Logo
শিরোনাম

দুই কোম্পানির দুই ডোজ টিকা নেওয়া যাবে?

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনার টিকা নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা ও বিভ্রান্তি। ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট থেকে কোভিশিল্ড টিকার চালান আবার কবে আসবে তা নিশ্চিত জানা যায়নি এখনও। অনিশ্চয়তার মধ্যেই রাশিয়ার স্পুটনিক ও চীনের সিনোফার্মাকে টিকার জন্য জরুরি অথোরাইজেশন দেওয়া হয়েছে। ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর জানিয়েছে, স্পুটনিকের ৪০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন আসবে মে মাসেই।

দেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ যতো মানুষ নিয়েছেন তারা সঠিক সময়ে একই টিকার দ্বিতীয় ডোজ পাবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। আবার দ্বিতীয় ডোজের টিকা অন্য কোম্পানির নিলে টিকার কার্যকারিতা থাকবে কিনা তা নিয়েও রয়েছে অনাস্থা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবচেয়ে ভালো হয় একই কোম্পানির দুই ডোজ টিকা নিতে পারলে। দুই কোম্পানির দুই ডোজ টিকার সুফল বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে এখনও গবেষণালব্ধ ফল পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে মতভেদ রয়েছে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যেও।

দুই কোম্পানির দুই ডোজ দেওয়া যাবে কিনা এমন প্রশ্নে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিশেষজ্ঞ বললেন, ভ্যাকসিনের ইতিহাসে এমন ঘটনা দুই-তিনবার ঘটেছে। সরবরাহে সমস্যার কারণে এমনটা হয়েছিল। এটার পেছনে বৈজ্ঞানিক কোনও যুক্তি নেই।

অন্য কোম্পানির টিকা নিয়ে যা জানালেন বিশেষজ্ঞরা

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠন (আইইডিসিআর)-এর উপদেষ্টা ও মহামারি বিশেষজ্ঞ ডা. ‍মুশতাক হোসেন বলেন, এক কোম্পানির টিকাই নিতে হবে। অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ২০ লাখ ডোজ পাওয়ার কথা আমাদের। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ছয় কোটি ডোজ রয়েছে। তারা কোভ্যাক্সে সেটা দেবে। কোভ্যাক্স থেকে আমরা পাবো। আমেরিকা থেকে যদি কম টাকায় নেওয়া যায়, সেটাও নিতে পারি।

তিনি আরও বলেন, একজন টিকাগ্রহীতা দুই কোম্পানির দুই ডোজ নিতে পারবেন না। কারণ, এর ট্রায়াল এখনও হয়নি। অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও স্পুটনিকের ফর্মুলা এক হলেও কিছু সূক্ষ্ম পার্থক্য আছে।

একই প্রশ্নে জনস্বাস্থ্যবিদ অধ্যাপক ডা. লিয়াকত আলী বলেন, একেবারেই নেওয়া যাবে না, তা নয়। এ সংক্রান্ত গবেষণার কিছু প্রাথমিক ফল আশাব্যাঞ্জক। আমার মতে, দুটো মিক্স করা যাবে।

দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার সময় তিন মাসের জায়গায় চার মাস গ্যাপ হলেও আমাদের সাজেশন থাকবে একই কোম্পানির টিকা নেওয়া। গ্যাপ আরও বাড়লেও অসুবিধা নেই। অধ্যাপক লিয়াকত আলী আরও বলেন, দুই কোম্পানির টিকা নেওয়া যাবে, আবার গ্যাপ দিয়ে একই কোম্পানিরটাও নেওয়া যাবে।

মডার্না ও ফাইজারের দুই ডোজ দেওয়া যায় কিনা, তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গবেষণা হচ্ছে জানিয়ে ডা. লিয়াকত বলেন, দুই কোম্পানির দুই ডোজ নিয়ে ট্রায়াল হচ্ছে। ফলাফল এখনও আসেনি। এ নিয়ে কাজ চলছে। তবে দুই কোম্পানির দুই ডোজ মিক্স করলে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে, এমনও হতে পারে। তবে যেহেতু গবেষণার ফল এখনও চূড়ান্ত নয়, তাই আগের টিকাই নেওয়ার কথা বলবো। আমেরিকার কাছে যে ছয় কোটি ডোজ রয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার, সেটা পাওয়ার জন্য আমরা সরকারকে লবিং করার অনুরোধ করছি।

তিনি বলেন, তবে অন্য জায়গা থেকে আনার চেষ্টাও হচ্ছে। জুনের শেষ নাগাদ হয়তো সেরাম থেকেও কিছু চলে আসবে। সব মিলিয়ে মনে করি না দ্বিতীয় ডোজের ঘাটতি পড়বে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সায়েদুর রহমান খসরু বলেন, আমি মনে করি ভ্যাকসিন আসবে। কারণ এখনও প্রায় ২০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন রয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার। তাই দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার মতো ভ্যাকসিন তাদের রয়েছে বলে আমি মনে করি।

ডা. খসরু বলেন, যদি কোনওভাবেই ভ্যাকসিন না পাওয়া যায়, সেক্ষেত্রে ১২ সপ্তাহ পর্যন্ত অপেক্ষা করা যেতে পারে। ১২ সপ্তাহ পর পাওয়া না গেলে দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে অন্য ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। যখন হাতে কিছুই থাকবে না, তখন বিকল্প নিয়ে ভাবা যেতে পারে। সেটা বিশেষজ্ঞ কমিটি সুপারিশ করবে।

লম্বা গ্যাপই ভালো

প্রথম ডোজের পর ১২ সপ্তাহ পর্যন্ত দ্বিতীয় ডোজের সময় থাকে। আরও কিছুদিন দেরি হলেও অসুবিধা নেই বলে মন্তব্য করেন ডা. মুশতাক হোসেন। তিনি বলেন, ব্রিটেনে বলা হচ্ছে যত লম্বা গ্যাপ হবে, ততোই ভালো। একই মত দেন অধ্যাপক লিয়াকত আলীও।

কতো টিকা দেওয়া হলো?

৭ ফেব্রুয়ারি দেশে জাতীয়ভাবে করোনা প্রতিরোধী টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত এ টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ১৯ হাজার ৬১৬ জন। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২৮ লাখ পাঁচ হাজার ৬৯৪ জন। দুই ডোজ মিলিয়ে মোট ৮৬ লাখ ২৫ হাজার ৩৫০ ডোজ টিকা দেওয়া শেষ হয়েছে।

২৬ এপ্রিল থেকে বন্ধ করা হয়েছিল প্রথম ডোজের কার্যক্রম। প্রথম ডোজ দেওয়া ২৯ লাখ ৬৮ হাজার ৯২২ জন এখনও দ্বিতীয় ডোজ পাননি। এদিকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন ৭২ লাখ ৪৮ হাজার ৩৫৬ জন।

গত নভেম্বরে অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ডের ৩ কোটি ডোজ টিকার বিষয়ে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী বেক্সিমকো ফার্মা বাংলাদেশে এই টিকা ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে সরবরাহ করবে। মাসে সেরাম থেকে দেশে ৫০ লাখ ডোজ আসার কথা। কিন্তু বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী এখন টিকা পাচ্ছে না। এখন পর্যন্ত ভারত থেকে টিকা এসেছে এক কেটি দুই লাখ ডোজ। ভারত সরকারের উপহার হিসেবে ২১ জানুয়ারি আসে ২০ লাখ ডোজ। সরকারের অর্থে কেনা টিকার প্রথম চালানে ২৫ জানুয়ারি আসে ৫০ লাখ ডোজ। সর্বশেষ ২৩ ফেব্রুয়ারি আসে ২০ লাখ ডোজ। ২৬ মার্চে আসে আরও ১২ লাখ ডোজ। অর্থাৎ, ভারত থেকে এ পর্যন্ত টিকা এসেছে এক কোটি দুই লাখ ডোজ।

ফেব্রুয়ারির চুক্তির ৩০ লাখ এবং মার্চের ৫০ লাখ ও এপ্রিলের ৫০ লাখ টিকাও দেশে আসেনি। অর্থাৎ চুক্তির এক কোটি ৩০ লাখ টিকা এখনও পায়নি বাংলাদেশ।

এর মাঝে ভারত টিকা রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ায় টিকা প্রাপ্তি নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে দেশে টিকার মজুদ ফুরিয়ে যাবে বলেও জানা গেছে।

নিউজ ট্যাগ: করোনার টিকা

আরও খবর



সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৪২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে শুভেচ্ছা ভাষণ দেবেন আজ বৃহস্পতিবার।

বাংলাদেশ টেলিভিশন সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার করবে।

বুধবার (১২ মে) প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দেশে শুক্রবার (১৪ মে) মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদ উল ফিতর উদযাপিত হবে। রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে বুধবার (১২ মে) সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।



আরও খবর

ঈদ মোবারক

শুক্রবার ১৪ মে ২০২১




মুনিয়ার বোনকে হত্যা-গুমের হুমকি

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাম্প্রতিক চাঞ্চল্যকর ঘটনা রাজধানীর গুলশানে অভিজাত ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার মোসারাত জাহান মুনিয়ার মরদেহ উদ্ধার। যে ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা করেছিলেন মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান সনিয়া। ওই মামলায় আসামি করা হয় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরকে। এবার মুনিয়ার বড় বোন খোদ নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরির আবেদন করেছেন।

শনিবার (১ মে) সন্ধ্যায় কুমিল্লার কোতোয়ালি থানায় করা সাধারণ ডায়েরিতে (জিডি) তিনি উল্লেখ করেন, মামলা তুলে নিতে তাকে কয়েকটি মোবাইল নম্বর থেকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

কোতোয়ালি থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, অভিযোগ খতিয়ে দেখতে একজন পরিদর্শককে (অপারেশন) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্তের পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাধারণ ডায়েরিতে বলা হয়েছে, মামলা পর বিবাদি পক্ষের কিছু ব্যক্তি তাকে (বাদি) ও পরিবারের সদস্যদের মামলা তুলে নিতে এবং সমঝোতায় আসতে চাপ দিচ্ছে। মামলা যদি তুলে নেয়া না হয় তবে টাকার বিনিময়ে তাকে অথবা তার স্বামীসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের যেকোন ভাবে বিপদে ফেলা হবে। দরকার হলে যেকোন অঘটন ঘটিয়ে ‘খুন করে লাশ গুম’ করে দেয়া হবে।

সাধারণ ডায়েরিতে আরও বলা হয়, মামলা প্রত্যাহার করা না হলে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও নাজেহাল করার হুকমিও দিয়েছে বিবাদি পক্ষ। হুমকিদাতারা যেকোন সময় তাকে অথবা তার পরিবারের সদস্যদের কুমিল্লাসহ দেশের যেকোন স্থানে আক্রমণ করে খুন বা জখম করবে। এ অবস্থায় তারা চরম নিরাপত্তাহীনতায় আছে।

গত মাসের ১ তারিখে রাজধানীর গুলশানের ১২০ নম্বর রোডের একটি বাড়ি ভাড়া নেন মোসারাত জাহান মুনিয়া। বাসাটির ভাড়া ছিল ১ লাখ টাকা। বাসায় একাই থাকতেন মুনিয়া। সোমবার সন্ধ্যায় বাসার তিন তলার ফ্ল্যাট থেকে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে তার মরদেহ কুমিল্লায় নেওয়া হয়। পরে মা-বাবার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

এ ঘটনায় মামলার পর মঙ্গলবারই বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরের বিদেশে যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আদালত। আনভীরের বিদেশ যাতায়াতের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে আবেদন করেন আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার পরিদর্শক মোল্লা আবুল হাসান।

আবেদনে সাড়া দিয়ে আনভীরের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দেন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক শহিদুল ইসলাম। সেই সঙ্গে বিচারক আগামী ৩০ মে’র মধ্যে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দেন তিনি।


আরও খবর

আজ কলাপাড়ায় ঈদ-উল-ফিতর উদযাপন!

বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১




বিজিবি মোতায়েনেও আটকানো গেল না মানুষের ঢল

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে রবিবার সকাল থেকেই বিজিবির সদস্যরা টহল দিচ্ছেন। একইসঙ্গে চেকপোস্ট বসিয়ে দায়িত্ব পালন করছেন তারা। তবে তা সত্ত্বেও দক্ষিণবঙ্গগামী হাজার হাজার মানুষ ঘাটে আসছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই ভিড় আরও বাড়ছে। যেন ঈদে ঘরমুখো মানুষের ঢল নেমেছে শিমুলিয়া ঘাটে।

বিআইডব্লিউটিসি শনিবার রাতভর ১৫টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করলেও রবিবার ভোর থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। তবে ৮টি অ্যাম্বুলেন্সসহ সকাল পৌনে ৮টার দিকে 'ফেরি ফরিদপুর' ১নং ঘাট থেকে ছেড়ে যায়। ফেরিটিতে উঠার জন্য যাত্রীরা হুমড়ি খেয়ে পড়ে। মুহূর্তেই ভরে যায় ফেরিটি। লোকজনের চাপে ফেরিটির ঢালা উঠানো যাচ্ছিল না। এ সময় পুলিশ মৃদু লাঠিচার্জ করে ফেরির ঢালা উঠানোর কোনোরকম ব্যবস্থা করে। কিন্তু গাদাগাদি করে ছোট্ট ফেরিটিতে দেড় সহস্রাধিক মানুষ উঠে পড়ে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, এখনো হাজার হাজার যাত্রী পারাপারের অপেক্ষায় ঘাটে আছে। সবখানেই গাদাগাদি ভিড়। স্বাস্থ্যবিধির কোনো বালাই নেই। এ ছাড়া ফেরিঘাটের আশপাশে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই জেলে নৌকাসহ ট্রলারে যাত্রীরা পদ্মা পার হওয়ার চেষ্টা করছে। নৌপুলিশ এ পর্যন্ত ৮টি ট্রলার আটক করেছে।

এদিকে বাংলাবাজার ঘাট থেকে ফেরি কুঞ্জলতাও ৮টি অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে শিমুলিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছে বলে বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা গেছে।

বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. সফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, দিনের বেলায় ফেরি বন্ধ। শুধু জরুরি পরিসেবার কিছু যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। সেই ফেরিতেই লোকজন স্রোতের মতো উঠে যাচ্ছে। করোনা সংক্রমণ ঝুঁকির মধ্যেও লোকজন গ্রামে ছুটছেন, কোনো বাধাই মানছেন না। বহরের ১৬ ফেরির মধ্যে জরুরি পরিষেবায় ২-৩টি চলাচল করছে।

মুন্সীগঞ্জের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি থেকে জনসাধারণকে রক্ষায় ঈদে ঘরমুখো না হওয়ার জন্যই পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তারপরও লোকজনের ঢল নামছে, তাই দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। বিপুল পরিমাণ পুলিশও কাজ করছে।


আরও খবর



যত টাকা লাগুক প্রয়োজনীয় করোনার টিকা আনা হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যত টাকা লাগুক টিকা আনা হবে। সবাইকে টিকা দেয়া হবে।

আজ রোববার (২ মে) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সহায়তা কার্যক্রম উদ্বোধন কালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সব সময় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, আমরা কিন্তু জাতির পিতার হাতে গড়া সংগঠন। আমরা সব সময় চিন্তা করি কীভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াবো। মানুষকে সহযোগিতা করবো। আওয়ামী লীগ তার পদাঙ্ক অনুসরণ করেই কিন্তু কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় দুর্গত মানুষের পাশে আছে। ধান কাটার সমস্যা। আমি বলার সঙ্গে সঙ্গে কিন্তু আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ মানুষের ধান কেটে দিয়েছে।


আরও খবর

ঈদ মোবারক

শুক্রবার ১৪ মে ২০২১




দেশে ছয়জনের দেহে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরন শনাক্ত হয়েছে

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে ছয়জনের দেহে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরন শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এর মধ্যে দুইজনের দেহে ডাবল মিউটেশন পাওয়া গেছে। আজ শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।  

জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জার (জিসএইড) তথ্য বলছে, ভারতীয় ধরন বি-১৬১৭ যাদের শরীরে পাওয়া গেছে সেই দুইজনের বয়স ৪১ ও ২৩ বছর। তারা ভারতে ভ্রমণে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের একজন খুলনার ও একজন ঢাকার। দুইজনই পুরুষ। তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয় গত ২৮ ও ২৯ এপ্রিল। তথ্যগুলো সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পক্ষ থেকে ডাটাবেজে আপলোড করা হয়েছে।

করোনায় প্রতিবেশী ভারতের অবস্থা ভয়াবহ। মৃত্যু ও শনাক্তে নতুন নতুন রেকর্ড হচ্ছে প্রতিদিন। দেশটিতে এবারের পরিস্থিতির জন্য বিশেষভাবে দায়ী করা হচ্ছে কোভিডের ডাবলবা ট্রিপল মিউটেশনভেরিয়েন্টকে। অত্যন্ত বিপজ্জনক এই ধরন বাংলাদেশে যাতে আসতে না পারে, সে জন্য ভারতের সঙ্গে সীমান্ত দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। তবে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের স্বার্থে পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল অব্যাহত রয়েছে। আর আকাশপথে গত ১৪ এপ্রিল থেকে ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর