Logo
শিরোনাম

গুগল ম্যাপ কীভাবে জানে কোন রাস্তায় কেমন যানজট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গুগল ম্যাপ এখন সবারই পরিচিত। জানা-অজানা যে গন্তব্যে যাওয়াই হোক না কেন, দৈনন্দিন জীবনে যাতায়াত ব্যবস্থার ক্ষেত্রে বিপ্লব এনেছে এই গুগল ম্যাপ।

এই প্রযুক্তি শুধু গন্তব্যের পথই চিনিয়ে দেয় না, সরাসরি দেখিয়ে দেয় কোন পথে কতটা বা যানজট রয়েছে। গুগল ম্যাপে কোনও রাস্তা লাল দেখানোর মানেই সেই রাস্তায় যানবাহন চলাচলের গতি অত্যন্ত ধীর। কিন্তু কীভাবে এতো হাজার হাজার রাস্তার যানবাহনের গতিবিধিতে সরাসরি নজর রাখে গুগল?

২০০৯ সাল পর্যন্ত সংস্থাটি বিভিন্ন রাস্তার উপর থাকা স্থায়ী প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তথ্য সংগ্রহ করত। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার উপর গাড়ির গতি মাপার যন্ত্র থাকে। পাশাপাশি থাকে ক্যামেরাও। সেই সময় এই ধরনের যন্ত্রের মাধ্যমে যানবাহনের গতিবিধির হার পর্যবেক্ষণ করে বিভিন্ন রাস্তায় যানজটের তথ্য দিত সংস্থাটি। কিন্তু এই পদ্ধতিতে বেশ কয়েকটি অসুবিধা ছিল। একে তো গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা ছাড়া অধিকাংশ সড়কেই এই ধরনের গতি মাপার যন্ত্র ও ক্যামেরা ছিল না, উপরন্তু এই ভাবে তথ্য সংগ্রহ করতে সময়ও লাগত বেশি।

২০০৯ ও ২০১৩ সালে অ্যালফাবেট বা গুগল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এমন কিছু আধুনিক পদ্ধতি গ্রহণ করা হয়, যা এক লাফে বদলে দেয় গোটা ব্যবস্থাটি। রাস্তার উপর থাকা যন্ত্রের বদলে স্মার্ট ফোন ও যানবাহনের থেকে সরাসরি তথ্য সংগ্রহ শুরু করে তারা। কাজে লাগানো হয় জিপিএস পদ্ধতি। এখন গুগল ম্যাপসহ অধিকাংশ অ্যাপ ব্যবহার করতে চাইলে চালু করতে হয় ফোনের লোকেশন। যখন আমরা নিজেদের অবস্থান বা লোকেশন চালু করি, তখন সেই তথ্য সরাসরি চলে যায় গুগলের সার্ভারে। একইভাবে স্মার্ট ফোন ব্যবহারকারী অসংখ্য মানুষের অবস্থান সংক্রান্ত তথ্য প্রতিনিয়ত জমা হতে থাকে গুগলের কাছে।

পাশাপাশি এখন অধিকাংশ গাড়িতেও এই ব্যবস্থা থাকে। সংস্থাটি প্রযুক্তির মাধ্যমে খতিয়ে দেখে এই সব তথ্য। যদি দেখা যায়, একটি রাস্তার উপর যত মানুষ যাতায়াত করছেন তাদের সকলের অবস্থানই দীর্ঘক্ষণ বদল হচ্ছে না অথবা ধীর গতিতে বদল হচ্ছে, তখন প্রযুক্তি জানিয়ে দেয় যে সংশ্লিষ্ট রাস্তায় যান চলাচলের গতিবেগ খুবই কম। ফলে এই সময় গুগল ম্যাপে রাস্তার রং হয়ে যায় লাল।

তবে শুধু এই মূল পদ্ধতিটিই নয়, এটি ছাড়াও আরও হরেক রকমের পদ্ধতি ব্যবহার করে প্রযুক্তিকে আরও নিপুণ করার চেষ্টা করে চলেছে গুগল। শোনা যাচ্ছে, ভবিষ্যতে অসংখ্য ক্ষুদ্রাকৃতি উপগ্রহ মহাকাশে পাঠিয়ে ম্যাপের তথ্যকে আরও নিখুঁত করতে চায় সংস্থাটি।

নিউজ ট্যাগ: গুগল ম্যাপস

আরও খবর



চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সীতাকুণ্ড থানার ভাটিয়ারী ইউনিয়নে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে সাড়ে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে। বুধবার (১১ মে) বিকেলে কদমরসুল এলাকার এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনায় পরপরই অভিযুক্ত আবদুল কুদ্দুস লিটনকে স্থানীয়রা আটক করে রাত সোয়া নয়টার দিকে সীতাকুণ্ড থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।  লিটন ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কদমরসুল এলাকার আমিন কোম্পানির ভাড়া বাসায় করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে।

গ্রেফতার আবদুল কুদ্দুস লিটন (৩০), নোয়াখালী জেলা সেনবাগ থানার শামসুল হকের ছেলে বলে জানা গেছে।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত লিটন একটি শীপ ব্রেকিং ইয়ার্ডে বাবুর্চির কাজ করে। ঈদে তার স্ত্রী গ্রামের বাড়িতে যায়। বুধবার (১১ মে) বিকেলে পাশের বাসার সাড়ে চার বছরের শিশুকে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে বাসায় ডেকে নিয়ে যায়। বাসায় ধর্ষণের চেষ্টা করলে ঐ শিশুর চিৎকার শুনে আশেপাশে মানুষ ছুটে আসেন। এ সময় লিটনকে আটক করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বনিক জানান, সাড়ে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে স্থানীয়রা আটক করেন। রাত সোয়া নয়টার দিকে থানায় হস্তান্তর করেন৷ এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।  


আরও খবর



প্রতারণা মামলায় ১১ আফ্রিকান নাগরিক রিমান্ডে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে উপহারের নামে প্রতারণার অভিযোগে অভিযোগে গ্রেফতার ১১ আফ্রিকান নাগরিককে তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১০ মে) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমান ছিদ্দিকী রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

১১ বিদেশি হলেনহেনরি ওসিতা ওকেচুকু, চিসম ইমানুয়েল ওবাইজুলু, ওকাকে পিটার, ওবিনা সান্ডে, ওনেকা এমবা, চিছম এন্থনি ইকুয়েনজে, ওকেয়া আজুবিকে, অনুয়ারাহ ওজুয়েমেনা ডানিয়েল, অনুরুকা জিনিকা ফ্রান্সিস, লকি ও ডোমাডু চিনেডো।

সিএমএম আদালতে গুলশান থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা উপপরিদর্শক আলমগীর হোসেন রিমান্ডের এ তথ্য জানান।

গত ২০ এপ্রিল রাজধানীর পল্লবী ও ভাটারা থানা এলাকা থেকে তাদের আটক করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা (ডিবি) গুলশান বিভাগ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি ডলার ট্রিক মেশিন, সিলভার কাপড়ে মোড়ানো ১৮টি বান্ডেল, প্রতারণা কাজে ব্যবহৃত ১৭টি মোবাইল ফোন, দুটি ল্যাপটপ, কেমিক্যালের বোতল, বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টের কপি উদ্ধার করা হয়। পরদিন তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

এরপর গত ২৭ এপ্রিল মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের গুলশান বিভাগের উপপরিদর্শক মোহাম্মদ শফিকুল আলম গুলশান থানার মামলায় তাদের ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত আসামিদের উপস্থিতিতে রিমান্ড শুনানির জন্য ১০ মে দিন ধার্য করেন।

এ দিন শুনানিকালে তাদের কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। আসামিদের পক্ষে তাদের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত ১১ আসামির তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।


আরও খবর



ফিলিপাইনে অগ্নিকাণ্ড, শিশুসহ ৮ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলার উপকণ্ঠে একটি বস্তিতে সোমবার আগুনে ৮০টি বাড়ি পুড়ে গেলে ছয় শিশুসহ আট জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির দমকল বাহিনীর এক কর্মকর্তা একথা জানিয়েছেন।

দমকল বাহিনীর জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা গ্রেগ বিচায়দা এএফপি’কে জানান, ফিলিপাইন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের ভিতরে একটি জনাকীর্ণ অস্থায়ী বসতির একটি বাড়ির দ্বিতীয় তলায় স্থানীয় সময় ভোর ৫টার দিকে আগুন লেগে আরো তিনজন আহত হয়েছেন। আগুন নেভাতে প্রায় দুই ঘণ্টা সময় লাগে।

তিনি বলেন, আগুন লাগার কারণ তদন্ত করা হচ্ছে।

বিচায়দা বলেন, আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় বাড়ির ভেতর আটকে পড়ে ৮ জন মারা যায়। নিহতদের বয়স এখনো জানা যায়নি, তবে এদের মধ্যে ৬ শিশু রয়েছে।

বিচায়দা বলেন, হালকা সামগ্রী দিয়ে তৈরি বাড়িগুলোতে আগুন লেগে গেলে বাসিন্দারা হতবাক হয়ে যান। কী করবেন বুঝতে পারছিলেন না। ফায়ার স্টেশন কাছাকাছি ছিল কিন্তু তারা তাৎক্ষণিকভাবে আমাদেরকে জানাতে পারেননি।


আরও খবর



কৈলাশটিলায় আরও ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন বেড়েছে

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সিলেটের কৈলাশটিলার ৭ নম্বর কূপ থেকে ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা শুরু হয়েছে। শনিবার (৭ মে) রাত ৮টা ৪৫ মিনিট হতে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেড-এর কৈলাশটিলার এই কূপ থেকে গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়। বাপেক্স সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বাপেক্স জানায়, কূপটির পরীক্ষামূলক উৎপাদনকালে ২৭০০ পিএসআই (প্রতি বর্গ ইঞ্চি) পাওয়া যায়। ২৪ এপ্রিল থেকে ওই কূপ থেকে পরীক্ষামূলক গ্যাস উৎপাদন শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে কৈলাশটিলার ৭ নম্বর কূপটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। এর আগে এই কূপের ৩০১৫ মিটার গভীর থেকে গ্যাস উত্তোলন করা হচ্ছিল।

কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রটিতে মোট ৭টি কূপ আছে। এতদিন ২টি কূপ দিয়ে ২৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা হতো। এখন তাতে আরও ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট যোগ হলো।

কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রে গ্যাস পাওয়া যায় ১৯৬২ সালে। এখান থেকে প্রথমবার ১৯৮৩ সালে গ্যাস উৎপাদন শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, কৈলাশটিলা ফিল্ডের লোয়ার গ্যাস স্যান্ড জোনের অবশিষ্ট উত্তোলনযোগ্য গ্যাস মজুদ ৭৫৮ বিলিয়ন ঘনফুট।


আরও খবর



ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন চালু হচ্ছে চলতি মাসেই

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ট্রেনে করে আম পরিবহনে এবারও ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন চালু করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহী জেলা সংলগ্ন এলাকা থেকে আমসহ অন্যান্য পার্সেল পরিবহনের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলতি মাসেই ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন চালু হবে। বিশেষ এই ট্রেনে আমের পাশাপাশি ফল ও অন্যান্য শাকসবজি পরিবহন করা যাবে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন চালানোর জন্য পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়েকে বলা হয়েছে। এবার কয়টি ট্রেন চলবে এবং সেগুলোর শিডিউলসহ বিস্তারিত জানাতে বলা হয়েছে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়েকে। চাহিদা পাওয়া গেলে বাংলাদেশ রেলওয়ে অনুমোদন দেবে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (পশ্চিম) অসীম কুমার তালুকদার আজকের পত্রিকাকে বলেন, ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন এবারও আমরা চালাব। তবে কবে থেকে চালাব সেই তারিখ এখনো নির্ধারণ হয়নি। আমরা আশা করছি, এ মাস থেকেই বিশেষ এই ট্রেন রাজশাহী থেকে ঢাকা চলাচল করবে। আজকে আমরা রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের সঙ্গে এ বিষয়ে একটি মতবিনিময় করেছি। আগামী শুক্রবার রোহনপুর ব্যবসায়ী বণিক সমিতির সঙ্গে আরেকটি সভা হবে। তারপর আমরা বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক এবং রেলমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে এই ট্রেন চালানোর তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

এবার আম পরিবহনে কয়টা ট্রেন চালানো হবে সে বিষয়ে জানতে চাইলে অসীম কুমার বলেন, আম কী পরিমাণ আনবে ব্যবসায়ীরা সেই চাহিদার ওপর ভিত্তি করে করে ট্রেনের সংখ্যা নির্ধারণ করা হবে।

গত বছরে ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেনে এক মণ আম রাজশাহী থেকে ঢাকার কমলাপুর স্টেশনে পৌঁছাতে খরচ পড়েছে ৪৭ টাকা ২০ পয়সা। অর্থাৎ কেজিপ্রতি খরচ হয়েছে ১ টাকা ১৮ পয়সা। আর চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশন থেকে ঢাকায় আম পাঠাতে প্রতি কেজিতে খরচ পড়েছে ১ টাকা ৩০ পয়সা। অর্থাৎ এক মণে মাত্র ৫২ টাকা।


আরও খবর