Logo
শিরোনাম

একাধিক পরিবর্তন নিয়ে আজ খেলতে হবে বাংলাদেশকে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ওয়ানডে সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখতে তিন ম্যাচের এই সিরিজ থেকে পুরো ৩০ পয়েন্টই চাই তামিমদের।

কাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক তামিম ইকবাল জানালেন, আশা করি, আমরা সিরিজ জিতব।

এমন প্রত্যাশার মাঝে কয়েকটি দুঃসংবাদ শুনতে হলো তামিমকে। বাবা-মা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় মুশফিককে বিদায় জানাতে হলো।

প্রস্তুতি ম্যাচে চোট পাওয়ায় প্রথম ওয়ানডে থেকে ছিটকে গেলেন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। এমন পরিস্থিতিতে নিজেদের শেষ ম্যাচ থেকে একাদশে একাধিক পরিবর্তন নিয়ে খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

এদিকে দীর্ঘ সময় পর স্কোয়াডে ফিরলেও নুরুল হাসান সোহানের এই ম্যাচে একাদশে থাকার সুযোগ কম। কারণ মুশফিকের অনুপস্থিতিতে উইকেট ভালোই সামলে নিতে পারেন লিটন দাস।

মোস্তাফিজের চোটের কারণে কপাল খুলতে পারে শরিফুল ইসলামের। আর অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিংয়ে দেখা যেতে পারে তরুণ নাঈম শেখকে।

একনজরে বাংলাদেশ দলের সম্ভ্যাব একাদশ

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম।


আরও খবর



রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড : ৫০ জনের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ১১৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতায় হাশেম অ্যান্ড বেভারেজের সেজান জুসের কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

শুক্রবার (৯ জুলাই), বেলা ১টার দিকে কারখানা ভবন থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে এ তথ্য জানায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের রেসকিউ টিমের এক সদস্যের মাধ্যমে জানা যায়, ভবনটির ৪ তলাতেই ৪৯ জনের মৃতদেহ পাওয়া যায়। ৫ ও ৬ তলায় এখনো আগুন জ্বলছে। ভবনটির চারপাশ বন্ধ। শুধু সিঁড়ি দিয়ে ওঠার পথ রয়েছে। যেখানে প্রচণ্ড ধোঁয়ার কারণে বাইরে ল্যাডার দিয়েই আগুন নেভানোর চেষ্টা চলছে। আর কারখানায় প্রচুর দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রণ কঠিন হচ্ছে।

এর আগে, শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে সেজান জুসের কারখানাটিতে আবারো আগুন লাগে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের ১৭টি ইউনিট।

তার আগে, শুক্রবার সকালে, পুলিশ ও নিখোঁজ শ্রমিকদের বিক্ষুব্ধ স্বজনদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সকাল ১০টার দিকে কয়েকজন শ্রমিকের খোঁজ না পেয়ে বিক্ষোভ শুরু করে তাদের স্বজনেরা। পুলিশের সঙ্গে প্রায় এক ঘণ্টা সংঘর্ষ চলে। এসময় ব্যাপক ভাংচুর চালায় বিক্ষুব্ধরা।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে আগুন লাগলে ১৩ ঘণ্টার চেষ্টায় ভোর ৪টার দিকে তা নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট।

আগুন লাগার সময় কারখানাটিতে অনেক শ্রমিক ও কর্মচারী কাজ করছিলেন। তবে আগুনের সূত্রপাত নিয়ে কেউ কিছু বলতে পারেনি। কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী ও কারখানার একজন ইঞ্জিনিয়ার জানান, হঠাৎ করে তারা ধোঁয়া দেখতে পান।

কারখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সেকশনের ৫টি ফ্লোরে ওভারটাইম কাজ করছিলেন শ্রমিকেরা। তবে দুর্ঘটনার সময় ভবনটিতে কতজন ছিল তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজনরা দাবি করেন, আগুন লাগার পর কারখানা কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের বের হতে দেয়নি।


আরও খবর



বুয়েটের 'অক্সিজেট' অনুমোদনের আবেদন হয়নি : ঔষধ প্রশাসন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বুয়েট কর্তৃক উদ্ভাবিত অক্সিজেট মেডিকেল ডিভাইসটির ক্লিনিক্যাল পারফরমেন্স ট্রায়াল অনুমোদনে আবেদন করার পরামর্শ দেওয়া হলেও এখন পর্যন্ত তা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার সংস্থাটির উপপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মদ নাঈম গোলদার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, আবেদন করা হলে অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট অক্সিজেটনামের অক্সিজেন কনসেনট্রেশন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে এরূপ সি-প্যাপ (কন্টিনিউয়াস পজিটিভ এয়ার ওয়ে প্রেসার) মেডিকেল ডিভাইস উদ্ভাবন করেছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয় যে, বুয়েট কর্তৃক উদ্ভাবিত অক্সিজেট মেডিকেল ডিভাইসটি বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের অনুমতি মিলছে না বলে বিষয়টি হাইকোর্টের নজরে আনা হয়েছে। অথচ এ ডিভাইসটির পারফরমেন্স ট্রায়াল অনুমোদনের জন্য এখন পর্যন্ত ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে কোনো আবেদন দাখিল করা হয়নি।

ঔষধ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, মানবদেহে ব্যবহারের নিমিত্তে নব-উদ্ভাবিত কোনো মেডিকেল ডিভাইস মানবদেহের জন্য কতটুকু নিরাপদ ও কার্যকর তা পারফরমেন্স স্ট্যাডির মাধ্যমে যাচাই এবং মেডিকেল ডিভাইসটির উৎপাদন ও মাননিয়ন্ত্রণ সুযোগ সুবিধা মূল্যায়ন সাপেক্ষে রেজিস্ট্রেশন প্রদান ও বাজারজাতের অনুমোদন দেওয়া হয়।  যেহেতু অক্সিজেট নামের মেডিকেল ডিভাইসটি মানবদেহে চিকিৎসায় ব্যবহার করা হবে- এ কারণে সেটার ক্লিনিক্যাল পারফরমেন্স ট্রায়াল প্রটোকল অনুমোদনে বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদের (বিএমআরসি) ইথিক্যাল ক্লিয়ারেন্সসহ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট কর্তৃক আবেদন দাখিল করা প্রয়োজন। সন্তোষজনক পারফরমেন্স ট্রায়াল রিপোর্ট এবং যথাযথ মাননিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করে উৎপাদন সাপেক্ষে বাজারজাত করতে রেজিস্ট্রেশন প্রদান করা হবে। জনস্বাস্থ্যের নিরাপত্তার জন্য রেজিস্ট্রেশনের পথ অনুসরণ করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর এ ধরনের দেশীয় উদ্ভাবনকে সবসময় অনুপ্রেরণা প্রদান ও সুবিধা দিয়ে থাকে। ১২ জুন বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের সহকারী অধ্যাপক ড. তৌফিক হাসান ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরকে তাদের উদ্ভাবিত ডিভাইসটির বিষয়ে মৌখিকভাবে অবহিত করেন। এরপর ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর ডিভাইসটির বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের জন্য দেশের কয়েকটি মেডিকেল ডিভাইস উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পর্যায়ের টেকনিক্যাল কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের সম্ভাব্য পথকে সুগম করে দেওয়া হয় এবং তাকে ক্লিনিক্যাল পারফরমেন্স ট্রায়াল প্রটোকল অনুমোদনের জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে আবেদন করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এখন পর্যন্ত তার আবেদন পাওয়া যায়নি।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে নদী তীরবর্তী এলাকায় তীব্র ভাঙন

প্রকাশিত:সোমবার ১২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যমুনা নদীর পানি কমার সাথে সাথে সিরাজগঞ্জের চৌহালী ও শাহজাদপুরের নদী তীরবর্তী এলাকায় দেখা দিয়েছে তীব্র নদী ভাঙ্গন। ইতোমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে অন্তত ২০টি বসতভিটাসহ বিস্তীর্ণ ফসলি জমি। ভাঙ্গন রোধে বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা হলেও তা কাজে আসছে না।

সরেজমিন জেলার চৌহালী ও শাহজাদপুরের ভাঙন এলাকা ঘুরে, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, যমুনা নদীর পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হওয়া জেলার চৌহালী উপজেলার নদী ভাঙন পানি কমার সময়ে তীব্র আকার ধারণ করেছে। উপজেলার খাসপুকুরিয়া থেকে বাগুটিয়া পর্যন্ত তিন কিলোমিটার নদী তীরবর্তী এলাকায় তীব্র নদী ভাঙন অব্যাহত রয়েছে।

গত ৩ দিনের ভাঙনে অন্তত ১৫টি বসতভিটা ও বিস্তীর্ণ ফসলি জমি যমুনা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে বিনাইন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরবিনাইন কমিউনিটি ক্লিনিক, চরবিনাইন বাজার, হাফেজিয়া মাদরাসা ও চরণাকালিয়া তাঁত কারখানা। ভাঙন এলাকার মানুষেরা তাদের ঘড়-বাড়ি ভেঙ্গে অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছে।

এদিকে ভাঙন রোধে শনিবার (১০ জুলাই) ভাঙন এলাকায় বালি-ভর্তি জিও ব্যাগ ডাম্পিং শুরু করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু জিওব্যাগ ডাম্পিংয়েও থামছে না ভাঙন।

স্থানীয় রমজান আলী জানান, একমাস হল শুরু হওয়া নদী ভাঙ্গন কিছুতেই থামছে না, বসতবাড়ি ভেঙ্গে অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছি। ভিটাটুকু ভাঙতে ভাঙতে নদীতে বিলীন হয়েছে। কিন্তু পানি উন্নয়ন বোর্ড এখনো কাজ শুরু করেনি। গত ৩ দিন আগে জিও বস্তা ফেলা শুরু হয়েছে। কিন্তু এতে কাজ হচ্ছে না।

চৌহালী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ফারুখ সরকার জানান, বর্ষা মৌসুমের শুরুতে শুরু হওয়া নদী ভাঙনে বিস্তীর্ণ এলাকা নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। দেরিতে হলেও ভাঙন রোধে কাজ শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। এরই মধ্যেই ভাঙন কবলিত মিটুয়ানি উচ্চ বিদ্যালয় এলাকায় নদী তীরবর্তী ২০০ মিটার ও চরবিনাইনে ১০০ মিটার এলাকায় জিও-ব্যাগ নিক্ষেপ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড সিরাজগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম জানান, পাচিলসহ ওই অঞ্চলে ভাঙন রোধে জরুরি কিছু কাজ করা হয়েছে। তারপরেও আবার ভাঙন দেখা দিয়েছে। আমরা আবারও জরুরী কাজ শুরু করবো ভাঙন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য।

নির্বাহী প্রকৌশলী আরও জানান, ভাঙ্গন রোধে স্থায়ীভাবে কাজ শুরু হবে অক্টোবর-নভেম্বরে। ওই কাজটি করা গেলে আর ভাঙন থাকবে না। এর আগে ভাঙন রোধ করা কষ্টকর। এর পরেও চেষ্টা করা হচ্ছে।

 


আরও খবর



আঠারোর্ধ্ব ব্যক্তিদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা কথা জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শিক্ষার্থীরা যাতে টিকা গ্রহণের আওতায় আসে এজন্য টিকা গ্রহণের বয়সসীমা ১৮ বছর নির্ধারণ করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুড়ে যাওয়া কোভিড-১৯ আইসিইউ এবং আউটপেশেন্ট ডিপার্টমেন্ট প্রসিডিওর শেড উদ্বোধনের সময় তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার টিকা গ্রহণের বয়স ১৮ নির্ধারণের জন্য এরই মধ্যে করোনা বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন। শিগগিরই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, চীন থেকে ২০ লাখ ডোজ টিকা এসেছে। এই টিকার বাইরে দেশটি থেকে আরও দেড় কোটি টিকা আসবে। এছাড়া কোভ্যাক্স থেকে চলতি মাসেই অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও মডার্নার টিকাও আসবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, গ্রামের লোকদের টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে নিবন্ধনের পরিবর্তে জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনাও হাতে নিয়েছি। এটি পরে চালু করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ মার্চ সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসিইউতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কয়েকজন করোনা রোগী মারা যান। পুড়ে যাওয়ায় আইসিইউ ইউনিটটি রোগীদের ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে যায়।


আরও খবর



আজ তাজউদ্দীন আহমদের জন্মবার্ষিকী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের ৯৭তম জন্মদিন আজ। ১৯২৫ সালের এই দিনে (২৩ জুলাই) গাজীপুরের কাপাসিয়ার দরদরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

আজীবন সংগ্রামী রাজনীতিবিদ ছিলেন তাজউদ্দীন আহমদ। ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম মহানায়ক। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতিতে সক্রিয় তিনি।

১৯৪৩ সালে মুসলিম লীগের রাজনীতিতে প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত হওয়ার পরের বছরই ১৯৪৪ সালে তিনি বঙ্গীয় মুসলিম লীগের কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হোন। ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি গঠিত পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগের (বর্তমানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ) অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তাজউদ্দীন।

পূর্ব পাকিস্তান যুবলীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং ১৯৫১ থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত এ সংগঠনের নির্বাহী পরিষদের সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৩ থেকে ১৯৫৭ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ছিলেন। পরে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

তিন মেয়াদে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তাজউদ্দীন আহমদ। বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হলেও পরে তিনি অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন।

১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে বিএ (সম্মান) ডিগ্রি লাভ করেন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের সর্বদলীয় সংগ্রাম পরিষদের সদস্য হিসেবে তিনি ভাষা আন্দোলনের সময় গ্রেপ্তার হোন। ১৯৬৪ সালে রাজনৈতিক বন্দী হিসেবে কারাগারে থাকা অবস্থায় এলএলবি পাস করেন। ১৯৬৪ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১৯৬৬ সালে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হোন। ১৯৭০ সালে তৃতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হোন তিনি।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু খুন হওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ৩ নভেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে জাতীয় আরও তিন নেতা আবুল হাসনাত মোহাম্মদ (এএইচ) কামরুজ্জামান, এম মনসুর আলী ও সৈয়দ নজরুল ইসলামের সঙ্গে তাজউদ্দীনকেও হত্যা করা হয়।



আরও খবর