চান।

বাবা বিল্লাল হোসেন জানান, নিজে ইন্টারমিডিয়েট পাস করেছি। সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালাই। অর্থাভাবে লেখাপড়া হয়নি। সেজন্য নিজে কষ্ট করেও তাদের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তবে ছেলেদের পড়ার খরচ নিয়ে তিনি উদ্বিগ্ন।


আরও খবর



নারীর প্রতি যৌন সহিংসতার প্রতিবাদে উত্তাল অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
অস্ট্রেলিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ক্রিশ্চিয়ান পোর্টার ১৯৮৮ সালে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছিলেন। যদিও অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন পোর্টার। এ ছাড়া অপর আরেক ঘটনায় ব্রিটানি

অস্ট্রেলিয়ায় নারীদের ওপর যৌন নির্যাতন ও নিপীড়নের প্রতিবাদে আজ সোমবার দেশজুড়ে প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নিয়েছে লাখো মানুষ। অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টসহ বিভিন্ন স্থানে যৌন নির্যাতনের অভিযোগের ঘটনা সম্প্রতি সামনে আসার প্রেক্ষাপটে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছে। অস্ট্রেলিয়ার ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তোলা হচ্ছে। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

সাম্প্রতিক প্রতিবাদ মিছিল প্রথম আয়োজন করা হয় এক সপ্তাহ আগে। এর আগে গত মাসের শেষদিকে অস্টেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনকে পাঠানো একটি চিঠিতে জানানো হয়, অস্ট্রেলিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ক্রিশ্চিয়ান পোর্টার ১৯৮৮ সালে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছিলেন। যদিও অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন পোর্টার। এ ছাড়া অপর আরেক ঘটনায় ব্রিটানি হিগিন্স নামের সাবেক একজন রাজনৈতিক উপদেষ্টা গত মাসে অভিযোগ করেন তিনি ২০১৯ সালে এক মন্ত্রীর কার্যালয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। ওই অভিযোগেও জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

আজকের বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন ব্রিটানি হিগিন্স। তিনি পার্লামেন্ট হাউসের বাইরে হাজারো প্রতিবাদকারীর উদ্দেশে বলেন : অস্ট্রেলিয়ায় নারীদের যৌন সহিংসতার শিকার হওয়াকে সমাজে মেনে নেওয়ার মতো ভয়াবহ বিষয় জারি রয়েছে। আমার সঙ্গে হওয়া ঘটনাটি গণমাধ্যমসহ সবার সামনে আনার একটাই কারণ, তা হলো- দুঃখজনক হলেও নারীদের মনে করিয়ে দেওয়া যে, এমন কিছু পার্লামেন্ট হাউসেও ঘটতে পারে, এবং ঘটতে পারে আসলে যেকোনো স্থানেই

যেভাবে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ হচ্ছে

অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক প্রতিবাদ পদযাত্রা বা মিছিল মার্চ ৪ (ফোর) জাস্টিস নামে পরিচিত। স্থানীয় সময় আজ সোমবার দুপুর থেকে অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরা, সিডনি, মেলবোর্নসহ ছোট-বড় ৪০টি শহর ও নগরে এই প্রতিবাদ মিছিল শুরু হয়। আয়োজকেরা বলছেন, এই প্রতিবাদ মিছিল অস্ট্রেলিয়ার ইতিহাসের সর্ববৃহৎ নারী-বিদ্রোহ হতে যাচ্ছে।

অনেক বিক্ষোভকারী হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে ও কালো জামা পরে পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন। মেলবোর্নে বিক্ষোভকারীরা একটি দীর্ঘ ব্যানার হাতে নিয়েছেন যেখানে গত কয়েক দশকে নির্যাতনে নিহত নারীদের নামের তালিকা লেখা হয়েছে। ক্যানবেরার আয়োজকরা একটি পিটিশন দায়েরের পরিকল্পনা করেছেন। পার্লামেন্টে যৌনতাবাদী আচরণের জবাবদিহি চেয়ে ৯০ হাজারেরও বেশি নারী এ পিটিশনে স্বাক্ষর করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

বিক্ষোভকারীরা ক্রিশ্চিয়ান পর্টারের পদত্যাগ দাবি করেছেন। তার বিরুদ্ধে তদন্তের মামলা পুলিশ নিষ্পত্তি করেছে। কিন্তু অন্যরা আরেকটি পৃথক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: অস্ট্রেলিয়া

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




আজকের দিনটি কেমন যাবে?

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পুরনো জ্যোতিষশাস্ত্রের এমন একটি ধরন, যার মাধ্যমে বিভিন্ন সময়কাল নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। যেমন দৈনিক রাশিফল প্রতিদিনের ঘটনার ভবিষ্যকথন করে, তেমন সাপ্তাহিক, মাসিক তথা বার্ষিক রাশিফল যথাক্রমে সপ্তাহ, মাস এবং বছরের ভবিষ্যদ্বাণী করে। বৈদিক জ্যোতিষে ১২টি রাশি- মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ ও মীন-এর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। একই রকমভাবে ২৩টি নক্ষত্রেরও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়ে থাকে।

মেষ: জনসংযোগ ও প্রচারমূলক কাজে অগ্রগতি। কোনো ইতিবাচক সংবাদে উত্ফুল্ল হবেন। অন্যের ওপর আবেগপ্রসূতভাবে নির্ভর করবেন না। জীবন সম্পর্কে আশাবাদী দৃষ্টিভঙ্গি অব্যাহত রাখুন।

বৃষ: বেকারদের কাজের যোগাযোগ আসতে পারে। ভুল তথ্যের কারণে বিভ্রান্ত হতে পারেন। সিদ্ধান্তে স্থির থাকতে পারবেন না। সঠিক প্রচেষ্টায় পরিবর্তন সম্ভব। মনকে প্রফুল্ল রাখুন।

মিথুন: আকস্মিক প্রাপ্তির সম্ভাবনা আছে। কর্মসূত্রে উন্নতির যোগ। প্রেমের বাধা মিটবে। প্রতিকূল পরিস্থিতি হঠাৎ পরিবর্তনের ইঙ্গিত রয়েছে। আর্থিক ব্যাপারে সচেতন থাকুন।

কর্কট: জমি ও আবাসনসংক্রান্ত আলোচনায় অগ্রগতি। আর্থিক অবস্থা গতানুগতিক। কোনো কিছু নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগতে পারেন। দাম্পত্য জীবন শুভ। সময়ের সঠিক ব্যবহার করুন।

সিংহ: কর্মক্ষেত্রে যোগাযোগ বৃদ্ধি ও অর্থোন্নতির ক্ষেত্রে অনুকূল দিন। অযাচিত কিছু অর্থ হাতে আসতে পারে। আত্মীয়ের ব্যাপারে দুশ্চিন্তা বাড়বে। স্বাস্থ্য রক্ষায় মনোযোগ দিন। ভ্রমণ শুভ।

কন্যা: কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব বাড়বে। আর্থিক অবস্থার উন্নতি। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় অন্যের সহযোগিতা পাবেন। ব্যবসায় জটিলতা কাটবে। নতুন অভিজ্ঞতা দূর ভবিষ্যতে পুরস্কৃত করবে।

তুলা: বিশেষ প্রচেষ্টায় সাফল্যের যোগ। নিজের ওপর আস্থা বাড়বে। আয় কমবেশি বাড়বে। কাজে বাধা থাকলেও দীর্ঘস্থায়ী হবে না। নতুন পরিকল্পনার অগ্রগতি হবে।

বৃশ্চিক: কাজের চাপ থাকবে। কোনো কিছু নিয়ে অনিশ্চয়তায় থাকতে পারেন। ব্যয় বাড়বে। কর্মপরিবেশ মাঝেমধ্যে প্রতিকূল হতে পারে। সময়ের সঠিক ব্যবহার করুন। সুস্থ থাকুন।

ধনু: কোনো আশা পূরণ হতে পারে। আয়ের নতুন কোনো উৎস খুঁজে পাবেন। বন্ধুর সহযোগিতার আশ্বাস পাবেন। পুরনো সমস্যা কিছুটা মিটবে। শরীরের যত্ন নেবেন। ভালো থাকবেন।

মকর: কোনো লাভজনক কাজের সুযোগ আসতে পারে। কর্মক্ষেত্রে সম্মান বৃদ্ধি। প্রেমে হতাশা, নতুন ধ্যান-ধারণা জন্ম নেবে। পাওনা আদায়ে অগ্রগতি। সুযোগের সদ্ব্যবহার করুন।

কুম্ভ: কোনো প্রচেষ্টার ফল পেতে পারেন। নতুন কিছু করার সুযোগ আসবে। কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব বৃদ্ধি। ব্যবসায়ীদের বাড়তি আয়ের সম্ভাবনা। গঠনমূলক চিন্তা করুন, ভালো থাকুন।

মীন: সামাজিক যোগাযোগ বাড়বে। কোনো সুযোগ হাতছাড়া হতে পারে। প্রত্যাশিত অর্থাগমে বাধা। স্বার্থের পরিপন্থীতে কারো অনুরোধ রক্ষা। মতবিরোধ আছে এমন মানুষ এড়িয়ে চলুন।


আরও খবর



মিয়ানমারে ১৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিল সেনাবাহিনী

প্রকাশিত:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
আমাদের এলাকার লোকজন জানত ওরা আসবে এবং এর জন্য রাতভর অপেক্ষা করছিল। সেনারা ভারী অস্ত্র ব্যবহার করেছে। এমনকি আমরা মর্টার শেলও পেয়েছি। মেশিনগান থেকে প্রচুর গুলি করা হয়েছে

আর্মি ক্যাপ্টেনের এক সহযোগীকে হত্যার অভিযোগে মিয়ানমারে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে দেশটির জান্তা সরকার। সেনাবাহিনীর মালিকানাধীন টেলিভিশন মায়োয়াড্ডি টিভি শুক্রবার জানিয়েছে, ১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর প্রকাশ্যে প্রথম এমন সাজা দেয়া হল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২৭ মার্চ ইয়াঙ্গুনের উত্তর ওক্কালপা জেলায় ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আল-জাজিরা জানিয়েছে, শুক্রবার রাতভর অভিযান চালিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। এসময় তাদের নির্বিচার গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৬০ জন।

ভুক্তভোগী পরিবার বা স্থানীয়রা নিহত সবার মরদেহ সংগ্রহ করতে পারেনি। মরদেহগুলো বেশিরভাগই নিরাপত্তা বাহিনী নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিক্ষোভকারীদের দমনে জান্তা বাহিনী বন্দুকের পাশাপাশি মেশিনগানের গুলি, গ্রেনেড এবং মর্টার ব্যবহার করেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, আমাদের এলাকার লোকজন জানত ওরা আসবে এবং এর জন্য রাতভর অপেক্ষা করছিল। সেনারা ভারী অস্ত্র ব্যবহার করেছে। এমনকি আমরা মর্টার শেলও পেয়েছি। মেশিনগান থেকে প্রচুর গুলি করা হয়েছে।

সপ্তাহখানেক আগে দেশটির প্রত্যন্ত এলাকার বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলি সেনা-বিরোধী বিক্ষোভে দেশের গণতন্ত্রকামী সাধারণ মানুষের পাশে থাকার বার্তা দেয়ার পর মৃতের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। প্রায় ৭০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে সেখানে। সেনা-পুলিশের গুলি বর্ষণের বিরুদ্ধে নিজেদের তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র হাতে রুখে দাঁড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা।


আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




শুক্রবার মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা: নিষিদ্ধ ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
স্বচ্ছ মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি। যারা যোগ্য তারাই এই পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তির সুযোগ পাবেন। করোনা ভাইরাসের কারণে গণপরিবহনে আসন সংখ্যার অর্ধেক

সারাদেশে ২ এপ্রিল (শুক্রবার) সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত একযোগে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষার্থীদের মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি। এর পাশাপাশি পরীক্ষা নকলমুক্ত রাখতে কেন্দ্রে সকল ধরনের ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস নিয়ে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা মহানগরের ১৫টি কেন্দ্রে ৪৭ হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

গতকাল বুধবার (৩১ মার্চ) ডিএমপি সদর দপ্তরে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমন্বয় সভা করেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। সভায় পরীক্ষার বিষয়ে বিভিন্ন নির্দেশনা দেওয়া হয়।

ডিএমপি জানায়, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীদের মাস্ক পরে কেন্দ্রে আসার জন্য নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রের প্রবেশপথে তাপমাত্রা পরিমাপের জন্যে থার্মাল স্ক্যানার, জীবাণুনাশক, অটো স্প্রে মেশিনসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা থাকবে।

এছাড়া, মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বেশ কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকবে। একই সঙ্গে প্রতিটি কেন্দ্রে থাকবে মোবাইল কোর্ট। পরীক্ষার্থীরা প্রবেশপত্র ছাড়া অন্য কোনো কাগজ সঙ্গে নিতে পারবেন না। কেন্দ্রে প্রবেশের সময় সব পরীক্ষার্থীর দেহ তল্লাশি করে প্রবেশ করানো হবে। কেন্দ্র ইনচার্জ ছাড়া কেউ মোবাইল ফোন কাছে রাখতে পারবে না। তল্লাশি কাজে থাকবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা।

ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে সব ধরনের গুজব বা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো রোধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন অ্যাপসভিত্তিক (হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার, ভাইভার, ইমো) যোগাযোগ মাধ্যম মনিটরিং করবে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ।

সভায় ডিএমপি কমিশনার বলেন, একটি স্বচ্ছ মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি। যারা যোগ্য তারাই এই পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তির সুযোগ পাবেন। করোনা ভাইরাসের কারণে গণপরিবহনে আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনে সরকারি নির্দেশনা আছে। ফলে পরিবহন সংকট দেখা দিতে পারে। পরিস্থিতি বিবেচনায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীরা অবশ্যই পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিতে হবে। যাতে পরীক্ষার্থীরা সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে পারেন।

আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, পুলিশের যে সব সদস্য মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় ডিউটিতে নিয়োজিত থাকবেন, তাদেরও অবশ্যই মাস্ক পরাসহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।


আরও খবর



মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী থেকে আব্দুল বশির ডলার
রাজশাহীতে মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে নজরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো. মনসুর আলম এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নজরুল ইসলাম রাজপাড়া থানার বাজে সিলিন্দা এলাকার মৃত খবির উদ্দীনের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১৪ মে ভোরে নজরুল ইসলামের স্ত্রী একটি ছাত্রাবাসে রান্নার কাজ করছিলেন। ওই সময় তার কিশোরী (১৫) মেয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। এসময় নজরুল ইসলাম ঘরে ঢুকে মেয়ের গলায় ছুরি ধরে তাকে ধর্ষণ করেন। এসময় ঘটনা প্রকাশ করলে মেয়েকে হত্যারও হুমকি দেন নজরুল ইসলাম। ঘটনার পর পরই নজরুল পালিয়ে যান। পরে মেয়েটি অসুস্থ হলে চিকিৎসকের পরামর্শে আলট্রাসনোগ্রাম করা হয়। এতে মেয়েটি গর্ভবতী বলে রিপোর্ট আসে। ওই বছরের ২২ নভেম্বর মেয়েটি টিউবয়েলের পানি তুলতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে গেলে তার গর্ভপাত হয়। পরে ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি মেয়েটির মা বাদী হয়ে নজরুল ইসলামকে আসামি করে রাজপাড়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও আসামির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হলে আদালত আসামির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি রাশেদ উন নবী আহসান বলেন, এটা  খুবই নিকৃষ্ট একটি ঘটনা। এ ঘটনায় ১৬৪ ধারায় আসামি নিজেই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। ১১ জন স্বাক্ষী তার বিরুদ্ধে জবানবন্দি দিয়েছেন। আদালত উপযুক্ত শাস্তি দিয়েছেন তাকে।

তবে আসামি পক্ষের আইনজীবি শরিফুল ইসলাম বাবু বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় সে সময় ডিএনএ পরীক্ষা হয়নি। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।



আরও খবর