Logo
শিরোনাম

গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ায় করোনা উপসর্গে মৃত্যু ১৯ জনের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়ার বিভিন্ন হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গে মারা গেছেন ১৪ জন। এছাড়া করোনা পজিটিভ হয়ে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একই সময়ে ৯৩৩টি নমুনা পরীক্ষায় ২৪৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৩৬ শতাংশ। মঙ্গলবার (২০ জুলাই) সকালে জেলা সিভিল সার্ভিস অফিস থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল এবং ২৫০ শয্যার বগুড়া মোহাম্মদ আলী ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে করোনা পজিটিভ রোগী মারা গেছেন আরও পাঁচ জন। এদের মধ্যে বগুড়া জেলার বাইরের রোগী ছিলেন তিন জন, জানান ডেপুটি সিভিল সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন।

২৪ ঘণ্টায় বগুড়া জেলায় সুস্থ হয়েছেন ২৩ জন। তিনটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৫৫১ জন, জানায় সিভিল সার্জন অফিস।


আরও খবর



সুন্দরবনে শুরু হচ্ছে বাঘ শুমারি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনে বাঘ শুমারি শুরু হচ্ছে। ইতোমধ্যে শুমারির প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে এবারের শুমারিতে বিদেশি বিশেষজ্ঞ থাকছে না। সংশ্লিষ্টরা এবারের শুমারি শুরুর ছয় মাসের মধ্যে ফলাফল পাওয়ার আশা করছেন। বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, খুলনা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে, বিদেশি বিশেষজ্ঞ না থাকলেও এবার ভালো ফলাফল পাওয়ার আশা করছেন তিনি। বাঘের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য প্রাণি সংরক্ষণের আঞ্চলিক সহযোগিতার জোরদারকরণ প্রকল্প নেওয়া হয়। এ প্রকল্পে ৩০ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়। ক্যামেরায় ছবি তোলার মাধ্যমে ২০১৩ সাল ও ২০১৮ সালে বাঘ শুমারি হয়। ইনফ্লারেড নামক ক্যামেরার মাধ্যমে বাঘ শুমারি হয়। বনবিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ১৯৮২ সালে বাঘের সংখ্যা ছিল ৪৫৩। ১৯৮৫ সালের জরিপে বাঘের সংখ্যা ৪৫০। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা-এফএওর বিশেষজ্ঞদের মতে, ১৯৯৪ সালের বাঘের সংখ্যা ৩৬৯টি। ২০০৪ সালে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি ও বন বিভাগের যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত শুমারি অনুযায়ী সুন্দরবনের বাঘের সংখ্যা ৪৪০। ২০১৩ সালের জরিপ অনুযায়ী, সুন্দরবনের বাঘের সংখ্যা ১০৬টি। সর্বশেষ ২০১৮ সালের জরিপ অনুযায়ী সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১৪টি। বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, খুলনা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল জানান, অন্যান্য বার বিদেশি বিশেষজ্ঞ থাকলেও এবার দেশি বিশেষজ্ঞদের দিয়ে সুন্দরবনের বাঘ শুমারি হবে। তিনি বলেন, সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের সুপতি এলাকায় বন কর্মচারীরা বাঘের সন্ধান পেয়েছে। এবারে ভালো ফলাফল আশা করা যাচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। ওয়ার্ল্ড লাইফ ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান রনথম্বোর ফাউন্ডেশন ও ওয়ার্ল্ড নেচার ইনস্টিটিউট এর তথ্যমতে, সুন্দরবনে বাংলাদেশ অংশে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা হার অব্যাহত থাকলে ২০৭০ সাল নাগাদ এখানে বাঘের সংখ্যা ৯৬ শতাংশ কমে যাবে। ২০১২ সালের ১২ জুন ঢাকার শ্যামলী থেকে উদ্ধার হওয়া তিনটি বাঘের শাবক ডুলাহাজারার বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে ছেড়ে দেওয়া হয়। সুন্দরবন বিভাগের রেকর্ড অনুযায়ী, ২০০১-২০২১ সাল পর্যন্ত সিডর, বাধক্যজনিত, গণপিটুনি ও শিকারীর হাতে সুন্দরবনের পূর্ব ও পশ্চিম বিভাগে ৩০টি বাঘ মারা পড়ে।


আরও খবর



পুরনো বন্ধু রূপে মেসি-নেইমার

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

লিওনেল মেসি ও নেইমারের বন্ধুত্ব বেশ পুরনো। একসময় বার্সেলোনায় একে অন্যের সতীর্থ ছিলেন।

একসঙ্গে জিতেছেন বেশকিছু শিরোপা। পরে দুজনের পথ আলাদা হয়ে গেলেও বন্ধুত্বে এতটুকু মরচে ধরেনি। কিন্তু মাঠের লড়াইয়ের সময় সেই বন্ধুত্ব এক পাশে সরিয়ে রেখে শিরোপা জেতার দিকে সব নজর দেন নেইমার জুনিয়র। এক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেননি কেউ কাউকে।

এমনকি তাতে যদি বন্ধুত্ব ভেঙেও যায় তাহলেও একচুলও ছাড় দেবেন না বলে জানিয়েছিলেন ব্রাজিল তারকা।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে অবশ্য ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার ট্রফি জিতেছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা। রবিবার ঐতিহাসিক মারাকানায় আনহেল দি মারিয়ার একমাত্র গোলে উদযাপনে মাতে আলবিসেলেস্তারা।

একইসঙ্গে নিজের ক্যারিয়ারে প্রথম কোনো মেজর টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতলেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

এই শিরোপা জয়ে কোপা আমিরেকার সর্বোচ্চ ট্রফি ঘরে তোলার রেকর্ডে উরুগুয়ের পাসে বসলো আর্জেন্টিনা। এবার ১৫তম শিরোপা জিতল ম্যারাডোনার দেশ।

ম্যাচ শেষে অবশ্য পুরনো সেই বন্ধু রূপে দেখা যায় মেসি-নেইমারকে। একজন আরেকজনকে আলিঙ্গন করেন। 


আরও খবর



৩ দিন বিশেষ ট্রেনে ঢাকায় আসবে কোরবানির পশু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঈদের আগের তিন দিন কোরবানির পশু পরিবহনের জন্য বিশেষ ক্যাটল স্পেশাল ট্রেন পরিচালনা করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। মঙ্গলবার (৬ জুলাই) রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা শওকত জামিল মোহসি এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ঈদের আগে তিন দিন পশু আনা হবে। ১৭, ১৮ ও ১৯ জুলাই পশুগুলো আনা হবে। তবে ব্যবসায়ীদের চাহিদার ভিত্তিতে এর সংখ্যা কম বেশি হতে পারে।

তিনি আরও জানান, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ বাজার থেকে ঢাকার মধ্যে এই ট্রেন চলবে। দেওয়ানগঞ্জ বাজার থেকে বেলা সাড়ে ৩টায় ট্রেনটি ছেড়ে ঢাকার কমলাপুর স্টেশনে পৌঁছাবে পরের দিন সকাল ৬টায়। একটি ট্রেনে ৪০০টি পর্যন্ত পশু পরিবহন করা যাবে।

এর পাশাপাশি খুলনা এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকায় পশু পরিবহনের জন্য ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা রয়েছে। তবে ব্যবসায়ীদের আগ্রহ থাকলে এখান থেকেও স্পেশাল ট্রেন চালানো হবে বলে রেলওয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

গত বছর পবিত্র ঈদুল আজহায় কোরবানির পশু পরিবহনে বিশেষ ট্রেন চালু করা হয়েছিল। এছাড়া, দুই বছর ধরে আম পরিবহনেও বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।


আরও খবর



কাশ্মীরে সংঘাতে দুই ভারতীয় সেনাসহ নিহত ৮

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে তিনটি আলাদা বন্দুকযুদ্ধে দুই ভারতীয় সেনাসহ ৮ জন নিহত হয়েছে। ভারতের দাবি, নিহত অন্য ছয় জন সন্ত্রাসী। বৃহস্পতিবারে সবচেয়ে বড় সংঘাতটি হয় লাইন অব কন্ট্রোলের কাছে। সেখানে বন্দুকযুদ্ধে দুই সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী ও দুই ভারতীয় সেনা নিহত হয়। ভারতের পক্ষ থেকে বলা হয়, সেনাবাহিনীর একটি দল নিয়ন্ত্রণ রেখায় টহল দিচ্ছিল। এসময় সন্ত্রাসীরা হঠাৎ করে তাদের ওপর হামলা চালায়। শুরু করে গুলি, নিক্ষেপ করে হাত বেমা। পরে সেনাবাহিনীর আত্মরক্ষামূলক গুলিতে নিহত হয় সন্দেহভাজন দুই সন্ত্রাসী। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় ২টি একে ৪৭ বন্দুক। খবর আল জাজিরা।

এছাড়া দক্ষিণ কাশ্মীরে পুলওয়ামা ও কুলগামে আরও দুটি অভিযানে ৪ জন সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী নিহত হয়। ভারতীয় পুলিশ বলছে, কুলগামে যে দুজন নিহত হয় তারা জাতীয় মহাসড়কে বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে উপস্থিত হলে শুরু হয় সংঘর্ষ। নিহত ৪ সন্ত্রাসীর নাম শাহবাজ আহমেদ শাহ, নাসির আইয়ুব পণ্ডিত, কিফায়াত সোফি ও ইনায়েত আহমেদ। এদের মধ্যে শাহবাজ জইশ ই-মোহাম্মদের সদস্য আর বাকিরা লস্কর ই-তৈয়বার সদস্য।

এর আগে গত ২ জুলাই ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার রাজপোড়া অঞ্চলে বিচ্ছিন্নতাকামী যোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনী, পুলিশ ও প্যারামিলিটারি বাহিনীর সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে পাঁচজন বিচ্ছিন্নতাকামী এবং একজন ভারতীয় সেনা।

ভারতের দাবি, নিহত হওয়া বিচ্ছিন্নতাকামী পাঁচজন পাকিস্তান-ভিত্তিক লস্কর-ই-তৈয়্যবার সদস্য। এর আগে গত ১ জুলাই রাতে রাজপোড়া এলাকায় যৌথ অভিযান শুরু করে ভারতীয় বাহিনী। এ অভিযানে নিহত হয় ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক সদস্য ও পাঁচ সশস্ত্র যোদ্ধা।

এদিকে পাকিস্তান-নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরেও সম্প্রতি নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। ৩০ জুন উপত্যকার কুলগ্রাম বনাঞ্চলে সেনাদের হামলায় সন্দেহভাজন তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। ১ জুলাই দেশটির সেনাবাহিনী বলেছে, চলতি বছর এ পর্যন্ত ৬১ জঙ্গি নিহত হয়।

এর আগে গত ২৪ জুন দিল্লিতে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সর্বদলীয় বৈঠক করেন উপত্যকার নেতারা। সেখানে কাশ্মীরকে ফের রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কাশ্মীরের সাংবিধানিক বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের প্রায় দুই বছর পর এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। তবে কখন মর্যাদা ফিরিয়ে দেয়া হবে তা খোলাসা করেননি নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, উপযুক্ত সময়ে তা ফিরিয়ে দেয়া হবে।

তিন ঘণ্টার এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আটটি দলের ১৪ জন নেতা। ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও লেফটন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা। কাশ্মীরের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লাহ, ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতি।

বৈঠক শেষে কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ বলেন,তাদের মোট পাঁচটি দাবি ছিল। অবিলম্বে জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে হবে, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য বিধানসভা নির্বাচন দিতে হবে, কাশ্মীরি পণ্ডিতদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করতে হবে, সব রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দিতে হবে ও আধিপত্য আইনে বদল আনতে হবে।

সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতির বলেন, কাশ্মীরের সাংবিধানিক বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে হবে। কাশ্মীরের জনগণ তাদের বিশেষ মর্যাদার জন্য শান্তিপূর্ণভাবে লড়াই চালিয়ে যাবেন, তাতে যত সময় লাগুক।

২০১৯ সালের আগস্টে ভারত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে। ফলে কাশ্মীর এতদিন যে বিশেষ অধিকার পেত তা খারিজ হয়ে যায়। একই সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যটিকে ভেঙে দুইটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়। এর একটি হলো লাদাখ এবং অপরটি জম্মু-কাশ্মীর। অঞ্চলটির সার্বিক উন্নয়নের জন্যই ভারত এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানায় নরেন্দ্র মোদির বিজেপি সরকার।

নিউজ ট্যাগ: ভারত কাশ্মীর

আরও খবর



কোভিড আক্রান্ত মুশফিকের বাবা-মা

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচ জয়ের পর ওয়ানডে সিরিজের জন্য অনুশীলনে ছিলেন মুশফিক। বুধবার অনুশীলন ম্যাচ খেলতেও নেমেছে বাংলাদেশ দল তবে একাদশে ছিলেন না তিনি

হঠাত করেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকে বুধবার দুপুরে জানানো হয়, জিম্বাবুয়ে থেকে আজই দেশে ফিরছেন মুশফিকুর রহিম। তার ফেরার কারণ হিসেবে বিসিবি জানায় পারিবারিক কারণে ফিরছেন তিনি।

তবে জানা গেছে বগুড়ায় গ্রামের বাড়িতে কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন মুশফিকের বাবা ও মা। বিসিবি সূত্র থেকে জানা গেছে, হেলিকপ্টারযোগে দুজনকেই ঢাকা আনা হচ্ছে।

এদিকে হারারেতে বিসিবি মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম বলেন, এ মুহূর্তে মুশফিক এবং তাঁর পরিবারের প্রতি আমাদের শুভকামনা থাকবে। এ মুহূর্তে এটাই আসল। সেভাবেই চিন্তা করা হচ্ছে। উনি দেশে ফিরে যাচ্ছেন। সেখানে গিয়ে পরিবারের অবস্থা বুঝলে তারপর বলা যাবে। আমাদের পুরোপুরি সহানুভূতি ও শুভেচ্ছা রইল তাঁর পরিবারের প্রতি। ভবিষ্যতে কী হবে, এটা নিয়ে কোনো বক্তব্য দিতে চাইছি না, যেহেতু এটা খুবই স্পর্শকাতর বিষয়।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচ জয়ের পর ওয়ানডে সিরিজের জন্য অনুশীলনে ছিলেন মুশফিক। বুধবার অনুশীলন ম্যাচ খেলতেও নেমেছে বাংলাদেশ দল তবে একাদশে ছিলেন না তিনি।

আগামী ১৬, ১৮ ও ২০ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এরপর ২৩ জুলাই থেকে রয়েছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

সফরের আগে জিম্বাবুয়ে সফরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবেন না বলে বোর্ডের কাছে আবেদন করলেও গতকাল সোমবার প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানান, টি-টোয়েন্টি সিরিজেও খেলার কথা জানিয়েছে মুশফিক।


আরও খবর