Logo
শিরোনাম

গেম খেলা যাবে স্মার্টওয়াচেই

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতে সস্প্রতি লঞ্চ হয়েছে দেশীয় সংস্থা গিজমোরের নতুন স্মার্টওয়াচ গিজমোর ব্লেজ ম্যাক্স। ব্লুটুথ কলিং ফিচার, স্টেপ কাউন্টার, ব্লাড অক্সিজেন ট্র্যাকার, ক্যালোরি বার্ন, হার্ট রেট মনিটর সহ অসংখ্য ফিচারের সঙ্গে এসেছে স্মার্টওয়াচটি। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে মিনি গেম খেলতে পারবেন এই স্মার্টওয়াচে।

নতুন এ স্মার্টওয়াচটিতে একটি বড় ১.৮৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। ব্লুটুথ কলিং সুবিধা এবং বিটি মিউজিক পাবেন স্মার্টওয়াচটিতে। কলিং এবং মেসেজিং ফিচারের সঙ্গে এতে কল মিউট, আনমিউট, ফোনে কল সুইচের মতো ফিচারও পাবেন ব্যবহারকারী।

স্টেপ কাউন্টার, ব্লাড অক্সিজেন ট্র্যাকার, ক্যালোরি বার্ন, হার্ট রেট মনিটর, স্লিপ ট্র্যাকার এবং ব্লাড অক্সিজেন, স্লিপ মনিটর এবং স্ট্রেস মনিটরের সেন্সরের মতো অনেক ফিচারও এই ঘড়িতে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও নারীদের জন্য়ও থাকছে বিশেষ ফিচার। নারী ব্যবহারকারীরা স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে পিরিয়ড ট্র্যাক করতে পারবেন।

এছাড়াও ঘড়িটিতে আছে স্ট্রেস মনিটর। ক্যালকুলেটর এবং মিনি গেমসও দেওয়া আছে ঘড়িটিতে। সংস্থার দাবি, এটি এক চার্জে ১৫ দিন চালানো যাবে ঘড়িটি। ধুলা এবং পানি প্রতিরোধের জন্য স্মার্টওয়াচটি IP67-রেটযুক্ত। অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস স্মার্টফোনের সঙ্গে যুক্ত করা যাবে ব্লুটুথের মাধ্যমে। ইংরেজি ছাড়াও বিভিন্ন ভাষা পরিবর্তনও করা যাবে স্মার্টওয়াচটিতে।

ব্ল্যাক, বারগান্ডি এবং গ্রে-এই তিন রঙে ঘড়িটি বেছে নিতে পারবেন। ভারতে গিজমোর ব্লেজ ম্যাক্সের দাম থাকছে ১ হাজার ১৯৯ টাকা। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা পাবেন ১ হাজার ৫০০ টাকা। বর্তমানে ফ্লিপকার্ট থেকে কেনা যাবে ঘড়িটি।

নিউজ ট্যাগ: স্মার্টওয়াচ

আরও খবর



শ্রবণশক্তি কমে যাওয়ার লক্ষণগুলো জেনে নিন

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শ্রবণশক্তি কমতে শুরু করলে প্রথমেই বোঝা সম্ভব হয় না। কিন্তু একটা সময় যখন একেবারেই দুর্বল হয়ে যায় তখন আর তেমন কিছু করার থাকে না। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই আমাদের শ্রবণশক্তি ক্ষীণ হতে শুরু করে। কিন্তু একদিনে তা হয় না। এজন্য ধরতে পারা সম্ভব হয় না।

একটু খেয়াল করলেই দেখবেন, কিছু সূক্ষ্ম লক্ষণ রয়েছে। সেগুলো ধরতে পারলে ভালো। কারণ প্রথমেই বুঝতে পারলে দ্রুত চিকিৎসা নেওয়া সম্ভব হয়। চিকিৎসায় দেরি হলে ধীরে ধীরে শ্রবণশক্তি তো কমে যাবেই সেইসঙ্গে স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া, বিষণ্ণতা ইত্যাদি সমস্যাও বেড়ে যেতে পারে। জেনে নিন শ্রবণশক্তি কমে যাওয়ার লক্ষণগুলো-

অস্পষ্ট শোনা: শুরুটা হয় এভাবে, যাদের কণ্ঠস্বর তুলনামূলক ক্ষীণ তাদের কথা অস্পষ্ট শোনা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নারী ও শিশুর কণ্ঠ স্পষ্ট শুনতে পাওয়া যায় না। কারণ তাদের কণ্ঠস্বর পুরুষের তুলনায় কোমল। পাখির ডাক, মৃদু বাঁশির সুর এ ধরনের শব্দ যদি স্পষ্ট শুনতে না পান তবে সতর্ক হোন। সম্ভব হলে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কারণ এগুলো আপনার শ্রবণশক্তি কমে যাওয়ার লক্ষণ হতে পারে।

বেশি মানুষের মধ্যে কথা বলতে অসুবিধা: কোথাও অনেক মানুষের ভিড় থাকলে সেখানে অন্যদের কথা বুঝতে এবং তাদের সঙ্গে কথা বলতে সমস্যা হলে সতর্ক হোন। আপনার শ্রবণশক্তি কমে যাওয়ার অন্যতম লক্ষণ হতে পারে। উচ্চ শব্দও শুনতে তখন সমস্যা হতে পারে। মানুষের কথার চেয়ে কোলাহল বেশি কানে বাজতে পারে। এ ধরনের লক্ষণ দেখলে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

কথা ঠিকভাবে ধরতে না পারা: কেউ একজন হয়তো আপনার সঙ্গে কথা বলছেন কিন্তু আপনি তার কথা ঠিকভাবে ধরতে পারছেন না। শুনতে পাচ্ছেন যে কিছু একটা বলছেন, কিন্তু কী বলছেন তার সবটা বুঝে উঠতে পারছেন না। এমনটা হলে বুঝতে হবে আপনার শ্রবণশক্তি কমতে শুরু করেছে। যদি একই সময়ে একাধিক ব্যক্তির কথা শুনতে বেশি সমস্যা হয় তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

কানের ভেতরে কিছু আটকে আছে মনে হলে: কানের ভেতরে কিছু আটকে থাকার অনুভূতি হলে সতর্ক হোন। যদি মনে হয় কানের ভেতরে ময়লা কিছু আটকে আছে এবং চিকিৎসকের কাছে গিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেও কিছু যদি ধরা না পড়ে তবে বুঝতে হবে আপনার শ্রবণশক্তি কমে যাচ্ছে।


আরও খবর

৮ ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩




৪৩ পৌরসভার আধুনিকায়নে মিলছে না কুয়েতি ফান্ড

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

উন্নয়নের মাপকাঠিতে এখনো বেশ পিছিয়ে দেশের পৌরসভাগুলো। পর্যাপ্ত নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত অধিকাংশ পৌরবাসী। সড়ক যোগাযোগসহ জীবনমান উন্নয়নে জরুরি অনেক সেবাই অপ্রতুল। এসব বিবেচনায় বেশি পিছিয়ে থাকা পৌরসভাগুলোর উন্নয়নে প্রাথমিকভাবে ২৮১ পৌরসভা নিয়ে একটি মাস্টারপ্ল্যান করে সরকার। চলমান প্রকল্পের আওতায় আরও ৪৩টি পৌরসভা যুক্ত করা হয় কুয়েতি ফান্ডের আশ্বাসে। শেষ পর্যন্ত ১৫ মিলিয়ন কুয়েতি দিনার (৫শ কোটি টাকার বেশি) না পাওয়ায় পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে সরকার। চেষ্টা চলছে ভিন্ন কোনো উপায়ে কাজটি সম্পন্ন করার। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ও প্রকল্প সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ আব্দুল খালেক সরকার বলেন, উন্নয়নের দরকার আছে বিধায় আমরা আরও ৪৩টি পৌরসভা চলমান প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছিলাম। মৌখিকভাবে ১৫ মিলিয়ন কুয়েতি দিনারের প্রস্তাবও পেয়েছিলাম। তবে এখন ইআরডি (অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ) থেকে জানতে পেরেছি এই ফান্ড পাচ্ছি না। তাহলে নতুন যুক্ত পৌরসভার কী হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, ৪৩টি পৌরসভা হয়তো নতুন কোনো প্রকল্পের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। পৌরসভার অনেকগুলো প্রকল্প হচ্ছে। নতুনগুলো বাস্তবায়ন করা হবে সরকারি অর্থায়নে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার এবং কুয়েত ফান্ডের যৌথ অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প। এই প্রকল্পের সঙ্গেই কুয়েতের আশ্বাসে আগের ২৮১টির সঙ্গে ৪৩টি যুক্ত করা হয়েছিল। এলজিইডি সূত্র জানায়, শুরুতে প্রকল্পটির মোট ব্যয় ছিল ৮৬৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ৪৬৭ কোটি ৪৭ লাখ এবং কুয়েতি ঋণ ৩৯৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। ১০ এপ্রিল ২০১৮ সালে একনেক সভায় প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। বাস্তবায়নকাল ধরা হয় জুন ২০২২ পর্যন্ত। পরবর্তীসময়ে ২০২২ সালের ১৬ আগস্ট পরিকল্পনা কমিশন ব্যয় বাড়িয়ে প্রকল্পের মেয়াদ দুই বছর, অর্থাৎ জুন ২০২৪ পর্যন্ত বাড়ায়।

বর্তমানে প্রকল্পের মোট ব্যয় নির্ধারিত হয়েছে ১ হাজার ৪০১ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ৫৪৫ কোটি ২৬ লাখ এবং বৈদেশিক অর্থায়ন (ঋণ) ৮৫৬ কোটি ২২ লাখ টাকা। অনুমোদিত ব্যয় থেকে ৬২ দশমিক ০২ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে। জুন ২০২২ তারিখ পর্যন্ত প্রকল্পটির ক্রমপুঞ্জিত অগ্রগতি ৩৫০ কোটি ২২ লাখ, যা মোট প্রকল্প ব্যয়ের ৪০ দশমিক ৪৯ শতাংশ এবং ক্রমপুঞ্জিত বাস্তব অগ্রগতি ৪২ শতাংশ।

প্রকল্পের প্রথম সংশোধন প্রস্তাবের কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রকল্প পরিচালক কাজী সাইফুল কবীর বলেন, প্রকল্পের কাজ চলমান। তবে কিছু কাজের জন্য প্রকল্পটি সংশোধন করা হবে। কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট (কেএফএইডি) থেকে ১৫ মিলিয়ন কুয়েতি দিনার অতিরিক্ত অর্থায়নের আশ্বাসে নতুনভাবে ৪৩টি পৌরসভা অন্তর্ভুক্ত করা হয়। প্রকল্পের আওতায় কতিপয় কার্যক্রম জমির অপ্রাপ্যতার কারণে বাস্তবায়ন করা সম্ভব না হওয়া, পৌরসভার চাহিদা অনুযায়ী এইচবিবি সড়ক এবং সিসি সড়ক নির্মাণ করার জন্য খাতগুলোর আন্তঃঅঙ্গ সমন্বয় করার প্রয়োজনে সংশোধন প্রস্তাব করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

কুয়েত ফান্ডের মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থায়নের বিষয়ে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) জানায়, স্থানীয় সরকার বিভাগের পক্ষ থেকে ৪৩টি পৌরসভাকে আলোচ্য প্রকল্পে নতুনভাবে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে প্রস্তাব পাওয়া যায়। পরে কুয়েত ফান্ডকে ইআরডি থেকে চিঠি দেওয়া হয়। কুয়েত ফান্ড নতুনভাবে অন্তর্ভুক্ত ৪৩টি পৌরসভার সম্ভাব্যতা সমীক্ষার প্রতিবেদন চেয়ে চিঠি দেয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে জানুয়ারি ২০২২ এ কুয়েত ফান্ডকে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রতিবেদন পাঠানো হয়। তবে এখন পর্যন্ত অতিরিক্ত অর্থায়নের বিষয়ে কুয়েত ফান্ড থেকে কোনো নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি।

এলজিইডি জানায়, প্রকল্পটির প্রথম সংশোধনীতে সরকারি ৭৭ কোটি ৮০ লাখ টাকা এবং বৈদেশিক অর্থায়ন ৪৫৮ কোটি ৬৯ লাখ টাকা বাড়িয়ে প্রস্তাব করা হয়েছে। জিওবি (বাংলাদেশ সরকার) অর্থ না বাড়িয়ে প্রকল্পটি সংশোধন করা যায় কি না তা বিবেচনার জন্য অর্থ বিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। প্রকল্পটি শুরুর পর প্রায় পাঁচ বছরে ৩৫০ কোটি ২২ লাখ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। জুন ২০২৪ এর মধ্যে প্রকল্পটির অনুমোদিত ব্যয়ের অবশিষ্ট ৫১৪ কোটি ৭৮ লাখ টাকাসহ অতিরিক্ত ৫৩৬ কোটি ৪৮ লাখ অর্থাৎ মোট ১ হাজার ৫১ কোটি ২৬ লাখ টাকা বরাদ্দ পেতে যাচ্ছে।

পৌরবাসীর জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে অবকাঠামো উন্নয়ন করতে ৬৪ জেলার ২৮১টি পৌরসভা নিয়ে মাস্টারপ্ল্যান করা হয়। এতে পৌরসভাগুলোর পরিবেশ উন্নয়নসহ পৌরবাসীর জীবনযাত্রার মান বাড়বে। দেশের বড় শহরগুলোর জনসংখ্যার চাপ কমানো ও তৃণমূল পর্যায়ের পৌরসভাগুলোতে জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে স্থানীয় সরকার বিভাগ গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন নামে প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়। মাস্টারপ্ল্যানের প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে, ৩ হাজার ৬১৫ দশমিক ৫০ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ, ৪ হাজার ২০০ মিটার ব্রিজ-কালভার্ট নির্মাণ এবং ২৮১ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ করা। নতুন করে ৪৩টি প্রকল্প মাস্টারপ্ল্যানের আওতায় ছিল।


আরও খবর



পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যুর অভিযোগে গাজীপুরে অবরোধ-অগ্নিসংযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুর মহানগরীতে পুলিশের নির্যাতনে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যুর অভিযোগে ঢাকা-ময়মনসিংহ ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন এলাকাবাসী। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রবিউল ইসলাম (৪০) গাজীপুর মহানগরীর ভোগরা বাইপাস পেয়ারা বাগান এলাকার বাসিন্দা। তিনি পেশায় একজন সুতার ব্যবসায়ী ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, গত শনিবার রাতে মোবাইলে বিটকয়েন দিয়ে জুয়া খেলার অভিযোগে চারজনকে আটক করে বাসন থানা পুলিশ। পরদিন তিনজন ছাড়া পেলেও ব্যবসায়ী রবিউল ইসলামকে থানায় আটকে রাখা হয়। মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে বাসন থানার একদল পুলিশ ব্যবসায়ীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীর কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে আসেন। পরে একই দিন রাতে তারা জানতে পারেন রবিউল মারা গেছেন।

এদিকে বুধবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী লাঠিসোটা নিয়ে ঢাকা টাঙ্গাইল-মহাসড়ক ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেন। এক পর্যায়ে এলাকাবাসী মহাসড়কে চারটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন। একই সঙ্গে বগুড়া বাইপাস মোড়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালান।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মালেক খসরু খান জানান, বুধবার সকালে একটি গুজবকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসী রাস্তায় ভাঙচুর ও বিক্ষোভ করছে।


আরও খবর

কড়াইয়ের গরম তেলে পড়ে শিশুর মৃত্যু

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩




এবার এক জিম ইনস্ট্রাকটরের সাথে প্রেমের গুঞ্জন শ্রাবন্তীর

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তৃতীয় স্বামীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ না হওয়ার আগেই বন্ধু অভিরূপের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি বলে খবর বেরিয়েছিল। সেই সম্পর্ক ভেঙে যেতে না যেতেই শ্রাবন্তীর জীবনে নতুন মানুষের আগমনের গুঞ্জন এখন টলিপাড়ায় কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে।

ইন্ডিয়া টুডে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি। তার নতুন প্রেমিক মনের সঙ্গে শরীর ফিট রাখার দায়িত্বও নিয়েছেন। টলিপাড়ার জোর গুঞ্জন, শ্রাবন্তী তার জিম ইনস্ট্রাকটরের প্রেমে পড়েছেন। প্রায়ই তাদের একসঙ্গে সময় কাটাতে দেখা যায়।

জানা যায়, শ্রাবন্তীর ফিটনেস কোচ হিসেবে রয়েছেন অরজিৎ ঘোষাল। তার ইনস্টাগ্রামে ঢুঁ মেরে দেখা যায়, শ্রাবন্তীর সঙ্গে তোলা ছবি মাঝে মধ্যে পোস্ট করেন তিনি। একটি ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, আমরা প্রবাহিত হতে পারি, পার্টি করতে পারি। কারণ আমরা অতিমানব।

শ্রাবন্তী এখন তার শরীর নিয়ে যথেষ্ট সচেতন। প্রায়ই তাকে তার শরীর চর্চার ভিডিও পোস্ট করতে দেখা যায়। শ্রাবন্তী যে জিমে যান সেখানে টলিউডের একাধিক তারকাও প্রায়ই শরীরচর্চা করেন। যদিও এই নায়িকার ঘনিষ্ঠজনরা নতুন এই সম্পর্ক নিয়ে সন্দিহান! তবে যা রটে তার কিছু তো ঘটে বটেই!


আরও খবর

আপাতত দেশে আসছে না 'পাঠান'

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩




বিয়ে বাড়িতে চাঁদা দাবি

মিরপুরে তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জন গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চাঁদার দাবিতে বিয়ে বাড়িতে তাণ্ডবের অভিযোগে তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে মিরপুর মডেল থানার ৩ নম্বর সেকশনের ৮ নম্বর রোড থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন-  বৃষ্টি আফরিন (২৫), মধু (৩২), ঈশানী (২৫) ও সুমি (২২)।

মিরপুর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, মিরপুর মডেল থানার ৩ নম্বর সেকশনের, সি ব্লক, ৮ নম্বর রোডে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন চলছিল। সেই তথ্য পেয়ে দুপুরে তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জন সেখানে উপস্থিত হয়। বাড়িতে গিয়েই তারা ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা সেখানে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন।

পরবর্তীতে পাত্রী নিজে তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জনকে ১৫শ টাকা দেন। কিন্তু এই টাকা পেয়ে তারা আরও বেশি চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে এবং বিভিন্ন অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে। এ সময় ভয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন পাত্রী। এতে তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। তারা দরজায় ধাক্কা ও লাথি মারা শুরু করে। একপর্যায়ে সেই ঘর বাইরে থেকে বন্ধ করে দিয়ে বিয়ে বাড়ির পাত্রীসহ অনেককে অবরুদ্ধ করে রাখেন তারা। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে এবং তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাদের দেওয়া সেই দেড় হাজার টাকাও জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।


আরও খবর

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট বন্ধ

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

রাজধানীতে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩