Logo
শিরোনাম

ফাল্গুনী ডটকমের সিইও আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ফাল্গুনী ডটকমের সিইও মো. পাভেল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৪ এর সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সকালে এক সহযোগীসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক আ ন ম ইমরান খান বিষটি নিশ্চিত করেন।

এ সময় তিনি বলেন, ফাল্গুনী ডটকমের সিইও মো. পাভেল হোসেনকে সহযোগীসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও মাদক জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হবে।

নিউজ ট্যাগ: ফাল্গুনী ডটকম

আরও খবর



সেমিফাইনালে কে কার মুখোমুখি

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঠিক হয়ে গেল এ বারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের লড়াই কাদের মধ্যে হবে। বিরাট কোহলীর ভারত থাকছে না সেমিফাইনালে। শেষ চারে উঠেছে ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান এবং অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম সেমিফাইনাল ১০ নভেম্বর, বুধবার। সেই ম্যাচে নামছে গ্রুপ ১ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড ও গ্রুপ ২ রানার্স নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে লড়াই হবে গ্রুপ ২ চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান ও গ্রুপ ১ রানার্স অস্ট্রেলিয়া। এই ম্যাচ ১১ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার। দুটি ম্যাচই ভারতীয় সময় সন্ধে সাড়ে ৭টায়।

ফাইনাল ম্যাচ হবে ১৪ নভেম্বর, রবিবার। এই ম্যাচও ভারতীয় সময় সন্ধে সাড়ে ৭টা থেকে।

গ্রুপ ১ থেকে বিদায় নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ। গ্রুপ ২ থেকে ভারত ছাড়াও ছিটকে গিয়েছে আফগানিস্তান, নামিবিয়া, স্কটল্যান্ড।


আরও খবর



‘ইকবাল মানসিক ভারসাম্যহীন নয়, সুচতুর সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা উস্কে দেওয়ার অভিযোগে নতুন মামলা হয়েছে। যেখানে একটি নিউজ পোর্টাল পরিচালনাকারী সাজ্জাদ হোসেন শিমুল ও তার ভাই ফয়সাল মবিন পলাশকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (১ নভেম্বর) কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় নতুন করে এ মামলাটি দায়ের করেন সিআইডির পরিদর্শক আতিকুর রহমান। এদিকে মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার মামলার প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন পাগল নয় এবং সে ভবঘুরেও নয় বলে জানিয়েছেন সিআইডি কুমিল্লা অঞ্চলের পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান।

পুলিশ সুপার আরও জানান, ঘটনার দিন নানুয়া দীঘির পাড়ের ঘটনাস্থলে এসে কুমিল্লা টাইমস নামের একটি নিউজ পোর্টালে লাইভ প্রচার করে সহিংসতা উস্কে দেয়। এতে ওই নিউজ পোর্টালের সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন শিমুল ও নির্বাহী সম্পাদক ফয়সাল মবিন পলাশের বিরুদ্ধে সোমবার কোতোয়ালি মডেল থানায় ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টে মামলা দায়েরের পর তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। তারা জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার বাঙ্গরা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

খান মোহাম্মদ রেজওয়ান জানান, রিমান্ডে থাকা আসামি ইকবাল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। তবে রিমান্ডে থাকা মামলার প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন পাগল ও ভবঘুরে বলা হলেও আসলে সে পাগলও নয় ভবঘুরেও নয়।

গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লা নগরীর নানুয়া দীঘির পাড়ে পবিত্র কোরআন অবমাননা ও পরবর্তীতে মন্দির ভাংচুরসহ বিভিন্ন ঘটনায় জেলায় সোমবার পর্যন্ত মোট ১২টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে কোতোয়ালি মডেল থানায় ৮টি, সদর দক্ষিণ মডেল থানায় ২টি এবং দাউদকান্দি মডেল থানায় ১টি ও দেবীদ্বারে একটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে কোতোয়ালি মডেল থানায় পবিত্র কোরআন অবমাননা ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের ঘটনার মূল হোতা ইকবাল হোসেনসহ চার আসামি গত ২৯ অক্টোবর থেকে দ্বিতীয় দফায় ৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।


আরও খবর



উইলস লিটলের অধ্যক্ষের পদত্যাগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | ৮৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আন্দোলনের মুখে রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. আবুল হোসেন পদত্যাগ করেছেন।

মঙ্গলবার রাতে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি।

কলেজের একটি সূত্র জানায়, ঢাকা জেলা প্রশাসকের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ।

এর আগে অযোগ্যতার অভিযোগ এনে তাকে অপসারণের দাবিতে আজ প্রায় দিনভর আন্দোলন করেন প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-কর্মচারীরা। উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ ব্যানারে কর্মসূচি পালন করেন তারা।


আরও খবর



খেজুর গাছ প্রস্তুতে ব্যস্ত মাদারীপুরের গাছিরা

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫১জন দেখেছেন

Image

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

শীতের আগমনী বার্তায় খেজুর গাছ প্রস্তুতে ব্যস্ত গাছিরা হিমালয়ের কোলঘেঁষা দেশের দক্ষিণের জেলা মাদারীপুরের বিভিন্ন গ্রামে এক সময় খেজুর গাছে ভরপুর ছিল। শীত আসলেই ব্যস্ত হয়ে পড়তেন গাছিরা। বিকেল হলেই গাছে হাঁড়ি বসাতেন আবার সকাল হলে রস সংগ্রহ করে বাড়ি নিয়ে আসতেন। দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত চলতো গুড় আর পাটালি তৈরির কাজ।

খেজুরের গুড় আর পাটালির মৌ মৌ গন্ধ বাতাসে ভেসে বেড়াতো। কেউ কেউ রস বিক্রি করতেন আবার কেউ স্বজনদের বাড়িতেও পাঠাতেন। কালের বিবর্তনে এসব এখন ইতিহাসের পাতায় জড়ো হচ্ছে। হারিয়ে যেতে বসেছে গাছ। তবে গত কয়েক বছর ধরে বাণিজ্যিকভাবে গড়ে ওঠা কয়েকটি খেজুর বাগান বদলে দিয়েছে জেলার চিত্র। প্রতিবছর শীতে তৈরি হচ্ছে খেজুরের গুড়। রস ও গুড় কিনতে বাগানে ভিড় করেন বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ। শীতের প্রতিটি সকালেই এই বাগানগুলোতে লেগে থাকে রসমেলা উৎসব। প্রকৃতিতে বইছে শীতের আগমনী বার্তা। সকালের শিশির ভেজা ঘাস আর হালকা কুয়াশায় প্রস্তুত হচ্ছে প্রকৃতি। একইসঙ্গে খেজুরের রস সংগ্রহে প্রস্তুত হতে দেখা গেছে মাদারীপুরের গাছিদেরও।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ২০০টি ছোট বড় খেজুরের গাছ নিয়ে গড়ে ওঠে একটি বাগান মতো। গত বছর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হঠাৎ করে ভাইরাল হয়েছে কয়েকটি বাগানটির ছবি। এরপর থেকে রস ও গুড় সংগ্রহে প্রতিদিন সকালে শহরের বাসিন্দারা ভিড় করতে থাকেন ঐসকল বাগানে।

এ বছরও সেই আয়োজনের প্রস্তুতি নিতে দেখা যাচ্ছে বাগানটিসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে। রস সংগ্রহের জন্য এখন গাছকে বিশেষ পদ্ধতিতে প্রস্তুত করা হচ্ছে। সপ্তাখানেকের মধ্যেই রস সংগ্রহ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন গাছিরা।

এদিকে মাদারীপুরের কালকিনি ও রাজৈর এবং শিবচর উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের গ্রামে বেশ কয়জনের উদ্যোগে গড়ে ওঠে আরেকটি খেজুরের বাগান। দুবছর ধরে তারা বাণিজ্যিকভাবে খেজুরের রস থেকে গুড় উৎপাদন শুরু করেছে। প্রত্যন্ত গ্রামটিতে গড়ে ওঠা বাগানটি এখন সেই এলাকার অর্থনৈতিক উন্নায়নের কাণ্ডারি বলে জানান এলাকাবাসী। তাদের অনুসরণ করে জেলার অনেকেই আগ্রহী হয়ে খেজুরের বাগান করতে চাইছে। উদ্যোক্তারা প্রতিনিয়তই বিভিন্ন পরামর্শ নিতে আসছেন বলে জানান বাগান মালিক।

মাদারীপুর সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের রাজারচর গ্রামের জাহিদুল সরদার বলেন, ২০ দিন হয়েছে কাজ শুরু করেছি। গাছের ময়লা ও অপ্রয়োজনীয় ডালপালা ছেঁটে ফেলা হয়েছে। ধারালো দা (গাছিদা) দিয়ে খেজুর গাছের সোনালী অংশ বের করে (যাকে বলে চাঁচ দেওয়া) নোলন স্থাপনের কাজও শেষ। কিছুদিন পরই গাছে লাগানো হবে মাটির পাতিল। এরপরই শুরু হবে সুস্বাদু খেজুর রস সংগ্রহের কাজ। তা দিয়ে তৈরি হবে গুড় ও পাটালি।

কেন্দুয়া ইউনিয়নের সালাম বলেন, গাছ একবার ছাঁটলে তিন-চার দিন রস সংগ্রহ করা যায় এবং পরবর্তীতে তিন দিন শুকাতে হয়। এভাবে কাটলে গাছের রস সুমিষ্টি হয়। রস সাধারণত নভেম্বর থেকে এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত সংগ্রহ করা যায়। রস সংগ্রহের পর হাড়ি পরিষ্কার করে রোদে শুকাতে হয় অথবা আগুনে ছেকে নিতে হয়। এতে সংগৃহীত রসে গাঁজন বন্ধ হয়।

ঝুঁকি নিয়েই কোমরে রশি (দড়ি) বেঁধে গাছে ঝুলে রস সংগ্রহের কাজ করেন গাছিরা। প্রতিদিন বিকেলে ছোট-বড় মাটির হাঁড়ি গাছে বাঁধা হয়, আর সকালে রস সংগ্রহ করা হয়। কেউ কেউ কাঁচা রস এলাকার বিভিন্ন স্থানে ও হাটে-বাজারে খাওয়ার জন্য বিক্রি করেন। আবার কেউ কেউ সকালেই এই রস জ্বালিয়ে গুড় তৈরি করেন।

জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, মাদারীপুরের প্রায় সব উপজেলায়ই গুড় কম-বেশি পাওয়া যায়। তবে খোয়াজপুর, মস্তফাপুর, কালিকাপুর, কুনিয়া, আমগ্রাম, বাজিতপুর, বদরপাশা, কবিরাজপুর, কেন্দুয়া, ছিলারচর, তাল্লুক, পাঁচখোলা লক্ষ্মীপুর, রমজানপুর, সাহেবরামপুর, ঝাউদি, উমেদপুরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গুড় পাওয়া যায়। মাদারীপুর শহরের পুরান কোর্ট এলাকায় গুড়ের বাজার বেশ জমে উঠে প্রতিবছরই। আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এখানে অনেকে গুড় কিনতে আসে। এছাড়াও মাদারীপুর সদরের এর. আ.  হাওলাদার জুট মিল মাঠে প্রতিবছরের নেয় এবারও খেজুর গাছ প্রস্ততুতে ব্যস্ত হয়ে পরেছে গাছিরা।

প্রতিদিন বিকেলে গাছ কাটায় ব্যস্ত থাকেন গাছিরা। খুব ভোরে গাছি ও তার পরিবারের সদস্যরা গাছ থেকে রস নামিয়ে সেই রস জ্বালিয়ে তৈরি করেন সুস্বাদু গুড়। আগুনের আঁচে ধীরে ধীরে তৈরি হয় ঝোলা গুড়, পাটালি গুড়, খানডা গুড়, নলেন গুড়। হাট-বাজার দেখা যায় গুড়ের দোকানে ক্রেতা-বিক্রেতার ভিড়। মৌসুমের শুরুতে ২০০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা দরে কেজিতে বিক্রি হয় এই গুড়। তবে বেশি দামের যে গুড় বিক্রি হয় তার মান ও স্বাদ বেশি ভালো।

মাদারীপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০১৫-২০ অর্থ বছরে খেজুর গাছের সম্ভাব্য আবাদকৃত জমির পরিমাণ ছিল ৫০ হেক্টর, খেজুর গাছের সংখ্যা ছিল ৬৪ হাজার ৮০০। রস বা সংগ্রহ করা হয় এমন গাছের সংখ্যা ছিল ১৯ হাজার ৭২৫টি। রস সংগ্রহ করে এমন গাছি ছিলেন ৫১৫ জন।

এ বিষয়ে মাদারীপুর জেলা কৃষি কর্মকর্তা বলেন, এ জেলায় খেজুরের গাছ রোপণের ক্ষেত্রে তেমন একটা আগ্রহ দেখা যায় না। সবাই আম, কাঁঠাল আর লিচু নিয়েই ব্যস্ত। সব গাছেরই প্রয়োজন আছে। কেউ নতুন করে খেজুরের বাগান করতে চাইলে বা খেজুরের গাছ রোপণে যে কোনো সহযোগিতায় পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন এ কর্মকর্তা।


আরও খবর



সিটি করপোরেশনের গাড়ির ধাক্কায় নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর গুলিস্তান এলাকায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নাঈম হাসান (১৭) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। তিনি নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বেলা সোয়া ১২টায় মৃত ঘোষণা করেন।

তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া কবি নজরুল কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র আমিনুল ইসলাম ফাহিম জানান, গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনের রাস্তা হেঁটে পার হওয়ার সময় গুলিস্তান জিরো পয়েন্টগামী ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লা পরিবহনের একটি বেপরোগতির গাড়ি তাকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আঘাত পায় নাঈম। সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, দুপুর সোয়া ১২টার দিকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এরপর চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নিহতের পরনে নটরডেম কলেজের ইউনিফর্ম রয়েছে। আর তার ব্যাগে থাকা জাতীয় জন্ম নিবন্ধন সনদ থেকে নাম জানা গেছে নাঈম হাসান। পিতা মো. শাহ আলম দেওয়ান ও মা জান্নাতুল ফেরদৌস। বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার পূর্ব কাজিরখিল দেওয়ানবাড়ী গ্রামে।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুদ হাওলাদার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঘটনার পরপরই ময়লার গাড়ি জব্দসহ চালককে আটক করা হয়েছে।


আরও খবর