Logo
শিরোনাম

ফের ফেসবুকে নিষিদ্ধ তসলিমা নাসরিন

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ১০২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিছুদিন আগেই ফেসবুক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেছিল। এ বার ফের সাময়িক নিষিদ্ধ তসলিমা নাসরিন!

কী কারণে? অনুরাগীদের অনুমান, তাঁর জ্বলন্ত লেখা, বিতর্কিত পোস্ট সম্ভবত এক নেপথ্য কারণ। ২১ ফেব্রুয়ারিও মাতৃভাষা নিয়ে ফেসবুকে লিখেছিলেন তসলিমা নাসরিন। মাতৃভূমি বাংলাদেশে রেখে আসা স্মৃতি ভাগ করে নিয়েছিলেন লেখিকা। কী ভাবে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়? তারই এক টুকরো উঠে এসেছিল তাঁর লেখায়।

ভারতের একটি সংবাদমাধ্যমের পডকাস্টে নিজের জমে থাকা অনুভূতি প্রকাশ করেছিলেন। ভাষা দিবস তাঁকে কী ফেরত উপহার দিল? ফেসবুকে সাময়িক নিষিদ্ধ তিনি। নিষিদ্ধ তাঁর পোস্ট! লেখিকা সে কথা ব্যঙ্গের সুরে জানিয়েছেন তাঁর পাতায়, আমার জন্য একুশে ফেব্রুয়ারির উপহার!

ফেসবুকে লেখিকা পোস্ট দিয়ে দেখিয়েছেন, কী ভাবে ধাপে ধাপে নিষিদ্ধ করা হয়েছে তাঁকে। ফেসবুকের নিয়মে, ২৮ দিন তাঁর পোস্ট সবার নীচে থাকবে। ৪৫ ঘণ্টা তিনি কোনও পোস্ট বা মন্তব্য লিখতে পারবেন না। আগামী ৫ দিন তিনি কোনও ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিতে পারবেন না।

তসলিমা তাঁর শাস্তির নমুনা পেশ করতেই এবার তাঁর হয়ে মুখ খুলেছেন অনুরাগীরা। কারও যুক্তি, রিচ নিয়ে বড় সমস্যা দেখি না। আপনার পোস্ট যাঁরা পড়েন, তাঁরা খুঁজেই পড়েন৷ কেউ স্পষ্ট দাবি করেছেন, এগুলো ঘটে পোস্ট রিপোর্ট হয় বলে। তোমার শত্রুর অভাব নেই। কারওর মতে, আপনার পোস্টে অপ্রিয় সত্য থাকে বলেই এ রকম হয়। প্রমাণ করে, এখনও নিরীহ কিছু শব্দ সত্যি হলে কতটা শক্তিশালী হতে পারে।

১৭ জানুয়ারি শাঁওলি মিত্রর মৃত্যুর পরেই মৃত্যু সংক্রান্ত একটি পোস্ট দিয়েছিলেন তসলিমা। সেই পোস্টে তাঁর ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন। প্রথম পংক্তিতেই লিখেছিলেন, আমি চাই আমার মৃত্যুর খবর প্রচার হোক চার দিকে। প্রচার হোক যে, আমি আমার মরণোত্তর দেহ দান করেছি হাসপাতালে, বিজ্ঞান গবেষণার কাজে।

এটুকু পড়েই ফেসবুক বুঝে নিয়েছিল, লেখিকা আর বেঁচে নেই! সঙ্গে সঙ্গে তাঁর আইডি-তে রিমেমবারিং শব্দের যোগ। মার্ক জুকারবার্গ এবং তাঁর দলের এই কীর্তিকলাপ হজম করতে কষ্ট হয়েছিল অনুরাগীদের। তাঁদের দাবি, পুরো পোস্ট পড়লেই স্পষ্ট তসলিমা শাঁওলি মিত্রের আদলে একটি শেষ ইচ্ছাপত্রের ভাবনা জানাতে চেয়েছেন। সে সব না বুঝে জীবিতকে কী করে মৃত বানিয়ে দিল নেট মাধ্যম? সে সময়েও লেখিকা বিদ্রূপ করে লিখেছিলেন, জি-হা-দিদের প্ররোচনায় ফেসবুক আমাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছিল প্রায় একুশ ঘণ্টা আগে। এই একুশ ঘণ্টায় আমি পরকালটা দেখে এসেছি।

নিউজ ট্যাগ: তসলিমা নাসরিন

আরও খবর



কেমন বস মোশাররফ করিম?

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আশরাফ হোসেনের মতো একঘেয়ে, রাশভারী বস তার অফিসের কলিগরা দ্বিতীয়টি দেখেনি। একটা মানুষ কীভাবে এতোটা নিরস, কাঠখোট্টা হতে পারে তারা তা ভেবে পায় না। আশরাফ সাহেব মাত্রাতিরিক্ত সময় সচেতন। কাজ ছাড়া কিছুই বোঝেন না। বয়স চল্লিশ পেরোলেও এখনও বিয়ে করেননি। আর এই রাশভারী বসের চরিত্রে এবারের ঈদে পাওয়া যাবে দুই বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিমকে।

এরমধ্যে ইরা নামের একটা মেয়ে একই অফিসে জয়েন করে। ইরা পুরোপুরি বোকা প্রকৃতির মেয়ে। অফিসের কর্মীরা এই বোকাভোলা মেয়েটিকে র্যাগ দেয়ার পরিকল্পনা করে। তারা ইরাকে শিখিয়ে দেয়, বস জোকস শুনতে অনেক পছন্দ করে। তুমি বসকে জোকস শুনাও! এই ইরা চরিত্রে দেখা যাবে মৌসুমী মৌকে।

রাগী বসকে জোকস শোনাতে গিয়ে কি বিপদে পড়বেন ইরা- পাঠকমনে প্রশ্ন উঠছে সেখানে। জবাবে নির্মাতা রাফাত জানান, উত্তরটা এখনই দিতে চাই না। তবে এটুকু বলি, অফিস কলিগদের দফায় দফায় বিস্মিত করে দেবে বোকা মেয়ে ইরা। চমকে দেবেন রাশভারী বস-ও। মজার গল্পটি উপভোগ করার আগাম আমন্ত্রণ জানিয়ে রাখলাম দর্শকদের।

সিএমভির ব্যানারে নির্মিত ঈদের বিশেষ এই নাটকের নাম বস। এতে আরও একটি উল্লেখযোগ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন নির্মাতা-অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন।

নাটকটি প্রসঙ্গে মৌসুমী মৌ বলেন, এবার ঈদে একটি নাটকই করেছি। আর প্রথমবারের মতো অত্যন্ত গুণী অভিনয়শিল্পী মোশাররফ করিমের সঙ্গে কাজের সুযোগ হলো। ইন্টারভিউ নিয়েছি মোশাররফ ভাইয়ের বেশ কয়েকবার কিন্তু তার সঙ্গে অভিনয় করা নিয়ে ভীষণ ভয়েই ছিলাম। তিনি অসাধারণ মানুষ এবং সহশিল্পী হিসেবে দুর্দান্ত- এটা সকলের জানা। ভয়কে জয় করে আনন্দ নিয়ে কাজটা করেছি।

প্রযোজনা সূত্রে জানা গেছে, বস উন্মুক্ত হচ্ছে আসছে ঈদে সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে।

নিউজ ট্যাগ: মোশাররফ করিম

আরও খবর



গ্রিন রোডে ৭ তলা থেকে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর গ্রিন রোড এলাকার একটি বাসার সাত তলা থেকে পড়ে এম ডি ইমাম হোসেন নামের এক বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ৯টার দিকে ইমামকে মৃত বলে জানান ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের চিকিৎসক। বেসরকারি এশিয়া-প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির ছাত্র ইমাম থাকতেন ৭৪/এ গ্রিন রোড এলাকায়। তার গ্রামের বাড়ি ভোলার লালমোহন থানার নবগ্রাম পাটোয়ারী বাড়িতে।

ইমামকে ঢামেকে নিয়ে যাওয়া নাদিম আহমেদ জানান, গ্রিন রোডের ওই বাসার সাত তলার রেলিংয়ের ফাঁকা জায়গা দিয়ে অসাবধানতাবশত নিচে পড়ে যান ইমাম। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করা হয়েছে।


আরও খবর



গম রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা শিথিল করলো ভারত

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গম রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে ভারত। মঙ্গলবার ভারতীয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, গমের যেসব চালান পরীক্ষার জন্য কাস্টমসের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে এবং ১৩ মে বা এর আগে তাদের কাছে নিবন্ধিত হয়েছে, এ ধরনের চালানগুলো রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হবে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদেনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিন গমের মিসরগামী একটি চালানেরও ছাড়পত্র দিয়েছে ভারত সরকার। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, চালানটি এরই মধ্যে কান্ডালা বন্দরে লোড করা হচ্ছিল। মিসর সরকারের অনুরোধের ভিত্তিতে সেটিকে ছাড়পত্র দিয়েছে ভারত। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মেসার্স মিরা ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ৬১ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন গম মিসরে রপ্তানি করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে ৪৪ হাজার ৩৪০ মেট্রিক টন গম এরই মধ্যে জাহাজে তোলা সম্পন্ন হয়েছে।

এর আগে, দেশীয় বাজারে মূল্য নিয়ন্ত্রণের কথা বলে গত শুক্রবার (১৩ মে) গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করে ভারত। তবে প্রতিবেশী ও খাদ্য সংকটের ঝুঁকিতে থাকা কিছু দেশকে এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত রাখা হয়েছে। এর বাইরে, অন্যান্য দেশের সরকারের অনুরোধ সাপেক্ষেও গম রপ্তানির সুযোগ রেখেছে নয়াদিল্লি।

ভারতের এ নিষেধাজ্ঞায় বাংলাদেশে গমের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে ওঠার আশঙ্কা তৈরি হয়। তবে রবিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন নিশ্চিত করেছে, প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশে ভারতের গম রপ্তানি বন্ধ হচ্ছে না।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভারতে গম রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞার খবর প্রকাশিত হয়েছে। অভ্যন্তরীণ খাদ্যের প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা, খাদ্যমূল্যের সঙ্গে সম্পর্কিত মূল্যস্ফীতি কমানো এবং ভারতের প্রতিবেশী ও খাদ্য নিরাপত্তার ঝুঁকিতে থাকা অন্য দেশগুলোর চাহিদা পূরণে সহায়তার জন্য এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভারতীয় হাইকমিশনের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট বলা হয়েছে, ভারতে গম রপ্তানির ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ এরই মধ্যে চুক্তিবদ্ধ চালানের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। এই নির্দেশাবলী ভারতের প্রতিবেশী দেশগুলোতেও গম রপ্তানি আটকাবে না। পাশাপাশি, অন্য যেসব দেশ অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে ভারতীয় গম আমদানি করতে ইচ্ছুক, সেসব দেশের সরকারের অনুরোধ সাপেক্ষেও গম রপ্তানি চলবে।

নিউজ ট্যাগ: গম রপ্তানি

আরও খবর



ঢাকায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকায় পৌঁছেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর। বৃহস্পতিবার (২৮এপ্রিল) দুপুর ২টা ১৫মিনিটে রাজধানীর কুর্মিটোলায় বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে তাঁকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ঢাকা সফরকালে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এ ছাড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশ নেবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের জন্য নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণপত্র নিয়ে ঢাকায় এসেছেন তিনি। চলতি বছরের জুনের মাঝামাঝি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত যাবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বছর ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঢাকায় আসেন। সে সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানান।


আরও খবর



টাঙ্গাইলে দুই বাসের সংঘর্ষে চালক নিহত, আহত ২৫

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রান্তিক পরিবহনের এক বাসচালক নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন দুই বাসের অন্তত ২৫ জন যাত্রী। শনিবার (১৪ মে) সকালে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়কের মধুপুরের গাংগাইর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম শামীম (৪৫)। তার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

মধুপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মামুনুর রশিদ জানান, সকাল ৮টায় ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসে প্রান্তিক পরিবহন এবং টাঙ্গাইলের দিক থেকে ছেড়ে আসে মাহি পরিবহন। গাংগাইর এলাকায় পৌঁছালে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে দুই বাসের চালকসহ অনেক যাত্রী গুরুতর আহত হয়। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা স্থানীয়দের সহায়তায় ২৫ জনকে উদ্ধার করে মধুপুর, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ হাসপাতালে পাঠায়।

তিনি আরও জানান, আহতদের মধ্যে থেকে প্রান্তিক পরিবহনের চালক শামীম টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।


আরও খবর