Logo
শিরোনাম

গুঞ্জন সত্যি করে দ্বিতীয় বিয়ের খবর জানালেন মাহিয়া মাহি

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি আবারও বিয়ে করছেন বলে সম্প্রতি মিডিয়ায় যে গুঞ্জন চাউর হয়েছিল তা এখন বাস্তবে রূপ নিয়েছে। সে গুঞ্জনের বাস্তবতা নিজেই গভীর রাতে প্রকাশ করলেন এই নায়িকা। অবশেষে সেই সারপ্রাইজ নিয়ে হাজির হলেন চিত্রনায়িকা মাহি। ফেসবুকে ছবি প্রকাশ করে নিজের দ্বিতীয় বিয়ের কথা জানিয়ে চমকে দিয়েছেন তিনি।

রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১২টা ২৫ মিনিটে অর্থাৎ ১৩ সেপ্টেম্বর (সোমবার) ফেসবুকে নিজের বিয়ের ছবি মাহি নিজেই প্রকাশ করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে বিয়ের মঞ্চে ব্যবসায়ী বর কামরুজ্জামান সরকার রাকিবের পাশে বসে আছেন কনে মাহি। অভিনেত্রীর কাছ থেকে কাবিননামায় স্বাক্ষর নেওয়া হচ্ছে।

বিয়ের বিশেষ এই মুহূর্তের ছবিটি প্রকাশ করে মাহি জানান, সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ১২টা ৫ মিনিটে তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে।

ছবির ক্যাপশনে মাহি লেখেন, আলহামদুলিল্লাহ। আজ ১৩/০৯/২১ইং ১২টা ০৫ মিনিটে আমাদের বিবাহ সম্পন্ন হলো। এর আগের সব কথা আসলেই গুজব ছিল। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন, এটাই একমাত্র চাওয়া।

এর আগে গত ১১ জুন দিনগত রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেন তিনি। সেখানে মেহেদি রাঙা হাত, কপালে ছোট লাল টিপ, নাকে ছিলো নাকফুল, পরনে লাল কাতান শাড়িতে নববধূর মতোই সেজেছিলেন মাহি।

ক্যাপশনে এই নায়িকা লিখেছিলেন, আমি তোমাকে গানে, সিনেমায় এমনকি সব জায়গায় অনুভব করি, আলহামদুলিল্লাহ।

মাহির ছবি ও ক্যাপশন দেখে তার ভক্তদের মাথা ঘুরপাক খেতে শুরু করে। কেননা সেই পোস্টটি তার বিয়ের দিকেই ইঙ্গিত করে। তবে রাকিবের সঙ্গেই বিয়ের বিষয়টি স্পষ্ট হয় ওই ছবির কমেন্ট বক্সে। সেখানে রাকিব কমেন্ট করেছিলেন, কে তুমি? জবাবে মাহি লিখেছিলেন, বউ

পরবর্তীতে মাহির ফেসবুক স্ট্যাটাসগুলো আরও রোমান্টিক হয়ে ওঠে। ১৪ জুন লিখেন, মিসিং ইউ। ১৮ জুন লিখেন, আমি সারা দুনিয়া ঘুরিয়া দেখি, সুখ তো আমার ব্যালকনিতেই ছিল। এরপর লিখেন, একজন কেউ থাকুক যে তোমাকে ছাড়বে না। তিনি লিখেছেন, আমি ১২ বছরের সম্পর্ক ভেঙে যেতে দেখেছি, আবার ১২ দিনের সম্পর্ক আজীবন টিকে যেতেও দেখেছি।

এখানেই শেষ নয়। জুন মাসের শেষ সপ্তাহে মাহি ফেসবুকে তিনবার লেখেন, ‌আলহামদুল্লিলাহ। আগস্ট মাসের ৬ তারিখে আবারও একইভাবে লেখেন, আলহামদুল্লিলাহ। তার সেসব স্ট্যাটাসের কমেন্টবক্সে রাকিবও লিখেছেন আলহামদুলিল্লাহ

ব্যক্তিজীবনে ২০১৬ সালের ২৫ মে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহিয়া মাহি। তবে শুরু থেকেই তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহ চলছে বলে গুঞ্জন চাউর হলেও সেসব গুঞ্জন উড়িয়ে দিতেন নায়িকা। সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে গেলো ২২ মে দিনগত রাতে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের বিষয়টি স্পষ্ট করে স্ট্যাটাস দেন তিনি।

মাহি লিখেন, এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সঙ্গে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা।

কিছুদিন যেতে না যেতেই আবারও মাহির বিয়ের গুঞ্জন ওঠে। মাহি সে বিষয়টি অস্বীকার করলেও গুঞ্জন পিছু ছাড়ে না। এ সংক্রান্ত কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। যা এই গুঞ্জনকে জোরালো করে।



আরও খবর



পিএইচডি-মাস্টার্স ডিগ্রির কোনো মূল্য নেই

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সদ্য দায়িত্ব নেওয়া তালেবান সরকারের শিক্ষামন্ত্রী শেখ মৌলভী নরুদ্দিন মুনির বলেছেন, পিএইচডি আর মাস্টার্স ডিগ্রির কোনো মূল্য নেই।

নব নিযুক্ত শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আফগানিস্তানে পিএইচডি আর মাস্টার্স  ডিগ্রির কোনো মূল্যই নেই।কারণ মোল্লাদের এসব ডিগ্রি না থাকলেও তারা সবচেয়ে বেশি ক্ষমতা রাখে আর তারাই 'সর্বশ্রেষ্ঠ'।বুধবার একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা এ খবর জানা গেছে।

তিনি বলেন, আজকের দিনে পিএইচডি আর মাস্টার্স ডিগ্রির কোনো মূল্য নেই। মোল্লা আর তালেবান নেতারা ক্ষমতায় এসেছে। তাদের পিএইচডি, মাস্টার্স  কিংবা হাইস্কুলের ডিগ্রিও নেই। তারপরও তারা সবচেয়ে বেশি ক্ষমতা রাখে আর তারাই 'সর্বশ্রেষ্ঠ'।

গত সোমবার থেকে আফগানিস্তানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী ও পুরুষ শিক্ষার্থীদের পর্দার আড়ালে রেখে পাঠদান শুরু হয়েছে। 

আফগানিস্তানের নারীরা শুধু হিজাব পরে মুখ খোলা রেখেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে অংশ নিতে পারবে বলে এর আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি থেকে সরে এসে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে তালেবান।

তালেবানের উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয় ওই নির্দেশনায় আরও বলেছে, নারী শিক্ষার্থীদের ক্লাস অবশ্যই নারী শিক্ষকরা নেবেন বলে নির্দেশনায় জানানো হয়েছে। নারী শিক্ষক না থাকলে সচ্চরিত্রের বয়স্ক পুরুষ শিক্ষকরাও পড়াতে পারেন।


আরও খবর

আফগানিস্তানে আবারও বিস্ফোরণ, নিহত ৭

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১




নায়করাজ রাজ্জাককে হারানোর ৪ বছর আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২১ আগস্ট 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাকের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৭ সালের ২১ আগস্ট সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭৫ বছর বয়সে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন তিনি।

নায়করাজ একাধারে ছিলেন অভিনেতা, পরিচালক ও প্রযোজক। দুই বাংলাতেই তিনি পেয়েছিলেন জনপ্রিয়তা। বাংলা চলচ্চিত্র জগতে দীর্ঘ সাড়ে ছয় দশক এই জনপ্রিয় অভিনেতা দাপটের সাথে কাজ করেছেন।

তার মৃত্যুতে চলচ্চিত্র অঙ্গনসহ সারাদেশে চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল। সেই শোকের দাগ এখনো রয়ে গেছে অন্তরে অন্তরে।

নায়ক রাজ্জাক ১৯৪২ সালের ২৩ জানুয়ারি ভারতের দক্ষিণ কলকাতায় মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৪ সালে কলকাতায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কবলে পড়ে রাজ্জাক তার পরিবার-পরিজন নিয়ে ঢাকায় চলে আসতে বাধ্য হন।

ঢাকায় এসেও লেগে থাকেন তার স্বপ্ন নিয়ে। চলচ্চিত্রকার আবদুল জব্বার খানের সাথে সহকারি পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন। ষাটের দশকে নির্মাতা সালাউদ্দিনের তেরো নম্বর ফেকু ওস্তাগার লেন সিনেমায় একটি পার্শ্বচরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রবেশ করেন তিনি। যদিও এর আগেই চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়েছিল এই অভিনেতার। যুক্ত ছিলেন কলকাতার থিয়েটারের সঙ্গে। এরপর কার বউডাক বাবু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

বেহুলা সিনেমায় সুচন্দার বিপরীতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করে ব্যাপক আলোড়ন তৈরি করেন রাজ্জাক। তারপর একের পর এক সিনেমায় তার অভিনয়ে মুগ্ধ হন এ দেশের সিনেমা দর্শক। রাজ্জাক অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে নীল আকাশের নীচে, ময়নামতি, মধু মিলন, পিচ ঢালা পথ, যে আগুনে পুড়ি, জীবন থেকে নেয়া, কী যে করি, অবুঝ মন, রংবাজ, বেঈমান, আলোর মিছিল, অশিক্ষিত, অনন্ত প্রেম, বাদী থেকে বেগম ইত্যাদি। প্রায় ৩০০ সিনেমায় নায়ক হিসেবে অভিনয় করেছেন রাজ্জাক।

এর বাইরে প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছেন ১৬টি চলচ্চিত্র। তিনি সাতবার চলচ্চিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় পুরস্কার, চলচ্চিত্রের জন্য আজীবন সম্মাননাসহ অসংখ্য পুরস্কার লাভ করেন।

নায়করাজের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি, প্রযোজক পরিবেশক সমিতি ও শিল্পী সমিতির উদ্যোগে এফডিসিতে কোরআন খতম ও দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বনানীতে নায়করাজের কবর জিয়ারত ও পুষ্পমাল্য অর্পণের কর্মসূচিও রয়েছে।



আরও খবর



বান্ধবীর জন্ম দিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে ধর্ষণের শিকার প্রবাসীর স্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১৭জন দেখেছেন
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর সেনবাগে বান্ধবীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক প্রবাসীর স্ত্রী (২২)। সোমবার (২৩ আগস্ট) দুপুরে এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সেনবাগ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এর আগে, গত শুক্রবার (২০ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে উপজেলার কাদরা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, গত গুক্রবার (২০ আগস্ট) রাত ৯টার দিকে তিনি তার বান্ধবীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে তাদের বাড়িতে যান। জন্মদিনের কেক কাটার পর স্থানীয় লেদু মিয়ার ছেলে সন্ত্রাসী ফরহাদের (২৫) নেতৃত্বে ৫-৭জন লোক ওই বাড়িতে আসেন। এ সময় তারা অনুষ্ঠানে আসা গৃহবধূর সাথে রাজন নামে এক যুবকের সম্পর্ক আছে বলে অভিযোগ তুলে তাদেরকে ফরহাদের বিল্ডিংয়ে নিয়ে আটক করে। একপর্যায়ে বিশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।

রাজন চাঁদা দিতে অস্বীকার করে বিভিন্ন জায়গায় ফোনে যোগাযোগ করলে কিছুক্ষণ পর রাজনকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য ফোন আসলে তারা রাজনকে ছেড়ে দেয়। কিন্ত গৃহবধূকে আটকে রেখে কুপ্রস্তাব দেয় সন্ত্রাসীরা। তাতে রাজি না হওয়ায় রুমের দরজা বন্ধ করে সন্ত্রাসী ফরহাদ জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তার সাঙ্গপাঙ্গরা বাহিরে পাহারা দেয় বলে জানা যায়।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা জানান, এ ঘটনায় ধর্ষক ফাহাদকে প্রধান আসামিকে ৩জনের বিরুদ্ধে নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিতা গৃহবধূ। পুলিশ অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে।



আরও খবর

মায়ের ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

৪ দিন পর হাতিয়ার সঙ্গে সারাদেশে নৌ চলাচল শুরু

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১




শেষ ম্যাচে হারল বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দুয়ারে কড়া নাড়ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজ শেষে কদিন বিশ্রামে থেকেই বিমান ধরতে হবে ওমান, আরব আমিরাতের। এরইমধ্যে ঘোষণা হয়েছে টাইগারদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড।

কিন্তু প্রস্তুতি কতটা হলো এই প্রশ্ন থেকেই যায়। কেন না বিশ্বকাপে খেলতে হবে স্পোর্টিং উইকেটে। যেটা মিরপুরের শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড সিরিজে ছিল অনুপস্থিত।

যদিও কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে অনেকটা স্পোর্টিং উইকেট ছিল তাতে হতাশ করেছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু কিউইরা ঠিকই খেলেছে স্বাচ্ছ্যন্দে। যেটা ছিল না গত চার ম্যাচে।

শুক্রবার বিকেলে সিরিজের শেষ ম্যাচে টস জিতেছিল কিউইরা। টস জিতে সিদ্ধান্ত নেয় ব্যাট করার। দুই ওপেনার ফিন অ্যালেন ও রাচীন রবীন্দ্রর ব্যাটে গত চার ম্যাচে যা দেখা যায়নি আজ দেখা গেছে উল্টোটা।

অনেকটা স্পোর্টিং উইকেট পেয়ে ব্যাটে রান তোলার চেষ্টা করেন দ্রুত। দুজনের ৫৮ রানের জুটি ভাঙে ৫.৪ ওভারের মাথায় রবীন্দ্রর ১৭ (১২) রানে বিদায়। সিরিজে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে শরিফুল ইসলাম এই ওভারে তুলে নেন আরেক ওপেনার অ্যালেনকেও (৪১)।

এই সিরিজের প্রত্যেকটি ম্যাচেই টম ল্যাথাম চেষ্টা করেছেন সামনে থেকে হাল ধরার। আজও  খেললেন দলের সর্বোচ্চ ৫০ (৩৭) রানের অপরাজিত ইনিংস।

এছাড়া শেষ দিকে হ্যানরি নিকলসের ২০ (২১), কোল ম্যাককনিকের ১৭ (১০) রানে ৫ উইকেটে সিরিজের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ১৬১ রান তোলে কিউইরা।

বাংলাদেশের পক্ষে শরিফুল ২ উইকেট নিলেও ৪ ওভারে দেন ৪৮ রান। তাসকিন আহমেদ ৩৪ রানে নেন ১ উইকেট। নাসুম আহমেদ ও আফিফ নেন ১টি করে উইকেট।

বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের কন্ডিশনও যেন অচেনা হয়ে যায় টাইগার ব্যাটারদের কাছে। উইকেট হারিয়েছে নিয়মিত বিরতিতে। দলের হাল ধরতে পারেননি অভিজ্ঞদের কেউ।

শুরতে লিটন দাস ১০ (১২) রানে ফেরেন আজাজ প্যাটেলের বলে কুগলেইনের হাতে ক্যাচ দিয়ে। সৌম্য সরকার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন। ৯ বলে ৪ রান করে ক্যাচ দেন রবীন্দ্রর হাতে কোল ম্যাককনিকের বলে।

মুশফিকুর রহিম এই সিরিজে ব্যর্থতার বৃত্ত থেকেই বের হতে পারেননি। এই ম্যাচে ৩ রান করে ফেরেন রবীন্দ্রর বলে ক্যাচ দিয়ে।

দলের হাল ধরেন আফিফ হোসেন মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে। কিন্তু মাহমুদউল্লাহ দিতে পারেননি যোগ্য সঙ্গ। ৬৩ রানের জুটি ভাঙে মাহমুদউল্লাহর ২৩ (২১) রানে বিদায়ে।

এরপর নুরুল হাসান ৪, শামিম হোসেন ২, তাসকিন আহমেদ ২ রানে ফিরলেও আফিফের একার লড়াই দলকে পৌঁছাতে পারেনি কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে। আফিফ অপরাজিত থেকেছেন ৪৯ (৩৩) রানে। কুড়ি ওভারে বাংলাদেশের ইনিংস থামে ৮ উইকেটে ১৩৪ রানে। ২৭ রানের জয়ে কিউইরা সিরিজ শেষ করল ৩-২ ব্যবধানে।

কিউইদের পক্ষে ২টি করে উইকেট নেন আজাজ প্যাটেল ও স্কট কুগলেইন। ১ উইকেট করে নেন জ্যাকব ডাফি, কোল ম্যাককনিক, বেন সেয়ার্স ও রাচীন রবীন্দ্র।


আরও খবর

পেলে ফের আইসিইউতে

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

জেমিকে অব্যাহতি, নতুন কোচ অস্কার ব্রুজন

শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১




মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন

এভিয়েন ইনফ্লুয়েঞ্জা নিয়ন্ত্রণে শীঘ্রই ভ্যাকসিন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এভিয়েন ইনফ্লুয়েঞ্জা নিয়ন্ত্রণে দেশে শীঘ্রই ভ্যাকসিন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে এভিয়েন ইনফ্লুয়েঞ্জা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ও ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচি জোরদারকরণ বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান মন্ত্রী।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই) এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও ) যৌথভাবে এ সেমিনার আয়োজন করে।

সেমিনারে মন্ত্রী বলেন, খুব শীঘ্রই কারিগরী কমিটি গঠন করে ভ্যাকসিন নীতিমালা প্রণয়নের কাজ হাতে নেওয়া হবে। যে ভ্যাকসিন আমাদের দেশে উৎপাদন হচ্ছে সে ভ্যাকসিনের মান আরো উন্নত করে এর পরিসর বাড়ানো হবে। যে সব রোগের ক্ষেত্রে আরো ভ্যাকসিনেশন দরকার সে সব রোগের ভ্যাকসিন উৎপাদন বাড়ানো হবে। আমাদের সক্ষমতা রয়েছে। প্রয়োজনে আরো বৈজ্ঞানিক গবেষণাগার প্রতিষ্ঠা করা হবে

মেধাবী জাতি তৈরিতে পুষ্টিমানসমৃদ্ধ খাবার দরকার। সেক্ষেত্রে মাংস, মাছ, দুধ, ডিম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ পণ্যগুলো যদি গুণগত মানসম্পন্ন না হয়, শুধু উৎপাদন বাড়িয়ে মেধাবী জাতি সৃষ্টি করা যাবে না। সে জন্য মানসম্পন্ন পণ্য তৈরিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা কাজ করছি। আমাদের আন্তর্জাতিক মানের গবেষণাগার রয়েছে, এর পরিসর আরো বাড়ানো হবে। কী কী প্রক্রিয়ায় গবেষণা কার্যক্রম বৃদ্ধি করা যায়, সে বিষয়গুলোও গভীরভাবে বিবেচনা করা হচ্ছে।-যোগ করেন মন্ত্রী।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, প্রাণিসম্পদ খাতকে আমরা উন্নত-সমৃদ্ধ করতে চাই। এ খাত বেকারত্ব দূর করায় বড় ধরনের ভূমিকা রাখছে, মানুষের পুষ্টি ও আমিষের চাহিদা মেটাতে ভূমিকা রাখছে, খাবারের একটি বড় যোগান দিচ্ছে, গ্রামীণ অর্থনীতি সচল রাখতে ভূমিকা রাখছে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রেও এ খাত একটি বড় ধরনের সম্ভাবনার দিগন্ত উন্মোচন করবে। এ খাতকে আমরা যত সমৃদ্ধ এবং গুণগত মানে উন্নত করতে পারবো, এ খাত ততই আমাদের কল্যাণ বয়ে আনবে।

এভিয়েন ইনফ্লুয়েঞ্জা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ কঠোর অবস্থানে উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো যোগ করেন, একসময় দেশে বার্ড ফ্লু নিয়ে শঙ্কিত অবস্থা ছিল। সেখান থেকে অমাদের উত্তরণ হয়েছে। প্রতিবেশি দেশ থেকে কোনভাবে যেন বার্ড ফ্লু সংক্রমণ ঘটতে না পারে সে জন্য সীমান্তে কঠোর নজরদারি করা হচ্ছে। জুনোটিক রোগ নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি জায়গায় প্রতিটি স্তরে সরকার পদক্ষেপ নিচ্ছে

সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে যার যার অবস্থান থেকে গুণগত সামর্থ্য কাজে লাগাতে হবে। বিশেষজ্ঞদের মতামত ও পরামর্শের আলোকে প্রাণিসম্পদ খাতকে আরো সমৃদ্ধ করার লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করছি-জানান মন্ত্রী।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. শেখ আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ। সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএলআরআই-এর মহাপরিচালক ড. মো. আবদুল জলিল ও এফএওর বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডি সিম্পসন। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা।

সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম ও বিএলআরআই-এর মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ আব্দুস সামাদ। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুবোল বোস মনি, মোঃ তৌফিকুল আরিফ ও এস এম ফেরদৌস আলমসহ মন্ত্রণালয়, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর ও বিএলআরআই-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, প্রাণিসম্পদ খাতের বিজ্ঞানী, গবেষক ও উদ্যোক্তাগণ সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন।


আরও খবর

অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১